আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১
শিরোনাম

২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু বাড়লো

প্রকাশিত:রবিবার ০২ মে 2০২1 | হালনাগাদ:রবিবার ০২ মে 2০২1 | ১০৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৬৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত ১৩৫৯ জন।

রবিবার (২ মে) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এর আগে গত ৭ এপ্রিল দেশে একদিনে করোনা শনাক্ত হয় সাত হাজার ৬২৬ জন। যা দেশে একদিনে করোনা শনাক্তে সর্বোচ্চ রেকর্ড। আর গত ৬ এপ্রিল একদিনে করোনা শনাক্ত হয়েছিল সাত হাজার ২১৩ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য মতে, ২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে করোনা ভাইরাসের প্রথম রোগী শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। এরপর ধীরে ধীরে আক্রান্তের হার বাড়তে থাকে।  


আরও খবর



রিজার্ভ ছাড়াল ৪৫ বিলিয়ন ডলার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ মে ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ মে ২০২১ | ৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিদেশি মুদ্রার রিজার্ভ প্রথমবারের মতো ৪ হাজার ৫০০ কোটি (৪৫ বিলিয়ন) ডলার ছাড়িয়েছে। সোমবার দিন শেষে বাংলাদেশের রিজার্ভ দাঁড়ায় ৪ হাজার ৫১০ কোটি ডলার।

এ পরিমাণ রিজার্ভ দিয়ে প্রায় ১২ মাসের আমদানি দায় পরিশোধ সম্ভব বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম।

এর আগে প্রথম রিজার্ভ ৪ হাজার ৪০০ কোটি (৪৪ বিলিয়ন) ডলার ছাড়ায় গত ২৪ ফেব্রুয়ারি। এরপর এশিয়ান ক্লিয়ারিং ইউনিয়নের (আকু) আমদানি দায় পরিশোধের ফলে রিজার্ভ কিছুটা কমে গেলেও এপ্রিলের মাঝামাঝি থেকে তা আবার বাড়তে শুরু করে।

সিরাজুল ইসলাম বলেন, করোনার মধ্যেও প্রবাসী আয় প্রবাহ ভালো রয়েছে। বাজারে ডলারের সরবরাহ বেশি। এ কারণে বাজার থেকে বেশ কিছু ডলারও কিনেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এর ফলে রিজার্ভ বেড়েছে।

তবে মঙ্গলবার আকুর মার্চ-এপ্রিল সময়ের দেনা পরিশোধের কথা রয়েছে। এই দিন ১৭৪ কোটি ডলার আকুর দেনা পরিশোধ করবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ফলে রিজার্ভ আবার ৪৫ বিলিয়ন ডলারের নিচে নেমে যাবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম।

বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত, ইরান, মিয়ানমার, নেপাল, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও মালদ্বীপ বর্তমানে আকুর সদস্য। এ দেশগুলো থেকে বাংলাদেশ যেসব পণ্য আমদানি করে তার বিল দুই মাস পর পর আকুর মাধ্যমে পরিশোধ করতে হয়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা জানান, ঈদকে কেন্দ্র করে বেশি করে রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছেন প্রবাসীরা। গত ১ ও ২ মে ১৫ কোটি ডলার রেমিট্যান্স এসেছে দেশে। এছাড়া গত এপ্রিলের পুরো মাস জুড়ে ২০৬ কোটি ৭০ লাখ ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। এ অঙ্ক গত বছর এপ্রিলে আসা রেমিট্যান্সের চেয়ে ৮৯ দশমিক ১১ শতাংশ বেশি।

প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রথম ১০ মাসে (জুলাই-এপ্রিল) দেশে ২ হাজার ৬৭ কোটি ২০ লাখ (২০.৬৭ বিলিয়ন) ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। এ অঙ্ক অর্থবছরের জুলাই-এপ্রিল সময়ে আসা রেমিট্যান্সের চেয়ে ৩৯ শতাংশ বেশি।

এ বিষয়ে পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (পিআরআই) নির্বাহী পরিচালক ড. আহসান এইচ মনসুর দেশ রূপান্তরকে বলেন, রিজার্ভ এখন বাড়বেই। কেননা, রেমিট্যান্স বাড়ছে। সেই তুলনায় আমদানি বাড়ছে না। ফলে দেশের মধ্যে প্রচুর ডলার থেকে যাচ্ছে, যা কেন্দ্রীয় ব্যাংক কিনে নিচ্ছে ডলারের দর স্থিতিশীল রাখতে। এতে কোনো অসুবিধা দেখি না। এই করোনার মধ্যে ভারতেও রিজার্ভ বেড়েছে।

