আজঃ রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩
শিরোনাম

‘বাঙ্গালী জাতিকে আত্মমর্যাদাশীল হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করেছিলেন বঙ্গবন্ধু’

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩১ আগস্ট ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩১ আগস্ট ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
Image

গোসাইরহাট(শরীয়তপুর) প্রতিনিধি:

শরীয়তপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য নাহিম রাজ্জাক এমপি বলেছেন, বঙ্গবন্ধু বাঙ্গালী জাতীকে আত্মমর্যাদাশীল জাতী হিসেবে গড়ে  তুলতে কাজ করেছিলেন।

বৃহস্পতিবার (৩১ আগস্ট) দুপুরে উপজেলার আলাওলপুর ইউনিয়নের গরীবেরচর স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে আলাওলপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের আয়োজনে অনুষ্ঠিত শোকসভা ও দোয়া মিলাদে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে তিনি একথা বলেন

নাহিম রাজ্জাক আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর জীবদ্দশায় তিনি সব সময় সাধারণ মানুষের সাথে মিশে থেকেছেন। তাদের দুঃখ কষ্টে নিজেকে বিলিয়ে দিয়ে গেছেন। কৃষক, শ্রমিক, জেলে, তাঁতি সকল পেশার মেহনতি মানুষের পাশে তিনি ছিলেন সব সময়। বঙ্গবন্ধুকে হারানোর শোক'কে শক্তিতে পরিণত করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে আমরা বদ্ধপরিকর থাকবো।

আলাওলপুর ইউনিয়ন আওয়ামা লীগ ও সহযোগী সংগঠন কর্তৃক আয়োজিত জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারসহ সকল শহীদদের স্মরণ করা হয়।

আওলালপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এস এম সিরাজ সভাপতিত্বে এবং সাবেক চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন এর সঞ্চালনায় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, গোসাইরহাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাজাহান সিকদার, সাধারণ সম্পাদক লিটন দেওয়ান, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শেখ মো.আবুল খায়ের. গোসাইরহাট পৌর মেয়র আবদুল আউয়াল সরদার, থানা অফিসার ইনচার্জ মো.আসলাম সিকদার, ইউপি চেয়ারম্যান ওসমান গনী বেপারী, বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যানসহ বীর মুক্তিযোদ্ধা, উপজেলা আওয়ামী লীগ এর সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

নিউজ ট্যাগ: আওয়ামী লীগ

আরও খবর



ফ্যামিলি কার্ড ছাড়াই আজ থেকে মিলবে ৪ পণ্য

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৪ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

রাজধানীতে ফ্যামিলি কার্ডের বাইরে স্বল্প আয়ের মানুষের জন্য খোলাবাজারে পণ্য বিক্রির উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এর আওতায় খোলা ট্রাকের মাধ্যমে ভর্তুকি মূল্যে আলু, পেঁয়াজ, মসুর ডাল ও সয়াবিন তেল বিক্রি করা হবে।

আজ মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) থেকে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন এলাকায় প্রতিদিন ৩০টি খোলা ট্রাকের মাধ্যমে এসব নিত্যপণ্য বিক্রি করা হবে। এতে ৯ হাজার পরিবার উপকৃত হবেন বলে জানা গেছে।

সোমবার সচিবালয়ে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ। তিনি বলেন, মঙ্গলবার থেকে রাজধানীতে ২৫ থেকে ৩০টি ট্রাকে মসুর ডাল, সয়াবিন তেল, আলু ও পেঁয়াজ টিসিবির মাধ্যমে বিক্রি করা হবে। একেকজন দুই কেজি মসুর ডাল, দুই লিটার সয়াবিন তেল, দুই কেজি আলু ও দুই কেজি পেঁয়াজ কিনতে পারবেন। প্রতিটি ট্রাক থেকে প্রায় ৩০০ জনকে এ পণ্য দেওয়া হবে। টিসিবির ফ্যামিলি কার্ডের বাইরে এসব পণ্য বিক্রি হবে। ফলে নতুন করে ৯ হাজার পরিবার এ সুবিধায় যুক্ত হবে।

তিনি আরও বলেন, কয়েকদিন চিনি বিক্রি করা হবে না। চিনি আমদানি করা গেলে এই কর্মসূচিতে চিনিও যুক্ত হবে।

