আজঃ মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০21
শিরোনাম

৫৩ কোটি ৩০ লাখেরও বেশি গ্রাহকের ফেসবুক তথ্য ফাঁস

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ এপ্রিল ২০২১ | ৯৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আবারও তথ্য ফাঁস হয়েছে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের। এবার বিশ্বের অন্তত ১০০টি দেশের প্রায় ৫৩ কোটি ৩০ লাখেরও বেশি গ্রাহকের ফেসবুক তথ্য ফাঁস হয়েছে। এর মধ্যে বাংলাদেশের ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৩৮ লাখেরও বেশি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, আফগানিস্তানের ৫ লাখ ৫০ হাজার, অস্ট্রেলিয়ার ১২ লাখ, বাংলাদেশের ৩৮ লাখ, ব্রাজিলের ৮০ লাখ এবং ভারতের ৬১ লাখ ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য ফাঁস হয়েছে।

অন্যদিকে মার্কিন সংবাদ মাধ্যম বিজনেস ইনসাইডারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশ্বের ১০৬টি দেশের ফেসবুক ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস হয়েছে। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের ৩ কোটি ২০ লাখ, যুক্তরাজ্যের ১ কোটি ১০ লাখ এবং ভারতের ৬০ লাখেরও বেশি ফেসবুক ব্যবহারকারী তথ্য ফাঁসের তালিকায় রয়েছেন।

একটি নিম্নমানের সাইবার নিরাপত্তা সংক্রান্ত ফোরামে এই তথ্য ফাঁস করা হয়েছে যা সবার জন্য উন্মুক্ত। ফাঁস হওয়া তথ্যের মধ্যে আছে ব্যবহারকারীর ফোন নম্বর, ফেসবুক আইডি, পুরো নাম, অবস্থান, জন্মতারিখ এবং জীবনবৃত্তান্ত। এমনকি কোনও কোনও ব্যবহারকারীর ই-মেইল আইডি ফাঁস হওয়ার প্রমাণও পাওয়া গেছে।

ফেসবুক ব্যবহারকারীদের ফাঁস হওয়া এসব তথ্য সঠিক কিনা তা যাচাই করেছে বিজনেস ইনসাইডার। এজন্য তালিকায় থাকা পরিচিত ব্যক্তিদের ফাঁস হওয়া তথ্য যাচাই করে দেখা হয়েছে। যাচাইয়ের পর বিজনেস ইনসাইডার বলছে, সত্যিই ফেসবুক ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস হয়েছে।

তথ্য ফাঁসের ঘটনাটি নিশ্চিত করেছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষও। এ সম্পর্কে প্রতিষ্ঠানটির এক মুখপাত্র বলেন, ফেসবুকের পক্ষ থেকে ২০১৯ সালে ঠিক করে নেওয়া একটি দুর্বলতার মাধ্যমে এসব তথ্য ফাঁস করা হয়েছে। কয়েক বছরের পুরনো হলেও ফাঁস হওয়া এসব তথ্যের মাধ্যমে বিপদে পড়তে পারেন ব্যবহারকারীরা।


আরও খবর



‘গাড়ি পুড়িয়ে আমাকে ভিডিও দিও, জায়গা মতো পাঠাবো’

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ মার্চ ২০২১ | ২৪২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
ওই অডিও ক্লিপে কেরানীগঞ্জের বিএনপি নেতা আরমানকে হেফাজতের ইস্যুকে কাজে লাগিয়ে যানবাহনে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার নির্দেশনা দেন তিনি। শুধু তা-ই নয়, নিপুণকে বলতে শোনা যায়

হেফাজতে ইসলামের ডাকা হরতালে নাশকতা সৃষ্টির প্ররোচণা দেওয়ার অভিযোগে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ বিএনপির সভাপতি নিপুণ রায়কে আটক করেছে র‍্যাব। সম্প্রতি একটি অডিও ক্লিপে নিপুণকে যানবাহনে আগুন ধরানোর নির্দেশ দিতে শোনা গেছে।

ওই অডিও ক্লিপে কেরানীগঞ্জের বিএনপি নেতা আরমানকে হেফাজতের ইস্যুকে কাজে লাগিয়ে যানবাহনে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার নির্দেশনা দেন তিনি। শুধু তা-ই নয়, নিপুণকে বলতে শোনা যায়, দাউদাউ করে জ্বলতে হবে এবং আর সেই  ভিডিও করে পাঠালে, তিনি তা জায়গামতো পাঠাবেন।

