আজঃ বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২
শিরোনাম

আংশিক ফিট সাকিবকে চান না ডমিঙ্গো

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | ২৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কোভিডে আক্রান্ত হওয়ায় সাকিব আল হাসানকে চট্টগ্রাম টেস্ট থেকে সরিয়ে নিয়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। কিন্তু শুক্রবার কোভিড টেস্টে নেগেটিভ আসায় শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্টে তাকে পাওয়ার সম্ভাবনা জেগেছে। আজ সন্ধ্যায় দলের সঙ্গে যোগ দেবেন সাকিব। শনিবার দলের সঙ্গে অনুশীলনেও নামার কথা রয়েছে।

কিন্তু প্রথম ম্যাচে নিশ্চিত নন তিনি। টিম সূত্রে জানা গেছে, সাকিব খেলতে চান। তবে ফিটনেস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে তাকে। হেড কোচ ডমিঙ্গোর মতে, সাকিব ৫০-৬০ শতাংশ ফিট হলেও তাকে পাঁচদিনের ম্যাচ খেলানো হবে না, যেকেউ সম্পূর্ণ ফিট সাকিবকে দলে চাইবেন। কিন্তু ৫০-৬০ শতাংশ ফিট হলেও তাকে খেলানো কঠিন।

এদিকে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানিয়েছেন, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টে খেলার সিদ্ধান্ত সাকিবের ওপর। তবে দল তাকে ছাড়া খেলতে প্রস্তুত। বিসিবি বস জানান, দল থেকে মিরাজ ছিটকে গেছে। সাকিবের অলরাউন্ডার জায়গা পূরণ করার আশা দেখাচ্ছিলেন ডানহাতি এই অফ স্পিনার। শরিফুলের খেলা এখনও নিশ্চিত নয়। তাসকিন দলে নেই। সব মিলিয়ে দল একসঙ্গে বড় ধাক্কা খেয়েছে। সাকিব একাদশে ফিরলে দল ভালো অবস্থানে চলে আসবে এবং বোর্ডও ভালো খেলার বিষয়ে সাহস পাবে।

কিন্তু হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো চান না সাকিব চট্টগ্রাম টেস্টে খেলুক। সম্পূর্ণ ফিট না হলে সাকিবকে খেলাতে রাজি নন তিনি। করোনামুক্ত হলেই যে মানুষ তাৎক্ষণিক সুস্থ হয়ে যান এমনটি নয় বলে জানালেন ডমিঙ্গো।

করোনামুক্ত সাকিবের খেলা-না খেলা প্রসঙ্গে ডমিঙ্গো বলেন, 'তার ফিটনেসের বিষয়টি দেখতে হবে। কী অবস্থায় আছে সেটা বুঝতে হবে। এসেই তো টেস্ট খেলা সম্ভব নয়। কেবলই সে করোনামুক্ত হলো, খুব বেশি ক্রিকেটও খেলনি। দুই-তিন সপ্তাহ ব্যাটিং-বোলিং করেনি সে। সাকিব দলে ভারসাম্য আনে, আমাদের জন্য বড় ক্রিকেটার। কিন্তু এটা খুবই গরমের দিন। কাল দেখি, কী অবস্থায় আছে সে। অনেকগুলো বিষয় আছে যেগুলো মাথায় রেখেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে।'


আরও খবর



যাত্রীসেবায় শ্রমিকদের আরও মনযোগ দিতে হবে : নৌ-প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ২৭ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৭ এপ্রিল ২০২২ | ৪০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, যাত্রীসেবা ও পণ্য পরিবহনে শ্রমিকদের আরও বেশি সতর্ক থাকতে হবে। আমাদের সীমাবদ্ধতা আছে। আমরা মানুষকে সেবা দিতে চাই। বাংলার মানুষ যেন মনে করে আমরা তাদের পাশে আছি। মানুষ একটু সহযোগিতা পেলেই খুশি থাকে। যাত্রী সেবায় শ্রমিকদের আরও মনযোগ দিতে হবে। একসাথে সবাইকে নিয়ে ঈদের আনন্দ পেতে চাই। কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা যেন ঈদের আনন্দকে মলিন করে না দেয় সেদিকে সচেষ্ট থাকতে হবে।

