আজঃ বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২
শিরোনাম

আজকের রাশিফল

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | ৩৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

১২ মে ২০২২ বৃহস্পতিবার, বুধের রাশি কন্যাতে চাঁদের যোগাযোগ দিনরাত ঘটছে। যেখানে কন্যা রাশির অধিপতি বুধ এখনও বিপরীতমুখী। এই পরিস্থিতিতে কন্যা রাশির জাতকদের জন্য আজকের দিনটি খুব শুভ হবে। মিথুন রাশির বুধ রাশির জাতকরাও আজ অনুকূল পরিস্থিতিতে খুশি থাকবেন। অন্যান্য সকল রাশির জন্য আজকের দিনটি কেমন যাবে? আজ আপনার ভাগ্যের নক্ষত্ররা কী বলে জেনে নিন।

মেষ রাশি:

মেষ রাশির জাতকদের আজ কর্মক্ষেত্রে সাফল্য পাবেন। একটি নতুন ব্যবসা শুরু করার ধারণাগুলি মনে আসতে পারে বা এটি বাস্তবে পরিণত হতে পারে। আজ ভাগ্য আপনার সহায় হবে। পারিবারিক সুখ ভালো যাচ্ছে এবং আজ আপনি খুশি হবেন। আপনি ভালো লোকদের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন করবেন, যাঁরা আপনাকে কাজে সাফল্য পেতে সহায়তা করবেন এবং গাইড করবেন।

বৃষ রাশি:

বৃষ রাশির জাতকদের আজকের দিনটি আপনি খুবই চটপটে থাকবেন। কঠোর পরিশ্রমের ফল আজ অবশ্যই পাওয়া যাবে। বিশেষ কারও সঙ্গে সাক্ষাৎ স্মরণীয় হয়ে থাকবে। বিবাহ বা মাঙ্গলিক কাজে অংশগ্রহণ করতে পারেন। কাজ শেষ হওয়ার কারণে মনে সুখ থাকবে। এই দিনে, আপনি আপনার গুরুজন এবং ভদ্রলোকদের সম্মান করার ক্ষেত্রে এগিয়ে থাকবেন। প্রেমের সম্পর্কের ক্ষেত্রে সাফল্য আসবে।

মিথুন রাশি:

মিথুন রাশির জাতকদের আজ আপনাকে উৎসাহে পরিপূর্ণ দেখা যাবে। ভাগ্য আপনার সঙ্গে আছে, কাজে উৎসাহ থাকবে। শিক্ষার্থীরা প্রতিযোগিতার ক্ষেত্রে সাফল্য পাবে। আপনি আপনার ইচ্ছা অনুযায়ী আপনার কাজের পরিকল্পনা সম্পূর্ণ করবেন। পারিবারিক সুখ ভালো থাকবে। আপনি আজ আপনার বন্ধু বা পরিচিতের সঙ্গে দেখা করবেন, যাঁর কারণে আপনার মুখে খুশি প্রতিফলিত হবে।

কর্কট রাশি:

কর্কট রাশির জাতকদের দিনের শুরুটা আপনার জন্য ভালো যাচ্ছে। পরিবারের সঙ্গে ভালো সময় কাটাবেন, বন্ধুদের সঙ্গে ভ্রমণ উপভোগ করবেন ইত্যাদি। ব্যবসায় ভালো লাভ হবে। পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে সুখ এবং সমর্থন থাকবে। আপনি যে কাজটি আপনার হাতে নিবেন তাতে আপনি সফল হবেন।

সিংহ রাশি:

সিংহ রাশির জাতক জাতিকাদের আজকের দিনটি ভালো শুরু হতে চলেছে। আপনার কঠোর পরিশ্রম এবং বোঝাপড়া আপনাকে জীবনকে সুখী করতে সাহায্য করবে। কর্মক্ষেত্রে আপনার কাজের প্রশংসা করা হবে এবং একটি বড় পরিবর্তন ঘটতে পারে। পারিবারিক জীবন উত্থান-পতনে পূর্ণ হবে। বন্ধুবান্ধব বা প্রিয়জনের সঙ্গে আপনার যাত্রা শুভ হবে।

কন্যা রাশি:

