আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১
শিরোনাম

৯ কার্যদিবস পর সূচকের পতনেও বেড়েছে লেনদেন

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ এপ্রিল ২০২১ | ৮৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
সোমবার ডিএসই প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স ১২ পয়েন্ট কমে পাঁচ হাজার ৪৮৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে। অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইর শরীয়াহ সূচক ৭ পয়েন্ট এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৮ পয়েন্ট বেড়ে যথাক্রমে

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে সরকার ঘোষিত সর্বাত্মক লকডাউনের ১৩তম দিন সোমবার (২৬ এপ্রিল) সূচকের পতনের মধ্য দিয়ে পুঁজিবাজারে লেনদেন শেষ হয়েছে। তবে এদিন দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ও অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন বেড়েছে। টানা ৯ কার্যদিবস (১৩-২৫ এপ্রিল) উত্থানের পর সোমবার পুঁজিবাজারে সূচকের সামান্য পতন হয়েছে। ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, সোমবার ডিএসই প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স ১২ পয়েন্ট কমে পাঁচ হাজার ৪৮৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে। অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইর শরীয়াহ সূচক ৭ পয়েন্ট এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৮ পয়েন্ট বেড়ে যথাক্রমে ১২৬২ ও ২১২৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

সোমবার ডিএসইতে এক হাজার ১৯৫ কোটি ৭৫ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছে। যা আগের কার্যদিবসের চেয়ে ডিএসইতে ৭ কোটি টাকার লেনদেন বেড়েছে। আগের দিন ডিএসইতে এক হাজার ১৮৮ কোটি ৮৬ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছিল।

সোমবার ডিএসইতে ৩৫৫টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিটের লেনদেন হয়েছে। এগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ১০২টি কোম্পানি কমেছে ১৯১টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৬২টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিটের দর।

সোমবার লেনদেনের শীর্ষে থাকা ১০ প্রতিষ্ঠান হলো-বেক্সিমকো লিমিটেড, লাফার্জহোলসিম, বেক্সিমকো ফার্মা, জিবিবি পাওয়ার, বিডি ফাইন্যান্স, লংকাবাংলা, বিএটিবিসি, রবি, ন্যাশনাল ফিড ও রেনেটা।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ৫৯ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৫ হাজার ৮০৭ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৫৪টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ৭৫টির, কমেছে ১৩৩টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৬টির কোম্পানির শেয়ার দর।

সোমবার সিএসইতে ৭১ কোটি ৯০ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিনের চেয়ে ৯ কোটি টাকা বেশি। আগের দিন সিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৬২ কোটি ৮৪ লাখ টাকার।


আরও খবর



ঘরমুখো মানুষ ঈদের পর হাসপাতাল মুখো হবে: ডা. লেলিন

প্রকাশিত:বুধবার ১২ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১২ মে ২০২১ | ১০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঈদযাত্রায় যারা বিভিন্ন ধরনের গণপরিবহন, ফেরিতে ভিড়ে গাদাগাদি করে বাড়ি যাচ্ছেন, ঈদের পর তাদের একটা অংশ হাসপাতালে ভিড় করবেন বলে আশংকা প্রকাশ করেছেন হেলথ অ্যান্ড হোপ স্পেশালাইজড হাসপাতালের পরিচালক ও জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. লেলিন চৌধুরী। গতকাল এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ আশংকার কথা জানান।

ডা. লেলিন চৌধুরী বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার জন্য আমরা যেসব স্থানকে অতিরিক্ত ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে বিবেচনা করি, তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের গণপরিবহন ও গণজমায়েত। এবারের ঈদযাত্রা কেন্দ্র করে এই দুটি বিষয়ই চূড়ান্তভাবে ঘটেছে। বিভিন্ন স্থানে ভিড়, গাদাগাদি অবস্থা, গণপরিবহন বা অন্য পরিবহনে মানুষ ঠাসাঠাসি করে যাত্রা করার ফলে এসব স্থানে করোনা সংক্রমণের জন্য অতি অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। 