বুধবার (২৭ এপ্রিল) রাজধানীর সদরঘাট টার্মিনালে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে নৌযান শ্রমিক ও গরিবদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণকালে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক, পরিচালক (বন্দর) ওয়াকিল নেওয়াজ, ঢাকা নদী বন্দরের কর্মকর্তা (যুগ্ম পরিচালক) আলমগীর কবির উপস্থিত ছিলেন।

দেশের ২০টি নদী বন্দরে ৬ হাজার ৫০০ প্যাকেট খাদ্য বিতরণ করা হয়। প্রতি প্যাকেটে এক কেজি পোলাও চাল, এক কেজি লাচ্ছা সেমাই, এক কেজি চিনি, হাফ লিটার তেল ও এক কেজি লবণ রয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) যাত্রী ও পণ্য পরিবহন ব্যবস্থাপনায় সেবা দিয়ে যাচ্ছে। দেশের অর্থনীতি, জীবন-জীবিকা সচল রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। পাশাপাশি যাত্রী ও পণ্য পরিবহনের সাথে জড়িত শ্রমিকদেরও সেবা দিয়ে থাকে। করোনার সময়ে বিআইডব্লিউটিএ শ্রমিকদের পাশে ছিল। করোনা মহামারির সময়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খেটে খাওয়া মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন। ব্যবসা-বাণিজ্য সচল রাখতে এবং মানুষের স্বাস্থ্য ঝুঁকিমুক্ত রাখতে কাজ করেছেন।


আরও খবর



ভারতে এইডসে আক্রান্ত ২৩ লাখ মানুষ

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৫ এপ্রিল ২০২২ | ৩৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারতে কতজন মানুষ এইডসে আক্রান্ত, সেই তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। তাদের মধ্যে কতজন শিশু এই রোগে আক্রান্ত তাও বলা হয়েছে। জানা গেছে, দেশটিতে সুরক্ষা না নিয়ে যৌনসম্পর্কের কারণে গত ১০ বছরে প্রায় ১৭ লাখ মানুষ এইডসে আক্রান্ত হয়েছেন। তাছাড় এই মুহূর্তে ভারতে প্রায় ২৩ লাখের বেশি মানুষ এই রোগে আক্রান্ত। তাদের মধ্যে ৮১ হাজারের বেশি শিশু রয়েছে। সম্প্রতি দেশের এইডসের পরিস্থিতি জানতে চেয়ে আরটিআই করেছিলেন মধ্যপ্রদেশের সমাজকর্মী চন্দ্রশেখর গওর। তার সেই আরটিআইয়ের প্রেক্ষিতেই এই পরিসংখ্যান জানানো হয়েছে।

ভারতের এইডস নিয়ন্ত্রণ সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়, দেশে এই মুহূর্তে যত জন এইডস রোগী রয়েছেন, তাদের মধ্যে ১৭ লাখের বেশি আক্রান্ত হয়েছে কোনো সুরক্ষা ছাড়া যৌনসম্পর্ক করায়। পাশাপাশি একজন সংক্রমিতের রক্ত থেকে অন্য জন সংক্রমিত হয়েছেন, তেমন উদাহরণও রয়েছে। আক্রান্ত মায়ের থেকে সন্তান এই রোগে আক্রান্ত হয়েছে, এমন উদাহরণও রয়েছে প্রচুর।

তবে এর মধ্যে আশার খবরও আছে। পরিসংখ্যানে বলা হয়েছে, এইডস ও সুরক্ষাবিহীন যৌনসম্পর্কের বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধির ফলে এই রোগের সংক্রমণের হার কমেছে দেশটিতে।

২০১১-১২ সালে সুরক্ষাবিহীন যৌনসম্পর্কের কারণে দুই দশমিক চার লাখ মানুষ এইডসে আক্রান্ত হন। সেখানে ২০২০-২১ সালে তা নেমে দাঁড়ায় ৮৫ হাজার ২৬৮। আগামী সময়ে এই রোগটির সংক্রমণের হার আরও কমবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তার সবচেয়ে বড় কারণ সচেতনতা বৃদ্ধি।

