নিবন্ধন : ডিএ নং- ৬৩২৯ || শনিবার , ২৪শে আগস্ট, ২০১৯ ইং , ৯ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২২শে জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

কাশ্মীরে আবারো জরুরি অবস্থা জারি

কাশ্মীরে আবারো জরুরি অবস্থা জারি

কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা তুলে নেয়ার সাত দিনে অঞ্চলটির কোথাও কোনও হিংসার ঘটনা ঘটেনি; একটা গুলিও চলেনি বলে বিবৃতি দিয়েছিল জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ। তবুও রবিবার আবারো ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। এর ফলে কাশ্মীরবাসীকে আগামীকাল ঈদের দিনও অবরুদ্ধ অবস্থায় কাটাতে হবে।

 

জম্মু ও কাশ্মীরের রাজধানী শ্রীনগরের সাধারণ মানুষকে জরুরি জিনিস কিনে বাড়ি ঢুকে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। দোকানদারদেরও বলা হয়েছে, দোকান বন্ধ করে বাড়ি চলে যেতে।

 

ভারতের সংবাদমসাধ্যম দ্য ওয়্যাল বলছে, শ্রীনগরে মোতায়েন করা হয়েছে প্রচুর নিরাপত্তারক্ষী। তারা রাস্তায় টহল দিচ্ছেন। গোটা শহর স্তব্ধ হয়ে যাচ্ছে। তবে কী কারণে এই ১৪৪ ধারা জারি করা হলো, সে ব্যাপারে সেনা বা পুলিশের পক্ষ থেকে কিছু জানানো হয়নি।

 

এর আগে ঈদুল আজহা উপলক্ষে টেলিফোন, মোবাইল, ইন্টারনেটসহ যোগাযোগ মাধ্যমের ওপর থেকে সাময়িকভাবে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছিল কেন্দ্র। খুলেছিল স্কুল-কলেজ। এর মধ্যে ঈদের আগের দিন রবিবার হঠাৎ জরুরি অবস্থায় ফের অবরুদ্ধ হয়ে পড়ল এই মুহুর্তে পৃথিবীর সবচেয়ে সামরিকীকরণ হওয়া অঞ্চলটি।

 

জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের প্রধান দিলবাগ সিং জানান, গত ক’দিনে বড় কোনো হিংসার ঘটনা ঘটেনি। এমনকি পরিস্থিতি স্বাভাবিক দক্ষিণ কাশ্মীরেও। সোমবার ইদের আগে রাজ্যের আরো কিছু জায়গায় নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হবে।

 

জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের পক্ষ থেকে টুইট করে জানানো হয়, রাজ্য এখন হিংসামুক্ত। অযথা গুজব বা উস্কানিমূলক কথাবার্তায় কান দেবেন না।

 

এদিকে কাশ্মীরের পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে এরই মধ্যেই পথে নেমেছেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল। গত মঙ্গলবারই কাশ্মীরে যান তিনি। তারপর থেকে দেখা গিয়েছে কখনো তিনি রাজ্যপালের সঙ্গে কখনো বিএসএফ বা সিআরপিএফ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন।

 

কখনো আবার সাধারণ মানুষের সঙ্গে মিশে গিয়ে তাদের আস্থা অর্জনের চেষ্টা করছেন। শনিবারও তাকে অনন্তনাগে ঘুরে ঘুরে সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলতে দেখা গেছে।

Comments

comments

এমন আরো খবর:

Web developed by: AsadZone.Com

Send this to a friend