আজঃ বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

আজকের রাশিফল: শনিবার ০২ ডিসেম্বর ২০২৩

প্রকাশিত:শনিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২3 | হালনাগাদ:শনিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২3 | অনলাইন সংস্করণ
জীবন ধারা ডেস্ক

Image

আজ নতুন কী ঘটতে চলেছে? আজ কি আপনার জন্য ভাল কিছু অপেক্ষা করে আছে? কেমন থাকবে আপনার আর্থিক অবস্থা? নাকি খারাপ কিছুর অপেক্ষা করে আছে আপনার ভাগ্যে। বিখ্যাত জ্যোতিষীর দ্বারা বিশ্লেষণের পর আজকের দিন নিয়ে ভবিষ্যত গণনা জানুন আপনার আজকের রাশিফলে।

মেষ: নিজের মনকে অশান্ত হতে দেবেন না। আপনি মানসিক অস্থিরতা বোধ করবেন, আপনি চারপাশের জিনিসগুলি নিয়ে হতাশ হবেন, যার কারণে আপনি আপনার কাজ এবং দায়িত্ব থেকে বিভ্রান্ত হতে পারেন।

বৃষ: যৌন ব্যবসায় অংশীদারদের থেকে সতর্ক থাকুন। আপনি পেশা, শান্তি বা শিক্ষার সন্ধানে বর্তমান স্থান থেকে স্থানান্তর করার পরিকল্পনা করতে পারেন। আপনার পিতামাতার স্বাস্থ্যের বিষয়েও আপনাকে সতর্ক থাকতে হবে।

মিথুন: মনোবল বজায় রাখার চেষ্টা করুন। আপনি বুদ্ধিবৃত্তিক বিষয়গুলির দিকে ঝুঁকতে পারেন, আপনি সাহিত্য, বর্তমান সংবাদ বা আর্থিক খবরে আগ্রহী হতে পারেন, আপনি সামাজিক সংবাদ সম্পর্কে গসিপিং উপভোগ করতে পারেন।

কর্কট: অস্থাবর সম্পত্তি চুরির আশঙ্কা আছে। আপনি আপনার ক্যারিয়ার তৈরি করতে উচ্চ শিক্ষার কথাও ভাবতে পারেন। কিন্তু সন্তানদের শিক্ষা আপনাকে বিরক্ত করতে পারে। সমাজে আপনার সুনাম বৃদ্ধি পাবে।

সিংহ: ঘটমান কাজের পরিবর্তন থেকে উপকৃত হবেন। আপনি কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তির সাথে দেখা করবেন, যারা আপনাকে পেশাদার ফ্রন্টে ভাল অবস্থানে বৃদ্ধি পেতে সহায়তা করতে পারে। আপনি আপনার ব্যবসায় নতুন উদ্ভাবন বাস্তবায়ন করতে পারেন।

কন্যা: শান্তির জন্য দান ও দাতব্যকাজে শ্রম দান করুন। শিক্ষার্থীদের তাদের পড়াশোনার প্রতি মনোযোগী থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়, যেকোনো ধরনের চেহারা এবং গ্ল্যামার তাদের লক্ষ্য অর্জনে ব্যর্থতার দিকে নিয়ে যেতে পারে।

তুলা: তর্ক হতে পারে এমন বিতর্কিত বিষয় এড়িয়ে চলুন। আপনার প্রতিপক্ষ এবং গোপন শত্রুরা নিয়ন্ত্রণে থাকবে। পুরানো স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সমস্যাগুলি এখন দূর হবে বলে আশা করা হচ্ছে। আপনি আপনার বাড়ি সংস্কার বা নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

বৃশ্চিক: কর্মক্ষেত্রে পদোন্নতির সম্ভাবনা আছে। আপনি আপনার পরিবারের মান বজায় রাখার জন্য প্রত্নবস্তু, কিছু সৃজনশীল জিনিস কিনতে পারেন। এই সময়ে পুরানো দাম্পত্য কলহের সমাধান হতে পারে।