কন্যা রাশির আজ ভাগ্য আপনার সঙ্গে আছে। আজ কর্মক্ষেত্রে আপনার কর্মক্ষমতা ভালো হতে চলেছে। আপনার মধ্যে কথা বলার শিল্প আছে, যা আপনাকে যে কোনও ক্ষেত্রে সাফল্যের শিখরে নিয়ে যেতে সহায়ক হবে। কাজে সফলতা পাবেন। আপনি আজ একটি নতুন কাজ পেতে পারেন। আপনার মানসিক অলসতা আজ শেষ হবে এবং আপনি চারদিক থেকে সুসংবাদ পাবেন।

তুলা রাশি:

তুলা রাশির জাতকদের আজ সারাদিন সতেজ থাকবে, চাকরিতে সাফল্য আসবে। ব্যবসায় লাভ হবে। গুরুজনের সাহায্যে পারিবারিক কলহের অবসান হবে। আজ আপনি আপনার শত্রুদের আপনার উপর কর্তৃত্ব করতে দেবেন না, তবে আপনি তাদের পরাজিত করতে সফল হবেন। আপনি অবশ্যই পরিবারের সমর্থন পাবেন, তাই সাহস হারাবেন না এবং সামনে কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হোন।

বৃশ্চিক রাশি:

আজ ভাগ্য আপনার সঙ্গে আছে, আপনি শুভ কাজে অংশ নেবেন। আপনার কথাবার্তা মিষ্টি হবে, যার কারণে আপনি অন্যকে আপনার দিকে আকৃষ্ট করবেন। আপনি আপনার চতুরতা এবং বুদ্ধিমত্তা দিয়ে আপনার কাজ সফল করবেন। কর্মক্ষেত্রে ভালো আর্থিক লাভ হবে। এছাড়াও আপনি টাকা সংরক্ষণ করতে পারেন. কর্মক্ষেত্রে প্রত্যাশিত সাফল্য অর্জিত হবে।

ধনু রাশি:

রাশির জাতকদের এই দিনে ক্ষেত্রবিশেষে আসা সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন। আপনার সমস্ত কাজ সফল হবে। আজ ব্যবসায় উন্নতির সম্ভাবনা রয়েছে এবং স্বাস্থ্য সাধারণত ভালো থাকবে। অনেকদিন পর কারও সঙ্গে দেখা করার সুযোগ পাবেন। আজ একটি নতুন কাজ শুরু করা লাভজনক হবে। আপনার পরামর্শ অন্যদের জন্য দরকারি হবে। আপনি বিনোদনের মাধ্যমগুলিতে আগ্রহী হবেন।

মকর রাশি:

মকর রাশির জাতকদের আজকের দিনটি খুব একটা ভালো যাবে না, আপনাকে সংঘর্ষের পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হতে পারে। এমন সময়ে, আপনি অবশ্যই পরিবারের সমর্থন পাবেন, তাই সাহস হারাবেন না এবং দৃঢ়তার সঙ্গে আসন্ন কঠিন পরিস্থিতির মোকাবেলা করুন। আজ কর্মক্ষেত্রে আপনার কর্মক্ষমতা ভালো হতে চলেছে। কর্মক্ষেত্রে আজকের দিনটি উপকারী প্রমাণিত হবে।

কুম্ভ রাশি:

কুম্ভ রাশির জাতকদের আজকের দিনটি ভালো শুরু হতে চলেছে। কাজ বা পারিবারিক সুখের জন্য আজকের দিনটি ভালো যাচ্ছে। আজ আপনি ভালো লোকেদের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন করবেন, যারা আপনাকে কাজে সাফল্য পেতে সহায়তা করবেন এবং গাইড করবেন। আজ, ব্যবসায়ী শ্রেণী বিশেষ ভাবে ভালো ফল পাবেন, যার কারণে অর্থ ও লাভের যোগফল হবে।

মীন রাশি:

মীন রাশির জাতকদের আজকের দিনটি আপনার জন্য স্মরণীয় হয়ে থাকবে। আপনি মিষ্টি কথাবার্তা এবং আপনার চতুরতার সাহায্যে কাজে সাফল্য পাবেন। আজ আপনি আপনার চতুরতার প্রমাণ দিয়ে কাজে সফল হবেন, যারা কাজ করছেন তারাও সিনিয়রদের দ্বারা প্রশংসিত হবেন। পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে সম্ভাব্য সব ধরনের সহযোগিতা পাওয়া যাবে।


