এ বছরের শেষ নাগাদ করোনা ভ্যাকসিন আনা সম্ভব : অ্যাস্ট্রাজেনেকা

0
0
সর্বমোট
0
শেয়ার

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের করোনাভ্যাকসিনের তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল স্থগিত করা হলেও এ বছরের শেষ নাগাদ ভ্যাকসিন বাজারে আনা সম্ভব বলে জানিয়েছে এর প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান অ্যাস্ট্রাজেনেকা।

বহুজাতিক ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানটি প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) প্যাসকল সোরিয়ট বলেন, ‘এ বছরের শেষ নাগাদ, অথবা আগামী বছরের শুরুতে আমরা ভ্যাকসিন পেতে পারি। সে সম্ভাবনা এখনো রয়েছে।’

পরীক্ষামূলক ভ্যাকসিন নিয়ে যুক্তরাজ্যের এক নারী অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হলে গত বুধবার ট্রায়াল স্থগিত করে অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়। তবে অসুস্থ হওয়া এবং ট্রায়াল স্থগিতকে নিয়মিত কাজের অংশ বলছে অ্যাস্ট্রাজেনেকা।

মানবদেহে প্রয়োগের মাধ্যমে তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল চলছে এমন নয়টির মধ্যে একটি হচ্ছে অ্যাস্ট্রাজেনেকার ‘এজেডডি১২২২’ ভ্যাকসিন। কোম্পানিটি যুক্তরাষ্ট্রের ৬২টি শহরে ৩০ হাজার মানুষসহ ব্রাজিল ও দক্ষিণ আমেরিকার কয়েকটি দেশের মানুষের শরীরে টিকা প্রয়োগ করে পরীক্ষা চালাচ্ছে।

এদিকে ট্রায়াল স্থগিতের পর নিরাপত্তার বিষয়গুলো যাচাই করা শুরু করেছে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও অ্যাস্ট্রাজেনেকা। অ্যাস্ট্রাজেনেকার সিইও প্যাসকেল সোরিয়ট বলছেন, মেরুদণ্ডে ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন ওই নারী। তিনি গুরুতর স্নায়বিক উপসর্গে ভুগছিলেন। তবে তাঁকে চিকিৎসা শেষে গত বুধবার ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। ভ্যাকসিনের বিনিয়োগকারী ব্যাংক জেপি মরগানের সঙ্গে প্রাইভেট কনফারেন্স কলে এসব বলেন সোরিয়ট।

জুলাই মাসেও এক অংশগ্রহণকারীর স্নায়বিক উপসর্গ দেখা দেওয়ায় ট্রায়াল স্থগিত করা হয়েছিল বলে জানান প্যাসকেল সোরিয়ট। তবে পরীক্ষার পর জানা যায়, তিনি ভ্যাকসিন নেওয়ার কারণে অসুস্থ হননি।

ট্রায়াল স্থগিতের পর যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব হেলথের পরিচালক ফ্রান্সিস সেলারস কলিন্স মার্কিন সিনেটে দেওয়া বক্তব্যে জানান, এত বড় ধরনের ট্রায়ালে দু-একজনের অসুস্থ হওয়ার ঘটনা ভ্যাকসিনের নিরাপদ ও কার্যকারিতাকে প্রশ্নবিদ্ধ করে না। ট্রায়ালে কেউ অসুস্থ হতেই পারেন। অসুস্থতার কারণ ভ্যাকসিন না-ও হতে পারে। অনুসন্ধান করে সঠিক তথ্য দেওয়া হবে।

0
0
সর্বমোট
0
শেয়ার

Comments

comments