নিবন্ধন : ডিএ নং- ৬৩২৯ || বুধবার , ২০শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং , ৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২২শে রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

‘রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান মিয়ানমারকেই করতে হবে’

‘রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান মিয়ানমারকেই করতে হবে’

রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান মিয়ানমারকেই করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন কক্সবাজার সফররত জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যরা। রোববার কক্সবাজারের কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনের পর এক ব্রিফিংয়ে প্রতিনিধি দলটির পক্ষ থেকে এ মন্তব্য করা হয়। এ সময় তারা আরও বলেন, রোহিঙ্গাদের নিরাপদ জীবন দিতে হবে এবং তাদের অবশ্যই মিয়ানমারে ফিরে যেতে হবে। তবে এই প্রক্রিয়ায় কিছু সময় লাগবে।

বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের দেখতে জাতিসংঘের প্রতিনিধি দলটি শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টায় একটি বিশেষ ফ্লাইটে সরাসরি কক্সবাজার বিমানবন্দরে পৌঁছায়। এরপর রাতে উখিয়ার ইনানীতে হোটেল রয়েল টিউলিপে জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থা, রোহিঙ্গা শরণার্থী প্রত্যাবাসন কমিশনার এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন তারা।

রোববার সকালে জাতিসংঘের প্রতিনিধিরা বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির তমব্রু সীমান্তের শূন্যরেখায় আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের দেখতে যান। পরে সেখান থেকে তারা যান উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে। সেখানে তারা রোহিঙ্গাদের অবস্থা দেখেন এবং তাদের সঙ্গে কথা বলেন। পরে তারা সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

প্রতিনিধিদলের সদস্য জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে যুক্তরাজ্যের স্থায়ী প্রতিনিধি কারেন পিয়ার্স বলেন, ‘রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায় আমরা নিরাপত্তা পরিষদে সমর্থন দেওয়ার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করবো।’

প্রতিনিধি দলের আরেক সদস্য জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে পেরুর স্থায়ী প্রতিনিধি গুস্তাভ মেজা কোয়াদ্রা বলেন, ‘রোহিঙ্গা পরিস্থিতি নিয়ে আমরা অত্যন্ত উদ্বিগ্ন। এ সমস্যার শান্তিপূর্ণ সমাধানে কীভাবে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারকে সহযোগিতা করা যায়, সেটি বুঝতে এ সফরে এসেছি। রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধানে বাংলাদেশকে আমরা সহযোগিতা করে যাব।’ তবে বিদ্যমান পরিস্থিতি রোহিঙ্গাদের স্বেচ্ছায় ও নিরাপদে ফিরে যাওয়ার জন্য উপযোগী নয় বলেও মন্তব্য করেন কোয়াদ্রা।

প্রতিনিধিদলের আরেক সদস্য নিরাপত্তা পরিষদে কুয়েতের স্থায়ী প্রতিনিধি মনুসর আল ওতাইবি বলেন, ‘বাংলাদেশ সরকার ও এ দেশের জনগণ রোহিঙ্গাদের যে সহযোগিতা করেছে, তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়। আমরা এখান থেকে মিয়ানমারে যাব ও সেখান থেকে নিউইয়র্কে ফিরে বিষয়টি নিয়ে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আলোচনা করবো।’

রোহিঙ্গা সমস্যার কোনো সহজ সমাধান নেই উল্লেখ করে প্রতিনিধিদলের সদস্য জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে চীনের প্রতিনিধি বলেন, ‘এ সমস্যার কূটনৈতিক সমাধান দরকার। সমস্যার সমাধানে মানবিক দিকটি বিবেচনা করতে হবে।’

২৪ সদস্যের প্রতিনিধি দলে রয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, রাশিয়া, চীন, ফ্রান্সসহ জাতিসংঘে নিরাপত্তা পরিষদের ১৫টি সদস্য দেশের প্রতিনিধি। এ ছাড়া দলে রয়েছেন নেদারল্যান্ডস, কুয়েত, বলিভিয়া, ইথিওপিয়া, কাজাখস্তান, পেরু, পোল্যান্ড, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড, ত্রিনিদাদ অ্যান্ড টোবাগো, বার্বাডোজ, জর্ডান ও আইভরি কোস্টের প্রতিনিধি।

রোববার বিকেলে ঢাকায় ফেরার কথা রয়েছে প্রতিনিধি দলটির। হোটেল র্যা ডিসনে প্রতিনিধি দলটির সম্মানে নৈশভোজের আয়োজন করছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী। সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে প্রতিনিধি দলটির সাক্ষাৎ করার কথা রয়েছে। বাংলাদেশ সফর শেষে একই ইস্যুতে ৩০ এপ্রিল দু’দিনের সফরে মিয়ানমার যাবেন নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য দেশের প্রতিনিধিরা।

Comments

comments

এমন আরো খবর:

Web developed by: AsadZone.Com

Send this to a friend