আজঃ শুক্রবার ০৫ মার্চ ২০২১
শিরোনাম

৩০ ঘণ্টা পর সিলেটের রেলযোগাযোগ স্বাভাবিক

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১১২জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বগি লাইনচ্যুত হয়ে ট্রেন চলাচল ৩০ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর সিলেটের রেলপথ সচল হয়েছে। শনিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৬টা ২০ মিনিটে সিলেট থেকে উপবন এক্সপ্রেস ট্রেন ঢাকার উদ্দেশে যাত্রার মাধ্যমে সারাদেশের সঙ্গে সিলেটের ট্রেন চলাচল শুরু হয়।

রেলের সহকারী পরিচালক (অপারেশন) সাইদুর রহমান এ তথ্য জানান।

এর আগে বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) রাত ১২টার দিকে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার মাইজগাঁও ও বিয়ালীবাজারের মাঝখানে বগি লাইনচ্যুত হলে রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার রাতে চট্টগ্রাম থেকে সিলেট যাচ্ছিল তেলবাহী একটি ট্রেন। ফেঞ্চুগঞ্জের মাইজগাঁও এলাকায় পৌঁছালে হঠাৎ ট্রেনের ৮টি বগি লাইনচ্যুত হয়। বন্ধ হয়ে যায় সারাদেশের সঙ্গে সিলেটের রেল যোগাযোগ।

শুক্রবার সকালে মৌলভীবাজারের কুলাউড়া ও আখাউড়া রেলওয়ে স্টেশন থেকে দুটি উদ্ধারকারী দল দুর্ঘটনাস্থলে গিয়ে কাজ শুরু করে। এদিকে ঘটনা তদন্তে ৫ সদস্যের কমিটি গঠন করেছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

Share

আরও খবর



বিদ্যুৎবিহীন যুক্তরাষ্ট্রে তীব্র শীতে ২১ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৯৬জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রে তুষার ঝড় ও তীব্র শীতে অন্তত ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া বিদ্যুৎবিহীন অবস্থায় রয়েছে লাখ লাখ অধিবাসী।

দেশটির টেক্সাস অঙ্গরাজ্য সবচেয়ে বেশি বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে। সেখানকার অনেক এলাকায় ব্ল্যাকআউট চলছে। অঙ্গরাজ্যটির লাখ লাখ অধিবাসী তীব্র শীতের মধ্যে বিদ্যুতের ঘাটতি মোকাবিলা করছে।

টেক্সাসে রোববার মাইনাস ১৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে যা গেল ৩০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে কম। অঙ্গরাজ্যটিতে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

ঝড় সংক্রান্ত কারণে টেক্সাস, লুইসিয়ানা, কেনটাকি, নর্থ ক্যারোলাইনা ও মিজৌরিতে মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। ন্যাশনাল ওয়েদার সার্ভিস (এনডব্লিউএস) জানিয়েছে, ঐতিহাসিকভাবে নিম্ন তাপমাত্রা কয়েক দিন ধরে থাকার কথা। যুক্তরাষ্ট্রের ৭০ শতাংশের বেশি অঞ্চল বর্তমানে তুষারে ঢেকে গেছে।

যুক্তরাষ্ট্রে যেসব মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে তার মধ্যে রয়েছে সড়ক দুর্ঘটনা ও কার্বন মনোক্সাইড সংক্রান্ত বিষক্রিয়া। তীব্র ঠাণ্ডার মধ্যে গরম থাকার জন্য গাড়ি ও বাসার জেনারেটর চালু রাখার ফলে এই বিষক্রিয়ার ঘটনাগুলো ঘটেছে।

টেক্সাসের ইলেক্ট্রিক রিলায়াবিলিটি কাউন্সিল জানিয়েছে, অঙ্গরাজ্যের ২০ লাখের মতো মানুষ এখনো বিদ্যুৎবিহীন অবস্থায় রয়েছে। বুধবার গভর্নর গ্রেগ অ্যাবট জানান, টেক্সাসের ১২ লাখ মানুষকে আবার বিদ্যুৎ সরবরাহ করা সম্ভব হয়েছে, এখনো অনেককে দেয়ার কাজ চলছে।

