নিবন্ধন : ডিএ নং- ৬৩২৯ || শুক্রবার , ১৩ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ২৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১৫ই রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

আইএস’র দায় স্বীকারের বিষয়টি পরীক্ষা করা হচ্ছে: ডিএমপি কমিশনার

আইএস’র দায় স্বীকারের বিষয়টি পরীক্ষা করা হচ্ছে: ডিএমপি কমিশনার

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, আইএস-এর বিষয়টিও পরীক্ষা করা হচ্ছে। অন্য কেউ আইএস-এর নাম দিয়ে প্রচারণা চালাচ্ছে কিনা তাও দেখা হচ্ছে। আইএস যে ক্লেইম করেছে তা তাদেরই বা অন্য কেউ প্রতারণামূলকভাবে এ ধরনের পোস্ট দিয়েছে কিনা-তা আমাদের কাউন্টার টেরোরিজম ও ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের অ্যান্টি টেরোরিজম বিশেষজ্ঞরা পরীক্ষা করে দেখছেন। বিস্ফোরণ হওয়া ককটেলটি সাধারণ ককটেল থেকে ভিন্ন ছিল। কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট বিস্ফোরণের ধরন, আহতের ধরনসহ প্রয়োজনীয় এভিডেন্স সংগ্রহ করছে।

আজ মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত পুলিশ সদস্যদের দেখতে গিয়ে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, বৈশ্বিক উগ্রবাদের যে প্রভাব বিশ্বজুড়ে রয়েছে, বাংলাদেশও তার বাইরে নয়। সংঘবদ্ধ বা বড় ধরনের নাশকতা করার ক্ষমতা তাদের নেই। ২০১৬ সালে হলি আর্টিজান হামলার পর তাদের (জঙ্গি) বিধ্বস্ত করা হয়েছে। কখনও কখনও তারা বিচ্ছিন্নভাবে এ ধরনের ঘটনা ঘটানোর অপচেষ্টা করছে। সেগুলো আমরা নজরদারিতে রাখছি।

আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, জনগণের জানমাল রক্ষার জন্য, দেশের মানুষকে রক্ষার জন্য, যে কোনও নৈরাজ্য-উগ্রবাদ দমানোর জন্য আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছি। এ ঘটনাটি আদৌ জঙ্গি সংশ্লিষ্টতা কিনা নাকি তৃতীয় কোনও মহল এটি করতে পারে-বিষয়গুলো আমরা খতিয়ে দেখছি। এ ঘটনার পর থেকে ট্র্যাফিকদের নিরাপত্তা বাড়ানোর কাজ চলছে।

উল্লেখ্য, গতকাল সোমবার রাতে রাজধানীর গুলিস্তানে ককটেল বিস্ফোরণে দু’জন ট্র্যাফিক ও এক কমিউনিটি পুলিশ সদস্য আহত হন। রাত পৌনে ৮টার দিকে ওই ঘটনায় আহত ট্র্যাফিক কনস্টেবল নজরুল ইসলাম (৩৭), লিটন (৪০) ও কমিউনিটি পুলিশ সদস্য মো. আশিককে (২৬) উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ককটেল বিস্ফোরণের পাঁচঘণ্টা পর এক টুইট বার্তায় সাইট ইন্টেলিজেন্স গ্রুপ জানায়, গুলিস্তানে পুলিশের তিন সদস্যের ওপর আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটস (আইএস) সদস্যরা ককটেল হামলা করেছে। একই বার্তা তাদের ওয়েবসাইটেও প্রচার করা হয়।

Comments

comments

এমন আরো খবর:

Web developed by: AsadZone.Com

Send this to a friend