আজঃ বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১
শিরোনাম

৭ ঘণ্টা সাঁতরে মেঘনার ৪২ কিলোমিটার পাড়ি দিলেন বকুল

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৩ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৩ আগস্ট ২০২১ | ১২৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
ব্যক্তিগতভাবে পূর্ব ঘোষণা দিয়ে পাশের জেলা কিশোরগঞ্জের ভৈরব বাজারের পাশ থেকে রায়পুরার মনিপুরা ঘাট পর্যন্ত ৪২ কিলোমিটার সাঁতরে পার হন

নরসিংদীর রায়পুরায় মেঘনা নদীতে টানা ৪২ কিলোমিটার সাঁতার কেটে আলোচনায় এসেছেন বকুল সরকার নামে স্থানীয় এক পল্লী চিকিৎসক। মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত মেঘনার কিশোরগঞ্জের ভৈরব ব্রিজ থেকে রায়পুরা উপজেলার হাইরমারা ইউনিয়নের মনিপুরা বাজার ঘাট পর্যন্ত ৪২ কিলোমিটার বিরতিহীনভাবে সাঁতার কাটেন তিনি।

এসময় স্পিডবোট, নৌকা ও ট্রলার নিয়ে শতশত দর্শক তার সঙ্গে ছিলেন। নদীর দুইপাড়ে ছিল উৎসুক জনতার ভিড়। ঘাটে হাজার হাজার মানুষ তাকে অভিবাদন জানাতে জড়ো হন।

বকুল সরকার নরসিংদী সদর উপজেলার আলোকবালী ইউনিয়নের খোদাদিল্লা গ্রামের ডা. সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে। তিনি পেশায় একজন পল্লী চিকিৎসক।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বকুল সরকার গত বছরের ২৩ আগস্ট উত্তাল মেঘনায় টানা চার ঘণ্টা সাঁতার কেটে ১৫ কিলোমিটার পাড়ি দেন। এরপর স্থানীয়দের পক্ষ থেকে এক লাখ টাকাও পুরস্কার জিতে নেন তিনি। এ বছর নিজেই ব্যক্তিগতভাবে পূর্ব ঘোষণা দিয়ে পাশের জেলা কিশোরগঞ্জের ভৈরব বাজারের পাশ থেকে রায়পুরার মনিপুরা ঘাট পর্যন্ত ৪২ কিলোমিটার সাঁতরে পার হন। ভোর ৫টায় শুরু হওয়া সাত ঘণ্টার এ যাত্রা শেষ হয় দুপুর ১২টায়। এরপর রায়পুরা উপজেলা ভাইস চেয়াম্যান আব্দুল মোমেন তাকে ফুল দিয়ে অভিনন্দন জানান।

পল্লী চিকিৎসক বকুল সরকার বলেন, নদীপথে সাঁতারের আগের সব রেকর্ড ভাঙতে চাই। আগামীতে নরসিংদী থেকে সাঁতরে ঢাকা যাওয়ার ইচ্ছা রয়েছে। মনের আনন্দেই আমি এ কাজটা করে থাকি।

রায়পুরা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল মোমেন বলেন, বকুল বাংলাদেশের জাতীয় সম্পদ। রাষ্ট্রীয়ভাবে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তার প্রতিভা বিকাশের সুযোগ দেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি তিনি আহ্বান জানান।


আরও খবর



নিখিল-শ্রাবন্তীর নতুন সমীকরণ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিচ্ছেদ ইস্যুতে আলোচিত টালিউড অভিনেত্রী নুসরাত ও শ্রাবন্তী। দুজনেই আলাদা থাকছেন স্বামী থেকে। কিন্তু আইনি বিচ্ছেদ এখনও হয়নি তাদের। নিখিলের সঙ্গ ছেড়েছেন নুসরাত। সম্প্রতি মা হয়েছেন তিনি। অন্যদিকে রোশান সিংয়ের অ্যাপার্টমেন্ট ছেড়ে নিজের মতো থাকছেন শ্রাবন্তী।

এবার নিখিলের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেখা গেল শ্রাবন্তীর ছবি। এ নিয়ে বেশ তোলপাড় শুরু হয়েছে টালিপাড়ায়। অনেকে বলছেন, নিখিল-শ্রাবন্তীর নতুন সমীকরণ! আসলেই কি তাই?

