আজঃ শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১
শিরোনাম

আ'লীগের অর্থ ও পরিকল্পনা উপ-কমিটিতে পটুয়াখালীর রাজীব

প্রকাশিত:শনিবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০21 | হালনাগাদ:শনিবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০21 | ২৩১জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় অর্থ ও পরিকল্পনা উপ-কমিটিতে স্থান পেয়েছেন পটুয়াখালীর কৃতি সন্তান মোঃ রাজীব পারভেজ। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় অর্থ ও পরিকল্পনা উপ কমিটি অনুমোদন করেছেন। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় অর্থ ও পরিকল্পনা উপ কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান এবং কমিটির সদস্য সচিব আলীগের অর্থ ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক ওয়াসিকা আয়শা খান এমপি।

জাতীয় সংসদের অর্থ মন্ত্রণালয় এবং পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির আওয়ামী লীগ দলীয় ১৮ জন সংসদ সদস্য পদাধিকার বলে কমিটির সদস্য মনোনীত হয়েছেন। এছাড়াও ৩৬ জনকে সদস্য করে কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। যে তালিকায় প্রথম নামটি মোঃ রাজীব পারভেজের। তিনি রাষ্ট্রায়ত্ত বেসিক ব্যাংক লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের পরিচালক এবং গভর্নেন্স পলিসি এক্সপ্লোর সেন্টারের চেয়ারপার্সন হিসেবে বর্তমানে দায়িত্ব পালন করছেন। রাজীব পারভেজ গত মেয়াদেও অর্থ ও পরিকল্পনা উপ-কমিটিতে ছিলেন। এর পূর্বে দলের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপ-কমিটিতে সদস্য ছিলেন। দলের কেন্দ্রীয় মুখপত্র উত্তরণে প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সহ-সম্পাদক হিসেবে কাজ করেছেন। এছাড়া একসময় দলের কেন্দ্রীয় তথ্য ও গবেষণা বিভাগ ও জাতীয় নির্বাচনী মিডিয়া সেলের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। আওয়ামী লীগের সাথে সরাসরি কাজ করার পূর্বে দলের সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতীম বিভিন্ন সংগঠনের সাথে ছাত্রজীবন থেকেই কাজ করছেন। দলের কেন্দ্রীয় রাজনীতির পাশাপাশি নিজ জেলা পটুয়াখালীতে তিনি গত এক যুগ ধরে বিভিন্ন রকম সামাজিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে তৃণমূল পর্যায়ে যথাসাধ্য ভূমিকা রেখে চলছেন। তিনি গত জাতীয় নির্বাচনে পটুয়াখালী-১ সংসদীয় আসনে দলের নিকট মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন।  পটুয়াখালী শহরের ঐতিহ্যবাহী সিকদার পরিবারের সন্তান তিনি। তার পিতা মরহুম অধ্যাপক আবদুল মান্নান সিকদার ও মাতা ফিরোজা বেগম।

Share

সবাই নজরদারিতে আছেন: ওবায়দুল কাদের

বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১




দেশে ৫৫ পৌরসভায় ভোট গ্রহণ চলছে

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১০২জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
৫৫ পৌরসভায় মেয়র পদে লড়ছেন ২২৩ জন। এছাড়া ৫১০টি সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী দুই হাজার ৯৯ জন এবং ১৭০ সংরক্ষিত ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী ৬২৯ জন

চতুর্থ ধাপে ৫৫ পৌরসভায় ভোট গ্রহণ চলছে। আজ রবিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া এ ভোট গ্রহণ চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত । এ ধাপে ২৫ পৌরসভায় ব্যালট পেপারে ভোট হচ্ছে আর ৩০ পৌরসভায় হচ্ছে ইভিএমে ভোট। করোনাকালে এ নির্বাচনে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশনাও দিয়েছে ইসি।

৫৫ পৌরসভায় মেয়র পদে লড়ছেন ২২৩ জন। এছাড়া ৫১০টি সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী দুই হাজার ৯৯ জন এবং ১৭০ সংরক্ষিত ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী ৬২৯ জন। এসব পৌরসভায় ৮০২টি ভোটকেন্দ্রে কক্ষ সংখ্যা চার হাজার ৯২৭টি। মোট ভোটার ১৭ লাখ ৬২৪ জন।

সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণের জন্য ৫০১ জন নির্বাহী ও ৫৫ জন জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাঠে থাকছেন। পুলিশের ১৬৭টি মোবাইল ও ৫৫টি স্ট্রাইকিং ফোর্স টিম, র‌্যাবের ১৬৭টি টিম, প্রত্যেক পৌরসভায় গড়ে দুই প্লাটুন বিজিবি ও উপকূলীয় এলাকায় প্রতি পৌরসভায় এক প্লাটুন কোস্টগার্ড মোতায়েন করা হয়েছে।

দেশে ৩২৯টি পৌরসভা রয়েছে। করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে এবার পাঁচ ধাপে এসব পৌরসভায় ভোট করছে ইসি। প্রথম দফায় গত ২৮ ডিসেম্বর, দ্বিতীয় ধাপে ১৬ জানুয়ারি এবং তৃতীয় ধাপে ৩০ জানুয়ারি ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। পঞ্চম ধাপে ভোট হবে ২৮ ফেব্রুয়ারি।

Share



করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৫ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৩৯জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে মারা গেছেন আরও ৫ জন। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৮ হাজার ৪০০ জনে। নতুন করে শনাক্ত হয়েছে আরও ৪০৭ জনের শরীরে। এ নিয়ে দেশে মোট করোনা শনাক্ত দাঁড়াল ৫ লাখ ৪৫ হাজার ৮৩১ জন।

আজ শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ও বাড়িতে উপসর্গবিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৬০৯ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৪ লাখ ৯৬ হাজার ১০৭ জন।

অন্যদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৪৬ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ১৮ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন এক লাখ ৪৬৫ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন ৯০ হাজার ৭১১ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন নয় হাজার ৭৫৪ জন।

বিজ্ঞপ্তিতে নাসিমা সুলতানা জানান, ২৪ ঘণ্টায় মৃত ১১ জনের মধ্যে চারজন পুরুষ, একজন নারী। এদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে চার জন ও চট্টগ্রাম বিভাগে এক জন রয়েছেন। এদের মধ্যে হাসপাতালে মারা গেছেন পাঁচ জন।

Share

ঝিনাইদহে দুই মোটরসাইকেলে সংঘর্ষ, নিহত ৩

শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১




বাংলাদেশে আল-জাজিরার সম্প্রচার নিষিদ্ধের দাবি

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১১৫জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাংলাদেশবিরোধী ষড়যন্ত্রের অভিযোগে কাতারভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরাকে বাংলাদেশে নিষিদ্ধের দাবি জানিয়েছে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি), ঢাকা কেন্দ্রের নির্বাহী কমিটি। চ্যানেলটিকে বাংলাদেশের স্বাধীনতাবিরোধী জামায়াত-শিবিরের মুখপত্র বলে উল্লেখ করা হয়।

শুক্রবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে আইইবির ঢাকা কেন্দ্রের পক্ষে এ দাবি জানান ঢাকা কেন্দ্রের সম্পাদক প্রকৌশলী কাজী খায়রুল বাশার।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, আল-জাজিরা বহু আগে থেকেই আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতি করে চলেছে। জঙ্গিবাদকে উসকে দেওয়ার কাজও তারা সুচারুভাবেই চালিয়ে যাচ্ছে। এবার তারা বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রার ধারা ব্যাহত করার অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়েছে। আমরা বিশ্বাস করি, আল-জাজিরা কর্তৃক বাংলাদেশবিরোধী ষড়যন্ত্র অতীতের মতো ভবিষ্যতেও রুখে দেবেন দেশের সচেতন নাগরিকরা।

