আজঃ মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০21
শিরোনাম

১০ বছরের দণ্ডাদেশপ্রাপ্ত আসামি ইয়াবাসহ গ্রেফতার

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ এপ্রিল ২০২১ | ৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
গ্রেফতারকৃত মো. আওলাদ হোসেন মোল্লার বাড়ি বরিশাল নগরের কালুশাহ সড়ক এলাকায়। তিনি কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি জিআর মামলায় ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশপ্রাপ্ত আসামি

বরিশালে ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশপ্রাপ্ত ও আটটি ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামি মো. আওলাদ হোসেন মোল্লাকে (৫৫) ৭০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ।

এর আগে বিকেলে নগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) পরিদর্শক এইচ এম আব্দুর রহমান মুকুলের নেতৃত্বে ডিবি পুলিশের একটি দল নগরের ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের ইসলামপাড়া সড়ক এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃত মো. আওলাদ হোসেন মোল্লার বাড়ি বরিশাল নগরের কালুশাহ সড়ক এলাকায়। তিনি কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি  জিআর মামলায় ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশপ্রাপ্ত আসামি। তার বিরুদ্ধে আটটি ওয়ারেন্ট ছিল।

এছাড়া গ্রেফতারকৃত মো. আওলাদ হোসেন মোল্লার সহযোগী বরিশাল মেট্রোপলিটনের এয়ারপোর্ট থানাধীন কাশিপুর হাইস্কুল ও কলেজ সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা মো. মহিউদ্দিন হাওলাদার ওরফে রাইফেল মহিউদ্দিন পলাতক রয়েছেন বলেও সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। 

নিউজ ট্যাগ: বরিশাল

আরও খবর



অভ্যুত্থানের পর মিয়ানমারে ২৬১ জন নিহত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৩ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৩ মার্চ ২০২১ | ৮৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত মাসে মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের পর কমপক্ষে ২৬১ জন নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার একটি সিভিল সোসাইটি অর্গানাইজেশন এই তথ্য জানিয়েছে।

থাইল্যান্ডভিত্তিক অ্যাসিসট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনারস নামে এই সংগঠনটি জানিয়েছে, মিয়ানমারে প্রকৃত মৃত্যুর সংখ্যা উল্লিখিত সংখ্যার থেকে অনেক বেশি। প্রকৃত মৃত্যুর সংখ্যা যোগ করতে তাদের কাজ চলমান থাকবে।

গত বছরের নভেম্বরে মিয়ানমারে সাধারণ নির্বাচন হয়। নির্বাচনে সু চির ক্ষমতাসীন দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসি (এনএলডি) বিপুল বিজয় পায়। তবে দেশটির সেনাবাহিনী এ নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ আনে। গত ১ ফেব্রুয়ারি সেনাবাহিনী সু চিকে হটিয়ে ক্ষমতা দখল করে। একই সঙ্গে সু চিসহ দেশটির শীর্ষ নেতাদের গ্রেপ্তার করে।

এক বছরের জন্য মিয়ানমারে জরুরি অবস্থা জারি করে সেনাবাহিনী। সেনা অভ্যুত্থানের পরপরই মিয়ানমারে বিক্ষোভ শুরু হয়। হুমকি-ধমকি, দমন-পীড়ন, গ্রেপ্তার, গুলি সত্ত্বেও দেশটির গণতন্ত্রপন্থীরা সেনাশাসনের বিরুদ্ধে টানা বিক্ষোভ করে আসছেন।

রাজনৈতিক বন্দীদের মুক্তির জন্য কাজ করা এই সংগঠনটি জনিয়েছে, গতকাল সোমবার পর্যন্ত দুই হাজার ৬৮২ জনকে গ্রেপ্তার, কারাদণ্ড এবং বিক্ষোভের দায়ে অভিযুক্ত করা হয়েছে। বিক্ষোভ দমনে করতে মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী দায়মুক্তিভাবে প্রকাশ্যে গুলি, শারীরিক আক্রমণ এবং অপহরণ করেছে বলেও জানিয়েছে তারা। তাদের ভাষায়, সেনাবাহিনী মানুষকে ভয় দেখাতে এসব করেছে কিন্তু জনগণ প্রতিবাদ চলমান রেখেছে।


