নিবন্ধন : ডিএ নং- ৬৩২৯ || রবিবার , ২৫শে আগস্ট, ২০১৯ ইং , ১০ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২৩শে জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

কারিগরিতেও বেড়েছে পাসের হার ও জিপিএ ৫

কারিগরিতেও বেড়েছে পাসের হার ও জিপিএ ৫

বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এবারের উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) পরীক্ষায় পাসের হার ও জিপিএ-৫ এর সংখ্যা উভয়ই বেড়েছে।

কারিগরি বোর্ডে এবার পাসের হার দাঁড়িয়েছে ৮২ দশমিক ৬২ শতাংশ। গত বছর পাসের হার ছিল ৭৫ দশমিক ৫০ শতাংশ। এ ছাড়া এবার জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৩ হাজার ২৩৬ শিক্ষার্থী। গত বছর জিপিএ-৫ পান ২ হাজার ৪৫৬ শিক্ষার্থী।

বুধবার (১৭ জুলাই) সকাল ১০টার পর গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের ফলাফলের অনুলিপি তুলে দেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ও উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। এ ছাড়া সংশ্লিষ্ট বোর্ডের চেয়ারম্যানরা তাদের স্ব স্ব বোর্ডের ফলাফল প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেন।

প্রকাশিত ফলাফলে দেখা যায়, এবার আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড, মাদরাসা ও কারিগরি বোর্ড মিলিয়ে ১০টি বোর্ডের অধীনে মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ১৩ লাখ ৩৬ হাজার ৬২৯ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৯ লাখ ৮৮ হাজার ১৭২ জন। এবার মোট পাসের হার ৭৩ দশমিক ৯৩ শতাংশ। যেখানে গত বছর ছিল ৬৬ দশমিক ৬৪ শতাংশ। সে হিসাবে এবার পাসের হার বেড়েছে ৭ দশমিক ২৯ শতাংশ।

অন্যদিকে এ বছর জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৪৭ হাজার ৫৮৬ জন শিক্ষার্থী। গতবার পেয়েছিলেন ২৯ হাজার ২৬২ জন। অর্থাৎ গতবারের চেয়ে এবার জিপিএ-৫ বেড়েছে ১৮ হাজার ৩২৪ জন।

এর মধ্যে কারিগরি বোর্ডে এ বছর ১ লাখ ২৪ হাজার ৩২০ পরীক্ষার্থী অংশ নিয়ে পাস করেছেন ১ লাখ ২ হাজার ৭১৫ জন। গড় পাসের হার ৮২ দশমিক ৬২ শতাংশ এবং জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৩ হাজার ২৩৬ জন। ২০১৮ সালে এ বোর্ডে ১ লাখ ৮০ হাজার পরীক্ষার্থী অংশ নিয়ে পাস করেছিলেন ৮৯ হাজার ৮৯ জন। পাসের হার ছিল ৭৫ দশমিক ৫০ শতাংশ এবং জিপিএ-৫ পান ২ হাজার ৪৫৬ শিক্ষার্থী।

এবার মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে আলিম পরীক্ষায় গড় পাসের হার ৮৮ দশমিক ৫৬ শতাংশ এবং জিপিএ-৫ পেয়েছেন ২ হাজার ২৪৩ জন।

আজ দুপুর সাড়ে ১২টায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত ফলাফল প্রকাশ কো হবে। আর পরীক্ষাকেন্দ্রগুলোতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও অনলাইনে একযোগে ফল প্রকাশ করা হবে দুপুর একটায়।

গত ১ এপ্রিল চলতি বছরের এইচএসসি ও সমমানের তত্ত্বীয় পরীক্ষা শুরু হয়ে শেষ হয় ১১ মে। এরপর ১২ মে থেকে ব্যবহারিক পরীক্ষা শুরু হয়ে শেষ হয় ২১ মে। এবার পরীক্ষা শেষ হওয়ার দুই মাসের মধ্যে ফল প্রকাশ হলো।

Comments

comments

এমন আরো খবর:

Web developed by: AsadZone.Com

Send this to a friend