তপন কান্তি বলেন, আপাতত সব কর্মদিবসে এই বিক্রয় কার্যক্রম চলমান থাকবে। শুক্র ও শনিবার বন্ধ থাকবে। তবে পরবর্তীতে সপ্তাহের সব দিন কর্মসূচি চলবে। একেক এলাকায় একেক দিন পণ্য বিক্রি করা হবে, যাতে রাজধানীর সব এলাকার মানুষ ন্যায্য মূল্যের এসব পণ্য পায়।


আরও খবর



পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের বিক্ষোভ ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৯ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
মশিউর রাহাত (পিরোজপুর)

Image

বিএনপি জামাতের হরতাল, অবরোধ, সন্ত্রাস ও সহিংসতার মাধ্যমে তারুণ্যের অগ্রযাত্রা রোধ, শিক্ষা জীবন বিঘ্নিত ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টির অপচেষ্টার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও সমাবেশ করেছে পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগ।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় বিক্ষোভ মিছিলটি সরকারি সোহরাওয়ার্দী কলেজ মাঠ থেকে শুরু হয়ে কলেজ ক্যাম্পাস ও শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে বিলাশ চত্ত্বরে সমাবেশে মিলিত হয়।

ছাত্রলীগের সভাপতি অনিরুজ্জামান অনিকের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ও সাধারণ সম্পাদক ইফতেখার মাহমুদ সজলের সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি ও জেলা যুবলীগের সভাপতি আক্তারুজ্জামান ফুলু, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য গোপাল বসু, যুবলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য মো. কামরুজ্জামান খান শামীম, জেলা আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগে আহবায়ক সিকদার চাঁন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি শফিউল হক মিঠু, জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি জাহিদুল ইসলাম পিরু, জেলা যুবলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল আহসান জিয়া, জেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন, যুবলীগ নেতা আব্দুল আলিম সিকদার, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা ইমরান আহমেদ, শেখ হাসান মামুন, জসিম হাওলাদার রায়হান, সোহেল শেখ রুবেল, নাজিরপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তরিকুল ইসলাম চৌধুরী তাপস, ছাত্রলীগ নেতা শেখ মোঃ বাবু, জুনায়েদ আহম্মেদ রাসেল সহ জেলা ও উপজেলা, কলেজ শাখা ও পৌর ছাত্রলীগের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিবাদ কর্মসূচিতে বক্তারা বলেন, বিএনপি-জামায়াত দেশে অস্থিরতা সৃষ্টি করতে চায়। তাই পিরোজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রীর নির্দেশে অবরোধের বিরুদ্ধে সরব ছিলো জেলা ও উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ সকল স্থানে আওয়ামী লীগসহ সকল সহযোগী সংগঠন। হরতাল অবরোধ, জ্বালাও পোড়াও সন্ত্রাসীদের দমন করতে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক আওয়ামী লীগসহ সকল সহযোগী সংগঠন সব সময় মাঠে থাকবে। 

নিউজ ট্যাগ: পিরোজপুর

আরও খবর



চ্যাটজিপিটির সিইওকে অপসারণের পর তিন গবেষকের পদত্যাগ

প্রকাশিত:রবিবার ১৯ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাভিত্তিক অ্যাপ চ্যাটজিপিটির মূল প্রতিষ্ঠান ওপেনএআইয়ের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) পদ থেকে স্যাম অল্টম্যানকে সরিয়ে দেওয়ার পর প্রতিষ্ঠানটি থেকে পদত্যাগ করেছেন জ্যেষ্ঠ তিন গবেষক। তাঁরা হলেন জ্যাকুব প্যাচোকি, আলেকসান্দার মাদ্রি ও সাইমন সাইডর। অল্টম্যানকে অপসারণের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই পদত্যাগ করলেন তাঁরা।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তিন গবেষকের মধ্যে জ্যাকুব প্যাচোকি ওপেনএআইয়ের গবেষণাবিষয়ক পরিচালক ছিলেন। আলেকসান্দার মাদ্রি কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সম্ভাব্য ঝুঁকি নিয়ে কাজ করা দলের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। সাইমন সাইডরও সাত বছর ধরে ওপেনএআইয়ের হয়ে গবেষণায় যুক্ত ছিলেন।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে ওপেনএআইয়ের সহপ্রতিষ্ঠাতা স্যাম অল্টম্যানকে অপসারণের ঘোষণা দেওয়া হয়। তাতে প্রতিষ্ঠানটির আরেক সহপ্রতিষ্ঠাতা গ্রেগ ব্রোকম্যানকেও তাঁর পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার কথা জানানো হয়। বলা হয়, ওপেনএআইয়ে অন্য পদে দায়িত্ব পালন করবেন তিনি। পরে ব্রোকম্যান এক্সে (সাবেক টুইটার) বলেন, আমি পদত্যাগ করছি।