এ কারণে আমরা আশঙ্কা করছি ঈদের পরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের হার দ্রুত বেড়ে যেতে পারে এবং সেই বেড়ে যাওয়াটা আমাদের হাসপাতাল ও অক্সিজেনের যে সামর্থ্য সেটাকে অতিক্রম করতে পারে। একই কারণেই স্বাস্থ্যমন্ত্রী সম্প্রতি বলেছেন, এবারের ঈদযাত্রা হচ্ছে আত্মহত্যার শামিল।

এ জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ বলেন, ঈদযাত্রায় যাত্রার বিষয়টি আমাদের আগে থেকেই গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করে সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত ছিল। জনসাধারণের ঈদযাত্রার বিষয়টি যদি আমরা অনুমোদন করতাম, তাহলে সেই অনুযায়ী একটি স্বাস্থ্যসম্মত ব্যবস্থা নেওয়া উচিত ছিল।

অপরদিকে যদি ঈদযাত্রা বন্ধ করতে চাইতাম তাহলে সেটিও সঠিক পদক্ষেপ নিয়ে বন্ধ করা উচিত ছিল। কিন্তু এই দ্বিমুখী অপরিপক্ব সিদ্ধান্তের ফলে সবকিছুই হ-য-ব-র-ল হয়ে গেল। করোনার সংক্রমণ আরো ছড়িয়ে পড়ার পরিবেশ সৃষ্টি হলো।

তিনি আরো বলেন, ইতোমধ্যে দেশে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছে। যা অতি সংক্রমণশীল। এসব ভীড়ের মধ্যে যদি কেউ ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট দ্বারা আক্রান্ত থেকে থাকেন, তাহলে অবস্থা আরো বেগতিক হবে। সুতরাং এখন যারা গণপরিবহনে, ফেরিতে ভিড় করছে, এদের একটা অংশ ঈদের পরে হাসপাতালেই ভিড় করবে বলে আমরা আশঙ্কা করছি।


নিউজ ট্যাগ: ডা. লেলিন চৌধুরী

আরও খবর



আশুলিয়ায় ১৮১ বোতল ফেনসিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

প্রকাশিত:সোমবার ১০ মে ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১০ মে ২০২১ | ৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সাভার থেকে আসাদুজ্জামান খাইরুল

আশুলিয়ায় ১৮১ বোতল ফেন্সিডিলসহ এক মাদক কারবারিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪। মাদক পরিবহনে ব্যাবহৃত একটি  প্রাইভেটকার জব্দ।

সোমবার (১০মে) সকালে র‌্যাব-৪ এর লেফটেন্যান্ট কমান্ডার রাকিব মাহমুদ খান বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

র‌্যাব-৪ এর একটি আভিযানিক দল ঢাকা জেলার আশুলিয়া থানাধীন শ্রীখন্ডিয়া পূর্বপাড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ১৮১ বোতল ফেন্সিডিল এবং মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত একটি প্রাইভেটকারসহ নওগাঁ জেলার আতোয়ার হোসেন (৪২) নামে এক মাদক ব্যাবসায়ীকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, গ্রেফতারকৃত ব্যক্তি দেশের সীমান্তবর্তী এলাকা হতে ফেনসিডিল সংগ্রহ করে প্রাইভেট কারের গ্যাস সিলিন্ডারের ভিতরে লুকিয়ে ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন এলাকায় ডিলার ও খুচরা বিক্রেতাদের নিকট বিক্রয় করে আসছিলো।

র‌্যাব-৪ এর লেফটেন্যান্ট কমান্ডার রাকিব মাহমুদ খান বলেন, উক্ত মাদক ব্যাবসায়ীর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।


আরও খবর



স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে হেফাজতের ৪ দাবি

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ মে ২০২১ | ৮৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে আবারো বৈঠক করেছেন হেফাজতে ইসলামের নেতারা। সাত সদস্যের প্রতিনিধি দল মঙ্গলবার রাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ধানমণ্ডির বাসায় প্রায় তিন ঘণ্টা বৈঠক করেন।

এতে সাম্প্রতিক সহিংসতার ঘটনাকে কেন্দ্র করে হেফাজত নেতা-কর্মীদের গ্রেফতার বন্ধ এবং গ্রেফতারদের মুক্তিসহ চার দফা দাবি জানিয়েছেন। অন্য দাবি দুটি হলো-২০১৩ সালের ৫ মে মতিঝিলের শাপলা চত্বরে সহিংসতার ঘটনার মামলা প্রত্যাহার এবং মাদ্রাসা খুলে দেওয়া।

