আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১
শিরোনাম

বাংলাদেশের শুরুটা দারুণ হলেও ছাড়ছে না হতাশা

প্রকাশিত:শনিবার ০১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০১ মে ২০২১ | ৯৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

৭ উইকেট হারিয়ে ৪৯৩ রান তুলে ক্যান্ডিতে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছে শ্রীলঙ্কা। জবাবে ব্যাট করতে নামা বাংলাদশের শুরুটা দারুণ হলেও লাঞ্চ বিরতির আগের ওভারে দুই উইকেট হারানোয় বেড়েছে হতাশা।

প্রথম সেশনে টাইগারদের সংগ্রহ ২ উইকেটে ৯৯ রান। তামিম ৭০ রানে অপরাজিত আছেন। ও সাইফ হাসান ২৫ ও নাজমুল হোসেন শান্ত শুন্য রানে আউট হয়েছেন সকালের সেশনের শেষের ওভারে।

পাল্লেকেলে স্টেডিয়ামে তৃতীয় দিন সকালে ১৫ মিনিট ব্যাট করার পর লঙ্কানরা ইনিংস ঘোষণা করে। আলোর স্বল্পতায় আগের দিন খেলা শেষ হয় ২৪.১ ওভার আগেই। শনিবার তাই খেলা শুরু হয় ১৫ মিনিট আগে।

৬ উইকেটে ৪৬৯ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ করেছিল শ্রীলঙ্কা। আজ ৩.৩ ওভার ব্যাট করেছে তারা। ১৫৯.২ ওভারে তাসকিন আহমেদ রমেশ মেন্ডিসকে তুলে নেওয়ার পর প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে শ্রীলঙ্কা।

১২৭ রানে ৪ উইকেট নেন তাসকিন। এটিই তার ক্যারিয়ার সেরা বোলিং। আগের টেস্টে পাওয়া ৩ উইকেট ছিল আগের সেরা।


আরও খবর



ঈদের আগে গণপরিবহন চালুর চিন্তা করছে সরকার

প্রকাশিত:শনিবার ০১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০১ মে ২০২১ | ৯৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, ঈদকে সামনে রেখে গণপরিবহন চালুর ব্যাপারে চিন্তা ভাবনা করছে সরকার।

আজ শনিবার (১ মে) ওবায়দুল কাদের তার সরকারি বাস ভবন থেকে ভিডিও বার্তায় এ তথ্য জানান।

এসময় ওবায়দুল কাদের আন্দোলন, বিক্ষোভে না গিয়ে পরিবহন মালিক শ্রমিকদের ধৈর্য ধরারও আহ্বন জানান।

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি রোধে সরকার ৫ থেকে ১১ এপ্রিল একগুচ্ছ বিধিনিষেধের আওতায় লকডাউন দেয়। এরপর এর মেয়াদ ১৩ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়।

পরে বিধিনিষেধ আরো কঠোর করে ১৪ এপ্রিল থেকে জরুরি কাজ ছাড়া বাইরে চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়, যা সর্বাত্মক লকডাউন হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। এই লকডাউনের মেয়াদ বাড়িয়ে ২৮ এপ্রিল করা হয়। এ সময় গণপরিবহনও বন্ধ রয়েছে।

পরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি বিবেচনায় চলমান বিধিনিষেধ আরও এক সপ্তাহ বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার। আগামী ৫ মে পর্যন্ত এ বিধিনিষেধ বহাল থাকবে।


আরও খবর



কর্মস্থলে যেতে গুণতে হচ্ছে ৩ গুণ ভাড়া

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৫ এপ্রিল ২০২১ | ১১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
আট দিনের কঠোর লকডাউনে জরুরি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান ও সংস্থা ছাড়া গণপরিবহন, সরকারি ও বেসরকারি সকল প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। একই সাথে নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থা ও শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করার নির্দেশনা দিয়ে

করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়াতে সারাদেশে চলমান রয়েছে লকডাউন। অন্যদিকে সরকারের কঠোর বিধি-নিষেধের মধ্যেও খোলা রয়েছে পোশাক শিল্প কারখানা। এ লকডাউনে কারখানার নিজস্ব পরিবহনে শ্রমিকদের যাতায়াতের ব্যবস্থা করার কথা থাকলেও সেটি মানছেন না শিল্প-কারখানার কর্তৃপক্ষ। এ কারণে রিক্সা, ভ্যান, পিকঅ্যাপ ভ্যানে করে কারখানায় যেতে শ্রমিকদের ভাড়া গুণতে হচ্ছে প্রায় ৩ গুণ বেশি।

বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) সকাল ৮টার দিকে সাভার ও আশুলিয়ার বিভিন্ন শিল্প এলাকা ঘুরে দেখা যায় শ্রমিকরা বেশি ভাড়া দিয়ে কারখানায় যাচ্ছে।

এদিকে আট দিনের কঠোর লকডাউনে জরুরি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান ও সংস্থা ছাড়া গণপরিবহন, সরকারি ও বেসরকারি সকল প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। একই সাথে নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থা ও শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করার নির্দেশনা দিয়ে খোলা রয়েছে পোশাক কারখানা।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ বস্ত্র ও পোশাক শিল্প শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক সারোয়ার হোসেনের বলেন, এই ক্রান্তি-লগ্নে শুধুমাত্র পোশাক কারখানা খোলা রয়েছে। কঠোর লকডাউনে শ্রমিক বলেই কাজে যাচ্ছে তারা। শ্রমিকরা দেশের অর্থনীতির চালিকাশক্তি। তাই তাদের শতভাগ স্বাস্থ্য সুরক্ষার দাবি জানাই।


আরও খবর



হেফাজতের তাণ্ডব

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জামিয়া ইসলামিয়া মাদ্রাসার ২০ ছাত্রকে বহিষ্কার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ এপ্রিল ২০২১ | ৬৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সরকারি স্থাপনায় হামলার অভিযোগে ২০ ছাত্রকে বহিষ্কার করেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুছিয়া মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ। গতকাল সোমবার মাদ্রাসাটির শিক্ষা সচিব মুফতী শামসুল হক সরাইলী স্বাক্ষরিত নোটিশে কর্তৃপক্ষের এই সিদ্ধান্ত জানানো হয়।

নোটিশে বলা হয়, জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুছিয়া মাদ্রাসার রীতিনীতি ও আইন-কানুন অমান্য এবং হুজুরদের বাধা উপেক্ষা করে গত ২৬ মার্চ সরকারি স্থাপনায় হামলা করার সংবাদের ভিত্তিতে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ২০ ছাত্রকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীরা হলেন আশেকে এলাহী, আবু হানিফ, মিছবাহ উদ্দিন, আশরাফুল ইসলাম, আলাউদ্দিন, মকবুল হোসেন, রফিকুল ইসলাম, মুবারক উল্লাহ, বুরহানুদ্দীন, আবদুল্লাহ আফজাল, জুবায়ের, হিজবুল্লাহ রাহমানী, শিব্বির আহমেদ, জুবায়ের, ইফতেখার আদনান, সাইফুল ইসলাম, সোলাইমান, রাকিব বিল্লাহ, তারিক জামিল ও হাবিবুল্লাহ।

গত ৫ এপ্রিল দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাব পরিদর্শনে এসে মাদ্রাসাটির শিক্ষক ও হেফাজতে ইসলামের জেলা শাখার সভাপতি সাজেদুর রহমান দাবি করেছিলেন, হামলা-ভাঙচুরে তাদের সংগঠনের কোনো নেতাকর্মী কিংবা তাদের মাদ্রাসার কোনো ছাত্র জড়িত নয়। বরং তাণ্ডবের কারণে তাদের কর্মসূচি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে মুফতী শামসুল হক সরাইলীর মোবাইলে একাধিবার ফোন করে প্রতিবারই বন্ধ পাওয়া যায়। মাদ্রাসাটির অন্যান্য শিক্ষকদেরও মোবাইল ফোনও বন্ধ রয়েছে। সূত্র জানিয়েছে, গ্রেপ্তার আতঙ্কে মাদ্রাসার শিক্ষকরা গাঢাকা দিয়েছেন।

রবিবার ভাঙচুরে সরাসরি জড়িত থাকার অভিযোগে ওই মাদ্রাসার শিক্ষক ও হেফাজতে ইসলামের জেলা কমিটির সহকারী প্রচার সম্পাদক মুফতি মাওলানা জাকারিয়া খানকে (৪৩) গ্রেপ্তার করে পুলিশ।


আরও খবর



কাবুলে স্কুলের পাশে বোমা বিস্ফোরণে নিহত ৫৫, আহত ১৫০

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৯ মে ২০২১ | ৮৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে একটি বালিকা বিদ্যালয়ে (গার্লস স্কুল) গাড়ি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে কমপক্ষে ৫৫ জনের প্রাণহানি হয়েছে, যার বেশিরভাগই ওই স্কুলের শিক্ষার্থী। এছাড়া শিক্ষার্থীসহ আহত হয়েছে আরও দেড় শতাধিক মানুষ। রয়টার্স এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, শনিবার (৮ মে) বিকেলে কাবুলের শিয়া অধ্যুষিত একটি এলাকায় ওই গাড়িবোমা বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এখন পর্যন্ত কেউ এই হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে দেশটির প্রেসিডেন্ট এ ঘটনায় তালেবানকেই দায়ী করছেন।