র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব) সদর দফতর জানিয়েছে, নিপুণ রায় চৌধুরী রবিবার (২৮ মার্চ) হেফাজতের হরতালে তার দলীয় ক্যাডারদের গাড়ি পোড়ানোর নির্দেশনা দেন। নাশকতার নির্দেশদাতা হিসেবে রবিবার বিকেলে তাকে আটক করা হয়েছে। এর আগে নিপুণ রায়ের নির্দেশনা পালনকারী কেরানীগঞ্জের স্থানীয় বিএনপি নেতা আরমান, খোরশেদ ও শাহীনকে আটক করে র‍্যাব।

নিপুণ রায় ও আরমানের ওই অডিও ক্লিপের কথোপকথনে প্রথমে নিপুণ রায় ফোন করেন। 

অডিও ক্লিপের কথোপকথন-

নিপুণ রায়: আরমান ভাই,  এলাকাতেই তো আছেন তাই না? কালকে তো হরতাল, একটা কিছু করা যাবে না?

আরমান: কী করতে হবে বলেন।

নিপুণ রায়: ধরায় দেন।

আরমান: ওকে ঠিক আছে।

নিপুণ রায়: বাস হোক যেটায় হোক, একদম পুরা, ফুল ধরবে, ফুল ধরবে। একটু দূর থেকে ভিডিও ছবি আমারে পাঠাবেন, অবশ্যই অবশ্যই। ঠিক আছে? আমি কিন্তু জায়গামতো পাঠাবো। হ্যাঁ, ওইটা মাথায় রাখবেন। ঠিক আছে, আজকেই আজকেই।

আরমান: ওকে।

নিপুণ রায়: বের হন।

আরমান: ইনশাল্লাহ।

নিপুণ রায়: এটা আমি দেখতে চাই। একদম দাউদাউ।

 

এরপর আরমানের ফোন রিসিভ করেন নিপুণ রায়। সেখানে বলা হয়েছে-

আরমান: ভিডিও করতে পারিনি। ছবি পাঠিয়েছি। লীগের লোকজন ঘেরা। পুলিশ ঘিরে রেখেছে।

নিপুণ রায়: ওকে, সরে দাঁড়ান।

আরমান: সরে গেছি গা।

নিপুণ রায়: হোয়াটসঅ্যাপে পাঠান।

আরমান: হুম, হোয়াটসঅ্যাপেই পাঠাইছি।


আরও খবর



টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিলেন মোদি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৮ এপ্রিল ২০২১ | ১০২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
আজ এইমসে কোভিড-১৯ টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিলাম। ভাইরাসকে হারানোর যে হাতেগোনা কয়েকটি উপায় আছে, তার অন্যতম হলো টিকাকরণ। আপনি যদি টিকা পাওয়ার যোগ্য হন, তাহলে ডোজ নিন

করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) সকালে তিনি নয়াদিল্লির অল ইন্ডিয়া ইন্সটিটিউট অব মেডিক্যাল সাইন্স (এইমস) হাসপাতালে গিয়ে করোনার টিকা নেন। সেই সঙ্গে তিনি টিকা নেয়ার পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে একটি টুইটও করেন।

টুইটবার্তায় মোদি বলেন, আজ এইমসে কোভিড-১৯ টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিলাম। ভাইরাসকে হারানোর যে হাতেগোনা কয়েকটি উপায় আছে, তার অন্যতম হলো টিকাকরণ। আপনি যদি টিকা পাওয়ার যোগ্য হন, তাহলে ডোজ নিন। কো-উইনে রেজিস্ট্রার করে টিকা নিন।’

টিকা নেয়ার সময় মোদির সঙ্গে দু’জন নার্স ছিলেন। তাদের মধ্যে একজন পি নিভেদা। যিনি গতবার মোদিকে টিকা দিয়েছিলেন। এবার তাকে টিকা দেন নিশা শর্মা নামের এক নার্স।

এর আগে গত ১ মার্চ এইমসে করোনার টিকা কোভ্যাক্সিনের প্রথম ডোজ নিয়েছিলেন মোদি। অর্থাৎ প্রথম ডোজ নেয়ার ৩৯ দিনের মাথায় দ্বিতীয় ডোজ নিলেন তিনি।


আরও খবর



ক্যাচ মিসের মহড়ায় ম্যাচ মিস করলো বাংলাদেশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৩ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৩ মার্চ ২০২১ | ১০১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

২০১৫ সালের পর থেকে ঘরের মাঠে খেলা ৬৫ ওয়ানডেতে মাত্র ১৪ বার হেরেছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল। এসময়ের মাঝে নিজেদের মাঠে বাংলদেশের বিপক্ষে ৭টি ওয়ানডে খেলে সবকয়টিই জিতেছে কিউইরা। যা থেকে স্পষ্ট, ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ডকে হারানো রীতিমতো হিমালয়ে চড়ার মতোই।

