আজঃ বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১
শিরোনাম

বেতন-ভাতা পরিশোধসহ নানা দাবিতে শ্রমিকদের অবরোধ

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৭ জুলাই ২০২১ | ১০৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গাজীপুরের লক্ষ্মীপুরা এলাকায় স্টাইল ক্রাফট পোশাক কারখানায় বকেয়া বেতন-ভাতা পরিশোধসহ নানা দাবিতে পঞ্চম দিনের মতো কর্মবিরতি ও বিক্ষোভ করছেন কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। বিক্ষুব্ধ কর্মচারীরা আজ শনিবার সকাল থেকে ঢাকা-গাজীপুর সড়ক অবরোধ করে রেখেছেন।

এদিকে, অবরোধের কারণে সড়কের উভয় দিকে আটকা পড়েছে কয়েকশ যানবাহন। পোশাক কর্মীরা গাজীপুর শহরে প্রবেশের প্রধান ও গুরুত্বপূর্ণ এই সড়কটি গত কয়েকদিন ধরে পর্যায়ক্রমে অবরোধ করে রাখায় মানুষের ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে।

আন্দোলকারীরা জানান, স্টাইল ক্রাফট পোশাক কারখানায় প্রায় সাড়ে ৭০০ কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছেন। এ কারখানার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের চলতি বছরের মার্চ, মে ও জুন মাস এবং গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসের পূর্ণ বেতন ভাতাসহ ২০১৯ সালের ডিসেম্বর, ২০২০ সালের মার্চ ও আগস্ট মাসের শতকরা ৫০ ভাগ, অক্টোবর মাসের ৩৫ ভাগ, নভেম্বর মাসের ১৫ ভাগ বেতন পাওনা রয়েছে। এ ছাড়া কারখানার কর্মচারীদের ইনক্রিমেন্টসহ চার বছরের বাৎসরিক ছুটির ও দুই বছরের ঈদবোনাসের টাকা পাওনা রয়েছে। তাঁরা বেশ কিছুদিন ধরে এসব পাওনা পরিশোধের জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানিয়ে আসছেন।

গাজীপুর শিল্প পুলিশের পরিদর্শক সমীর চন্দ্র সূত্রধর জানান, লক্ষ্মীপুরা এলাকার স্টাইল ক্রাফট পোশাক কারখানার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা গত মঙ্গলবার থেকে বকেয়া বেতন পরিশোধের দাবিতে আন্দোলন করে আসছেন। মালিকপক্ষ এখন পর্যন্ত বেতন পরিশোধের আশ্বাস না দেওয়ায়  শ্রমিকেরা কয়েকদিন ধরে প্রায় সারা দিন রাস্তা অবরোধ করে রাখছেন। মহাসড়কের নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলা রক্ষা এবং অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে পর্যাপ্ত পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: শ্রমিকদের অবরোধ

আরও খবর



শিল্পার স্বামীর হাত ধরেই অ্যাডাল্ট সিনেমায় পুনম-শার্লিন!

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ জুলাই ২০21 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২০ জুলাই ২০21 | ১৫২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বহু দিন ধরেই নাকি পর্ন ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন রাজ কুন্দ্রা। শিল্পা শেট্টির স্বামীর হাত ধরেই এই জগতে এসেছিলেন পুনম পাণ্ডে, শার্লিন চোপড়া। সূত্রের খবর মানলে, মহারাষ্ট্রের সাইবার সেলকে বহু আগেই এই তথ্য দিয়েছিলেন দুই অভিনেত্রী।

অ্যাডাল্ট ভিডিওর জগতে বেশ পরিচিত নাম শার্লিন চোপড়া ও পুনম পাণ্ডে। প্রায় দিনই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি ও ভিডিও পোস্ট করেন তাঁরা। শোনা যায়, বহু আগে রাজের প্রজেক্টে কাজ করেছিলেন দুই অভিনেত্রী। সূত্রের খবর মানলে সেই সময়ও এক একেকটি প্রজেক্টের জন্য রাজের কাছ থেকে ৩০ লক্ষ টাকা পেতেন শার্লিন চোপড়া। এমন ১৫ থেকে ২০টি প্রজেক্টে কাজ করেছিলেন তিনি। শুধু রাজ কুন্দ্রা নন, আরও কয়েকজন এই পর্ন কনটেন্ট তৈরির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তবে মাস্টারমাইন্ড বা মূল ষড়যন্ত্রকারী শিল্পা শেট্টির স্বামী। মুম্বই পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসেই কুন্দ্রার বিরুদ্ধে এমন অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছিল। সোমবার তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠানো হয়েছিল। তারপরই রাতের দিকে গ্রেপ্তার করা হয়। কুন্দ্রা যে এই কাজে জড়িত সেই ব্যাপারে যথেষ্ট প্রমাণ ছিল। সেই কারণেই তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে দাবি মুম্বই পুলিশের।