হেফাজত নেতারা মঙ্গলবার রাত ৯টা ২০ মিনিটের দিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাসায় যান। বৈঠক শেষে তারা বের হন রাত ১২টার দিকে।

কওমি মাদ্রাসাভিত্তিক সংগঠনটির বিলুপ্ত কমিটির মহাসচিব ও বর্তমান আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব মাওলানা নুরুল ইসলাম জেহাদি এই প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন। হেফাজত নেতা ও বেফাকের মহাসচিব মাহফুজুল হক, গাজীপুরের কাপাসিয়ার অধ্যক্ষ মো. মিজানুর রহমান চৌধুরী এবং কামরাঙ্গীরচর মাদ্রাসার আতাউল্লাহ হাফিজিও এই প্রতিনিধি দলে ছিলেন। মাহফুজুল হক কারাবন্দি হেফাজত নেতা মামুনুল হকের ভাই।

এছাড়া হেফাজতের সঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান। বৈঠক চলাকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আসনের সংসদ সদস্য উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাসভবনে প্রবেশ করতে দেখা যায়।

বৈঠক থেকে বেরিয়ে নুরুল ইসলাম জেহাদি সাংবাদিকদের বলেন, গ্রেফতার নেতাকর্মীদের মুক্তি এবং মাদ্রাসাগুলো খুলে দেওয়ার দাবি জানিয়েছি। দাবিগুলো আমরা লিখিত আকারেই জানিয়েছি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমাদের আশ্বাস দিয়েছেন।

হেফাজত নেতারা জানান, সাম্প্রতিক আন্দোলনকে কেন্দ্র করে সারা দেশে গ্রেফতার আলেম-ওলামাসহ নেতা-কর্মীদের মুক্তির দাবি জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে। এই গ্রেফতারকে কেন্দ্র করে আলেম-ওলামা এবং নেতা-কর্মীদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

হয়রানি এবং আতঙ্ক থেকে মুক্তির উদ্যোগ নেওয়া জরুরি। তাছাড়া ২০১৩ সালে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীদের নামে যে মামলাগুলো হয়েছে তা পূর্ব আলোচনা অনুযায়ী প্রত্যাহারের দাবি তোলেন।

এর বাইরে দ্রুত কওমি মাদ্রাসাগুলো খুলে দেওয়ার দাবি জানান তারা। উল্লেখ্য, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের বিরোধিতা করে বিক্ষোভ ও সহিংস ঘটনার পর সরকার হেফাজতে ইসলামের বিষয়ে কঠোর অবস্থান নেয়।

প্রায় এক মাস ধরে সংগঠনটির অন্তত ৩০ জন কেন্দ্রীয় নেতা গ্রেফতার হয়েছেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে। একাধিকবার হেফাজত নেতারা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে গ্রেফতার বন্ধ এবং গ্রেফতার নেতাদের মুক্তির দাবি জানিয়েছেন।

সর্বশেষ গত রবিবার রাতেও হেফাজতের সাবেক দুই যুগ্ম-মহাসচিব মাঈনুদ্দীন রুহী ও মুফতি ফয়জুল্লাহ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে তার সরকারি বাসায় সাক্ষাৎ করেছেন।


আরও খবর



বাবুনগরীর বিরুদ্ধে হাটহাজারীতে দুই মামলা

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ এপ্রিল ২০২১ | ৮৩জন দেখেছেন
Image

হেফাজতে ইসলামের সদ্য বিলুপ্ত কমিটির আমির ও বর্তমান আহ্বায়ক জুনায়েদ বাবুনগরীর বিরুদ্ধে দুটি মামলা হয়েছে। চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে সহিংসতার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে এ মামলা দুটি হয়েছে।

এ দুই মামলাসহ ওই ঘটনায় মোট তিনটি মামলা করা হলো। এসব মামলার অন্য আসামিদের মধ্যে আছেন বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য মীর হেলাল উদ্দিন, উপজেলা জামায়াতের আমিরসহ তিন হাজার ব্যক্তি।

