আজঃ শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪
শিরোনাম

আগুন লাগা ভবনের ছাদে আটকা ৫০ জনের বেশি

প্রকাশিত:শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

রাজধানীর বেইলি রোডে কাচ্চি ভাই রেস্টুরেন্টের ভবনে লাগা আগুনের মধ্যে অনেকে আটকা পড়েছেন। এরমধ্যে ভবনটির ছাদে আটকে আছেন প্রায় ৫০ জন।

আগুন লাগার পরই ঘটনাস্থলে আসে ফায়ার সার্ভিসের ১২টি ইউনিট। তবে এখনো ওই আগুন নিয়ন্ত্রণে আসেনি ৷ ওই রেস্টুরেন্টটির জানালার পাশে স্বজনদের দেখে আহাজারি করছে মানুষ।

বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ১১ টায় বেইলি রোডের কাচ্চি ভাই রেস্টুরেন্টের ভবনে আগুন লাগার পর এমন চিত্র দেখা গেছে।

সরেজমিন দেখা গেছে, রেস্টুরেন্টের মধ্যে আগুনে আটকা পড়া একজনের স্বজন তাকে উদ্দেশ্য করে বলছেন, ছাদে উইঠা যা; ছাদে ক্যারেন (উচু স্থান থেকে উদ্ধারকারী যন্ত্র) পাঠাইছে। তিনি বলেন, আমার আপন ভাই আগুনে আটকা পড়ছে ওর নাম ফয়সাল।

এদিকে ছাদ থেকে উদ্ধার হওয়া একজন বলেছেন, ছাদে অন্তত ৫০ জনের মতো আছে। পুরা ছাদ ভর্তি মানুষ। তবে এখনো সবাই ঠিক আছে।

এর আগে রাত ৯টা ৫০ মিনিটে আগুন লাগার সংবাদ পায় ফায়ার সার্ভিস।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার এরশাদ হোসেন বলেন, আজ (বৃহস্পতিবার) রাত ৯টা ৫০ মিনিটে রাজধানীর বেইলি রোডের কাচ্চি ভাই রেস্টুরেন্টে আগুন লাগার সংবাদ আসে। সংবাদ পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে আমাদের ১২টি ইউনিট কাজ করছে। প্রাথমিকভাবে আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানা যায়নি।

এদিকে প্রত্যক্ষদর্শী একজন জানান, ভবনটির পাঁচতলা পর্যন্ত সব ফ্লোরে আগুন দেখা যাচ্ছে। মনে হচ্ছে ভেতরে অনেক লোক আটকা পড়েছে।


আরও খবর



পাকিস্তানের জনপ্রিয় অভিনেত্রীকে গুলি করে হত্যা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

পাকিস্তানি অভিনেত্রী খুশবু খান। নাটক, সিনেমা ও মঞ্চে অভিনয় করে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পান তিনি। আততায়ীর গুলিতে নিহত হয়েছেন এই অভিনেত্রী। তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে পাকিস্তানের একাধিক গণমাধ্যম।

দ্য প্রিন্টের তথ্য মতে, ১০ জুন সোমবার পাকিস্তানের নওশেরা জেলার একটি ফসলের মাঠে অভিনেত্রীর গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া যায়। এরপর সেখান থেকে অভিনেত্রীর মরদেহ উদ্ধার করে পাকিস্তান পুলিশ। এরপরই হত্যার সঙ্গে সম্পৃক্ত ব্যক্তিদের খুঁজে বের করতে তৎপর হয় তারা। ইতোমধ্যেই হত্যার সঙ্গে যুক্ত দুজনের নাম প্রকাশ করা হয়েছে। অভিযুক্ত দুই ব্যক্তির নাম শওকত ও ফলক নিয়াজ।

এদিকে গণমাধ্যমটিতে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, অভিনেত্রীকে অন্য কোথাও হত্যা করে জমিতে ফেলে দেওয়া হয়েছে। ইতোমধ্যেই ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে এবং অভিনেত্রীর লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

খুশবু খান ছোট পর্দা ও বড় পর্দায় নিয়মিত অভিনয় করেছেন। এছাড়া পশতু ভাষার নাটকে অভিনয় করে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পান তিনি।


আরও খবর



সংসদে বাজেট পেশ করছেন অর্থমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জাতীয় সংসদ অধিবেশনে ২০২৪-২৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট পেশ করছেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। আজ বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় তিনি বাজেট পেশ শুরু করেন।

স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বাজেট অধিবেশনের দ্বিতীয় দিনের অধিবেশন চলছে। অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপস্থিত আছেন।