আরও খবর
‘আম’ চিনুন তারপর কিনুন

বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২




ঈশ্বরগঞ্জ পুরোনো কাপড়ে নতুন ঈদ

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২৩ এপ্রিল ২০২২ | ৪১৫জন দেখেছেন

Image

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি:

থরে থরে সাজানো জামা, শাড়ি, লুঙ্গি, প্যান্ট। তবে তার কোনোটিই নতুন নয়। মানুষের ব্যবহার্য এসব পোশাক ধুয়ে ব্যবহার উপযোগী কাপড় নিয়ে পসরা সাজিয়ে দোকানিরা। পুরোনো কাপড়ের হাটেও ক্রেতার অভাব নেই। নিম্ম আয়ের মানুষ নিজের সন্তানের ঈদের আনন্দ দেওয়া কিংবা নিজের প্রয়োজন মেটাতে কিনছেন পছন্দসই পুরোনো কাপড়। পুরোনো কাপড়েই তাদের যেনো ঈদের নতুন আনন্দ। এমন এক হাট রয়েছে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে।

ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার আঠারবাড়ি ইউনিয়নে পবিত্র ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে পুরাতন কাপড়ের বেচা-কেনা প্রতিনিয়ত বাড়তে শুরু করেছে। নিম্ন আয়ের মানুষদের ঈদে নতুন কাপড়ের স্বাদ এনে দেওয়ার একমাত্র ভরসা পুরাতন পোশাকের দোকানগুলো। এ হাটে ঈদ উপলক্ষে নানান রকমের পুরাতন কাপড় রয়েছে।

এ বাজারে ৫০ থেকে ৭০ টাকায় মিলছে লুঙ্গি, ৩০ টাকায় প্যান্ট, কামিজ ২৫ থেকে ৩০ টাকা, বিছানার চাদর ৫০ টাকা ও শাড়ি মিলছে ৫০ থেকে ৮০ টাকায়। অবশ্য কাপড়ের প্রকার ভেদে দাম কম বেশি হয়। এছাড়াও বিভিন্ন রকমের জামা কাপড়ের সমাহার এই হাটে। যে যার পছন্দ মতো পোশাক নিচ্ছেন বেছে বেছে। নারী পুরুষসহ সব বয়সী ক্রেতারা কিনছেন তাদের পছন্দের কাপড়।

বিক্রেতারা নানা ধরনের পুরাতন কাপড়ের পসরা সাজিয়ে বসেছেন। ছোট বাচ্চাদের কাপড়, বোরকা, শাড়ি, কামিজ, থ্রি পিছ, লেহেঙ্গা, পাঞ্জাবী, প্যান্ট, শার্ট, বিছানার চাদরসহ শতাধিক আইটেম রয়েছে।

সচ্ছল জনগোষ্ঠীদের পুরোনো জামা-কাপড়, হাড়িপাতিলের বিনিময়ে ফেরিওয়ালাদের সংগৃহীত বস্ত্রগুলোকেই একত্রিত করে কম দামে খুচরা ও পাইকারি দরে বিক্রি করেন আঠারবাড়ির এই ব্যবসায়ীরা। আঠারবাড়ি ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী পুরাতন বাজারে এই হাট বসে প্রতি শুক্রবার ও সোমবার। সপ্তাহে দুদিন জমে উঠে এই হাট। হাটে পুরাতন কাপড়ের দোকান রয়েছে শতাধিক।

শুক্রবার (২২ এপ্রিল) দুপুরে পর সরজমিনে হাটে গিয়ে দেখা যায়, বিভিন্ন ধরনের পুরাতন কাপড়ের পসরা সাজিয়ে বসেছেন ব্যবসায়ীরা। ক্রেতারাও তাদের পছন্দের কাপড়টি বেছে বেছে কিনছেন। কাপড় পছন্দ হলে তবেই চলে দরদাম। মূলত স্বল্প আয়ের মানুষরাই অধিকাংশ ক্রেতা। পছন্দের কাপড় কিনে খুশি মনে বাড়ি ফিরছেন তারা। কাপড় ভেদে একেকটির দাম হয়। এ সময় একাধিক বিক্রেতা ও ক্রেতাদের সাথে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