মামলা তিনটি গত বৃহস্পতিবার হাটহাজারী থানায় দায়ের করা হলেও আজ সোমবার জানা গেছে।

বিকেলে হাটহাজারী থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, ঘটনার সঙ্গে কারা কারা জড়িত, তাদের চিহ্নিত করতে সময় লেগেছে। কোনও নিরপরাধ মানুষ যেন হয়রানির শিকার না হন, সেজন্য সময় নেওয়া হয়েছে।

জানা যায়, দুই মামলায় জুনায়েদ বাবুনগরীসহ ১৪৮ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতপরিচয় প্রায় তিন হাজার জনকে আসামি করা হয়েছে।


আরও খবর



শেখ জামালের ৬৮তম জন্মদিন আজ

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ এপ্রিল ২০২১ | ৯৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দ্বিতীয় ছেলে ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর গর্বিত অফিসার, বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ লেফটেন্যান্ট শেখ জামালের আজ বুধবার ৬৮তম জন্মদিন। তিনি ১৯৫৪ সালের ২৮ এপ্রিল গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজ থেকে মাধ্যমিক এবং ঢাকা কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেন। তিনি ছিলেন সংস্কৃতিপ্রেমী এবং একজন ক্রীড়াবিদ।

১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে শেখ জামালও গৃহবন্দি ছিলেন। সেখান থেকে পালিয়ে তিনি মুক্তিযুদ্ধে সম্মুখসমরে নেতৃত্ব দেন। শেখ জামাল ধানমন্ডি থেকে অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ পথচলা শেষে ভারতের আগরতলা পৌঁছান এবং সেখানে মুজিববাহিনীতে (বাংলাদেশ লিবারেশন ফোর্সেস, বিএলএফ) যোগদান করে প্রশিক্ষণ শেষে মুক্তিযুদ্ধের ৯ নম্বর সেক্টরে সম্মুখসমরে অংশগ্রহণ করেন।

শেখ জামাল ছিলেন একজন দেশপ্রেমিক চৌকস-মেধাবী সেনা অফিসার। তিনি ছিলেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর লং কোর্সের প্রথম ব্যাচের কমিশন্ড অফিসার। ১৯৭৪ সালে শেখ জামাল যুগোস্লাভিয়ার মিলিটারি একাডেমিতে ক্যাডেট হিসেবে প্রশিক্ষণ ক্যাম্পে অংশগ্রহণ করেন। এরপর ব্রিটেনের স্যান্ডহার্স্ট একাডেমি থেকে প্রশিক্ষণ শেষে দেশে ফিরে ঢাকা সেনানিবাসে দ্বিতীয় ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টে সেকেন্ড লেফটেন্যান্ট পদে যোগদান করেন।

দ্বিতীয় ইস্ট বেঙ্গলে চাকরিকালে স্বল্প সময়েই অফিসার ও সৈনিকদের মধ্যে তিনি অসাধারণ পেশাগত দক্ষতা ও আন্তরিকতার ছাপ রেখেছিলেন। কয়েক সপ্তাহেই শেখ জামাল অফিসার ও সৈনিকদের মধ্যে তাদেরই একজন হয়ে যান। ট্রেনিং গ্রাউন্ডে, রণকৌশলের ক্লাসে, অবস্টাকল ক্রসিংয়ে অংশ নিয়ে সৈনিকদের মুগ্ধ করেন। ব্যাটালিয়ন বক্সিং টিমের সদস্যদের প্রশিক্ষণ দেন।

১৯৭৫ সালের ১৪ আগস্ট ব্যাটালিয়ন ডিউটি অফিসার হিসেবে ক্যান্টনমেন্টে নিজ দায়িত্ব পালন করেন তিনি। ওই দিন রাতে ক্যান্টনমেন্ট থেকে ফিরে আসেন ধানমন্ডি ৩২ নম্বরের বাড়িতে। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কালরাত্রিতে ঘাতকের নির্মম বুলেটের আঘাতে পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে নিহত হন শেখ জামাল।

শহীদ শেখ জামালের জন্মদিন যথাযথ মর্যাদার সঙ্গে পালন উপলক্ষে আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আজ বুধবার সকাল ৯টায় বনানী কবরস্থানে তার সমাধিতে স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিধি মেনে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ এবং তার আত্মার মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে।


আরও খবর