যদিও টালিউডের সমীকরণ বোঝা মুশকিল। বান্ধবী নুসরাতের সাবেক স্বামী নিখিলের সঙ্গে নতুন সম্পর্ক গড়ে তুলেছেন শ্রাবন্তী। যদিও এ সম্পর্ক ব্যক্তিগত না, পেশাগত।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, নিখিলের ফ্যাশন হাউজের মডেল হয়েছেন শ্রাবন্তী। কালো বেগুনি রঙের পোশাকে সাজিয়েছেন নিজেকে। খোলা চুল আর লিপস্টিকে বেশ সুন্দরী লাগছিল তাকে। তার মেকাপের দায়িত্বে ছিলেন সন্দীপ ঘোষাল। তিনিও নুসরাতের বন্ধু। এ জুটির বিয়েতে তুরস্কে গিয়েছিলেন সন্দীপও।

নুসরাত-শ্রাবন্তী বন্ধুত্বের কথা জানেন সকলেই। নিয়মিত ঘরোয়া পার্টিতে দেখা যায় তাদের। অন্তঃসত্ত্বা নুসরাতের সঙ্গে দেখা গিয়েছিল শ্রাবন্তীকেও। ফটোশুট প্রসঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে নিখিল বলেন, শ্রাবন্তী আমার ভালো বন্ধু। আমাদের পোশাকগুলো তার ভালো লেগেছিল। তাই ও শুট করেছে।


আরও খবর
হাইকোর্টে জামিন পেলেন মডেল মৌ

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

আমার পছন্দের পুরুষকে একটু রাফ হতে হবে

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




পদ্মায় ধরা পড়ল ১০ মণ ওজনের শাপলা পাতা মাছ

প্রকাশিত:রবিবার ২৯ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৯ আগস্ট ২০২১ | ১০৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজবাড়ীর দৌলতদিয়ায় পদ্মা নদীতে জেলের জালে ধরা পড়েছে ১০ মণ ওজনের একটি শাপলা পাতা মাছ। বিশালকৃতির এই মাছটি দেখার জন্য ভিড় জমিয়েছে উৎসুক জনতা।

রবিবার (২৯ আগস্ট) ভোর ৭টার দিকে জেলার গোয়ালন্দ উপজেলার পদ্মা-যমুনা নদীর মোহনায় দৌলতদিয়ার ৭ নং ফেরিঘাট এলাকায় স্থানীয় জেলে বাবু সরদারের জালে মাছটি ধরা পড়ে।

পরে তিনি একটি ভ্যানে করে মাছটি বিক্রির জন্য দৌলতদিয়া ট্রাক টার্মিনাল সংলগ্ন একতা মৎস্য আড়তে নিয়ে আসেন। আড়তদার রেজাউলের আড়তে মাছটি বিক্রির জন্য তুললে রাজবাড়ীর মাছ ব্যাবসায়ী কুটি মন্ডল ৮ হাজার টাকা মণ দরে ৮০ হাজার টাকা দিয়ে মাছটি ক্রয় করেন।

স্থানীয় জেলে বাবু সরদার বলেন, আমরা সাধারণত ট্রলারে করে পদ্মায় বড় মাছ ধরতে যাই। কট সুতার জালে বড় মাছ ধরা পড়ে। কিন্তু হঠাৎ করে বিরল প্রজাতির এই মাছটি ধরা পড়লে খুশি হই। তবে জালে আটকানোর পড়ে মাছটি বেশি লাফালাফি করেনি। দ্রুত সময়ের মধ্যে মাছটি ডাঙ্গায় তুলি।

একতা মৎস্য আড়তের মালিক রেজাউল ইসলাম (রাজ) বলেন, পদ্মা নদীতে প্রায় ১৫ বছর আগে একবার শাপলা পাতা মাছ পাওয়া গিয়েছিল। এটি সাধারণত মাটি ছুঁই ছুঁই করে পথ চলে। যে কারণে সহজে জালে ধরা পড়ে না। হয়তো পদ্মার তীব্র স্রোতের কারণে মাছটি মাটি থেকে ওপরের দিকে এসেছে।


