আজঃ বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

চট্টগ্রামে ১১ টন কাচাঁ তুলা চুরি ঘটনায় গ্রেফতার ৬

প্রকাশিত:রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
রাহুল সরকার, চট্টগ্রাম ব্যুরো

Image

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড থানার কার্গোসহ ১১ টন কাঁচা তুলা চুরির ঘটনায় জড়িত ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। এসময় ১০ বান্ডেল টন কাচাঁ তুলা, ২টি কভার্ড ভ্যান, ১টি কার্গো জব্দ করা হয়। কাচাঁ তুলার বাজার মূল্য ৪০ লাখ টাকা। রোববার (৩ ডিসেম্বর) বেলা ১১টায় পিবিআই চট্টগ্রাম জেলা কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান পিবিআই পুলিশ সুপার নাজমুল হাসান।

গত ৩০ নভেম্বর এবং ২ ডিসেম্বর আলাদা অভিযানে ভোলা জেলা এবং চট্টগ্রাম মহানগরী এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। তারা হলেন- ভোলা জেলার বোরহানউদ্দীন থানার কুঞ্জেরহাট গ্রামের মো. রফিকুল ইসলামের ছেলে মো. রুবেল (২৪), একই গ্রামের আবদুল কাদেরের ছেলে মো. মুনসুর আলম মোহন ওরফে সুজন ড্রাইভার (২৭), লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি থানার চররমিজ গ্রামের মো. মহিউদ্দিনের ছেলে মো. আমিরুল ইসলাম (২৮), চট্টগ্রামের ভুজপুর থানার দাঁতমারা ইউনিয়নের পেলারখীল গ্রামের মো. জহিরুল ইসলামের ছেলে মো জয়নাল (২৬), নোয়াখালী জেলার সুধারাম থানার সোনাপুর মাস্টার বাড়ির মোস্তফা কামালের ছেলে নুরনবী শাওন (২২) এবং চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ থানার শাহা পোয়া গ্রামের আজিজ খাঁর ছেলে মো. জাইসুল (২৩)।

পিবিআই পুলিশ সুপার বলেন, গত ২৪ নভেম্বর রাত ৯টায় সীতাকুণ্ড পোর্ট লিংক ডিপো থেকে আমদানিকৃত তুলা নারায়ণগঞ্জের ভুলতা এলাকার কারখানায় নেওয়ার পথে চুরি করে নিয়ে যায় চোরচক্রের সদস্যরা। এ ঘটনায় পরিবহন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মোকাম লিমিটেডের রিজিওনাল অপারেশন ইনচার্জ আবদুল্লাহ আল মুনিম তুলা উদ্ধারে পিবিআইয়ের সহযোগিতা চান। তার অভিযোগের প্রেক্ষিতে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় গত ৩০ নভেম্বর ভোলার বোরহানউদ্দীন থানার কুঞ্জেরহাট গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে মো. রুবেলকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যানুযায়ী ওইদিনই ভোলা সদর থানার ইলশা ফেরিঘাট এলাকা থেকে চুরির কাজে ব্যবহৃত কাভার্ডভ্যানসহ চক্রের হোতা সুজন ড্রাইভারকে গ্রেফতার করা হয়। এরপর ১ ডিসেম্বর আবদুল্লাহ আল মুনিম বাদী হয়ে সীতাকুণ্ড থানায় মামলা দায়ের করেন।

শনিবার (২ ডিসেম্বর) রাতে অভিযান চালিয়ে চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে অন্য চারজনকে গ্রেফতার করা হয়। ঘটনায় ব্যবহৃত দুইটি কাভার্ড ভ্যান, একটি কার্গো এবং ১০ বান্ডেল কাঁচা তুলা উদ্ধার করা হয় বলে জানান পুলিশ সুপার নাজমুল হাসান।

তিনি বলেন, আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান আমেরিকা থেকে ৪৮ বান্ডেল কাঁচা তুলা আমদানি করেন। এসব তুলার মূল্য প্রায় ৪০ লাখ টাকা। গ্রেফতার সবাই একটি চক্রের সদস্য। এর মধ্যে সুজন ড্রাইভার এর আগেও একই কায়দায় আমদানিপণ্য চুরির ঘটনা ঘটিয়েছে। ৩০ নভেম্বর গ্রেফতারকৃতদের ১ ডিসেম্বর সীতাকুণ্ড থানার মাধ্যমে আদালতে পাঠানো হয়েছিল। গ্রেফতার চারজনকে রোববার দুপুরে আদালতে হাজির করা হয়েছে ।