শোনা গিয়েছে, দেশে তৈরি অ্যাপের মাধ্যমে পর্ন কনটেন্টগুলি তৈরি করা হত। তারপর তা বিদেশের এক OTT প্ল্যাটফর্মে আপলোড করা হত। সাতদিন পর নাকি সেগুলি আপনা থেকেই ডিলিট হয়ে যেত। এই কাজে উঠতি অভিনেত্রী-মডেলদেরও জড়ানো হত বলে অভিযোগ। প্রতি প্রজেক্টের জন্য নাকি দুই থেকে আড়াই লক্ষ টাকা দেওয়া হত। সংস্থায় রাজ কুন্দ্রার ৮ থেকে ১০ কোটি টাকা বিনিয়োগ ছিল।

২০০৯ সালে রাজ কুন্দ্রার সঙ্গে বিয়ে হয় শিল্পা শেট্টির। ২০১২ সালে তাঁদের সন্তান ভিয়ানের জন্ম হয়। গত বছর রাজ ও শিল্পার ঘরে আসে কন্যা সামিশা। এর আগে আইপিএলে ম্যাচ গড়াপেটা কেলেঙ্কারিতে নাম জড়িয়েছিল রাজ কুন্দ্রার। তখন তিনি রাজস্থান রয়্যালসের মালিক ছিলেন। ২০১৩ সালের আইপিএলে স্পট ফিক্সিং কাণ্ড ঘটেছিল। সেই ঘটনার প্রেক্ষিতে দুবছরের জন্য নির্বাসিত করা হয়েছিল রাজস্থান রয়্যালসকে। দুবছরের নির্বাসন কাটিয়ে রাজস্থান রয়্যালস আবার আইপিএলের মূল স্রোতে ফেরে। কিন্তু রাজ কুন্দ্রাকে আর দেখা যায়নি মেগা টুর্নামেন্টে।



আরও খবর
পরীমনির বাসায় শত শত মদের বোতল

বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১

নায়িকা পরীমণি আটক

বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১




বখশিসের টাকা না দেওয়ায় নবজাতককে খুন করল দুই হিজড়া

প্রকাশিত:শনিবার ১০ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ জুলাই ২০২১ | ৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বখশিসের টাকা না দেওয়ায় দুই হিজড়ার বিরুদ্ধে এক নবজাতককে অপহরণের পর খুন করার অভিযোগ উঠেছে।

ভারতের দক্ষিণ মুম্বাইয়ের অম্বেডকর নগরে বৃহস্পতিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে।

অম্বেডকর নগরের বাসিন্দা সচিন চিতোলের বাড়িতে নবজাতকের খবর পেয়ে সেখানে যান কানাহাইয়া চোঘলে ওরফে কান্নু। অভিযোগ, সচিনের সন্তানকে আশির্বাদ করার জন্য ১১শ টাকা দাবি করেন কান্নু।

সচিন তখন কান্নুকে জানান, লকডাউনে তার কাজ চলে গেছে। হাতে টাকা নেই। ফলে তার দাবি মতো টাকা দেয়া সম্ভব নয়। পরিবর্তে কান্নুকে একটা শাড়ি এবং একটা নারকেল দেয়ার প্রস্তাব দেন সচিন।

কিন্তু কান্নু তা নিতে রাজি হননি। এর পরই সচিনের সঙ্গে কান্নুর কথা কাটাকাটি হয়। কান্নুকে বাড়ি থেকে বার করে দেন সচিন।

এরপর মাঝ রাতে সঙ্গী সোনুকে নিয়ে ফের সচিনের বাড়িতে যান কান্নু। মা-বাবা পাশে শুয়ে থাকা বাচ্চাটিকে তুলে নিয়ে গিয়ে পাশেরই একটি ডোবায় ছুড়ে ফেলে দেন। সকালে উঠে বাচ্চাকে দেখতে না পেয়ে শোরগোল পড়ে যায়। সচিন থানায় গিয়ে কান্নুর বিরুদ্ধে মামলা করেন।