বিক্রেতা হজরত আলী বলেন, ২০ বছর ধরে এই ব্যবসার সাথে জড়িত। পৈতৃক ব্যবসার ধারাবাহিকতায় তিনিও এটি করে আসছেন।' হজরত আলী বলেন, আগে আরো বেশি বিক্রি করতাম। এখন বিক্রি কম হয়। এখন দিনে তিন থেকে দুই হাজার টাকার মতো বিক্রি করি। সবকিছু খরচ বাদ দিয়ে পাঁচশত থেকে একহাজার টাকা লাভ থাকে। একেকদিন একেক বাজারে যাই।

আরেক ব্যবসায়ী মোস্তাকিম বলেন, আমরা ঢাকা থেকে পরিচ্ছন্ন কর্মীদের থেকে কাপড় কিনি। তারাই পরিস্কার করে আইরন দিয়ে দেয়। গ্রামের খেটে খাওয়া কম রোজগারের মানুষ আমাদের থেকে বেশি জামা কাপড় কিনে।

ক্রেতা আনোয়ার হোসেন, রতন মিয়া, জামিলা খাতুন, হোসনে আরা বলেন, এখানে কম টাকায় ভালো জিনিস পাই। নতুন কাপড় কেনার ইচ্ছে আছে কিন্তু সাধ্য নাই। দোকানে তো অনেক দাম রাহে। মনে ইচ্ছে থাকলেও মার্কেট থেকে জামা কাপড় কিনার সাধ্য নাই। তাই এখান থেকে অল্প টাকার মধ্যে পছন্দের কাপড়টি কিনে নিলাম।


আরও খবর



মারিয়ুপোলের ইস্পাত কারখানায় আদৌ কেউ কি বেঁচে আছে ?

প্রকাশিত:রবিবার ০১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০১ মে ২০২২ | ৫১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রুশ বাহিনীর গোলা থেকে বাঁচতে আজ ভস্টল ইস্পাত কারখানার নীচে বাঙ্কারে আশ্রয় নিয়েছিলেন মারিয়ুপোলের হাজার খানেক মানুষ। বন্দর-শহরটি রাশিয়ার দখলে যাওয়ার পরে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন নির্দেশ দিয়েছিলেন, কোনও হামলা যেন না-করা হয়। শুধু কারখানা থেকে বেরনোর সব পথ বন্ধ করে দেওয়া হোক।

বাস্তব পরিস্থিতি তার থেকেও ভয়ঙ্কর। উপগ্রহচিত্রে ধরা পড়েছে, কারখানার প্রতিটি ব্লকের ছাদে বড় বড় গর্ত। আকাশপথে বোমা ফেলে কার্যত গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে পুরো অঞ্চল। কারখানার ভিতরে এক-এক জায়গা ধসে গিয়েছে। এক-একটি বাড়ি সম্পূর্ণ ধ্বংসস্তূপ।  ভরেজিমেন্টের আশঙ্কা, মাটির নীচে আদৌ কেউ বেঁচে আছে কি না সন্দেহ! কমান্ডার শিতোস্লাভ পালামার বলেন, ৪ মাসের বাচ্চাও ছিল ওখানে। ১৬ বছরের কিশোরও ছিল। ওরা এমন ভাবে আটকে, বেঁচে থাকলেও উদ্ধার করতে যাওয়ার কোনও পথ নেই।

পূর্ব ইউক্রেনের ডনবাস অঞ্চলের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বন্দর-শহর মারিয়ুপোল। যুদ্ধের গোড়া থেকে এটিকে দখল করতে মরিয়া ছিল রাশিয়া। কিন্তু ইউক্রেনের বাহিনী ও সাধারণ মানুষের প্রতিরোধে প্রায় দুমাস লেগে গিয়েছে লক্ষ্যপূরণে। পরিণতি হিসেবে রোজই শোনা যাচ্ছে, রুশ হামলার নৃশংস বয়ান। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জ়েলেনস্কি আজ বলেন, ‘‘ডনবাসে যাতে কোনও প্রাণ না-বাঁচে, তা নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর রাশিয়া।