আরও খবর



ফিলিস্তিন রাষ্ট্র ছাড়া ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক নয় : সৌদি আরব

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি আগ্রাসন বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত ইসরায়েলের সঙ্গে কোনো কূটনৈতিক সম্পর্ক রাখবে না সৌদি আবর। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বুধবার (০৭ ফেব্রুয়ারি) এক বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রকে এ কথা জানিয়েছে। ইতিমধ্যেই সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইনসহ কয়েকটি দেশ ওয়াশিংটনের মধ্যস্থতায় ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করেছে।

মঙ্গলবার (০৬ ফেব্রুয়ারি) হোয়াইট হাউসের জাতীয় নিরাপত্তা বিষয়ক মুখপাত্র জন কিরবি বলেছেন, সৌদি আরব এবং ইসরায়েল স্বাভাবিকভাবে আলোচনা চালিয়ে যেতে ইচ্ছুক বলে বাইডেন প্রশাসন ইতিবাচক সাড়া পেয়েছেন।

গত সোমবার সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে ব্লিনকেনের বৈঠক হয়। এর পরদিন মঙ্গলবার কাতারের রাজধানী দোহায় এক সংবাদ সম্মেলনে ব্লিনকেন এসব কথা বলেন। এর পরেই মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, কিরবির ওই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে ফিলিস্তিনের বিষয়ে নিজেদের দৃঢ় অবস্থানের কথা ওয়াশিংটনকে পরিষ্কার করতে এ বিবৃতি দিয়েছে সৌদি। অনেক দিন ধরেই ইসরায়েল ও সৌদি আরবের মধ্য কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টা চালিয়ে আসছে যুক্তরাষ্ট্র।

এর আগে ২০২০ সালে সৌদি আরব উপসাগরীয় প্রতিবেশী দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইনকে তাদের নীরব সম্মতি দেওয়ার পর থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে ইসরায়েল ও সৌদি আরবের সম্পর্কের বিষয়ে আলোচনা চলছে। যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েলের টার্গেট এখন সৌদি আরব। কারণ দেশটি ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করলেই একই পথে হাঁটবে অনেক মুসলিম দেশ। তাই সৌদি আরবও অত্যন্ত সতর্ক পদক্ষেপে হাঁটছে।

রিয়াদের একটি সূত্র রয়টার্সকে ২০২৩ সালের অক্টোবরে জানিয়েছিল, ফিলিস্তিনি সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস এবং ইসরায়েলি বাহিনীর মধ্যে যুদ্ধ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সৌদি ও ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের চেষ্টা বরফে চাপা পড়েছে। সৌদি প্রশাসন চুক্তির দ্বারপ্রান্তে পৌঁছেছিল, কিন্তু তার মধ্যেই শুরু হয় গাজা যুদ্ধ। ফলে থমকে গেছে সব ধরনের অগ্রগতি। যদিও এর মধ্যেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে মার্কিন প্রশাসন। গাজা যুদ্ধের মধ্যেই একাধিকবার রিয়াদ সফর করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন। তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে কঠোর মনোভাব দেখাচ্ছে সৌদি আরব।


আরও খবর
সাত দশক পর পাকিস্তানে প্রথম নারী মুখ্যমন্ত্রী

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

রাশিয়াকে ‘জুলফিকার’ ক্ষেপণাস্ত্র দিচ্ছে ইরান

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




২০২৩ সালে সড়ক দুর্ঘটনায় ৬৫২৪ মৃত্যু : রোড সেফটি ফাউন্ডেশন

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

গত বছর সারাদেশে ৬ হাজার ৯১১টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৬ হাজার ৫২৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এসব দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত আরও ১১ হাজার ৪০৭ জন। রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের প্রকাশিত দুর্ঘটনা সংক্রান্ত বার্ষিক প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

