আজঃ বৃহস্পতিবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩
শিরোনাম

আবু সাঈদ চাঁদ ৫ দিনের রিমান্ডে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৫ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৫ মে ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
আদালত প্রতিবেদক

Image

রাজশাহী জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সাঈদ চাঁদকে (৬৬) পাঁচ দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজশাহীর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহবুব আলম এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে চাঁদকে আদালতে হাজির ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। তবে শুনানি শেষে বিচারক পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এর আগে, পুঠিয়া থানায় সন্ত্রাস দমন আইনে দায়ের হওয়া মামলায় চাঁদকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

আরও পড়ুন<< শেষ হলো গাজীপুর সিটির ভোটগ্রহণ, চলছে গণনা

আজ বেলা পৌনে ১১টার দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকিদাতা আবু সাঈদ চাঁদকে গ্রেপ্তার করে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ। ভেড়িপাড়া-কোর্ট এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। বেশ কয়েকদিন আত্মগোপনে থাকার পর তিনি প্রাইভেটকারে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছিলেন বলে জানিয়েছেন রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ (আরএমপি) কমিশনার আনিসুর রহমান। চাঁদকে গ্রেপ্তারের পর আরএমপি সদর দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলন তিনি এ তথ্য জানান।

সংবাদ সম্মেলনে আরএমপি কমিশনার বলেন, শহরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করি। প্রাইভেটকারে বিএনপি নেতা চাঁদ পালানোর চেষ্টা করেছিলেন। এ সময় চেকপোস্টে থাকা পুলিশ সদস্যরা তাকে গ্রেপ্তার করে।

আরও পড়ুন<< যুক্তরাষ্ট্রের ভিসানীতি নিয়ে চিন্তিত হওয়ার কারণ নেই: মোমেন

সংবাদ সম্মেলনে রাজশাহী রেঞ্জ ডিআইজি আব্দুল বাতেন বলেন, বাংলাদেশের বিভিন্ন জায়গায় ১৯ মে রাজনৈতিক কর্মসূচি ছিল বিএনপির। রাজশাহীর পুঠিয়ার কর্মসূচিতে আবু সাঈদ চাঁদ অসংখ্য মানুষের উপস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি দিয়েছেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে চাঁদের বিরুদ্ধে মামলা হয়। আমরা তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালাই। আমাদের কাছে তথ্য ছিল তিনি আত্মগোপন চলে যাচ্ছেন। তাই আমরা বিভিন্ন এলাকায় চেকপোস্ট বসাই। পুলিশের চেকপোস্টে চাঁদ ধরা পড়েন।

নিউজ ট্যাগ: আবু সাঈদ চাঁদ

আরও খবর



দুই ছাত্রলীগ নেতাকে মারধর : আরও তিন দিন সময় পেল তদন্ত কমিটি

প্রকাশিত:বুধবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০23 | হালনাগাদ:বুধবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০23 | অনলাইন সংস্করণ
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

Image

রাজধানীর শাহবাগ থানায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের দুই নেতাকে নির্যাতনের ঘটনায় তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে আরও তিনদিন সময় পেয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) তদন্ত কমিটি।

মঙ্গলবার (১৯ সেপ্টেম্বর) তদন্ত কমিটির পক্ষ থেকে প্রতিবেদন দাখিল করতে আরও সাতদিন সময় চেয়ে আবেদন করা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে আরও তিনদিন সময় মঞ্জুর করেছেন ডিএমপি কমিশনার।

প্রথম দফায় দুইদিনের সময় পাওয়ার পর এ নিয়ে দুই দফা আবেদন করে সময় পেল তদন্ত কমিটি। সময় বাড়ানোর বিষয়টি ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগ থেকে গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করা হয়েছে।

এর আগে, গত ৯ সেপ্টেম্বর রাতে শাহবাগ থানায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের দুই নেতাকে নির্যাতন করেন পুলিশের রমনা বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (এডিসি) হারুন অর রশিদ।

ভুক্তভোগী দুজন হলেন, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় বিজ্ঞান বিষয়ক সম্পাদক ও ঢাবির শহীদুল্লাহ হলের সাধারণ সম্পাদক শরীফ আহমেদ মুনিম ও কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও ফজলুল হক হলের সভাপতি আনোয়ার হোসেন নাঈম।

পরে হারুনকে পাবলিক অর্ডার ম্যানেজমেন্টে (পিওএম) বদলি আদেশ জারি করে ডিএমপি। তবে ওইদিন বিকেলেই পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুনের সই করা এক আদেশে তাকে এপিবিএন-এ বদলি করা হয়। পরে তাকে রংপুর রেঞ্জে বদলি করা হয়।

গত ১০ সেপ্টেম্বর বিকেলেই ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুকের নির্দেশে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়। কমিটি আগামী দুদিনের মধ্যে দ্রুত তদন্ত কাজ সম্পন্ন করে ডিএমপি পুলিশ কমিশনার বরাবর প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়।