নিউজ ট্যাগ: এইডস

আরও খবর



বৃদ্ধাশ্রম নিয়ে কথা বলে বিতর্কে সুদীপ্তা

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | ৩২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাবা-মাকে বৃদ্ধাশ্রমে রাখার পক্ষে যুক্তি দিয়ে বিতর্কে জড়ালেন ভারতীয় বাংলা সিনেমার অভিনেত্রী সুদীপ্তা চক্রবর্তী। রবিবার (৮ মে) ছিল বিশ্ব মা দিবস। এদিন কলকাতার অভিনেতা-পরিচালক সপ্তর্ষি রায় ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেন—‘সবাই যদি মাকে এত ভালোবাসেন তাহলে বৃদ্ধাবাসগুলোতে কারা থাকেন? তাদের ছেলেমেয়েরা বোধহয় কেউই এই ফেবুপাড়ায় নেই! এ পোস্টের কমেন্ট বক্সে সপ্তর্ষিকে সমর্থন করে অধিকাংশ নেটিজেন মন্তব্য করেন। কিন্তু সুদীপ্তার মন্তব্য নিয়ে তৈরি হয় বিতর্ক।

বাবা-মাকে বৃদ্ধাশ্রমে রাখার পক্ষে যুক্তি দিয়ে সুদীপ্তা চক্রবর্তী কমেন্ট বক্সে লিখেন—‘বৃদ্ধাবাসের সঙ্গে মা-বাবাকে না ভালোবাসার কোনো সম্পর্ক কিন্তু নেই। আজকের নিউক্লিয়ার ফ্যামিলির দায়িত্ববান ছেলে-মেয়েরা বাবা-মাকে বৃদ্ধাবাসে রাখেন তাদের সুবিধার জন্যই। আমরা সারাদিন কাজের পেছনে ছুটবো, টাকা রোজগার করবো, বাচ্চা মানুষ করবো, নানা দায়িত্ব পালন করবো আর সারাদিন মা-বাবা একা একা বাড়িতে বসে টিভি সিরিয়াল দেখে একাকিত্ব কাটানোর ব্যর্থ চেষ্টা করবেন।

জরুরি প্রয়োজনে কাউকে পাশে পাওয়া যায় না। তা উল্লেখ করে সুদীপ্তা চক্রবর্তী বলেন, কোনো জরুরি কাজের সময়ে কাউকে তক্ষুণি আশেপাশে পাবেন না। এমন অবস্থায় রেখে দেওয়ার চেয়ে অনেক স্বাস্থ্যকর হলো সমবয়সী আরো অনেকগুলো মানুষের সঙ্গে অবসর জীবন কাটানো। দরকারে মেডিক্যাল এমারজেন্সিতে পাশে সঠিক প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত লোকজন পাওয়া অনেক বেশি জরুরি।

তবে অনেকেই সুদীপ্তার এই যুক্তির সঙ্গে সহমত পোষণ করেছেন। এ তালিকায় টলিউড অভিনেত্রী রুপাঞ্জনা মিত্রও রয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে জোর সমালোচনা চললেও আর কোনো মন্তব্য করেননি সুদীপ্তা চক্রবর্তী।


আরও খবর



রাজধানীর যেসব এলাকায় গ্যাসের চাপ কম থাকবে

প্রকাশিত:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | ৩৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গ্যাস ট্রান্সমিশনস কোম্পানি লিমিটেড (জিটিসিএল) বর্তমানে উচ্চচাপ সম্পন্ন দুটি পাইপলাইনের সংস্কার কাজ করছে। এর ফলে ঈদের দিন রাত থেকে রাজধানী ঢাকার গাবতলী, মাজার রোড, মিরপুর, কল্যাণপুর, মোহাম্মদপুর, ধানমন্ডিসহ কিছু এলাকায় গ্যাসের চাপ কিছুটা কম রয়েছে।