তারা বলেন, আল-জাজিরা শুধু বাংলাদেশের ক্ষেত্রেই পক্ষপাতমূলক সংবাদ পরিবেশনা করছে না, বরং এ ক্ষেত্রে তাদের ভূমিকা আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সুবিদিত। পশ্চিমা বিশ্বে আল-জাজিরাকে দেখা হয় সন্ত্রাসবাদী কর্মকাণ্ডের পরোক্ষ প্রেরণাদাতা হিসেবে। রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত সংবাদ পরিবেশনের কারণে মিসর ছাড়াও মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের সরকার এই সংবাদমাধ্যমের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে। এই যখন পরিস্থিতি, তখন বাংলাদেশেও জনমত জোরদার হচ্ছে আল-জাজিরার বিরুদ্ধে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, আল-জাজিরা কর্তৃক প্রকাশিত প্রতিবেদন একগুচ্ছ বিভ্রান্তিকর শ্লেষ আর বক্র ইংগিত ছাড়া আর কিছু নয়, যা আসলে চরমপন্থী গোষ্ঠী জামায়াতে ইসলামীর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কুখ্যাত কিছু ব্যক্তির দ্বারা পরিচালিত রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত অপপ্রচার, যারা ১৯৭১ সালে স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার পর থেকেই এ রাষ্ট্রের প্রগতিশীল ও অসাম্প্রদায়িক নীতির বিরোধিতা করে আসছে।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, আল-জাজিরার প্রতিবেদনে যেসব অভিযোগ আনা হয়েছে, তার মূলসূত্র একজন সন্দেহভাজন আন্তর্জাতিক অপরাধী, যাকে আল-জাজিরাই সাইকোপ্যাথ আখ্যায়িত করেছে। প্রধানমন্ত্রী বা বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় কোনো প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ওই ব্যক্তির সংশ্লিষ্টতার সামান্যতম প্রমাণও সেখানে নেই। আর মানসিক ভারসাম্যহীন কারো কথার ভিত্তিতে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌঁছে যাওয়া একটি আন্তর্জাতিক নিউজ চ্যানেলের জন্য বড় ধরনের দায়িত্বহীনতার পরিচায়ক।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বাংলাদেশ সরকার ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে মিথ্যা-বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও মানহানিকর আল-জাজিরার প্রামাণ্যচিত্র প্রচারের প্রতিবাদে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি), ঢাকা কেন্দ্রের নির্বাহী কমিটি ও কাউন্সিলের পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা জানানো হয়।

তারা বাংলাদেশ বিরোধী ষড়যন্ত্রের অপরাধে আল-জাজিরার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া এবং জামায়াতে ইসলামীর পেইড এজেন্ট ডেভিড বার্গম্যানের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জোর দাবি জানান।

Share



বরগুনায় বুক-পেট জোড়া লাগানো মৃত ২ কন্যা সন্তান প্রসব!

প্রকাশিত:রবিবার ২১ ফেব্রুয়ারী 20২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২১ ফেব্রুয়ারী 20২১ | ৮৪জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

অলিউল্লাহ ইমরান, বরগুনাঃ

বরগুনার পাথরঘাটায় পেটের সাথে জোড়া লাগানো শিশুর জন্ম হয়েছে। শনিবার  (২০ ফেব্রুয়ারী) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে বেসরকারী ক্লিনিক পাথরঘাটা সৌদি প্রবাসী হাসপাতালে অস্ত্রোপচার ব্যাতীত স্বাভাবিক ভাবে ডেলিভারির মাধ্যমে জোড়া লাগানো ২ কন্যা শিশুর জন্ম দেন সুখী আক্তার নামে এক গৃহবধূ। তারা দুজনই জন্মের পূর্বে মারা যায় বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের ব্যাবস্থাপক মনিরুজ্জামান।

নবজাতকদের বাবা আল আমিন জানান, সকালে তার স্ত্রীর পেটে ব্যাথা অনুভব হলে স্থানীয় ফকিরের কাছ থেকে পানি পড়া নিয়ে খাওয়ালে ব্যাথা আরো বাড়তে থাকে। বিকালে ডাঃ বশীর আহমেদ এর নিকট আাসার পরে তিনি আল্ট্রাসনোগ্রাম করতে পরামর্শ দেয়। পরে সৌদি প্রবাসী হাসপাতালে গেলে রোগীর অসুস্থতা আরো বেড়ে যায়।

সৌদি প্রবাসী হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডাঃ তাসলিমা শারমিন জানান, বিকেল সাড়ে চারটার দিকে হাসপাতালে নিয়ে আসার পর রোগীর অবস্থা গুরুতর দেখে প্রাথমিক চিকিৎসার মাধ্যমে ভেলিভারির ব্যাবস্থা করি। আল্লাহর অশেষ রহমতে কোন ধরনের অস্ত্রোপচার ছাড়াই স্বাভাবিক ভাবে পেটের সাথে জোড়া লাগানো দুটি মেয়ে শিশুর জন্ম হয়।

তিনি আরো জানান, ওই প্রসূতি নারী সাত মাসের গর্ভবতী ছিলেন। নবজাতকদের শারীরিকভাবে পরিপুষ্ট থাকলেও কি কারণে গর্ভে থাকা অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে তার কারণ নির্নয় করা যায়নি।