শনিবার (২৭ জানুয়ারি) সকালে প্রতিষ্ঠানটির কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়।

নিহতদের মধ্যে ৯৭৪ জন নারী ও শিশু রয়েছে ১ হাজার ১২৮ জন। মোট ২ হাজার ৫৩২টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ২ হাজার ৪৮৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা মোট নিহতের ৩৮.১২ শতাংশ। মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার হার ৩৬.৬৩ শতাংশ।

এ ছাড়া দুর্ঘটনায় ১ হাজার ৪৫২ জন পথচারী নিহত হয়েছেন, যা মোট নিহতের ২২.২৫ শতাংশ। যানবাহনের চালক ও সহকারী নিহত হয়েছেন ৯৪২ জন, অর্থাৎ ১৪.৪৩ শতাংশ।

এই সময়ে ১০৭টি নৌ-দুর্ঘটনায় ১৪৮ জন নিহত, ৭২ জন আহত এবং ৪৬ জন নিখোঁজ রয়েছেন। ২৮৭টি রেলপথ দুর্ঘটনায় ৩১৮ জন নিহত এবং ২৯৬ জন আহত হয়েছেন।

রোড সেফটি ফাউন্ডেশন ৯টি জাতীয় দৈনিক, ৭টি অনলাইন নিউজ পোর্টাল, ইলেক্ট্রনিক গণমাধ্যম এবং সংস্থার নিজস্ব তথ্যের ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি তৈরি করেছে।

দুর্ঘটনায় যানবাহনভিত্তিক নিহতের পরিসংখ্যানে দেখা যায়, বাস যাত্রী ২৭৪ জন, ট্রাক-পিকআপ-কাভার্ডভ্যান-ট্রাক্টর ট্রলি-লরি আরোহী ৩৮৪ জন, প্রাইভেটকার-মাইক্রোবাস-অ্যাম্বুলেন্স-জীপ যাত্রী ২২৯ জন, তিন চাকার যানের যাত্রী ১ হাজার ২০৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।

দুর্ঘটনাগুলোর মধ্যে ২ হাজার ৩৭৩টি (৩৪.৩৩%) জাতীয় মহাসড়কে, ২ হাজার ৮৮৭টি (৪১.৭৭%) আঞ্চলিক সড়কে, ৯৯৪ টি (১৪.৩৮%) গ্রামীণ সড়কে, ৫৮৩ টি (৮.৪৩%) শহরের সড়কে এবং অন্যান্য স্থানে ৭৪ টি (১.০৭%) সংঘটিত হয়েছে।

দুর্ঘটনাগুলোর মধ্যে ১ হাজার ২৯১টি (১৮.৬৮%) মুখোমুখি সংঘর্ষ, ৩ হাজার ১৪৯টি (৪৫.৫৬%) নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে, ১ হাজার ৪৪৬টি (২০.৯২%) পথচারীকে চাপা/ধাকা দেয়া, ৮১৭টি (১১.৮২%) যানবাহনের পেছনে আঘাত করা এবং ২০৮ টি (৩%) অন্যান্য কারণে ঘটেছে।

দুর্ঘটনায় সম্পৃক্ত যানবাহনের সংখ্যা ১১ হাজার ৩৬৬টি।

এর মধ্যে বাস ১ হাজার ৫০৩, ট্রাক ১ হাজার ৮০৬, কাভার্ডভ্যান ২৮৩, পিকআপ ৪৩২, ট্রলি ১৭৮ ও লরি ১১৪টি অন্যতম। দুর্ঘটনার সময় বিশ্লেষণে দেখা যায়, ভোরে ৩২১টি (৪.৬৪%), সকালে ১ হাজার ৯৪৬টি (২৮.১৫%), দুপুরে ১ হাজার ৫৭১টি (২২.৭৩%), বিকেলে ১ হাজার ১১৩টি (১৬.১০%), সন্ধ্যায় ৬১৮টি (৮.৯৪%) এবং রাতে ১ হাজার ৩৪২টি (১৯.৪১%) দুর্ঘটনা ঘটেছে।