আরও খবর



অতিরিক্ত টমেটো খাওয়ার ক্ষতিকর দিক

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৬ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৬ মার্চ ২০২১ | ১০১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

খাবারও, যতো পুষ্টিগুণে ভরপুরই হোক না কেনো তা অতিরিক্ত খাওয়ার ফলে স্বাস্থ্যের অনেক ক্ষতি হয়ে থাকে। ঠিক টমেটোও তাই। সবজি, সুপ বা সালাদ সর্বত্র মানানসই এই টমেটো। আর এ কারণেই হয়তো একটু বেশিই খাওয়া হয়ে থাকে টমেটো। নিয়মিত টমেটো খাওয়ার যেমন উপকার রয়েছে আবার অতিরিক্ত খাওয়ার ক্ষতিকর দিকও রয়েছে। এবার তাহলে ক্ষতিকর দিকগুলো সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক-

পেটের সমস্যা : টমেটো হজম প্রক্রিয়া ঠিক রাখে। তবে বেশি পরিমাণে খাওয়া হলে বিপরীতও হতে পারে। অতিরিক্ত টমেটো খাওয়ার ফলে পেট ফাঁপার সমস্যা হয়ে থাকে এবং অনেক সময় ডায়রিয়া পর্যন্ত হয়।

অ্যাসিড রিফ্লেক্স : প্রাকৃতিক এই সবজিতে প্রচুর পরিমাণ অ্যাসিড রয়েছে। কারো যদি অ্যাসিডের রিফ্লেক্স থাকে তাহলে টমেটো খুবই কম পরিমাণে খাওয়া উচিত। বেশি টমেটো খেলে পেটে অ্যাসিড হতে পারে।

কিডনিতে পাথরের সমস্যা : পটাসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার কিডনিজনিত সমস্যার শিকার রোগীদের কম খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন বিশেষজ্ঞরা। টমেটোয় থাকা অক্সালেট কিডনিতে পাথর তৈরির কাজ করে থাকে। কিডনিজনিত সমস্যা থাকলে টমেটো খাওয়ার ব্যাপারে অবশ্যই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিবেন।

রক্তচাপজনিত সমস্যা : কাঁচা টমেটোয় সোডিয়ামের পরিমাণ কম থাকে। কিন্তু টমেটো দিয়ে সুপ তৈরির সময় যে সকল ধাতুজনিত উপকরণ ব্যবহার করা হয় তা শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকর। সোডিয়ামের পরিমাণ শরীরে বেশি হলে রক্তচাপ বৃদ্ধির সম্ভাবনা থাকে।

অ্যালার্জির সমস্যা : অতিরিক্ত টমেটো খাওয়ার ফলে অ্যালার্জি হতে পারে। একজিমা, ফুসকুড়ি, চুলকানি, গলা ব্যথা এবং মুখ ফোলাভাব হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এ কারণে যাদের অ্যালার্জিজনিত সমস্যা রয়েছে তাদের টমেটো না খাওয়াই ভালো।


আরও খবর



দেশে এলো মেট্রো রেলের কোচ

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ৩১ মার্চ ২০২১ | ৮২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জাপান থেকে মেট্রোরেলের কোচের প্রথম চালান বাগেরহাটের মোংলা বন্দরে এসে পৌঁছেছে। এসব কোচ নিয়ে ছেড়ে আসা জাহাজ এমভি এসপিএম ব্যাংকক মোংলা বন্দরের প্রবেশের অপেক্ষায় রয়েছে।

জাহাজটির স্থানীয় শিপিং এজেন্ট এনশিয়েন্ট স্টিমশিপ কো. লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক ওহিদুজ্জামান গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ওহিদুজ্জামান বলেন, জাপানের কোবে বন্দর থেকে ৬টি কোচ নিয়ে জাহাজ এমভি এসপিএম ব্যাংকক এখন মোংলা বন্দরে ভিড়ার অপেক্ষায় রয়েছে। আজ (বুধবার) বিকালেই পুরোপুরিভাবে মোংলা বন্দরের জেটিতে ভিড়বে। পরে বন্দরের ৯ নম্বর ইয়ার্ডে কোচগুলো খালাস হবে।