আফগান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন সিনিয়র কর্মকর্তা জানান, কাবুলের সায়েদ উল সুহাদা নামের একটি স্কুলে শনিবার বিকেলে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটে। স্কুলটাইম শেষে শিক্ষার্থীরা যখন বেরিয়ে আসছিলেন তখন এ বোমা হামলা চালানো হয়। এ বিষয়ে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র তারিক আরিয়ান গণমাধ্যমকে জানান, বিস্ফোরণের ঘটনায় অন্তত ৫০ জন নিহত এবং আরও অর্ধ শতাধিক আহত হয়েছে। তবে স্কুলে বিস্ফোরণের উদ্দেশ্য কিংবা কারণ জানাতে পারেননি তিনি।

তবে সরকারের পক্ষ থেকে নিহতের সংখ্যা ৪০ বলা হলেও রয়টার্স ও গার্ডিয়ানসহ আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো অন্তত ৫২ জন নিহতের খবর দিয়েছে। আহতদের মধ্যে অনেকের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। অন্যদিকে, দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র গুলাম দস্তগীর নাজারি গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, বিস্ফোরণে আহত অন্তত ৪৬ জনকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

সায়েদ উল সুহাদা নামের ওই স্কুলে বালক ও বালিকা মিলে তিন শিফটে ক্লাস চলে। এর মধ্যে দ্বিতীয় শিফটে ক্লাস চলে মেয়েদের। নাজিবা আরিয়ান নামে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র বিষয়টি রয়টার্সকে নিশ্চিত করে বলেন, হতাহতদের মধ্যে অধিকাংশই স্কুলছাত্রী।



আরও খবর



ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ করেছেন মোদি

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৯ মে ২০২১ | ১০৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মহামারি করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে বেসামাল ভারত। দেশটিতে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লাখের বেশি। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ৩ হাজার ৭৩৮ জন। এ নিয়ে পরপর ৪ দিন আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লাখের বেশি হলো। দেশটিতে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যাও ৪ হাজারের বেশি। তবে শনিবারের তুলনায় তা সামান্য কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ৯২ জনের।

বর্তমানে ভারতের করোনা পরিস্থিতি যে জায়গায় পৌঁছেছে, তাতে স্তম্ভিত গোটা বিশ্ব। এমন ভয়ংকর অবস্থা তৈরি হওয়ার জন্যে বারবার দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ব্যর্থতানিয়ে আলোড়ন উঠেছে। এবার মোদির চরম সমালোচনা করেছে প্রখ্যাত মেডিকেলবিষয়ক জার্নাল দ্য ল্যানসেট

নিজেদের সম্পাদকীয়'র প্রথম অনুচ্ছেদেই ল্যানসেট ভারতের করোনা পরিস্থিতি সম্পর্কে লিখেছে, ভারতে ভয়ঙ্কর করোনা-আবহেও সংক্রমণ ঠেকানোর থেকে সমালোচনার টুইট মুছতে বেশি আগ্রহ ছিল মোদি সরকারের। সেইসঙ্গে মোদি সরকারের ভূমিকা ও কেন্দ্রীয় সরকারের এই মনোভাব ক্ষমার অযোগ্যবলেও মন্তব্য করা হয়েছে জার্নালটির সম্পাদকীয়তে।

পৃথিবী বিখ্যাত ওই জার্নালে ভারত সম্পর্কে লেখা হয়েছে, ভারতের হাসপাতালগুলিতে বেড নেই। গোটা দেশের শ্মশানে গণচিতা জ্বলছে। স্বাস্থ্যকর্মীরা টানা কাজ করে ও করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে করতে বিধ্বস্ত। ভারতের এই দুর্যোগ সত্যিই চোখে দেখা যায় না। তারা আরও লিখেছে, দেশের মধ্যে সংক্রমণ হাতের বাইরে চলে যেতে পারে জেনেও ধর্মীয় ও রাজনৈতিক সমাগমের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। করোনার দ্বিতীয় ঝড়ের পূর্বাভাস থাকা সত্ত্বেও কোনো ব্যবস্থা নেয়নি নরেন্দ্র মোদির সরকার।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, রোববার (৯ মে) পর্যন্ত ভারতে মোট করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২ কোটি ২২ লাখ ৯৬ হাজার ৪১৪ জন। প্রাণঘাতি এই ভাইরাসে দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট ২ লাখ ৪২ হাজার ৩৬২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

 


আরও খবর