প্রস্তাবিত সাত লাখ ৯৭ হাজার কোটি টাকার বাজেটে রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা পাঁচ লাখ ৪১ হাজার কোটি টাকা। বাকি দুই লাখ ৫৬ হাজার কোটি টাকা ঋণ নেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা থাকছে।

আজ দুপুরে প্রস্তাবিত বাজেটের অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা। জাতীয় সংসদ ভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়। পরে প্রস্তাবিত বাজেটে সই করেন রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন।

এর আগে, আজ সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বাজেট ঘোষণার জন্য রাজধানীর ইস্কাটন গার্ডেন রোডের সরকারি বাসভবন থেকে রওনা দেন তিনি। পরে বেলা পৌনে ১১টায় সংসদে পৌঁছান অর্থমন্ত্রী। বাসভবন থেকে বেরিয়ে তিনি বলেন, যতটুকু সম্ভব ভালো করার চেষ্টা করছি। সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রা সহজ করবে এবারের বাজেট।


আরও খবর



বিশ্ব মরুময়তা দিবস আজ

প্রকাশিত:সোমবার ১৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বিশ্ব মরুকরণ ও খরা প্রতিরোধ দিবস আজ। গত ২৭ বছর ধরে প্রতি বছর এই তারিখে দেশেও দিবসটি পালিত হয়ে আসছে। ১৯৯৫ সালে বাংলাদেশে প্রথম বিশ্ব মরুময়তা দিবস পালিত হয়। উত্তরাঞ্চলের রাজশাহীকে কেন্দ্রবিন্দু ধরে নগর থেকে ৪০ কিলোমিটার পশ্চিমে কাকনহাটে জাতীয়ভাবে প্রথমবারের মতো দিবসটি পালিত হয়।

প্রতিনিয়ত পরিবর্তিত হচ্ছে পৃথিবী। এই পরিবর্তনের ধারায় কখনো সিডর, কখনো সুনামি, কখনো হ্যারিকেন, কখনো ভূমিকম্প, কখনো অতিবৃষ্টি, অনাবৃষ্টি, বন্যা, বিভিন্ন রকমের রোগবালাই দুর্যোগ

আকারে দেখা দিচ্ছে। মারা যাচ্ছে মানুষ, ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে মাঠের ফসল। বাড়ছে খাদ্য সংকট। ঘরবাড়ি মিশে যাচ্ছে মাটির সঙ্গে। ফলে মানুষ হারাচ্ছে তার মাথা গোঁজার ঠাঁই। নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগের মধ্যে জলবায়ুর নেতিবাচক প্রভাবে বিশ্বে মরুকরণ একটি অন্যতম সমস্যা।

১৯৭৫ সালে প্রথমবারের মতো জাতিসংঘের পক্ষ থেকে খরা ও মরুকরণের প্রতি সোচ্চার হয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানানো হয়। এই ধারাবাহিকতায় ১৯৭৭ সালে নাইরোবিতে বিশ্ব মরুকরণ বিরোধী সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ১৯৯২ সালে রিও ডি জেনিরোতে অনুষ্ঠিত জাতিসংঘের পরিবেশ ও উন্নয়ন বিষয়ক সম্মেলনের পরপরই মরুকরণ সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক কনভেনশন গ্রহণের প্রক্রিয়া শুরু হয়। রিও সম্মেলনের এজেন্ডা ২১ এর প্রস্তাবটি ১৯৯২ সালে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৪৭তম অধিবেশনে গৃহীত হয় এবং ইন্টারগভর্মেন্টাল নেগোশিয়েটিং কমিটি গঠিত হয়। এই কমিটি মরুকরণ সংক্রান্ত খসড়া কনভেনশন চূড়ান্ত করে। ১৯৯৪ সালের জুন মাসে কনভেনশনের দলিল চূড়ান্ত হয়। এই কনভেনশনে ৫০টি দেশ কর্তৃক অনুমোদিত হওয়ার পর ১৯৯৬ সালের ২৬ ডিসেম্বর থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে কার্যকর হয়। বাংলাদেশও এই কনভেনশন অনুমোদন করে। পরবর্তীতে খরা ও মরুকরণ সম্পর্কে বিশ্ববাসীকে সচেতন করে তুলতে ১৭ জুন পালন করা হয় বিশ্ব খরা ও মরুকরণ প্রতিরোধ দিবস।


আরও খবর



ঢাকায় পৌঁছেছে প্রথম ফিরতি হজ ফ্লাইট

প্রকাশিত:শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেছে প্রথম ফিরতি হজ ফ্লাইট। শুক্রবার (২১ জুন) ভোর ৫টা ৪০ মিনিটের দিকে ৪১৭ জন হজযাত্রী নিয়ে শাহজালালে পৌঁছায় ফ্লাইটটি।