এক বিজ্ঞপ্তিতে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড জানিয়েছে, ঈদের দিন মঙ্গলবার (৩ মে) রাত ১০টা থেকে শুরু হয়ে এ অবস্থা আগামীকাল বৃহস্পতিবার (৫ মে) রাত ১০টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে। তবে ঈদে প্রচুর মানুষ রাজধানী ছেড়ে গ্রামে যাওয়ায় সেসব এলাকায় গ্যাসের অভাব সেভাবে টের পাওয়া যাচ্ছে না।


আরও খবর



প্লাস্টিক সার্জারি করাতে গিয়ে অভিনেত্রীর মৃত্যু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ | ৮০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্লাস্টিক সার্জারি করাতে গিয়ে মৃত্যু হল ভারতীয় টিভি অভিনেত্রী চেতনা রাজের।  সোমবার সন্ধ্যায় বেঙ্গালুরুর একটি হাসপাতালে মাত্র ২১ বছর বয়সেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন এ অভিনেত্রী। 

পরিবারকে না জানিয়ে এদিন সকালে চর্বি কমানোর অস্ত্রোপচারের জন্য বেঙ্গালুরুর শেঠি কসমেটিক হাসপাতালে ভর্তি হন চেতনা। এরপর অস্ত্রোপচারের সময় তার ফুসফুসে পানি জমে যায় এবং তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হয়ে পড়ে। বিকাল ৪টা পর্যন্ত চিকিৎসকরা সব চেষ্টা করেও তাকে বাঁচাতে পারেনি।

বেঙ্গালুরুতেই চেতনার বড় হয়ে ওঠা। কলেজের পড়াশোনা এখনও শেষ করতে পারেননি তিনি। মডেলিং জগতে পা রাখার পর বিভিন্ন দক্ষিণী টিভি ধারাবাহিকে অভিনয় করার সুযোগ পান চেতনা।

গীতা, দোরেসানি, ওলাভিনা নিলদানা নামে কন্নড় ধারাবাহিকে অভিনয় করে সুনাম অর্জন করছিলেন তিনি। এ ছাড়াও, কন্নড় সিনেমা হাভাইয়ামিতেও অভিনয় করেন চেতনা।

অভিনয়ে সুনাম করার সঙ্গে স্বাস্থ্য সচেতন হয়ে পড়েন তিনি। হঠাৎ মেদ ঝরানোর শখ জাগে তার। ঘনিষ্ঠজনদের বক্তব্য, সেই শখ ক্রমে মারাত্মক আকার নেয়। এ কারণে সোমবারই প্লাস্টিক সার্জারি করানোর সিদ্ধান্ত নেন কন্নড় নায়িকা।

মেদ কমানোর অস্ত্রোপচারের জন্য বেঙ্গালুরুর একটি হাসপাতালে ভর্তিও হন তিনি। তবে চিকিৎসকদের জানিয়েছিলেন, তারা যেন কোনোভাবেই চেতনার পরিবারকে প্লাস্টিক সার্জারির বিষয়ে না জানান।

মা-বাবার কাছ থেকে লুকিয়েই অস্ত্রোপচার করিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু অস্ত্রোপচারের পর নায়িকার ফুসফুসে নানা ধরনের সমস্যা দেখা দিতে শুরু করে।

হাসপাতাল সূত্রের বরাতে জানিয়েছে, ফুসফুসের ভেতর পানি জমতে শুরু করে চেতনার। হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ায় হাসপাতালের কর্মীরা তাঁকে বিকেল সাড়ে ৫টা নাগাদ একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যান। ওই অবস্থাতেও হাসপাতালের চিকিৎসকদের চেতনা নির্দেশ দেন, তার অসুস্থতা সম্পর্কে যেন বাইরের কেউ কিছু জানতে না পারে।

চেতনা বলেছিলেন, কেউ কিছু জিজ্ঞাসা করলে যেন বলা হয়, তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। চিকিৎসকরা প্রায় ৪৫ মিনিট ধরে বুকে পাম্প করা সত্ত্বেও বাঁচাতে পারেননি চেতনাকে। চেতনার মৃত্যুর খবর পাওয়ার পর তার বাবা-মা ওই হাসপাতালের চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন।


আরও খবর