Share



একুশে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে ডিএমপির ট্রাফিক নির্দেশনা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৮২জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২০২০ যথাযথ ও সুশৃঙ্খলভাবে উদযাপন করার জন্য ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৬টা থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি বেলা ২টা পর্যন্ত ঢাকায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় জনসাধারণের চলাচল ও সব ধরনের যানবাহন নিয়ন্ত্রণের জন্য বিশেষ ট্রাফিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রবেশ

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রবেশের জন্য পলাশী ক্রসিং, এসএম হল এবং জগন্নাথ হলের সামনের রাস্তা ব্যবহার করা যাবে। অন্য কোনো রাস্তা ব্যবহার করে শহীদ মিনার এলাকায় ঢোকা যাবে না।

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার থেকে বের হওয়া

শহীদ মিনার থেকে বের হওয়ার ক্ষেত্রে দোয়েল চত্বরের দিকের রাস্তা অথবা ঢাকা মেডিকেল কলেজের সামনের রাস্তা ব্যবহার করতে হবে। ঢোকার রাস্তা দিয়ে বের হওয়া যাবে না।

যেসব রাস্তা বন্ধ থাকবে

১। বকশিবাজার-জগন্নাথহল ক্রসিং সড়ক

২। চাঁনখারপুল-রোমানা চত্বর ক্রসিং সড়ক

৩। টিএসসি-শিববাড়ী মোড় ক্রসিং

৪। উপচার্য ভবন-ভাস্কর্য ক্রসিং (ফুলার রোড)

ডাইভারশন

(ক) ১৯ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৬টা থেকে ২০ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টা পর্যন্ত রাস্তায় আলপনা আঁকানোর জন্য কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের রাস্তা বন্ধ থাকবে। ওই সময় শিববাড়ী, জগন্নাথ হল ও রোমানা চত্বর ক্রসিংগুলোতে গাড়ি ডাইভারশন করে দেওয়া হবে।

(খ) ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৬টা থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি দুপুর ২টা পর্যন্ত নীলক্ষেত, পলাশী মোড়, ফুলার রোড, বকশীবাজার, চাঁনখারপুর, শহিদুল্লাহ হল, দোয়েল চত্বর, জিমনেশিয়াম, রোমানা চত্বর, হাইকোর্ট, টিএসসি, শাহবাগ ইন্টারসেকশনগুলোতে গাড়ি ডাইভারশন করে দেওয়া হবে।

(গ) ২১ ফেব্রুয়ারি ভোর ৫টা থেকে সাইন্সল্যাব হতে নিউমার্কেট ক্রসিং, কাঁটাবন ক্রসিং হতে নীলক্ষেত ক্রসিং এবং ফুলবাড়িয়া ক্রসিং হতে চাঁনখারপুল ক্রসিং পর্যন্ত প্রভাতফেরি উপলক্ষে সকল প্রকার যাত্রীবাহী গাড়ি প্রবেশ নিষিদ্ধ থাকবে।

গাড়ি পার্কিং

(ক) একুশের প্রথম প্রহরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জিমনেশিয়াম মাঠে ভিআইপি গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা থাকবে।

(খ) নীলক্ষেত-পলাশী, পলাশী-ঢাকেশ্বরী সড়কে গাড়ি পার্ক করা যাবে।

সাধারণ নির্দেশনা

(ক) কবরস্থান এবং শহীদ মিনারে যারা শ্রদ্ধার্ঘ অর্পণ করতে যাবেন তাদের অসুবিধার কথা বিবেচনায় রাস্তায় বসা বা দাঁড়িয়ে থাকা থেকে বিরত থাকতে হবে।

(খ) সর্বসাধারণের চলাচলের সুবিধার জন্য উপরে বর্ণিত রাস্তায় কোনো প্রকার প্যান্ডেল তৈরি করা যাবে না।

(গ) শহীদ মিনারে প্রবেশের ক্ষেত্রে আর্চওয়ের মাধ্যমে নিরাপত্তা তল্লাশী শেষ করে সবাইকে প্রবেশ করতে হবে।

(ঘ) শহীদ মিনার প্রাঙ্গণ হতে প্রচারকৃত নির্দেশনা মেনে চলতে হবে।

(ঙ) কোন ধরনের ব্যাগ বহন করা যাবে না।

(চ) যে কোন পুলিশি প্রয়োজনে শহীদ মিনার এলাকায় স্থাপিত অস্থায়ী পুলিশ কন্ট্রোল রুমে যোগাযোগ করা যাবে।

Share