স্যাম অল্টম্যানের অপসারণের বিষয়ে ওপেনএআই জানিয়েছে, প্রতিষ্ঠানটির বোর্ডের (পরিচালনা পর্ষদ) সদস্যরা কয়েক দফায় পর্যালোচনা করে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বোর্ড সদস্যদের সঙ্গে অল্টম্যানের যোগাযোগের ঘাটতি ছিল। এ দায়িত্ব তিনি ঠিকভাবে পালন করেননি। বোর্ড মনে করে, তিনি ওপেনএআইকে নেতৃত্ব দেওয়ার মতো সক্ষমতা হারিয়েছেন।

এ নিয়ে স্যাম অল্টম্যান এক্সে লিখেছেন, ওপেনএআইয়ের কাটানো সময় দারুণ ছিল। বিশ্বে অনেক কিছুরই পরিবর্তন হয়। তেমনি এটা আমার ব্যক্তিগত জীবনের একটা পরিবর্তন। ওপেনএআইয়ে আমি অনেক প্রতিভাবান মানুষের সঙ্গে কাজ করতে পেরেছি। এটা অনেক ভালো লাগার। আমার পরবর্তী গন্তব্য সম্পর্কে পরে জানাব।

এদিকে অন্তর্বর্তী সময়ে স্যাম অল্টম্যানের দায়িত্ব পালন করবেন প্রতিষ্ঠানটির প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা (সিটিও) মিরা মুরাতি। তবে স্থায়ী সিইও নিয়োগের জন্য ইতিমধ্যেই কাজ শুরু করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

নিউজ ট্যাগ: চ্যাটজিপিটি

আরও খবর
হোয়াটসঅ্যাপ কি নিরাপদ!

সোমবার ২৭ নভেম্বর ২০২৩




বাংলাদেশ-ভারত পররাষ্ট্র সচিবের বৈঠক, সীমান্ত-পানি নিয়ে আলোচনা

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৪ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৪ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

ভারতের পররাষ্ট্র সচিব বিনয় কোয়াত্রার সঙ্গে দীর্ঘ বৈঠক করেছেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন। শুক্রবার দুপুরে দুই দেশের পররাষ্ট্র সচিবের বৈঠকটি ভারতের হায়দরাবাদ হাউসে অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভারতে পৌঁছান তিনি।

বৈঠক শেষে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী এক্সে (সাবেক টুইটার) লিখেছেন, দুই দেশের পররাষ্ট্রসচিবের বৈঠকে অনেকগুলো বিষয় উঠে এসেছে। তারা সীমান্ত ও সুরক্ষা নিয়ে কথা বলেছেন। অর্থনৈতিক সম্পর্ক নিয়ে আলোচনা করেছেন। যোগাযোগ, বিদ্যুৎ, পানিবন্টন, উন্নয়ন সহযোগিতা এবং আঞ্চলিক ও বহুপাক্ষিক বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন। 

আরও পড়ুন>> ভারতে পাচার হওয়া ৪২ নারী পুরুষকে বেনাপোল পুলিশে হস্তান্তর

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এই বৈঠকের ছবি দিয়ে এক্সে জানিয়েছে, হায়দরাবাদ হাউসে দুই দেশের পররাষ্ট্রসচিবের বৈঠক হয়েছে।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার খান বলেছেন, এটা হলো দ্বিপাক্ষিক ফরেন অফিস কনসালটেশন (এফওসি)। প্রতি বছরই এটা হয়ে থাকে। ভারতের পররাষ্ট্রসচিব কখনো বাংলাদেশের পররাষ্ট্রসচিবকে আমন্ত্রণ জানান। কখনো বাংলাদেশের পররাষ্ট্রসচিব ভারতের পররাষ্ট্রসচিবকে আমন্ত্রণ জানান।


আরও খবর
নবম দফায় ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ চলছে

রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩




আজ বিশ্ব নিউমোনিয়া দিবস

প্রকাশিত:রবিবার ১২ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ১২ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
স্বাস্থ্য ডেস্ক

