নিবন্ধন : ডিএ নং- ৬৩২৯ || রবিবার , ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ৭ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২২শে মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

আজ শ্রীরামসি গণহত্যা দিবস

আজ শ্রীরামসি গণহত্যা দিবস

আজ ৩১ আগস্ট শ্রীরামসি গণহত্যা দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে স্বাধীনতাকামী শান্তিপ্রিয় শ্রীরামসি গ্রামের লোকজনকে লাইনে দাঁড় করিয়ে হত্যাযজ্ঞ চালায় পাক হানাদার বাহিনী। এতে বিপুল লোকজনের প্রাণহানি ঘটে।

 

জানা গেছে, ১৯৭১ সালের ৩১ আগস্ট সকাল আনুমানিক ১০টার দিকে পাকহানাদার বাহিনী ৭/৮টি নৌকাযোগে সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর উপজেলার মীরপুর ইউনিয়নের শ্রীরামসি বাজারে আসে। তারা স্থানীয় রাজাকারদের দিয়ে গ্রামবাসীদের শান্তি কমিটির সভায় যোগ দেয়ার জন্য শ্রীরামসি হাইস্কুল মাঠে সবাইকে উপস্থিত থাকার জন্য বলে। শান্তির আশায় গ্রামবাসীরা সেদিন স্কুল মাঠে সমবেত হয়। যারা আসতে দেরি করেন তাদেরকেও পরে ডেকে আনা হয়। এরপর পাকসেনারা ১০ থেকে ১২ জন করে একসঙ্গে বিদ্যালয়ের কাছে জড়ো করে হাত-পা বেঁধে লাইনে দাঁড় করিয়ে গুলি করে হত্যা করে। সেদিন হানাদার বাহিনী নির্মমভাবে ১২৬ জন লোককে এভাবে হত্যা করে।

 

নিহতদের মধ্যে ছিলেন ছাত্র, শিক্ষক, সরকারি কর্মচারী, যুবক, সাধারণ গ্রামবাসী ও বেড়াতে আসা স্বজন। নারকীয় এ হত্যাকাণ্ডের পরপরই পাকসেনারা গ্রামে ঢুকে প্রায় ২৫০টি ঘরবাড়ি আগুনে পুড়িয়ে দেয়। ভীতসন্ত্রস্ত মানুষজন গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে গেলে দাফনের অভাবে লাশগুলো কুকুর শেয়াল টানা-হেঁচড়া করে। ৪/৫ দিন পর কয়েকজন লোক গ্রামে ফিরে লাশগুলো দাফনের ব্যবস্থা করে।

 

এদিকে প্রতি বছর শহীদের স্মরণে ‘শ্রীরামসি শহীদ স্মৃতি সংসদ’ নামে একটি সংগঠন যুদ্ধাহত শ্রেষ্ঠ সন্তানদের শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করে। এবারও শ্রীরামসি গণহত্যা দিবস উপলক্ষে বেশকিছু কর্মসূচি হাতে নিয়েছে সংগঠনটি। এর মধ্যে রয়েছে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল, শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ, শোকসভা, মেধা বৃত্তি, পুরস্কার বিতরণ ও আলোচনা সভা।

 

বেলা ১১টায় শ্রীরামসি স্কুল অ্যান্ড কলেজ ক্যাম্পাসে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখবেন যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন।

 

এ বিষয়ে শ্রীরামসি শহীদ স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক মাহবুব হোসেন বলেন, আমরা ১৯৮৬ সাল থেকে শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল, শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ, শোকসভা, মেধাবৃত্তি, পুরস্কার বিতরণ ও আলোচনা সভা করে থাকি। প্রতি বছরের ন্যায় এবারও শোকসভার আয়োজন করা হয়েছে।

Comments

comments

এমন আরো খবর:

Web developed by: AsadZone.Com

Send this to a friend