তদন্ত কমিটির প্রধান ডিএমপি সদর দপ্তরের উপ-পুলিশ কমিশনার (অপারেশনস্) আবু ইউসুফকে। দুই সদস্য হলেন, রমনা বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (নিউমার্কেট জোন) শাহেন শাহ এবং অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (গোয়েন্দা-মতিঝিল বিভাগ) মো. রফিকুল ইসলাম।

সেই তদন্ত কমিটি সময় পেয়েছিল দুই কার্যদিবস। তবে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল সম্ভব না হওয়ায় আরও পাঁচ কার্যদিবস সময় বাড়ানো হয়। মঙ্গলবার (১২ সেপ্টেম্বর) তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন দাখিল করার কথা ছিল। সেটি সম্ভব না হওয়ায় কমিটি পাঁচ কার্যদিবস সময় বাড়ানোর আবেদন করে।

পরে গত (১৩ সেপ্টেম্বর) সকালে ডিএমপি কমিশনার সময় বাড়ানোর অনুমতি দেন। সে সময়ের মধ্যেও প্রতিবেদন দাখিল না করতে পারায় ফের আজ (মঙ্গলবার) আরও সাত কার্যদিবস সময় চেয়ে আবেদন করা হয়। সেই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তিন কার্যদিবস সময় মঞ্জুর করেন ডিএমপি কমিশনার।


আরও খবর
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৭তম জন্মদিন আজ

বৃহস্পতিবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩




এনআইডি ইসি থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে নিতে সংসদে বিল

প্রকাশিত:সোমবার ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) নিবন্ধন নির্বাচন কমিশন (ইসি) থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে নিতে সংসদে বিল উত্থাপন করা হয়েছে। সোমবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন বিল-২০২৩ নামের বিলটি সংসদে উত্থাপন করেন।

২০১০ সালের জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন আইন রহিত করে নতুন এই আইন করা হচ্ছে। এই আইনের মাধ্যমে জন্মের পর থেকে একজন নাগরিক জাতীয় পরিচয়পত্র পাবেন।

বিদ্যমান ব্যবস্থায় এনআইডি দিয়ে থাকে নির্বাচন কমিশন। নতুন আইনটি কার্যকর হলে ইসি সে ক্ষমতা হারাবে। এটি সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা বিভাগের অধীনে একটি নিবন্ধকের আওতায় যাবে।

বিলে বলা হয়েছে, বিদ্যমান আইনটি রহিত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নির্বাচন কমিশনের কাছে রক্ষিত এবং নির্বাচন কমিশন সংগৃহীত জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন ও জাতীয় পরিচয়পত্র সংক্রান্ত সব তথ্য-উপাত্ত নিবন্ধকের কাছে হস্তান্তরিত হবে।

বিলটি পাশ হলে নির্বাচন কমিশনের স্বাধীনতা খর্ব হবে এবং ভোটার তালিকা প্রণয়নে জটিলতা হবে-এমন অভিযোগ করে এর বিরোধিতা করেন জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ফখরুল ইমাম।

জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন, ভোটার লিস্টের ক্ষেত্রে এই জাতীয় পরিচয়পত্র আইন কোনো অন্তরায় ঘটবে না। সেখানে নির্বাচন কমিশনের প্রতিনিধিরাও থাকবেন। আমরা ওইভাবেই প্রসেস করব। যখন নাগরিকের বয়স ১৮ বছর হয়ে যাবে তখনই ভোটার হয়ে গেছেন বলে নোটিশ পেয়ে যাবেন। তার নাম ভোটার লিস্টে অন্তর্ভুক্ত হয়ে যাবে।

বিলে বলা হয়েছে, জাতীয় পরিচয়পত্র দেওয়ার জন্য একজন নিবন্ধক থাকবেন। তিনি সরকার কর্তৃক নিযুক্ত হবেন। জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়ার জন্য প্রত্যেক নাগরকিকে পরিচয় নিবন্ধন করতে হবে। এজন্য নির্ধারিত পদ্ধতিতে নিবন্ধকের কাছে আবেদন করতে হবে। একজন নাগরিককে নিবন্ধক একটি নম্বর দেবেন। সেটা একক পরিচিতি নম্বর (ইউনিক আইডেনটিফিকেশন নম্বর) হিসেবে সবখানে ব্যবহার হবে।

বিলে আরও বলা হয়েছে, নির্বাচন কমিশনের চাহিদা মোতাবেক নিবন্ধক প্রয়োজনীয় তথ্য-উপাত্ত দেবে। এজন্য নিবন্ধকের কার্যালয়ের অধীন একটি সেল থাকবে। এই সেলে নির্বাচন কমিশনের এক বা একাধিক কর্মচারী দায়িত্ব পালন করবেন। এর ফলে নিবন্ধকের দপ্তর থেকে সরবরাহকৃত তথ্যের ভিত্তিতে ইসি ভোটার তালিকা তৈরি করবে।

এছাড়া নিবন্ধন কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা, সমন্বয় ও পরিবীক্ষণের জন্য একটি সমন্বয় কমিটি থাকবে। এই কমিটির সভাপতি হবেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব। নিবন্ধক হবেন এই কমিটির সদস্য সচিব। নির্বাচন কমিশন ও সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের প্রতিনিধিরা থাকবেন সদস্য।