আজ ডনবাস এলাকায় পোপাসনায় দুটি উদ্ধারকারী বাস পাঠানো হয়েছিল। খোঁজ নেই কোনওটির। সেনাকর্তা মিকোলা খানাতোভ জানিয়েছেন, একটি বাস রুশ হামলার মুখে পড়েছে। এটুকু খবর তাদের কাছে আছে। কিন্তু দ্বিতীয় বাসটির সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি। মিকোলা জানান, স্থানীয় এক ইতিহাসের শিক্ষক বাসটি নিয়ে উদ্ধারে গিয়েছিলেন।

আর একটি বাসও পাঠানো হয়েছিল। সেটি ৩১ জনকে উদ্ধার করে এনেছে। নিখোঁজ বাস দুটিকে খোঁজার চেষ্টা করারও উপায় নেই। ইউক্রেন প্রশাসন জানিয়েছে, গোটা ডনবাস এলাকা জ্বলছে। উত্তর-পূর্বে খারকিভ শহরেও হামলা চলছে। একটি হাসপাতালে বোমা ফেলে শত্রুরা। দুটি নতলা আবাসনেও আকাশপথে হামলা করা হয়।

আগুন ধরে যায় বাড়ি দুটিতে। রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রক নিজেরাও ঘোষণা করেছে, তারা ডনবাস এলাকায় একাধিক ইউক্রেনীয় সেনাঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে। আজ জানা গিয়েছে, রাশিয়ার হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন কিভের ভূত। ২৯ বছর বয়সি স্টেফান তারাবালকাকে এই নামেই ডাকা হত। একা ৪০টি রুশ যুদ্ধবিমানকে ঘায়েল করেছিলেন এই ফাইটার পাইলট। গত ১৩ মার্চ তাঁর মিগ-২৯-কে গুলি করে নামায় রুশ বাহিনী। তারাবালকাকে ইউক্রেনীয়রা ভালবেসে বলতেন ঈশ্বরের পাঠানো রক্ষক

ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসনের আজ ৬৬তম দিন। কার্যত ধ্বংসস্তূপের উপরে দাঁড়িয়ে দেশটা। মস্কো অবশ্য এই গোটা পর্বকে বলে চলেছে বিশেষ সেনা অভিযান। পশ্চিমি রাষ্ট্রগুলোর আশঙ্কা, এ ভাবে আর বেশি দিন নয়। সামনেই ৯ মে রাশিয়ার বিজয় দিবস। ওই দিন যুদ্ধ ঘোষণা করতে পারে ক্রেমলিন। গত দুমাসে সেই অর্থে ইউক্রেনের খুব অল্প অংশ দখল করতে পেরেছে রাশিয়া। তারা যুদ্ধ ঘোষণা করলে রাশিয়ার মিত্র দেশগুলোও অংশ নেবে লড়াইয়ে। এখন শুধুমাত্র পুতিনের অঙ্গুলি হেলনের অপেক্ষা।


আরও খবর



হাসপাতালে মাশরাফি, পায়ে ২৭ সেলাই

প্রকাশিত:শনিবার ০৭ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০৭ মে ২০২২ | ৩৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা আবার ইনজুরিতে পড়েছেন। এবার অবশ্য চোটটা খেলার মাঠ থেকে আসেনি। আহত হয়েছেন নিজ বাসাতেই। তার বাম পায়ের পেছনের অংশ কেটে গেছে। সেখানে ২৭টি সেলাই দেওয়া হয়েছে। শনিবার (০৭ মে) নিজ বাসায় অবস্থান করছিলেন মাশরাফি। সেখানে কাচের টেবিলের সঙ্গে ধাক্কা লাগে তার। টেবিলে ধাক্কা লাগায় ওপর থেকে তার পায়ের পেছন দিকে কাচ পড়ে। এতে বেশ খানিকটা অংশ কেটে যায়।

দুর্ঘটনার পর তাকে রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে সেখানে চিকিৎসার পর শঙ্কা কেটে যায় তার। এখন তাকে বাসায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে মাশরাফির পারিবারিক সূত্র।

