খালেদাকে আদালতে আনা হয়নি, পরের শুনানি ৩০ এপ্রিল

0
0
সর্বমোট
0
শেয়ার

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে গ্যাটকো দুর্নীতি মামলায় আদালতে হাজির করা হয়নি। ৩০ এপ্রিল অভিযোগ গঠনের শুনানির নতুন দিন ঠিক করেছেন আদালত।

আজ বুধবার (১৭ এপ্রিল) ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৩–এর বিচারক আবু সৈয়দ দিলজার হোসেন এই আদেশ দেন। পুরান ঢাকার আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত বিশেষ আদালতে এ মামলা শুনানি অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

১ এপ্রিল খালেদা জিয়াকে পুরান ঢাকার কারাগার থেকে বিএসএমএমইউতে নেওয়া হয়। তিনি সেখানেই চিকিৎসাধীন।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী জাকির হোসেন ভূঁইয়া বলেন, খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ হয়ে বিএসএমএমইউতে চিকিৎসাধীন। কারা কর্তৃপক্ষ তাঁকে আজ আদালতে হাজির করেনি। আদালতে শুনানির নতুন দিন ঠিক করেছেন।

দুদকের পক্ষে আদালতে শুনানি করেন আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল।

দুর্নীতির পৃথক দুই মামলায় দণ্ডিত খালেদা জিয়া। গত বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি তাঁকে পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডের কারাগারে আনা হয়।

২০০৭ সালের ২ সেপ্টেম্বর খালেদা জিয়াসহ ১৩ জনকে আসামি করে গ্যাটকো দুর্নীতি মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। ২০০৮ সালের ১৩ মে খালেদা জিয়াসহ ২৪ জনের বিরুদ্ধে এ মামলায় অভিযোগপত্র দেওয়া হয়। ২৪ আসামির মধ্যে খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকো, সাবেক মন্ত্রী বিএনপির সাবেক মহাসচিব আবদুল মান্নান ভূঁইয়া, সাবেক মন্ত্রী এম কে আনোয়ার, এম সাইফুর রহমান, জামায়াতে ইসলামীর সাবেক আমির মতিউর রহমান নিজামী (মানবতাবিরোধী মামলায় মৃত্যুদণ্ড কার্যকর), চট্টগ্রাম বন্দরের প্রধান অর্থ এবং হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা আহমেদ আবুল কাশেম মারা গেছেন।

অভিযোগপত্র দেওয়ার পর গ্যাটকো মামলার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে পৃথক দুটি রিট আবেদন করেন খালেদা জিয়া। ২০০৮ সালের ১৫ জুলাই হাইকোর্ট এই মামলার কার্যক্রম স্থগিত করেন ও রুল দেন। ওই সময় থেকে মামলাটির কার্যক্রম স্থগিত ছিল। আর ২০১৫ সালের ৫ আগস্ট জারি করা রুল খারিজ করে রায় দেন বিচারপতি মো. নুরুজ্জামান ও বিচারপতি আবদুর রবের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ।

0
0
সর্বমোট
0
শেয়ার

Comments

comments