ধনু: পরিবারে সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন। চাকরিজীবীরা ভালো খবর পেতে পারেন। ভাগ্যের সাহায্যে কর্মক্ষেত্রে সাফল্য পাবেন। একজন অবিবাহিত ব্যক্তির সত্যিকারের জীবনসঙ্গীর সাথে দেখা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

মকর: বিবাহিত জীবনে ভালো কিছু হবার পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে। প্রেমিক দম্পতি তাদের সম্পর্ককে বিয়েতে রূপান্তর করার পরিকল্পনা করতে পারেন। আপনি আপনার চাকরিতে পদোন্নতি পাওয়ার আশাও করবেন।

কুম্ভ: ভালোবাসায় একটি সুন্দর মোড় আসবে। নিকটাত্মীয়দের জমি-সম্পত্তি সংক্রান্ত বিবাদ এখন মীমাংসা করার মতো অবস্থায় থাকবে। সম্পত্তি সম্পর্কিত বিনিয়োগগুলি অর্থ ক্ষতিতে পরিণত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

মীন: স্বাস্থ্যের খাতিরে অযথা চিৎকার করবেন না। নতুন বিনিয়োগগুলি কয়েক দিনের জন্য স্থগিত করতে হবে। সামান্য বিনিয়োগের পরে আপনার ভাল লাভের সম্ভাবনাও থাকবে। আপনি সুখ এবং আনন্দ অনুভব করবেন।


আরও খবর
বিষাক্ত মাশরুম চেনার উপায়

মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24




‘খুব অস্বাস্থ্যকর’ বাতাস নিয়ে দূষণে দ্বিতীয় ঢাকা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বিশ্বে দূষিত শহরের তালিকায় সম্প্রতি প্রায় প্রতিদিনই শীর্ষ তিনের মধ্যে থাকছে ঢাকার নাম। আজও দূষণের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে ঢাকা। মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টা ১০ মিনিটে বায়ুমানের সূচক (একিউআই) অনুযায়ী ঢাকায় বাতাসের মান ছিল ২৩২ স্কোর। বায়ুর মান বিচারে এ মাত্রাকে খুব অস্বাস্থ্যকর বলা হয়।

এ ছাড়া স্কোর ২৬৬ নিয়ে প্রথম স্থানে রয়েছে ভারতের দিল্লি। ২১১ স্কোর নিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ভারতের মুম্বাই। ২০২ স্কোর নিয়ে চতুর্থ স্থানে রয়েছে পাকিস্তানের লহোর এবং ১৭৮ স্কোর নিয়ে পঞ্চম স্থানে পাকিস্তানের আরেক শহর করাচি।

তথ্যমতে, একিউআই স্কোর ১০১ থেকে ২০০ এর মধ্যে থাকলে অস্বাস্থ্যকর, ২০১ থেকে ৩০০ এর মধ্যে থাকলে খুব অস্বাস্থ্যকর এবং স্কোর ৩০১ থেকে ৪০০ এর মধ্যে থাকলে ঝুঁকিপূর্ণ বলে বিবেচিত হয়।

ঢাকায় বায়ুদূষণের জন্য ইটভাটা, যানবাহনের ধোঁয়া ও নির্মাণ সাইটের ধুলোকে দায়ী করে আসছেন বিশেষজ্ঞরা। ভয়াবহ এই দূষণের ফলে গুরুতর স্বাস্থ্যঝুঁকি তৈরি হচ্ছে। এটা সব বয়সী মানুষের জন্য ক্ষতিকর। বিশেষ করে শিশু, অসুস্থ ব্যক্তি, প্রবীণ ও অন্তঃসত্ত্বাদের জন্য বায়ুদূষণ খুবই ক্ষতিকর।