এর আগে গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর রিজার্ভ ৪৩ বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করে। ১৫ ডিসেম্বর ৪২ বিলিয়ন এবং ২৮ অক্টোবর ৪১ বিলিয়ন অতিক্রম করে।


আরও খবর



শিবচরে মৃত ২৬ জনের পরিবার পাবে ২০ হাজার টাকা করে

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ মে ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৩ মে ২০২১ | ৮১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পদ্মায় স্পিডবোট দুর্ঘটনায় ২৬ জনের প্রাণহানির ঘটনাটি তদন্তের জন্য ছয় সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। এছাড়া মৃতদের পরিবারকে ২০ হাজার টাকা করে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

স্থানীয় সরকার বিভাগীয় উপ-পরিচালক আজহারুল ইসলামকে প্রধান করে এ তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

তিন কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে তদন্ত কমিটিকে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন বলেন, মরদেহ বহন ও দাফন খরচ বাবদ নিহত প্রত্যেকের পরিবারকে ২০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে।

সোমবার (৩ মে) সকাল ৬টার দিকে বাংলাবাজার ঘাটের পুরাতন ফেরিঘাট এলাকায় নোঙর করে রাখা বালুবোঝাই বাল্কহেডের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে যাত্রীবাহী একটি স্পিডবোট উল্টে যায়। এতে নদী থেকে এ পর্যন্ত ২৫ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আর আহত অবস্থায় উদ্ধার করা ছয়জনের মধ্যে হাসপাতালে মারা গেছেন আরও একজন।


আরও খবর



স্বাস্থ্যবিধি না মানার কারণেই দেশে দ্বিতীয় ঢেউ এসেছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ এপ্রিল ২০২১ | ১০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
আমরা আর কত চিকিৎসা দেব, হাসপাতলে আর কত শয্যা বাড়াবো। কত হাই ফ্লো নেজাল ক্যানোলা দেব, আমরা কত অক্সিজেনের ব্যবস্থা করবো। হাসপাতালতো আর রাতারাতি বৃদ্ধি করা যায় না। হাসপাতালের বেডওতো রাতারাতি

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, স্বাস্থ্যবিধি না মানার কারণেই দেশে দ্বিতীয় ঢেউ এসেছে। এখন তৃতীয় ঢেউয়ে যেন আক্রান্ত না হই সেজন্য সবাইকে সচেতন হতে হবে।

আজ বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) বেলা ১১টার দিকে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ উপলক্ষে ভার্চুয়াল এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, করোনা দ্বিতীয় ঢেউ কেন এলো সেটার কারণ চিহ্নিত করতে হবে। আমরা করোনার বিস্তার রোধে বিয়ে, জন্মদিনসহ যেকোনো সামাজিক অনুষ্ঠান বন্ধ করেছি। জনসমাগম নিরুৎসাহে সব ধরনের সভা-সমাবেশ সীমিত করা হয়েছে। করোনার উৎপত্তি স্থানগুলোসহ পর্যটন ও বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ করা হয়েছে। ধর্মীয় ওয়াজ মাহফিলসহ সব ধরনের মেলা, পিকনিক বন্ধ রয়েছে। এভাবে কিছুদিন চললে আশা করা যায় করোনা সংক্রমণের হার কমে আসবে।

তিনি বলেন, আমরা আর কত চিকিৎসা দেব, হাসপাতলে আর কত শয্যা বাড়াবো। কত হাই ফ্লো নেজাল ক্যানোলা দেব, আমরা কত অক্সিজেনের ব্যবস্থা করবো। হাসপাতালতো আর রাতারাতি বৃদ্ধি করা যায় না। হাসপাতালের বেডওতো রাতারাতি বাড়ানো যায় না। তারপরও আমরা এই অল্প সময়ের মধ্যে আড়াই হাজার বেড থেকে ৭/৮ হাজার বেড বৃদ্ধি করেছি। দশ গুণ রোগীও আমরা সামাল দিতে সক্ষম হয়েছি। কিন্তু তারপরও বাড়লে আর সম্ভব হবে না।

সুষম খাবার বেশি খাওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি আরও বলেন, পুষ্টি সপ্তাহে আমরা আহ্বান জানাচ্ছি শাক-সবজি, ফলমূলসহ সুষম খাবার খেতে হবে। তেল, চিনি, লবণ কম খান।