এমনিতেই ইনজুরিতে জর্জর মাশরাফির ক্যারিয়ার। সদ্য শেষ হওয়া ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ শুরুর আগেও চিকিৎসার জন্য ভারতে গিয়েছিলেন। যার জন্য টুর্নামেন্টটির প্রথম ম্যাচ খেলতে পারেননি। ঝুঁকি আছে জেনেও খেলা চালিয়ে গিয়েছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক এই অধিনায়ক। 


আরও খবর



রাজধানীর রায়েরবাজারে ছুরিকাঘাতে যুবক নিহত

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | ১৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর রায়েরবাজারে মেকাপ খান রোডে ছুরিকাঘাতে আহত হোসেন (১৯) নামের এক যুবক চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। আজ শনিবার ভোর ৪টার দিকে ধানমণ্ডির একটি বেসরকারি হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) তাঁর মৃত্যু হয়। মোহাম্মদপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) লিটন মাতবর এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এসআই লিটন মাতবর বলেন, শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে ছুরিকাঘাতের এ ঘটনা ঘটে। চার-পাঁচ জনের একটি দল হোসেনের ডান পাঁজরে আঘাত করে। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

লিটন মাতবর আরও বলেন, ঘটনাটি পূর্বশত্রুতার জের ধরে ঘটতে পারে। এ ঘটনায় একটি হত্যা মামলা করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।’ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (ঢামেক) পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (পরিদর্শক) বাচ্চু মিয়া বলেন, মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে।

নিহত হোসেনের বোন মোমেনার বরাত দিয়ে লিটন মাতবর বলেন, হোসেন রায়েরবাজার এলাকাতে থাকতেন। গদিঘর এলাকায় একটি জুয়েলারি কারখানায় কাজ করতেন তিনি। শুক্রবার সকালে বাসা থেকে বের হয়ে কারখানায় যাচ্ছিলেন। পথে মেকাপ খান রোডে চার জন যুবক তাঁর ডান পাঁজরে ছুরিকাঘাত করে তাঁর মোবাইল ফোন ও মানিব্যাগ হাতিয়ে পালিয়ে যায়। শোনা যাচ্ছে, দুর্বৃত্তেরা হোসেনের পরিচিত। পরে আহত অবস্থায় তাঁকে প্রথমে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। সেখান থেকে ঢামেকে নিয়ে তাঁর অস্ত্রোপচার করা হয়। অস্ত্রোপচারের পর চিকিৎসকেরা তাঁর আইসিইউ সাপোর্ট লাগবে বলে জানালে স্বজনেরা ধানমণ্ডি-২৭ নম্বরে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করান।


আরও খবর



চাঁদপুরে স্ত্রীকে জবাই করে পালালো স্বামী

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | ৪৬৫জন দেখেছেন

Image

চাঁদপুর প্রতিনিধি:

চাঁদপুর সদর উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের মুন্সিরহাট এলাকায় রুপা বেগম (২৮) নামে স্বামী কর্তৃক স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা করেছে ছেলের অভিযোগ। নারীর গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সোমবার বেলা ১১টার দিকে ওই এলাকার দনপর্দ্দি গ্রামের মজিদ প্রদানিয়া বাড়ির নীচতলা থেকে মরদেহ উদ্ধার করে চাঁদপুর সদর মডেল থানা পুলিশ।

নিহত রুপা বেগম একই ইউনিয়নের ১নম্বর ওয়ার্ডের বাংলাবাজার এলাকার প্রধানিয়া বাড়ির নাছির দেওয়ানের স্ত্রী। তার দুই পুত্র সন্তান রয়েছে। ঘটনার পর থেকে ওই নারীর স্বামী নাছির দেওয়ান পলাতক রয়েছেন। রুপা বেগম এর পিতার বাড়ি সদর উপজেলার লক্ষ্মীপুর মডেল ইউনিয়নের কমলাপুর গ্রামে।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, নাছির দেওয়ান স্ত্রী সন্তান নিয়ে মজিদ প্রধানিয়ার বাড়িতে ভাড়া থাকেন। পেশায় রং মিস্ত্রি। রবিবার দিবাগত রাতের কোন এক সময় এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা সংবাদ দিলে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে। কি কারণে এই ঘটনা কেউই এই মুহুর্তে বলতে পারছে না।

এদিকে, সংবাদ পেয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি), পিবিআই ও পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।


আরও খবর