তাদেরকে স্বাগত জানাতে স্বজনদের পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন বেবিচক চেয়ারম্যান, বিমানের এমডিসহ সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়া হয় হাজীদের। এয়ারপোর্টেই দেয়া হয় জমজমের পানি।

এ সময় সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ নিয়ে সন্তোষ জানান তারা। বলেন, নিজের গুনাহ মাফ চাওয়ার পাশাপাশি দেশ, পরিবার, ফিলিস্তিন ও পুরো মুসলিম উম্মাহর জন্য দোয়া চেয়েছেন।

বিমানের এমডি জানান, ফিরতি হজ ফ্লাইট ভোগান্তিহীন করতে সর্বাত্মক প্রস্তুতি রয়েছে।

বেবিচক চেয়ারম্যান বলেন, হাজীদের যাওয়া-আসার পথে সুন্দর পরিবেশ সৃষ্টি করতে পেরেছেন। তৃতীয় টার্মিনাল চালু হলে, হজ ব্যবস্থাপনা আরও সুচারুভাবে হবে।


আরও খবর



কানাডায় বাংলাদেশের নতুন হাই-কমিশনার নাহিদা সোবহান

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
কূটনৈতিক প্রতিবেদক

Image

কানাডায় বাংলাদেশের নতুন হাইকমিশনার নিয়োগ পেয়েছেন নাহিদা সোবহান। তিনি বর্তমানে জর্ডানে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিযুক্ত রয়েছেন। কানাডায় ড. খলিলুর রহমানের স্থলাভিষিক্ত হবেন নাহিদা। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

চাকরিজীবনে নাহিদা সোবহান রোম, জেনেভা ও কলকাতা মিশনে কাজ করেছেন। তিনি জাতিসংঘ ও মানবাধিকার উইংয়ের মহাপরিচালকের পাশাপাশি বহুপাক্ষিক অর্থনীতিবিষয়ক শাখার মতো বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী নাহিদা নেদারল্যান্ডসে পাবলিক ইন্টারন্যাশনাল আইন ও ফ্রান্সে আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ওপর পড়াশোনা করেছেন। তিনি দেশে এবং বিদেশে বেশ কয়েকটি পেশাদার প্রশিক্ষণ কোর্স সম্পন্ন করেছেন ও বহু দ্বিপাক্ষিক ও বহুপাক্ষিক বৈঠকে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। নাহিদা সোবহান ইংরেজি ও ফরাসি ভাষায় পারদর্শী। তিনি আরবি ভাষাও শিখছেন।

চুক্তিভিত্তিক নিয়োগপ্রাপ্ত ড. খলিলুর রহমান ২০২০ সাল থেকে কানাডায় বাংলাদেশের হাইকমিশনারের দায়িত্ব পালন করেছেন। দায়িত্ব নেওয়ার এক বছরের মাথায় অর্থাৎ ২০২১ সালে তার চাকরির পূর্বনির্ধারিত মেয়াদ শেষ হলে সরকার দুই বছরের চুক্তিতে আবার তাকেই হাইকমিশনারের পদে বহাল রাখে।

পরে দ্বিতীয় দফার চুক্তিতে অর্থাৎ গত ৩১ অক্টোবর থেকে ছয় মাসের জন্য তার চুক্তি নবায়ন করা হয়। সেই হিসেবে চলতি বছরের এপ্রিলে মাসে তার মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করার পর পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হয় ড. হাছান মাহমুদকে। নতুন মন্ত্রী দায়িত্ব নেওয়ার পর সাম্প্রতিক সময়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনিয়ম-অব্যবস্থাপনা নিয়ে একটি পোস্ট করেন খলিলুর রহমান। তিনি পোস্টে কারও নাম উল্লেখ না করে গুরুতর কিছু অভিযোগ উত্থাপন করেন।

পরে ২৫ ফ্রেব্রুয়ারি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক (প্রশাসন) ডি এম সালাহ উদ্দিন মাহমুদের সই করা এক প্রজ্ঞাপনে, খলিলুর রহমানকে অটোয়ার বাংলাদেশ হাইকমিশনের দায়িত্বভার ত্যাগ করে অবিলম্বে ঢাকা সদর দপ্তরে প্রত্যাবর্তন করতে বলা হয়।

১৯৮৫ ব্যাচের কর্মকর্তা খলিলুর রহমান দিল্লি ও জেনেভা মিশনে বিভিন্ন পদে কর্মরত ছিলেন। এছাড়া তিনি ছুটি নিয়ে দীর্ঘদিন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থায় কাজ করেছেন। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) থেকে এমবিবিএস পাস করা খলিলুর রহমান প্যারিস থেকে এমফিল ও জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাবলিক হেলথের ওপর পিএইচডি করেন।


আরও খবর