রাজধানীবাসীর যানজট মুক্তির স্বপ্ন নিয়ে এগিয়ে চলছে মেট্রোরেলের কাজ। ২০১২ সালের জুলাই থেকে প্রকল্পটির বাস্তবায়ন মেয়াদ শুরু হয়। উত্তরার দিয়াবাড়ি থেকে মতিঝিল পর্যন্ত ২০ দশমিক ১০ কিলোমিটার দীর্ঘ মেট্রোরেল-৬ বাস্তবায়নে খরচ হচ্ছে ২১ হাজার ৯৮৫ কোটি। এর মধ্যে সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে ৫ হাজার ৩৯০ কোটি ৪৮ লাখ টাকা এবং জাপান আন্তর্জাতিক সহযোগিতা সংস্থার (জাইকা) ঋণ থেকে ১৬ হাজার ৫৯৪ কোটি ৫৯ লাখ টাকা ব্যয় করা হচ্ছে।যার ৭৫ শতাংশ ঋণ হিসেবে দিচ্ছে জাপান সরকারের সহযোগিতা সংস্থা জাইকা।

২০২১ সালের ১৬ ডিসেম্বর মেট্রোরেলে যাত্রী পরিবহন শুরু করা যাবে বলে আশা করছে সরকার।


আরও খবর



টুঙ্গিপাড়া এসেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ মার্চ ২০২১ | ১০৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাতে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া এসেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

শনিবার (২৭ মার্চ) ১১টা ২০ মিনিটে হেলিকপ্টারে করে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় আসেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। নরেন্দ্র মোদী টুঙ্গিপাড়ায় পৌঁছালে সেখানে তাকে স্বাগত জানান বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা এবং বঙ্গবন্ধুর ছোট মেয়ে শেখ রেহানা।

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে হেলিকপ্টারে সকাল ১০টার দিকে গোপালগঞ্জ আসেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন এবং সমাধি সৌধ পরিদর্শনের পাশাপাশি সেখানে একটি গাছের চারা রোপণ করবেন মোদী। এরপর তিনি গোপালগঞ্জের কাশিয়ানির ওড়াকান্দিতে মতুয়া সম্প্রদায়ের মন্দির পরিদর্শন করবেন এবং সেখানে প্রার্থনা করবেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে বাংলাদেশ সফর করছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শুক্রবার (২৬ মার্চ) সকালে দুই দিনের সফরে ঢাকা আসেন তিনি।

সফরের দ্বিতীয় দিন সকালে ঢাকা থেকে হেলিকপ্টারে করে সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর যান মোদী। সেখানে তিনি যশোরেশ্বরী মন্দির পরিদর্শন করেন এবং পূজা দেন। এরপর সাতক্ষীরা থেকে হেলিকপ্টারে করে টুঙ্গিপাড়ায় আসেন।


আরও খবর



আফগানিস্তান থেকে সন্ত্রাসের হুমকি অন্যত্র সরে গেছে : যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ এপ্রিল ২০২১ | ৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
সন্ত্রাসবাদের হুমকি অন্য জায়গাগুলোতে চলে গেছে। আমাদের হাতে আরও অনেক জরুরি এজেন্ডা রয়েছে। চীনের সঙ্গে সম্পর্ক থেকে শুরু করে জলবায়ু পরিবর্তন ও মহামারি করোনাভাইরাস রয়েছে

আফগানিস্তান থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তের ব্যাখ্যা দিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন। যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় রবিবার ব্লিনকেন বলেন, আফগানিস্তান থেকে সন্ত্রাসের হুমকি সরে অন্যত্র চলে গেছে। ওয়াশিংটনের এখন চীন এবং মহামারি করোনাভাইরাসের মতো বিষয়ে মনযোগ দেওয়া দরকার। বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে এ কথা বলা হয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন গত সপ্তাহে ঘোষণা দেন, ৯/১১ সন্ত্রাসী হামলার ২০ বছর পূর্তির সময় অর্থাৎ ১১ সেপ্টেম্বরের আগেই আফগানিস্তান থেকে সব সেনা প্রত্যাহার করা হবে।

গত বছর আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারে তালেবানের সঙ্গে চুক্তি হয়। চুক্তি অনুযায়ী, এ বছরের ১ মে সব সেনা প্রত্যাহার করার কথা। সেই সময়সীমা থেকে আরও চার মাস পেছাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র।