নগর পরিকল্পনাবিদ অধ্যাপক ড. আদিল মুহাম্মদ খান বলেন, ঢাকার বায়ু দূষণ ধারাবাহিকভাবেই উদ্বেগজনক। বায়ুদূষণের অনেক উৎসের মধ্যে ইদানীং নির্মাণযজ্ঞও উঠে এসেছে। ভবন বা অবকাঠামো নির্মাণে আদর্শ মান মানা হয় না। সরকারি ও বেসরকারি সব উন্নয়নকাজ উন্মুক্তভাবেই করা হচ্ছে।


আরও খবর
বিষাক্ত মাশরুম চেনার উপায়

মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24




বাংলাদেশের সঙ্গে অংশীদারিত্ব জোরদারে পদক্ষেপ অব্যাহত রাখবে যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৩ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৩ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বাংলাদেশের সঙ্গে অংশীদারিত্ব আরও গভীর করতে পদক্ষেপ গ্রহণ অব্যাহত রাখবে যুক্তরাষ্ট্র। সোমবার (২২ জানুয়ারি) ওয়াশিংটনে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরে নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে প্রিন্সিপাল ডেপুটি মুখপাত্র বেদান্ত প্যাটেল এ কথা বলেন।

বেদান্ত প্যাটেল বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে অংশীদারিত্ব গভীর করার ক্ষেত্রে আমাদের অনেকগুলো পদক্ষেপ রয়েছে এবং আরও পদক্ষেপ গ্রহণ অব্যাহত থাকবে।

বাংলাদেশের সঙ্গে অংশীদারিত্ব গভীর করতে যুক্তরাষ্ট্র সুনির্দিষ্ট কী পদক্ষেপের কথা ভাবছে, তা এক সাংবাদিক জানতে চাইলে মার্কিন কর্মকর্তা বেদান্ত প্যাটেল এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি বিশেষভাবে জলবায়ু সমস্যা ও নিরাপত্তার ক্ষেত্রে সহযোগিতার কথা উল্লেখ করেন। কারণ, এসব ক্ষেত্রে কাজ করার সুযোগ রয়েছে বলে মনে করছে যুক্তরাষ্ট্র।

বেদান্ত প্যাটেল আরও বলেন, অবশ্যই, আমাদের বেসরকারি অংশগুলোর সঙ্গেও জড়িত হওয়ার সুযোগ রয়েছে। যা এই সম্পর্ককে গভীর করার জন্যও মুখ্য ও গুরুত্বপূর্ণ বলে আমরা বিশ্বাস করি।

নিউজ ট্যাগ: যুক্তরাষ্ট্র

আরও খবর
দেশে ৩০ শতাংশ খাদ্য অপচয় হয়: কৃষিমন্ত্রী

বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




গর্ভের সন্তানের লিঙ্গ প্রকাশ নয়, চূড়ান্ত শুনানি ১১ ফেব্রুয়ারি

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আদালত প্রতিবেদক

Image

মাতৃগর্ভের শিশুর লিঙ্গ পরিচয় প্রকাশ রোধে নীতিমালা বা নির্দেশনা তৈরি করতে বিবাদীদের ব্যর্থতা কেন অবৈধ ও আইনগত কর্তৃত্ব বহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না এবং অনাগত শিশুর লিঙ্গ পরিচয় নির্ধারণে নীতিমালা তৈরি করতে বিবাদীদের কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, এই মর্মে জারি করা রুলের চূড়ান্ত শুনানির জন্য আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করেছেন হাইকোর্ট।

বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) বিচারপতি নাইমা হায়দার ও বিচারপতি কাজী জিনাত হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ রুল শুনানির জন্য এ দিন ধার্য করেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী তীর্থ সলিল রায়। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত দাশগুপ্ত।