আরও খবর
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৭তম জন্মদিন আজ

বৃহস্পতিবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩




সুন্দর হস্তাক্ষর প্রতিযোগিতায় শেরপুরে পঞ্চম নুঝাত

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
মো. নাজমুল হোসাইন, শেরপুর

Image

শেরপুরের নকলা উপজেলার ছোট্ট বন্ধু মোশফিরাত তানিম নুঝাত সুন্দর হস্তাক্ষর প্রতিযোগিতায় জেলার মধ্যে পঞ্চম স্থান অধিকার করেছে।

সোমবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা স্কাউট এর ব্যবস্থাপনায় ও জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সুন্দর হস্তাক্ষর প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে জেলার সব কয়টি উপজেলা থেকে ৪০ জন প্রতিযোগী অংশ গ্রহণ করে।

সুন্দর হস্তাক্ষর প্রতিযোগিতা শেষে বিচারকগণের রায়ে জেলার নকলা উপজেলার পৌরশহরের নকলা মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মোশফিরাত তাসনিম নুঝাত জেলার মধ্যে পঞ্চম স্থান অধিকারী হিসেবে নির্বাচিত হয়।

পরে বিজয়ী বন্ধুদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ ও সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশ স্কাউট শেরপুর জেলার ব্যবস্থাপনায় এ পুরস্কার ও সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক আব্দুল্লাহ আল খায়রুম।

এসময় জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, শিক্ষা কর্মকর্তা, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মরত স্থানীয় সাংবাদিকগন উপস্থিত ছিলেন।

এবিষয়ে মোশফিরাত তানিম নুঝাত এর বাবা মো. মোশারফ হোসাইন তার মেয়েকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন- আমার ছোট্ট মা মণি এভাবেই আস্তে আস্তে সামনের দিকে এগিয়ে চলবে এমনটাই কামনা করি। তাদের মতো আজকের শিশুরা হবে আগামী দিনের দেশের কান্ডারী। মোশফিরাত তাসনিম নুঝাতের মতো সকল শিশুদের উজ্জল ভবিষ্যৎ কামনায় নুঝাতের পরিবারের পক্ষ থেকে সকলের কাছে দোয়া কামনা করছি।


আরও খবর



বাইডেনের অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৮তম অধিবেশনে যোগ দিতে বঙ্গবন্ধু কন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী রোববার নিউইয়র্কে যাচ্ছেন।

এই অধিবেশনের ফাঁকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ১৯ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় আয়োজিত অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী ওই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন ।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে নিজ দপ্তরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন। প্রধানমন্ত্রীর নিউইয়র্ক সফর উপলক্ষ্যে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

মোমেন জানান, প্রধানমন্ত্রী ২২ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে বক্তৃতা করবেন। এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রী বেশ কয়েকটি দেশের রাষ্ট্র/সরকার প্রধানের (মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড ও ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী এবং শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট) সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে অংশ নিতে পারেন। যার মাধ্যমে বাংলাদেশের সঙ্গে সেসব দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও জোরদার হবে বলে আশা করা যায়।


আরও খবর
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৭তম জন্মদিন আজ

বৃহস্পতিবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩




কুমিল্লায় জজ মিয়া হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
রবিউল বাশার খান, কুমিল্লা

Image

কুমিল্লার হোমনায় জজ মিয়া হত্যা মামলায় আজাদ মিয়া (৩৫) নামে একজনের মৃত্যুদণ্ডের রায় দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। একই মামলায় ২ জনকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৩টায় কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ৩য় আদালতের বিচারক রোজিনা খান এ রায় দেন।

আজাদ মিয়া কুমিল্লার হোমনা উপজেলার হোমনা সরদার বাড়ির বাহাদুর মিয়ার ছেলে। বিষয়টি নিশ্চিত করেন কুমিল্লার অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর (এপিপি) অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম।

মামলার বরাত দিয়ে অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম বলেন, কুমিল্লার হোমনা উপজেলার হোমনা পূর্ব পাড়ার আজাদ মিয়ার সঙ্গে একই এলাকার দক্ষিণ পাড়ার আনোয়ার আলীর ছেলে জজ মিয়ার সঙ্গে পূর্ববিরোধ ছিল। এর প্রেক্ষিতে ২০১৫ সালের ২২ মে সন্ধ্যায় আজাদ মিয়া পূর্বপরিকল্পিতভাবে জজ মিয়ার ওপর হামলা করেন। এ সময় ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান আজাদ মিয়া। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় জজ মিয়াকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে তিনি মারা যান।

এ ঘটনায় নিহত জজ মিয়ার বড় ভাই জুলহাস মিয়া বাদী হয়ে আজাদ মিয়া, একই এলাকার সালাউদ্দিন ও নাসির উদ্দিনসহ ৩/৪ জনকে আসামি করে হোমনা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা হোমনা থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) কাজী নাজমুল হক একই বছরের ২৮ মে আসামি আজাদকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করেন। পরে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন আজাদ। মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আসামি দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় এ রায় দেন আদালত।


আরও খবর