ঢাকা বিভাগে সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি ঘটেছে। ১ হাজার ৯৬৭টি দুর্ঘটনায় ১ হাজার ৬৯৪ জন নিহত হয়েছেন। সিলেট বিভাগে সবচেয়ে কম ৩৪৭টি দুর্ঘটনায় ৩৮৮ জন নিহত হয়েছে। রাজধানীতে ২৯৭টি সড়ক দুর্ঘটনায় ২৪৩ জন নিহত এবং ৩৩৬ জন আহত হয়েছেন।


আরও খবর
দেশে ৩০ শতাংশ খাদ্য অপচয় হয়: কৃষিমন্ত্রী

বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বাড়তে পারে তেল-গ্যাস-বিদ্যুতের দাম

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

ফের বাড়তে পারে অতি প্রয়োজনীয় তেল, গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম। এর মধ্যে বিদ্যুতের দাম গ্রাহক পর্যায়ে; আর গ্যাসের দাম উৎপাদন পর্যায়ে বাড়তে পারে।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ তার দপ্তরে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী জানান, আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে দাম সমন্বয় করতে চাই। বিদ্যুতের গ্রাহক পর্যায়ে দাম সামান্য পরিমাণে বাড়তে পারে। যারা বড় গ্রাহক তাদের দাম তুলনামূলক বেশি বাড়তে পারে। আমরা স্বাবলম্বী গ্রাহকদের ভর্তুকি দিতে চাই না।

নসরুল হামিদ আরও বলেন, সবচেয়ে বেশি সমস্যা হয়ে গেছে ডলারের রেট। আগে ডলার ৭৮ টাকায় পাওয়া যেত। এখন প্রায় ১২০ টাকার মতো হয়ে গেছে। এক ডলারে প্রায় ৪০ টাকার মতো বেশি খরচ হচ্ছে। এতে বিশাল ঘাটতি তৈরি হয়েছে। আন্তর্জাতিক বাজারে দাম অপরিবর্তিত থাকলেও ডলারের মূল্যবৃদ্ধির কারণে দাম সমন্বয় জরুরি হয়ে পড়েছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী মার্চ থেকেই আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে যুক্ত করা হবে জ্বালানি তেলের দাম। নতুন দর প্রথম সপ্তাহ থেকেই কার্যকর করা হবে। আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বেড়ে গেলে দাম বাড়বে, আর কমে গেলে কমে আসবে।

বর্তমান আন্তর্জাতিক বাজার দর অনুযায়ী সমন্বয় করা হলে দাম বাড়বে, না-কি কমে আসবে? এমন প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, তেল আমদানির কর্মাশিয়াল এনভয়েজ অনুযায়ী ডিউটি ধরা হলে দাম কিছুটা বেড়ে যাবে। আর যদি পরিমাণ ভিত্তিক ডিউটি বিবেচনা করা হয় তাহলে দাম না বাড়ালেও চলে।

গত বছরের ৩০ জানুয়ারি সর্বশেষ গ্রাহক পর্যায়ে নির্বাহী আদেশে বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হয়। এর তিন সপ্তাহ আগে ২০২৩ সালের ১২ জানুয়ারি দাম গড়ে ৫ শতাংশ বাড়িয়ে গেজেট প্রকাশ করা হয়।

অন্যদিকে ২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে নির্বাহী আদেশে গ্যাসের দাম বাড়ায় জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ। আর গণশুনানির মধ্যদিয়ে ২০২২ সালের জুন মাসে গ্যাসের দাম বাড়ায় বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন।


আরও খবর
দেশে ৩০ শতাংশ খাদ্য অপচয় হয়: কৃষিমন্ত্রী

বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ক্লান্তিতে ইন্দোনেশিয়ায় ৭১ নির্বাচনকর্মীর মৃত্যু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

গত সপ্তাহে ইন্দোনেশিয়ায় বিশ্বের বৃহত্তম এক দিনের নির্বাচনে ক্লান্তিজনিত কারণে এ পর্যন্ত ৭১ জন নির্বাচনকর্মী মারা গেছেন বলে দেশটির সরকার জানিয়েছে। সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) জাকার্তায় এক সংবাদ সম্মেলনে দেশটির নির্বাচনী সংস্থার চেয়ারম্যান হাসিম আসিয়ারি বলেছেন, ১৪ থেকে ১৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে ক্লান্তির কারণে আরও প্রায় চার হাজারজন অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন।