নিউজ ট্যাগ: শাপলা পাতা মাছ

আরও খবর
ইভ্যালির সিইও রাসেলের বাসায় র‌্যাবের অভিযান

বৃহস্পতিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১




খালাস পেয়েছেন সাংবাদিক প্রবীর সিকদার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সাংবাদিক প্রবীর সিকদারকে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে করা মামলায় খালাস প্রদান করে রায় ঘোষণা করেছেন ট্রাইব্যুনাল। আজ বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আস সামছ জগলুল হোসেন তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাকে খালাস প্রদান করেন।

এর আগে চলতি বছরের ২২ মার্চ রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য ১ এপ্রিল দিন ধার্য করেন বিচারক আস সামছ জগলুল হোসেন। ওইদিন রায় ঘোষণা না করে বিচারক রায়ের জন্য ১১ এপ্রিল নতুন দিন ধার্য করেন। তবে করোনার কারণে আদালতের বিচারিক কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়।

সম্প্রতি বিচারকাজ স্বাভাবিক হলে আলোচিত এ মামলার রায় ঘোষণার জন্য ৯ সেপ্টেম্বর তারিখ ঠিক করেন আদালত।


আরও খবর
স্বামী হত্যায় স্ত্রীর যাবজ্জীবন

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

আদালতে হাজির করা হচ্ছে ইভ্যালির রাসেলকে

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




রামেক হাসপাতালে করোনায় ১০ জনের প্রাণহানি

প্রকাশিত:সোমবার ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার উপসর্গ নিয়ে আরও ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে রাজশাহীর ৬ জন, নওগাঁর ৩ জন ও নাটোরের ১ জন মারা গেছেন।

সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী। জানা গেছে, রামেক হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে গত ৯৮তম দিনে মোট ১২৯৯ জন মারা গেছেন।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের দুই ল্যাবে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ৩০১ জনের আর করোনা শনাক্ত হয়েছে ৪৫ জনের। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৪.৯৫%।

এছাড়াও করোনার সংক্রামণ ও মৃত্যু কমে আসায় রামেক হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে রোগী ভর্তি সংখ্যা কমেছে। তাই করোনা ইউনিটে শয্যা সংখ্যা কমানোর পর বর্তমানে ২০টি আইসিইউসহ শয্যা সংখ্যা রয়েছে ২৮৬টি। এর মধ্যে রোগী ভর্তি রয়েছে ১৩৩ জন আর গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ২৪ জন।


আরও খবর
পায়রা সেতুর নাম পরিবর্তনের দাবিতে মানববন্ধন

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

বিস্কুটের কার্টন থেকে নবজাতক উদ্ধার

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




পিবিআইয়ের তদন্তে বাদীরাই আসামি হয়

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বনজ কুমার মজুমদার পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশনের মহাপরিচালক। একজন দক্ষ তদন্তকারী কর্মকর্তা হিসেবে এবং সৎ পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে তাঁর সুনাম রয়েছে। পিবিআইকে পুলিশের একটি ফ্ল্যাগশিপ প্রতিষ্ঠানে পরিণত করেছেন নিজ নেতৃত্ব এবং কর্মদক্ষতার গুনে। কিন্তু পিবিআই যে মামলাগুলো তদন্ত করেছে তার একটি বড় অংশই দেখা যাচ্ছে তদন্তে উল্টো ফল হয়। সততার সঙ্গে নিষ্ঠার সঙ্গে তদন্ত হয় জন্য অনেকেই বাদী এই তদন্তে বিভাগ আসামিতে পরিণত হয়। পিবিআই সাম্প্রতিক সময়ে যতগুলো তদন্ত করেছে তার অনেকগুলোতেই এরকম ঘটনা ঘটেছে। তবে সবচেয়ে বেশি আলোচিত হয়েছে মিতু হত্যাকাণ্ড নিয়ে। পুলিশ কর্মকর্তা বাবুল আক্তারের স্ত্রী মিতু চট্টগ্রামে আততায়ীর হাতে প্রকাশ্য দিবালোকে হত্যাকাণ্ডের শিকার হন। তার হত্যাকাণ্ডের পর তার স্বামী বাবুল আক্তার বাদী হয়ে মামলা করেন। এই মামলার তদন্তের এক পর্যায়ে বাবুল আক্তারকে পুলিশ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। বাবুল আক্তার সাধারণ জীবনযাপন শুরু করেন। কিন্তু একপর্যায়ে এই মামলার তদন্ত দেওয়া হয়েছিল পিবিআইকে। পিবিআই এই মামলার তদন্ত করতে গিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য পায় এবং এক পর্যায়ে মামলার বাদী হয়ে যান আসামি, এরপর নতুন করে মামলা দায়ের করেন।