Share

আরও খবর
নেপালি পুলিশের গুলিতে যুবক নিহত

শুক্রবার ০৫ মার্চ ২০২১

কুয়েতে মাসজুড়ে কারফিউ ঘোষণা

শুক্রবার ০৫ মার্চ ২০২১




সড়ক দুর্ঘটনায় দিনাজপুরে নিহত ৩

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১০২জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দিনাজপুরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত হয়েছে। দিনাজপুরের বীরগজ্ঞে কার্ভাড ভ্যান ও পাওয়ার টিলারের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষে দুজন নিহত হয়েছে। দিনাজপুর-পনচগড় মহাসড়কের ভোগনগর ইউনিয়নের পাচপীর নামক স্থানে গতকাল মঙ্গলবার রাত ১১টায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

অন্যদিকে, পার্বতীপুর উপজেলা শহরের নওদাপাড়া গ্রামের চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্র ট্রাক্টরের ধাক্কায় নিহত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে পার্বতীপুর উপজেলার হলদিবাড়ি ডাঙ্গাপাড়া অটো মিলের পাশে নওদাপাড়া সড়কে চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র ইব্রাহিম (১০) তার বাবার কিনে দেওয়া নতুন বাইসাইকেলে চড়ে বাড়ি ফেরার পথে পেছন থেকে ট্রাক্টরের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

নিহত ইব্রাহিম পলাশবাড়ী ইউনিয়নের নওদাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। এ ব্যাপারে পার্বতীপুর মডেল থানার ওসি মোখলেসুর রহমান বলেন, লাশ ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: সড়ক দুর্ঘটনা
Share

আরও খবর



রাঙ্গামাটিতে ৩ হাজার গাঁজা গাছের চারাসহ আটক-১

প্রকাশিত:বুধবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১০৬জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাঙ্গামাটি থেকে শহিদুল ইসলাম হৃদয়

রাঙ্গামাটির দূর্গম পাহাড়ি অঞ্চলে নেশাজাতীয় দ্রব্যাদি উৎপাদনের দিকে ধাবিত হচ্ছে স্থানীয় পাহাড়িদের একটি অংশ। আঞ্চলিকদলগুলোর সশস্ত্র তৎপরতার রসদ জোগানোর লক্ষ্যে স্থানীয় পাহাড়ি বাসিন্দাদের দিয়ে পতিত পাহাড়ি জমিতে গাঁজা থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধরনের মাদক দ্রব্যাদির চাষাবাদ করানো হচ্ছে।

পার্বত্য চট্টগ্রামের বান্দরবান ও খাগড়াছড়ির কিছু অংশে এতোদিন এসব কর্মকাণ্ড চলে আসলেও সম্প্রতি পার্বত্য রাঙ্গামাটির বিভিন্ন দূর্গমাঞ্চলেও এই ধরনের কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে আসছে আঞ্চলিকদলগুলোর মদদপুষ্ট একটি চক্র।

পাহাড়ে তৈরিকৃত এসব মাদক ঢাকা-চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন এলাকার মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রয় করা হয়। সম্প্রতি স্থানীয় সচেতন বাসিন্দাদের কাছ থেকে বিষয়টি নজরে আসে বিশেষায়িত এলিট ফোর্স র‌্যাব-৭ এর উদ্বর্তন কর্তৃপক্ষের।

সংস্থাটির মিডিয়া উইং কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, গোপন সংবাদের মাধ্যমে র‌্যাব-৭ চট্টগ্রাম কর্তৃপক্ষ জানতে পারে যে, পার্বত্য রাঙ্গামাটি জেলার কাউখালী থানাধীন বর্মাছড়ি মুখপাড়া এলাকায় কতিপয় ব্যক্তি আবাদী জমিতে নেশাজাতীয় মাদকদ্রব্য গাঁজা গাছ চাষাবাদ করছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার (০৯ ফেব্রুয়ারি) র‌্যাব-৭ এর একটি চৌকষ আভিযানিক দল পার্বত্য রাঙামাটি জেলার কাউখালী থানাধীন ফটিকছড়ি ইউপির বর্মাছড়ি মুখপাড়া এলাকার ফটিকছড়ি খালের পাশে পৌঁছা মাত্রই  র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে আসামি ডালিম চাকমা (৪০), পিতা- মনমোহন চাকমা, সাং-বর্মাছড়ি মুখপাড়া, থানা- কাউখালী, জেলা- রাঙামাটিকে আটক করে।

পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামিকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তার দেখানো ও শনাক্তমতে তারই চাষকৃত ০৩ টি আবাদি জমিতে (আনুমানিক ০১ বিঘা) নেশাজাতীয় মাদকদ্রব্য গাঁজা গাছ চাষাবাদ অবস্থায় পাওয়া যায়। পরবর্তীতে উক্ত আবাদী জমিতে অভিযান পরিচালনা করে আনুমানিক ০৩ হাজার এর অধিক গাঁজার গাছ জব্দ করা হয়। জব্দকৃত গাঁজা গাছ হতে কিছু আলামত রেখে অবশিষ্ট গাঁজার গাছ ধ্বংস করা হয়। আটককৃত আসামীকে কাউখালী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে এবং তার বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানাগেছে।

র‌্যাব-৭ এর সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ মাশকুর রহমান জানিয়েছেন, সমতল ভূমির পাশাপাশি পার্বত্য অঞ্চলেও সন্ত্রাসী, মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতারের লক্ষে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম। এই সংস্থাটি প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধ এর উৎস উদ্ঘাটন, অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আইন শৃঙ্খলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। অস্ত্রধারী সস্ত্রাসী, ডাকাত, ধর্ষক, চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী, খুনি, বিপুল পরিমাণ অবৈধ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার, মাদক উদ্ধার, ছিনতাইকারী, অপহরণকারী ও প্রতারকদের গ্রেফতারের ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করায় সাধারণ জনগনের মনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ান র‌্যাব।

Share

আরও খবর



চলে গেলেন সংগীতশিল্পী জানে আলম

প্রকাশিত:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | ৭৭জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী জানে আলম আর নেই। মঙ্গলবার রাত ১০টায় তিনি রাজধানীর পিজি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্নইলাহি রাজিউন)।

প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সিডি চয়েসের কর্ণধার জহিরুল ইসলাম সোহেল মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, এক মাস আগে তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। এরপর করোনা নেগেটিভ হলেও নিউমোনিয়াসহ নানা জটিল রোগে আক্রান্ত হন। এর জন্য গেল এক মাস বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন।

সোহেল আরও বলেন, অবস্থার অবনতি হলে মঙ্গলবার জানে আলম ভাইকে লাইফ সাপোর্ট দেওয়া হয়। কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না। আলম ভাই আমাদের ফেলে চলে গেলেন। সারাক্ষণ হাসিখুশি মানুষটা এভাবে হুট করে চলে যাবেন, আমরা ভাবতেও পারিনি।

সংগীত প্রযোজকদের সংগঠন এমআইবির মহাসচিব এসকে সাহেদ আলী পাপ্পু জানান, আজ বুধবার সকাল ১০টায় জানে আলমের মগবাজার বাসভবন এলাকায় জানাজা শেষে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে জন্মস্থান মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে। সেখানে পারিবারিক কবরস্থানে চিরশায়িত হবেন এই নন্দিত শিল্পী।

উল্লেখ্য, শিল্পী জানে আলমের জন্ম মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে। গানের শুরুটা স্বাধীনতার পর পরই। প্রথম অ্যালবাম বনমালী দিয়ে তৈরি হয় পরিচিতি। সে সময় পপ শিল্পী আজম খান তাকে অনেক অনুপ্রেরণা দিয়েছেন। পপ গানের মধ্যে ফোক ধাঁচ এবং অধ্যাত্মবাদ যুক্ত করে গান করা তার বৈশিষ্ট্য। মানুষের পছন্দের সাথে মিলিয়ে নতুন ধারা তৈরি করার জন্যই তার এমন গান করা।

জানে আলমের নিজের গাওয়া গানের সংখ্যা চার হাজারের মতো। এছাড়া তার লেখা, সুর এবং পরিচালনা করা গান রয়েছে প্রায় তিন হাজার। বাংলাদেশের অনেক পরিচিত শিল্পীই গেয়েছেন তার গান।

এদিকে একটি গন্ধমের লাগিয়া আল্লাহ বানাইছে দুনিয়া খ্যাত গানের পপ শিল্পী জানে আলমের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন আরেক কিংবদন্তি শিল্পী ফকির আলমগীর।

তার অসংখ্য জনপ্রিয় গানের মধ্যে রয়েছে-  একটি গন্ধমের লাগিয়া, ইশকুল খুইলাছে, বৈশাখে তোমার সাথে হইলো আমার পরিচয়, দিঘির জলে ঢিল মারিলে জলতরঙ্গ হইয়া যায়, কালি ছাড়া কলমের মূল্য যে নাই ইত্যাদি।