পরে আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান বলেন, মাতৃগর্ভে থাকা অবস্থায় অনাগত শিশুর লিঙ্গ প্রকাশ করা যাবে না, এই নীতিমালা তৈরি করায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে আবেদন করা হয়েছিল যেন রুলটি খারিজ করা হয়। হাইকোর্ট রুল খারিজের আবেদনে সাড়া দেননি। আদালত বলেছেন, ১১ ফেব্রুয়ারি আমরা রুল শুনব।

এর আগে, গত ২৯ জানুয়ারি মাতৃগর্ভে থাকা অবস্থায় অনাগত শিশুর লিঙ্গ প্রকাশ করা যাবে না মর্মে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গঠিত কমিটির প্রতিবেদন হাইকোর্টে দাখিল করা হয়। এই নীতিমালা অনুযায়ী কোনো ব্যক্তি, হাসপাতাল, ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ল্যাবরেটরি কোনো লেখা বা চিহ্ন বা অন্য কোনো উপায়ে শিশুর লিঙ্গ প্রকাশ করতে পারবে না।

২৯ জানুয়ারি বিচারপতি নাইমা হায়দার ও বিচারপতি কাজী জিনাত হকের হাইকোর্ট বেঞ্চে এ নীতিমালা দাখিল করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

এর আগে গত ২০২০ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি মাতৃগর্ভে থাকা অবস্থায় অনাগত শিশুর লিঙ্গ পরিচয় রোধে নীতিমালা তৈরি করতে রুল জারি করেন হাইকোর্ট।

রুলে অনাগত শিশুর লিঙ্গ পরিচয় রোধে নীতিমালা বা নির্দেশনা তৈরি করতে বিবাদীদের ব্যর্থতা কেন অবৈধ ও আইনগত কর্তৃত্ব বহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না এবং অনাগত শিশুর লিঙ্গ পরিচয় নির্ধারণে নীতিমালা তৈরি করতে বিবাদীদের কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চান হাইকোর্ট।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রুল জারি করেছিলেন। হাইকোর্টের রুলের পর নীতিমালা তৈরির জন্য কমিটি গঠন করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

রুল জারির পর রিটকারী আইনজীবী ইশরাত হাসান বলেছিলেন, ভারতে আইন করে গর্ভজাত সন্তানের লিঙ্গ নির্ধারণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। গর্ভের শিশুর লিঙ্গ নির্ধারণ করা হলে প্রসূতি মায়ের মানসিক চাপ তৈরি হয়। অনেক ক্ষেত্রে পারিবারিক চাপে গর্ভপাত করার ঘটনাও ঘটে।

২০২০ সালের ২৬ জানুয়ারি গর্ভের শিশুদের লিঙ্গ পরিচয় জানার উদ্দেশ্যে পরীক্ষা ও লিঙ্গ পরিচয় প্রকাশ বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে জনস্বার্থে রিটটি দায়ের করেন অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান।


আরও খবর



টঙ্গীতে ট্রাকচাপায় পোশাক শ্রমিকের মৃত্যু, সড়ক অবরোধ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৩ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৩ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
গাজীপুর প্রতিনিধি

Image

গাজীপুরের টঙ্গীতে ট্রাকচাপায় এক পোশাক শ্রমিক নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (২৩ জানুয়ারি) সন্ধ্যা ৭টার দিকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের টঙ্গীর গাজীপুরা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পরে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে রাখেন।

জানা গেছে, নিহত পোশাক শ্রমিকের নাম আতিকুর রহমান (৪০)। তিনি গাইবান্ধা জেলার সদর থানাধীন বাহাদুরপুর গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে। তিনি শারীরিক প্রতিবন্ধী।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কারখানায় কাজ শেষে গাজীপুরা এলাকার ভাড়া বাড়িতে ফিরছিলেন আতিকুর। এ সময় কারখানার সামনে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক পারাপার হতে গেলে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা গাজীপুরগামী একটি ট্রাক আতিকুলকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পরে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