Image

শীতের শুরুতে সাধারণত ঠান্ডাজনিত রোগের প্রাদুর্ভাব বাড়ে। বছরের এ সময়টায় তাই শিশুদের নিয়ে দুশ্চিন্তার শেষ নেই। পরিসংখ্যান বলছে, পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুমৃত্যুর প্রধান কারণ নিউমোনিয়া। প্রতিবছর দেশে গড়ে দুই লক্ষাধিক শিশু এ রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। আর মৃত্যু হচ্ছে প্রায় ২৪ হাজার শিশুর। পরিবেশ ও বায়ুদূষণের ফলে প্রতিবছর এ সংখ্যা বাড়ছেই। বৈশ্বিক হিসাবে, নিউমোনিয়া আক্রান্তের উচ্চ ঝুঁকিতে থাকা দেশগুলোর মধ্যে শীর্ষ পাঁচে রয়েছে বাংলাদেশ।

আজ রোববার বিশ্বজুড়ে পালিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক নিউমোনিয়া দিবস। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য নিউমোনিয়া প্রতিরোধ করুন, প্রতিটি শ্বাসই গুরুত্বপূর্ণ। এ উপলক্ষে নিউমোনিয়া নিয়ে কাজ করা বিভিন্ন সংগঠন সচেতনতামূলক নানা কর্মসূচি পালন করবে।

ইউনিসেফের তথ্য বলছে, ২০০০ সালের পর থেকে বিশ্বজুড়ে নিউমোনিয়ার বিরুদ্ধে সচেতনতা বেড়েছে। ২০০০-২০১৫ সাল পর্যন্ত ১৫ বছরে আগের তুলনায় ৫১ ভাগ শিশু নিউমোনিয়ায় মৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নিউমোনিয়া প্রতিকার ও প্রতিরোধযোগ্য। অথচ দেশে পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুমৃত্যুর বড় কারণ এ রোগ। আগের চেয়ে সচেতনতা বেড়েছে। একই সঙ্গে মৃত্যু হারও কমেছে।

চিকিৎসকরা বলছেন, ২০২৫ সালের মধ্যে এ মৃত্যুহার ৩ শতাংশে নামিয়ে আনতে হবে। তাই নিউমোনিয়ার বড় কারণ বায়ুদূষণ কমাতে হবে। একই সঙ্গে নিউমোনিয়া আক্রান্ত শিশুর যথাযথ চিকিৎসার সুযোগও তৈরি করতে হবে। সেইসঙ্গে নিউমোনিয়ার চিকিৎসায় প্রয়োজনীয় অক্সিজেনের সরবরাহ নিশ্চিত করতে হবে। কারণ এখনো নিউমোনিয়ায় মৃত শিশুর ৪২ শতাংশ রক্তে অক্সিজেনের স্বল্পতা বা হাইপক্সেমিয়ায় মারা যায়।

আইসিডিডিআরবির গবেষণা বলছে, নিউমোনিয়ায় প্রতিবছর বিশ্বে প্রায় ৭ লাখ শিশুর মৃত্যু হয়, যা পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুদের সমস্ত মৃত্যুর ১৪ শতাংশ। বাংলাদেশে এ পরিস্থিতি আরও খারাপ। নিউমোনিয়ায় প্রতি ঘণ্টায় দুই থেকে তিনজন শিশু মারা যায় এবং বছরে প্রায় ২৪ হাজার শিশুর মৃত্যু হয়। এটি পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুদের মধ্যে ২৪ শতাংশ মৃত্যুর জন্য দায়ী, যা বিশ্বব্যাপী গড় থেকে বেশি।

সর্বশেষ বাংলাদেশ ডেমোগ্রাফিক অ্যান্ড হেলথ সার্ভে (বিডিএইচএস) ২০২২ থেকে দেখা যায়, বাংলাদেশে গত পাঁচ বছরে শিশুর জন্মের প্রথম ছয় মাস শুধু মায়ের দুধ খাওয়ানোর হার ৬৫ শতাংশ থেকে ৫৫ শতাংশ কমেছে। শৈশবকালীন অপুষ্টি ১৫ শতাংশ নিউমোনিয়ার ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়।

আইসিডিডিআরবির জ্যেষ্ঠ বিজ্ঞানী ড. মোহাম্মদ জোবায়ের চিশতী বলেন, নিউমোনিয়া এখনো বিশ্বব্যাপী পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুদের মৃত্যুর প্রধান সংক্রামক কারণ।

অন্তঃসত্ত্বাদের আরএসভি ভ্যাকসিন প্রয়োগের ওপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, আরএসভি ভ্যাকসিন দেওয়া হলে তা নবজাতক শিশুদের গুরুতর নিউমোনিয়া এবং হাইপোক্সেমিয়া (রক্তে অক্সিজেনের স্বল্পতা) প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।


আরও খবর