এর আগে ২০১৯ সালের ভোটের পর ৫০০টিরও বেশি ভোটকেন্দ্রে কর্মী মারা গিয়েছিলেন। এ ঘটনার পর সরকার স্বেচ্ছাসেবকদের জন্য বয়সের সীমা নির্ধারণ করে দেয় এবং স্বাস্থ্য পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করা হয়। কিন্তু এত সতর্কতা সত্ত্বেও সর্বশেষ নির্বাচনে বেশ কয়েকজনের জীবন চলে গেছে।

ইন্দোনেশিয়ায় গত বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রায় ছয় ঘণ্টা ধরে ভোটগ্রহণ করা হয়। কিন্তু নির্বাচন শুরু হওয়ার অন্তত ছয় ঘণ্টা আগ থেকে কর্মীদের কার্যক্রম শুরু করতে হয় এবং ভোটকেন্দ্র বন্ধ হওয়ার পর ১২ ঘণ্টারও বেশি সময় কাজ করতে হয়।

কাগজের ব্যালটবাক্স বিতরণ থেকে শুরু করে ভোট গণনা ও ফলাফল প্রকাশ পর্যন্ত নির্বাচনসংশ্লিষ্ট কর্মীদের টানা চব্বিশ ঘণ্টা কাজ করতে হয়। এবারের নির্বাচনে দেশজুড়ে আট লাখ ভোটকেন্দ্রে কাজ করার জন্য ৫০ লাখ লোক নিয়োগ করা হয়। ফলে লম্বা সময় ধরে কাজ করায় অনেকের মৃত্যু হয়। প্রায় ছয় ঘণ্টা ধরে চলা গত সপ্তাহের ভোটে দেশজুড়ে আট লাখ ভোটকেন্দ্রে পাঁচ মিলিয়ন স্বেচ্ছাসেবক কাজ করেছেন।

জাতীয় ও স্থানীয় পর্যায়ে রাষ্ট্রপতি, উপরাষ্ট্রপতি এবং বিধায়কদের নির্বাচন করতে ২০০ মিলিয়নেরও বেশি নিবন্ধিত ভোটার ছিলেন। দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী প্রবোও সুবিয়ান্তো  অনানুষ্ঠানিক ফলাফলের ভিত্তিতে নিজেকে বিজয়ী ঘোষণা করেছেন। ২০ মার্চের মধ্যে আনুষ্ঠানিক ফলাফল ঘোষণা করা হবে।


আরও খবর
সাত দশক পর পাকিস্তানে প্রথম নারী মুখ্যমন্ত্রী

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

রাশিয়াকে ‘জুলফিকার’ ক্ষেপণাস্ত্র দিচ্ছে ইরান

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বৃষ্টিপাতের আভাস

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ জানুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৪ জানুয়ারী 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

দেশজুড়ে জেঁকে বসেছে তীব্র শীত। এরই মধ্যে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে আজ বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। গত মঙ্গলবার (২৩ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের দেওয়া বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় ফরিদপুর অঞ্চলসহ খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় বৃষ্টি/গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্যত্র আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।

এছাড়া মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত সারাদেশে মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে। ঘন কুয়াশার কারণে বিমান চলাচল, অভ্যন্তরীন নৌ পরিবহন এবং সড়ক যোগাযোগে বিঘ্ন ঘটতে পারে। এছাড়া সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা (১-৩) ডিগ্রি সে. বৃদ্ধি পেতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে।

এদিকে মৌলভীবাজার, বরিশাল, ভোলা ও কুমিল্লা জেলাসহ ঢাকা, রংপুর, রাজশাহী ও খুলনা বিভাগের উপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা কিছু জায়গায় মৃদু শৈত্যপ্রবাহ হিসেবে অব্যাহত থাকতে পারে এবং কিছু জায়গায় হতে প্রশমিত হতে পারে।


আরও খবর
যেসব বিভাগে বৃষ্টির পূর্বাভাস

মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24

আট বিভাগেই ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টির পূর্বাভাস

মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24