সাম্প্রতিক সময়ে আরেকটি মামলা নিয়ে পিবিআই আলোচনায় এসেছে। তাহলো মুনিয়ার মৃত্যুর মামলা। গত ১৯ এপ্রিল গুলশানের একটি ফ্ল্যাটে মারা যান মুনিয়া। মুনিয়ার মৃত্যুর পর তা বোন নুসরাত তানিয়া একটি আত্মহত্যার প্ররোচনা মামলা দায়ের করেছিলেন গুলশান থানায়। গুলশান থানা এই মামলার নানারকম তদন্ত শেষে এবং পোস্টমর্টেম রিপোর্টের ভিত্তিতে আত্মহত্যার কোন প্ররোচনা ঘটেনি মর্মে চূড়ান্ত প্রতিবেদন জমা দেন আদালতে। নুসরাত এই পুলিশ রিপোর্টের বিরুদ্ধে নারাজি দরখাস্ত দেন এবং তার নারাজি দরখাস্তটি যখন আদালত খারিজ করে দেন তখন গত ৬ সেপ্টেম্বর তিনি আরেকটি মামলা দায়ের করেন ৮ নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে। সেখানে তিনি নুসরাতকে হত্যা এবং ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন।

উল্লেখ্য যে, একই অভিযোগে মুনিয়ার ভাই সবুজ একটি মামলা করেছিলেন সিএমএম আদালতে। যে মামলাটি আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলা তদন্তের স্বার্থে স্থগিত রাখা হয়েছিল। কিন্তু একই বিষয়ে একটি হত্যা মামলা থাকার পরও আবার নতুন করে কেন হত্যা মামলা নেয়া হলো সেটি একটি আইনগত বিতর্কের বিষয়। কিন্তু এই মামলা তদন্ত করতে যেয়ে পিবিআই অনেক চাঞ্চল্যকর তথ্য পাচ্ছে। বিশেষ করে মুনিয়ার মৃত্যুর অন্যতম আলামত বলে মনে করা হচ্ছে গুলশানের ওই ফ্ল্যাটের সিসিটিভি ফুটেজ। কারণ একটি হত্যাকাণ্ড যদি ঘটে তাহলে অবশ্যই সেই হত্যাকাণ্ডের জন্য কিছু ব্যক্তিকে সশরীরে সেখানে যেতে হবে। বিভিন্ন সূত্র বলছে যে, মুনিয়া হত্যাকাণ্ডের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ঘর থেকে বের হন নাই। কাজেই যদি এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা সত্যি হয়ে থাকে তাহলে এই ৭২ ঘণ্টার মধ্যে কাউকে না কাউকে গুলশানে তার ফ্ল্যাটে যেতে হবে। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায় যে, যারা মুনিয়ার ফ্ল্যাটে বা ওই বিল্ডিং এ গিয়েছিল তাদের মধ্যে অন্তত তিনজন নুসরাতের পরিচিত এবং নুসরাতের সাথে ঘনিষ্ঠ। এই তিনজনকেই পরবর্তীতে গুলশান থানায় নুসরাতের সঙ্গে আত্মহত্যা প্ররোচনার মামলা করতে দেখা গেছে। এই তিনজনকেই আবার নুসরাতের সঙ্গে সিএমএম আদালতে দেখা গেছে। একটি সূত্র বলছে যে, পিবিআই এই তিনটি সিসি ফুটেজ দেখে এই তিনজন ব্যক্তিকে চিহ্নিত করবে। এরা যদি নুসরাতের লোক হয় তাহলে নুসরাতের পরিণতিও বাবুলের মত হবে। কারণ পিবিআইয়ের তদন্তে বাদী যদি অভিযুক্ত হন তাহলে তাকে আসামি করতে পিছপা হয়না এই এলিট তদন্তকারী সংস্থাটি।

নিউজ ট্যাগ: পিবিআই

আরও খবর
স্বামী হত্যায় স্ত্রীর যাবজ্জীবন

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

আদালতে হাজির করা হচ্ছে ইভ্যালির রাসেলকে

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১