সিআইএ প্রধান উইলিয়াম বার্নস ও সাবেক আর্মড ফোর্সেস চিফ ডেভিড পেট্রাউসসহ বেশ কয়েকজন জেনারেল সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছেন। তাদের দাবি, এর ফলে আফগানিস্তান সহিংসতায় ডুবে যাবে এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রও সন্ত্রাসী হামলার হুমকির মধ্যে পড়বে।

যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যম এবিসির দিস উইক অনুষ্ঠানে অ্যান্টনি ব্লিনকেন বলেন, সন্ত্রাসবাদের হুমকি অন্য জায়গাগুলোতে চলে গেছে। আমাদের হাতে আরও অনেক জরুরি এজেন্ডা রয়েছে। চীনের সঙ্গে সম্পর্ক থেকে শুরু করে জলবায়ু পরিবর্তন ও মহামারি করোনাভাইরাস রয়েছে। এখন আমাদের সেসব জায়গায় আমাদের শক্তি সামর্থ্য ব্যয় করতে হবে।

গত সপ্তাহে কাবুল সফরে গিয়ে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানিসহ যুক্তরাষ্ট্রের জ্যেষ্ঠ সেনা কর্মকর্তাদের সঙ্গে দেখা করে বাইডেনের ঘোষণার বিষয়টি পরিষ্কার করেছেন। তাঁর ভাষ্য মতে, ২০০১ সালের সন্ত্রাসী হামলার জবাবে শুরু হওয়া অনন্তকালের যুদ্ধের পরিসমাপ্তি চাইছেন বাইডেন।

ব্লিনকেন বলেন, আমরা আফগানিস্তানে আমাদের অভিষ্ট লক্ষ্য অর্জন করেছি। আল-কায়েদা ব্যাপক মাত্রায় দুর্বল হয়ে গেছে। তাদের অবস্থা এখন আর আফগানিস্তান থেকে যুক্তরাষ্ট্রে সন্ত্রাসী হামলা পরিচালনার পর্যায়ে নেই।

আফগানিস্তানে বর্তমানে আড়াই হাজারের মতো মার্কিন সেনা রয়েছে। এক সময় এই সংখ্যা এক লাখও ছিল। এই আড়াই হাজারের মধ্যে এক হাজারের মতো সেনা ন্যাটো জোটের নয় হাজার ৬০০ সেনার অংশ হিসেবে রয়েছে। মার্কিন সেনাদের সঙ্গে একই সময়ে ন্যাটো জোটেরও আফগানিস্তান ছাড়ার কথা রয়েছে। তালিবানের পক্ষ থেকে চার মাসের মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের বিলম্বের বিষয়টি মেনে নেওয়া হয়েছে।

তবে অ্যান্টনি ব্লিনকেন এটাও বলেছেন, আফগানিস্তান যদি আবার আগের মতো সহিংসতা চালায় তাহলে তারা আরও দীর্ঘ যুদ্ধে জড়াবে। তবে তালিবানের স্বার্থ তালিকায় তেমন কিছু নেই বলেও আশ্বস্ত করেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

এদিকে, আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের দীর্ঘ ২০ বছরের যুদ্ধে এখন পর্যন্ত মোট খরচ হয়েছে দুই দশমিক ২৬ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার। দীর্ঘ এ যুদ্ধে মোট দুই লাখ ৪১ হাজার মানুষের প্রাণহানি হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের ব্রাউন ইউনিভার্সিটির ওয়াটসন ইনস্টিটিউট এবং বোস্টন ইউনিভার্সিটির পারডি সেন্টার তাদের গবেষণা প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানিয়েছে।

আফগান যুদ্ধের মোট খরচের ২৯৬ বিলিয়ন ডলার ব্যয় হয়েছে আফগান ফেরত সেনাদের চিকিৎসার জন্য। মোট খরচের শতকরা ৪১ ভাগ বা ৯৩৩ বিলিয়ন ডলার এসেছে মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তরের ওভারসিজ কন্টিনজেন্সি অপারেশন্স খাত থেকে। দীর্ঘ এই যুদ্ধে দুই হাজার ৪৪২ জন মার্কিন সেনা, ৬৬ হাজার থেকে ৬৯ হাজার আফগান সেনা ও পুলিশ এবং নয় হাজার ৩১৪ পাকিস্তানের সেনা মারা গেছে।


আরও খবর