নিউজ ট্যাগ: জানে আলম
Share

আরও খবর
মা হচ্ছেন শ্রেয়া ঘোষাল

বৃহস্পতিবার ০৪ মার্চ ২০২১




আজ ভালোবাসায় ভর করে এসেছে বসন্ত

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১১৯জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
ধর্মযাজক সেইন্ট ভ্যালেন্টাইন একজন খ্রিস্টধর্ম প্রচারক ছিলেন। বিপরীতে তৎকালীন সম্রাট দ্বিতীয় ক্লডিয়াস ছিলেন বিভিন্ন দেব-দেবীর পূজায় বিশ্বাসী। সম্রাটের পক্ষ থেকে সেইন্টকে দেব-দেবীর পূজা করার জন্য বলা

আজ রবিবার ফাল্গুনের প্রথম দিন, ইংরেজিতে ১৪ ফেব্রুয়ারি। আজ বসন্তকে বরণ করার দিন ও বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। একই দিনে দুটি দিবসকে বেশ আপন করেই নিয়েছেন এ প্রজন্মের তরুণ-তরুণীরা। প্রেমিক-প্রেমিকাদের কাছে আজ বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। ঋতুরাজ বসন্তের প্রথম দিনে ভালোবাসার মানুষকে আজ বাঙালির পবিত্র প্রেম রঙিন ফুলের সাজে প্রকাশ পাবে।

আজকের এই ভালোবাসা দিবস শুধু প্রেমিক-প্রেমিকাদের জন্য নির্দিষ্ট নয়, এ ভালোবাসা হতে পারে মা-বাবা, স্বামী-স্ত্রী, ভাই-বোন, সন্তান বা বন্ধুর জন্যও। এদিন সকলেই হতে পারে ভালোবাসার জয়গানে আপ্লুত।

জানা যায়, ধর্মযাজক সেইন্ট ভ্যালেন্টাইন একজন খ্রিস্টধর্ম প্রচারক ছিলেন। বিপরীতে তৎকালীন সম্রাট দ্বিতীয় ক্লডিয়াস ছিলেন বিভিন্ন দেব-দেবীর পূজায় বিশ্বাসী। সম্রাটের পক্ষ থেকে সেইন্টকে দেব-দেবীর পূজা করার জন্য বলা হলে সেইন্ট ভ্যালেন্টাইনকে অসম্মতি জানায় আর এতে তাকে ২৭০ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়।

অন্য একদল ব্যাখ্যা দিয়ে থাকেন, স্নেহময় যাজক সেইন্ট ভ্যালেন্টাইন কারাবন্দী হলে তাকে দেখার জন্য তরুণ-তরুণীরা ফুল নিয়ে আসতেন। একদিন কারারক্ষীর অন্ধ মেয়েও আসে। অন্ধ মেয়েটি সেইন্টের ক্ষমতায় তার দৃষ্টি শক্তি ফিরে পায়। তাই সেই সময় তারুণ্যের উচ্ছ্বাস ঠেকাতে ক্ষিপ্ত হয়ে ২৬৯ খ্রিস্টাব্দের ১৪ ফেব্রুয়ারি সেইন্ট ভ্যালেন্টাইনকে মৃত্যুদণ্ড দেন সম্রাট ক্লডিয়াস।

এদিকে অন্য এক ইতিহাসে বলা হয়েছে, সেনাবাহিনীতে জনবল সংকট হলে তরুণ-তরুণীদের বিয়ের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করেন সম্রাট ক্লডিয়াস। এতে করে যেন তরুণ-তরুণীরা সৈনিক হতে আগ্রহী হয়। কিন্তু সম্রাটের এই নির্দেশ সর্বপ্রথম অমান্য করেন সেন্ট ভ্যালেন্টাইন নামক এক ধর্মযাজক। মর্সিয়া নামের এক তরুণীকে ভালোবেসে বিয়ে করেন এবং নিজে উপস্থিত থেকে অন্যদের বিয়ে দেন। সম্রাটের আদেশ অমান্য করায় সেইন্ট ভ্যালেন্টাইনকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়। তার স্মরণেই পালিত হয়ে আসছে ভালোবাসা দিবস। আর এটিই বিশ্বে সর্বাধিক প্রচারিত ভালোবাসা দিবস পালনের ইতিহাস।

Share

আরও খবর
যে পাখি অর্ধেক পুরুষ আর অর্ধেক নারী!

রবিবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১

বিশ্ব কনডম দিবস আজ

শনিবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১