জাহিদ মালেক বলেন, আমাদের দেশে ১০ শতাংশ মানুষ এখনও পুষ্টিহীনতায় ভোগে। তবে পুষ্টির দিকে ঘাটতি থাকলেও আশপাশের দেশ থেকে ভালো। এমনকি ভারতের থেকে পুষ্টির দিক থেকে আমরা ভালো অবস্থানে রয়েছি।

আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এম এ আজিজ, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল বাসার খুরশিদ আলম, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের পরিচালক শাহানারা বেগম।


আরও খবর



নোয়াখালীতে ইউপি সদস্য প্রার্থীকে কুপিয়ে হত্যা

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৭ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ মে ২০২১ | ১২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়াতে পূর্ব শক্রতার জের ধরে এক ইউপি সদস্য প্রার্থীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে একই এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা।

এ ঘটনায় আরো ৩জন আহত হয়েছে। আহতরা হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছে। আহতরা হলো নিহতের ছেলে জীবন (২২), মেহেদী (২৫), রাজু (৩৫)। আহতের মধ্যে রাজুর অবস্থা আশঙ্কাজনক।

নিহত মো. জোবায়ের হোসেন (৪৫), উপজেলার সোনাদিয়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মৃত তাহের মিয়ার ছেলে। সে সোনাদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন (২১), স্থগিতকৃত নির্বাচনে ওই ইউনিয়নের ৫নম্বর ওয়ার্ড থেকে ফুটবল মার্কায় ইউপি সদস্য প্রার্থী ছিল।

শুক্রবার (৭ মে) সকাল ১১টার দিকে উপজেলার সোনাদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন চরচেঙ্গা বাজারের একটি দোকানে তাকে কুপিয়ে হত্যার এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের ছেলে জীবন অভিযোগ করেন, সোনাদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ১নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও বর্তমান চেয়ারম্যান মো.নুরুল ইসলামের শালা সন্ত্রাসী আবদুল বাতেন ও তার সহযোগী সুজন, ফকির, জামাল, শাহেদের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী চরচেঙ্গা বাজারের একটি দোকানে তার বাবাকে ধারালো দেশীয় অস্ত্র দিয়ে পিঠে, পায়ে, হাতেসহ শরীরের বিভিন্নস্থানে কুপিয়ে মুমূর্ষ অবস্থায় পায়ের রগ কেটে হত্যা করে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

সোনাদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো.নুরুল ইসলাম জানান, জেলেদের চাল বিতরণ নিয়ে বাকবিন্ডার জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে। নিহত জোবায়েরের নেতৃত্বে জেলেদের চাল ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করলে সংঘর্ষে তার মৃত্যু হয়। তবে তিনি দাবি করেন, ইউপি সদস্য আবদুল বাতেন তার শালা হওয়ায় তার নাম এ ঘটনায় জড়ানো হচ্ছে।

হাতিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল খায়ের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে মরদেহ উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠাচ্ছে। এ ঘটনায় আইনগত প্রদক্ষেপ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: নোয়াখালী হত্যা

আরও খবর



দেশে করোনায় আরও ৪৫ প্রাণহানি

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৮ মে ২০২১ | ৬৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় নতুন করে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ২৮৫ জন। এ নিয়ে দেশে করোনায় আক্রান্ত শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ৭২ হাজার ১২৭ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় অ্যান্টিজেন টেস্টসহ নমুনা পরীক্ষা

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৪৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই সময়ে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন এক হাজার ২৮৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হওয়া ৪৫ জনের মধ্যে পুরুষ ২৬ জন আর নারী ১৯ জন। শনিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় নতুন করে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ২৮৫ জন। এ নিয়ে দেশে করোনায় আক্রান্ত শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ৭২ হাজার ১২৭ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় অ্যান্টিজেন টেস্টসহ নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৪ হাজার ৭০৩টি। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৫৬ লাখ ১৩ হাজার ৯৭৯টি। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৪৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ১১ হাজার ৮৭৮ জন হলো।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত থেকে সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৪৯২ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন ৭ লাখ ৬ হাজার ৮৩৩ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯১ দশমিক ৫৪ শতাংশ। এছাড়া শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যু হার ১ দশমিক ৫৪ শতাংশ। আর নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৮ দশমিক ৭৪ শতাংশ।


আরও খবর