আর সেই কঠিন কার্য সম্পাদনের সুযোগ প্রতিনিয়ত আসে না যেকোনো দলের সামনে। কিন্তু আজ যখন এলো এই সুযোগ, তখন সেটি নেয়ার কোনো ইচ্ছাই যেন ছিল না বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ফিল্ডারদের। নিউজিল্যান্ড দলকে বাগে পেয়েও ক্যাচ মিসের মহড়ায় ইতিহাস গড়ার সুযোগ হারিয়েছে টাইগাররা।

ক্রাইস্টচার্চের হাগলি ওভালে আগে ব্যাট করে তামিম ইকবালের দায়িত্বশীল ফিফটি ও পরে শেষদিকে মোহাম্মদ মিঠুনের ঝড়ো ব্যাটে ভর করে ২৭১ রানের সংগ্রহ দাঁড় করায় বাংলাদেশ। ফিল্ডিংয়ে নেমে মাত্র ৫৩ রানেই তুলে নেয় কিউইদের প্রথম ৩ উইকেট। দারুণ ফিল্ডিংয়ে সরাসরি থ্রোয়ে চতুর্থ উইকেটের পতন ঘটান তামিম।

কিন্তু এরপর অন্য ফিল্ডাররা যেন হাতে সাবান মেখে খেলতে নেমে পড়েন। প্রথমে তাসকিন আহমেদের বলে জিমি নিশামের হাতের ক্যাচ ছেড়ে দেন মুশফিকুর রহীম। পরে টম লাথামের ফিরতি ক্যাচ তালুবন্দী করতে পারেননি শেখ মেহেদি হাসান। এ দুজনকে সুযোগ দিয়েই ম্যাচ হাতছাড়া করে ফেলে বাংলাদেশ।

জীবন পেয়ে অধিনায়কোচিত ইনিংস খেলে দেখিয়েছেন বাঁহাতি টম লাথাম। শেষপর্যন্ত ১১০ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে দলকে ৫ উইকেটের সহজ জয় এনে দিয়েই মাঠ ছেড়েছেন কিউই অধিনায়ক। ক্রাইস্টচার্চের মাঠে এটিই যেকোনো দলের সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জেতার রেকর্ড। একইসঙ্গে তিন ম্যাচ সিরিজটিও জিতে নিয়েছে নিউজিল্যান্ড।


আরও খবর



করোনা: আক্রান্ত হয়েছে ১৩ কোটি ৮০ লাখ ১৩ হাজার

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ এপ্রিল ২০২১ | ৬৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
যুক্তরাষ্ট্রের পর করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ ভারত। এশিয়ার মধ্যে ভারত করোনায় সবচেয়ে বিপর্যস্ত দেশ। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১ কোটি ৩৮ লাখ ৭১ হাজার ৩২১ জন

বিশ্বব্যাপী মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিনই বেড়ে চলেছে। সারাবিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ১৩ কোটি ৮০ লাখ ১৩ হাজার ৭৪ জন। এ মহামারিতে এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ২৯ লাখ ৭১ হাজার ৮৬৪ জনের। এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাস সৃষ্ট মহামারি কোভিড-১৯ থেকে সুস্থ হয়েছেন ১১ কোটি ১০ লাখ ৩২ হাজার ১৮৫ জন। বুধবার (১৪ এপ্রিল) সকাল ৯টায় আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় ৫ লাখ ৭৭ হাজার ১৭৯ জন মারা গেছেন। এছাড়া করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩ কোটি ২০ লাখ ৭০ হাজার ৭৮৪ জনের। আর সুস্থ হয়েছেন ২ কোটি ৪৬ লাখ ২৬ হাজার ৪১০ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ ভারত। এশিয়ার মধ্যে ভারত করোনায় সবচেয়ে বিপর্যস্ত দেশ। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১ কোটি ৩৮ লাখ ৭১ হাজার ৩২১ জন। মারা গেছেন ১ লাখ ৭২ হাজার ১১৫ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ১ কোটি ২৩ লাখ ৩২ হাজার ৬৮৮ জন। তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে ব্রাজিল। লাতিন আমেরিকার এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ৩৬ লাখ ১ হাজার ৫৬৬ জন। তাদের মধ্যে মারা গেছেন ৩ লাখ ৫৮ হাজার ৭১৮ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ১ কোটি ২০ লাখ ৭৪ হাজার ৭৯৮ জন।