ট্রাকচাপায় আতিকুরের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে কারখানাটির কয়েক শ শ্রমিক ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করতে থাকে। এ সময় মহাসড়কের ঢাকাগামী লেনে যান চলাচল বন্ধ থাকে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

টঙ্গী পশ্চিম থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাখাওয়াত হোসেন বলেন, আতিকুরের পরিবারের সদস্যদের খবর পাঠানো হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ট্রাফিক পুলিশ গাজীপুরের সাইনবোর্ড এলাকা থেকে ট্রাকটিতে জব্দ করে থানায় নিয়ে এসেছে। ক্ষুব্ধ শ্রমিকদের সড়ক থেকে সরিয়ে দিলে রাত দশটার দিকে ওই সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।


আরও খবর



‘অনুমতি পেলে তিন মাসের মধ্যে আসতে পারে ডেঙ্গুর টিকা’

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
স্বাস্থ্য ডেস্ক

Image

অনুমতি পেলে আগামী তিন মাসের মধ্যে ডেঙ্গুর টিকা আসতে পারে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক আহমেদুল কবির।

সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর গুলশান-২ নম্বরের নগর ভবনে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের আওতাধীন এলাকায় এডিস মশা এবং এডিস মশাবাহিত ডেঙ্গু মোকাবিলায় বছরব্যাপী উত্তর সিটির প্রস্তুতি এবং করণীয় শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে তিনি এ কথা বলেন।

আহমেদুল কবির বলেন, বিভিন্ন বেসরকারি ফার্মাসিটিক্যাল কোম্পানি ডেঙ্গুর টিকার সিড এনেছে। মার্চে ল্যাব রেগুলারিটি পারমিশন পেলেই তিন মাসের মধ্যে আসতে পারে ডেঙ্গুর ভ্যাকসিন।

ডেঙ্গু মোবাবিলা ও কর্মপরিকল্পনা প্রস্তুতি এবং পরামর্শ নিতে আলোচনায় অংশ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল্লাহ, নিপসম পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা, স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক আহমেদুল কবির, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক অধ্যাপক ড. কবিরুল বাসার, সিডিসি সাবেক পরিচালক অধ্যাপক ডা. বেনজির আহমেদ, নিপসম কীটতত্ত্ববিদ অধ্যাপক ড. গোলাম সারোয়ার, স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (সিডিসি) অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলাম, স্বাস্থ্য অধিদফতরের আইইডিসিআর বিভাগের পরিচালক অধ্যাপক ডা. তাহমিনা শিরিন, স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (হাসপাতাল ও ক্লিনিক) ডা. আবু হোসেন, মো. মোইনুল আহসান, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের নির্বাহী পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন কামরুল ইসলাম, রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মো. আনিছুর রহমান মিঞা, বাংলাদেশ রেলওয়ে মহাপরিচালক মো. কামরুল আহসান, জাতীয় গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান।

এছাড়াও রয়েছে বুয়েটের নগর পরিকল্পনাবিদ ইকবাল হাবিব, পিপিডব্লিউ পরিচালক মোহাম্মদ আশরাফ উদ্দিন, পিপিডব্লিউ উপ-পরিচালক সুব্রত কুমার দত্ত, মেট্রোরেল প্রকল্প ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম, এ, এন, ছিদ্দিক, ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট বোর্ড প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাজহারুল ইসলাম, ডিএনসিসি ওয়াড কাউন্সিলর ডাঃ আব্দুল মতিন, ওয়াড কাউন্সিলর দেওয়ান আবদুল মান্নান, রিহাব সাবেক সভাপতি সামসুল ইসলাম আলামিন, আইসিডিডিআরবি বিজ্ঞানী রাশেদুল হক, ডিওএইচএস প্রতিনিধি মেজর শামস আহমেদ জিয়াসহ প্রমুখ।


আরও খবর
করোনার কিছু টিকায় সমস্যা বেড়েছে: গবেষণা

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