বিধ্বস্ত হয়ে পড়েছেন করোনা আক্রান্ত কনিকা

0
0
সর্বমোট
0
শেয়ার

করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর ‘বেবি ডল’ খ্যাত বলিউড গায়িকা কনিকা কাপুরকে নিয়ে ছড়িয়ে পড়েছে একাধিক গুঞ্জন। তার বিপক্ষে জনমতও তৈরি হয়েছে। লন্ডন থেকে ফেরার পর কনিকা কেন কোয়ারেন্টাইনে থাকেননি, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন অনেকে।

শুধু তাই নয়, তিনি নাকি স্ক্রিনিংয়ের ভয়ে বিমানের বাথরুমে লুকিয়ে ছিলেন। এছাড়া শরীরে করোনাভাইরাস নিয়ে এখানে ওখানে পার্টি করে বেড়ানোয় এই শিল্পীর বিরুদ্ধে এফআইআরও দায়ের করেছে লখনউ পুলিশ। পাশাপাশি তাকে নিয়ে তৈরি হওয়া বিভিন্ন খবর তো রয়েছেই। সবকিছু মিলিয়ে বেশ ভেঙে পড়েছেন বলিউড গায়িকা।

কনিকার ঘনিষ্ঠ বন্ধু ইন্দিপ বকসি সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে কথা বলেন তার হয়ে। জানান, ‘হাসাপাতালে ভর্তি হওয়ার পর থেকে কনিকাকে নিয়ে যেভাবে একের পর এক গুজব ছড়াচ্ছে এবং বিভিন্ন খবর সংবাদমাধ্যমের পাতায় উঠে আসছে, তার জন্য মানসিকভাবে বিধ্বস্ত হয়ে পড়েছেন তিনি।’

বকসি বলেন, বিদেশ থেকে ফেরার পর যখন তার জ্বর হয়, তখনই হাসপাতালে ছুটে গিয়েছিলেন কনিকা। কিন্তু চিকিৎসকরা জানান, তার সাধারণ জ্বর হয়েছে। ভয় পাওয়ার কিছু নেই। এমনকী, জ্বরের জন্য কি তাকে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে, গায়িকা এমন প্রশ্নও করেন চিকিৎসকদের।

কিন্তু সাধারণ জ্বর হয়েছে তার, তাই কোয়ারেন্টাইনে থাকার কোনো প্রয়োজন নেই বলে ওই সময় হাসাপাতালের তরফ থেকে তাকে জানানো হয়েছিল বলে বন্ধু ইন্দিপকে জানান কনিকা। কোভিড ১৯-এ সংক্রমিত কি না, সেই পরীক্ষা করানোর দুদিন আগেই হাসপাতাল থেকে তাকে নির্ভয় দেয়া হয় বলে জানান শিল্পী।

বর্তমানে কনিকা হাসপাতালে আইসোলেশনে রয়েছেন। কিন্তু হাসপাতালে সব রকমের সুবিধা পেয়েও তিনি খুশি নন বলে অভিযোগ চিকিৎসকদের। তিনি নাকি সেখানে তারকাসুলভ ব্যবহার করছেন। নানা রকম বায়না করছেন।

তাই বিরক্ত চিকিৎসকরা সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, হাসপাতালে কনিকা কোনো তারকা নন। তাকে বুঝতে হবে যে, তিনি এখানে শুধুই একজন রোগী। তাই তাকে সেভাবেই থাকতে হবে।

0
0
সর্বমোট
0
শেয়ার

Comments

comments