করোনাভাইরাস শনাক্তের তালিকায় চারে ইউরোপের দেশ ফ্রান্স। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৫১ লাখ ৬ হাজার ৩২৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন ৯৯ হাজার ৪৮০ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ৩ লাখ ১৩ হাজার ৫১ জন। তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ৩৩তম। এখন পর্যন্ত দেশে ৬ লাখ ৯৭ হাজার ৯৮৫ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ৯ হাজার ৮৯১ জনের। সেরে উঠেছেন ৫ লাখ ৮৫ হাজার ৯৬৬ জন।


আরও খবর



অস্ত্র নিয়ন্ত্রণে নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর বাইডেনের

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৯ এপ্রিল ২০২১ | ৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাড়িতে তৈরি বন্দুক লক্ষ্য করে একটি নির্বাহী আদেশ জারি করেছেন সদ্য ক্ষমতায় বসা মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। নিবন্ধনহীন এবং শনাক্তের অযোগ্য এসব বন্দুক ঘোস্ট গান নামে পরিচিত।

বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) জো বাইডেন বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে মহামারি হয়ে ওঠা বন্দুক সহিংসতা আন্তর্জাতিকভাবে বিব্রতকর পরিস্থিতি তৈরি করছে। নতুন নির্বাহী আদেশের মাধ্যমে নির্দিষ্ট বন্দুকের জন্য নিয়ম তৈরি হবে, ব্যাকগ্রাউন্ড খতিয়ে দেখা জোরাল হবে আর সহিংসতা প্রতিরোধে স্থানীয় উদ্যোগগুলোকে সমর্থন দেওয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, নির্বাহী আদেশের এসব নির্দেশনা জারি করায় এগুলো বাস্তবায়ন করতে এখন আর কংগ্রেসের অনুমোদনের দরকার পড়বে না। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি নিউজের প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

নির্বাহী আদেশ জারি করা হলেও অস্ত্র নিয়ন্ত্রণে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টকে এখনো অনেক পথ পাড়ি দিতে হবে। মার্কিন সংবিধানের দ্বিতীয় সংশোধনীর মাধ্যমে নাগরিকদের অস্ত্র বহনের অধিকারকে সুরক্ষা দেওয়া হয়েছে। আর এ কারণে অনেকেই অস্ত্র নিয়ন্ত্রণকে সাংবিধানিক অধিকারে হস্তক্ষেপ বলে দেখ থাকেন।

এদিন বাইডেন নতুন নির্বাহী আদেশ জারি করার কয়েক ঘণ্টা পরই টেক্সাসের একটি দোকানে চালানো বন্দুক হামলায় একজন নিহত এবং আরও পাঁচজন আহত হয়েছে। সন্দেহভাজন হামলাকারীকে আটকের সময় রাজ্যের একজন সেনা সদস্যও গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছেন। এর আগে বুধবার (৭ এপ্রিল) দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়ায় এক হামলায় দুই শিশুসহ পাঁচ জন নিহত হয়। এছাড়া মার্চে দুইটি বড় আকারের হামলায় নিহত হয় মোট ১৮ জন।

বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউসের রোজ গার্ডেনে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, বন্দুকের কারণে এই দেশে প্রতিদিন গড়ে ১০৬ জন নিহত হচ্ছে। তিনি বলেন, সৃষ্টিকর্তার দোহাই, এটা মহামারি। আর এটা থামাতে হবে।

বাইডেনের নতুন নির্বাহী আদেশের মাধ্যমে ঘোস্ট গান নিয়ন্ত্রণের উপায় হিসেবে ৩০ দিনের মধ্যে নতুন নিয়মের প্রস্তাব দেবে বিচার বিভাগ। এসব অস্ত্র যে কেউ জোড়া লাগিয়ে ফেলতে পারে। ফলে এগুলোর কোনও সিরিয়াল নাম্বার থাকে না আর শনাক্তও করা যায় না।

অস্ত্র জোড়া লাগানোর সামগ্রী কিনতে হলেও কোনো ব্যাকগ্রাউন্ড চেকও প্রয়োজন পড়ে না। বাইডেন বলেন, অপরাধী থেকে শুরু করে সন্ত্রাসী পর্যন্ত যে কেউ এই কিট কিনতে পারে, আর ৩০ মিনিটের মধ্যে সবকিছু জোড়া লাগিয়ে একটা অস্ত্র বানিয়ে নিতে পারে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, সাম্প্রতিক সময়ে অপরাধগুলোতে ক্রমবর্ধমান হারে বাড়িতে তৈরি অস্ত্র ব্যবহার হচ্ছে। দেশটির কেন্দ্রীয় কর্মকর্তাদের তথ্য অনুযায়ী লস অ্যাঞ্জেলস থেকে জব্দ করা অস্ত্রের ৪০ শতাংশের বেশি ঘোস্ট গান

নিউজ ট্যাগ: জো বাইডেন

আরও খবর