নিবন্ধন : ডিএ নং- ৬৩২৯ || সোমবার , ২৪শে জুন, ২০১৯ ইং , ১০ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২০শে শাওয়াল, ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

বিশ্বকাপে বাঘের গর্জন

বিশ্বকাপে বাঘের গর্জন

লন্ডনের ওভালকে মিরপুর স্টেডিয়াম ভেবে ভুল করলে দোষের হবে না। বাংলাদেশ রবিবার ‘ঘরের মাঠে’ই খেলেছে। লন্ডনে প্রবাসী বাংলাদেশিদের হতাশও করেনি মাশরাফিরা। দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২১ রানে হারিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করেছে বাংলাদেশ।

বিশ্বকাপের শুরুতেই তাই শোনা গেল বাঘের গর্জন। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ৩৩০ রানের স্কোর দাঁড় করিয়ে গোটা ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে পাওয়া জয় ২২ গজে বাংলাদেশের দোর্দণ্ড প্রতাপেরই সাক্ষী দেয়। দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ের পর চমৎকার বোলিংয়ে প্রোটিয়াদের ৩০৯ রানের বেশি করতে দেয়নি টাইগাররা।

ব্যাটিংয়েই জয়ের ভিত গড়ে রেখেছিল বাংলাদেশ। এরপর প্রোটিয়াদের ব্যাটিং জুটি মাঝে একটু বিষাদের মেঘ জন্মালেও তা বৃষ্টি হয়ে ঝরতে দেননি বাংলাদেশের বোলাররা। অধিনায়ক মাশরাফি তার বিচক্ষণ নেতৃত্ব দিয়ে কাঙ্ক্ষিত ব্রেক থ্রু এনেছেন। যেখানে সবচেয়ে সফল মোস্তাফিজুর রহমান। এই পেসার ১০ ওভারে ৬৭ রান দিয়ে পেয়েছেন ৩ উইকেট। আর মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের শিকার ২ উইকেট।

তবে একটি করে উইকেট পেলেও সবচেয়ে কার্যকরী ছিলেন দুই স্পিনার সাকিব আল হাসান ও মেহেদী হাসান মিরাজ। মিরাজ ১০ ওভারে দিয়েছেন ৪৪, আর সাকিবের খরচ ৫০ রান।

ব্যাটিংয়ে শুরুটা মন্দ ছিল না দক্ষিণ আফ্রিকার। উদ্বোধনী জুটি থেকে পাওয়া ৪৯ রানের ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে বড় ইনিংস খেলার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন হাফসেঞ্চুরিয়ান ফাফ দু প্লেসি (৬২)। তাকে ফেরানোর পর ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠা (৩৮) ডেভিড মিলারকে আউট করে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয় বাংলাদেশ।

তবে গলার কাঁটা হয়ে ছিলেন জেমি দুমিনি। এই ব্যাটসম্যান যতক্ষণ টিকে ছিলেন, আশা বেঁচে ছিল বাংলাদেশের। কিন্তু মোস্তাফিজ বোল্ড করে তাকে ৪৫ রানে ফেরানোর পর জয়টা সময়ের ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায় বাংলাদেশের। শেষ পর্যন্ত প্রোটিয়াদের অলআউট করা যায়নি, তবে ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে তাদের করা ৩০৯ রান বাংলাদেশের স্কোর থেকে ছিল ২১ রান দূরে।

ম্যাচসেরা সাকিব
কেন তিনি ওয়ানডের বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার, সেটার প্রমাণ বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচেই দিলেন সাকিব। ব্যাট হাতে ৭৫ রানের কার্যকরী ইনিংস খেলার পর বোলিংয়ে ১০ ওভারে ৫০ রান দিয়ে পেয়েছেন ১ উইকেট। বাংলাদেশের জয়ে ব্যাট-বলে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখা এই অলরাউন্ডারের হাতেই মানায় ম্যাচসেরার পুরস্কার।

Comments

comments

এমন আরো খবর:

Web developed by: AsadZone.Com
x

Send this to a friend