সচিনের অভিযোগের ভিত্তিতে কান্নু এবং তার সঙ্গী সোনুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে তারা বাচ্চাটিকে অপহরণ ও হত্যার কথা স্বীকার করেছেন বলে জানিয়েছেন মুম্বাই পুলিশের মুখাপত্র ডিসিপি এস চৈতন্য।


আরও খবর
ভারতে আবারও বেড়েছে মৃত্যু

বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১




করোনা প্রতিরোধে ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত

প্রকাশিত:শনিবার ১০ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ জুলাই ২০২১ | ৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনা প্রতিরোধ ও মোকাবিলায় মাঠ পর্যায়ে জনসচেতনতা সৃষ্টিসহ প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণের জন্য ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের নেতৃত্বে কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এ কমিটি জনগণের মধ্যে স্বাস্থ্য সচেতনতা সৃষ্টি, চিকিৎসা বিষয়ক পরামর্শ ও সহায়তা প্রদান, ভ্যাকসিন প্রদানে উদ্বুদ্ধকরণ ও সহায়তা প্রদানে কাজ করবে।

আজ শনিবার তথ্য অধিদফরের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে কভিড-১৯ এর দ্বিতীয় ঢেউ প্রতিরোধ ও মোকাবেলায় মাঠ পর্যায়ে জনসচেতনতা সৃষ্টির নিমিত্তে প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ ও দিক নির্দেশনা প্রদান উপলক্ষে এক জুম সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক।

এতে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সিনিয়র সচিব লোকমান হোসেন মিয়ার সভাপতিত্বে জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দীন, এলজিআরডি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ, তথ্যসচিব মো. মকবুল হোসেন, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব মো. আলী নূর, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম-সহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, প্রস্তাবিত কমিটিতে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, স্বাস্থ্য, যুব, কৃষি, আনসার ভিডিপির মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তা, মসজিদের ইমাম, এনজিও প্রতিনিধি, হাট-বাজার সমিতির নেতৃবৃন্দ-সহ সংশ্লিষ্টরা অন্তর্ভুক্ত হবেন। সভায় করোনা রোগ ছড়ানোর বিভিন্ন কারণ এবং তা প্রতিরোধ বিষয়ে বয়স্ক ও বিভিন্ন রোগের কারণে ঝুঁকিপূর্ণ মানুষের সাবধানতা অবলম্বন ইত্যাদি প্রয়োজনীয় বিষয়ে আরো প্রচার কার্যক্রম পরিচালনার জন্য গণমাধ্যমের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানানো হয়।


আরও খবর



রাত ১২টার মধ্যেই কুরবানির পশুর শতভাগ বর্জ্য অপসারণ করা হয়েছে: আতিক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ জুলাই ২০২১ | ৯১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)-এর সব এলাকায় রাত ১২টার মধ্যেই কুরবানির পশুর বর্জ্য শতভাগ অপসারণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। বৃহস্পতিবার সকালে ডিএনসিসির বিভিন্ন এলাকায় কুরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রমের খোঁজখবর নিতে গিয়ে মেয়র এ কথা বলেন।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা আবুল বাসার মুহাম্মদ তাজুল ইসলামের সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, ডিএনসিসির সব এলাকায় বুধবার রাত ১২টার মধ্যেই প্রথম দিনের শতভাগ বর্জ্য অপসারণ করা হয়েছে। স্থানীয় কাউন্সিলরসহ সবার আন্তরিক সহযোগিতার ফলে এত অল্প সময়ের মধ্যে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের সব এলাকা থেকেই কুরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ করা সম্ভব হয়েছে। ডিএনসিসির ১০টি অঞ্চলের ৫৪টি ওয়ার্ডে বিশেষ পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রমের আওতায় এবার কুরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ কাজে সর্বমোট ১১ হাজার ৫ শত ৮ জন কর্মী নিয়োজিত রয়েছে।

মেয়র বলেন, কুরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণে গুলশানের নগর ভবনে কন্ট্রোল রুম স্থাপন করা হয়, কন্ট্রোল রুমের নম্বরগুলো হলো- ০২৫৮৮১৪২২০, ০৯৬০২২২২৩৩৩ এবং ০৯৬০২২২২৩৩৪। কন্ট্রোল রুমের নম্বরগুলো ছাড়াও সবার ঢাকা মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতেও দ্রুততম সময়ের মধ্যে কুরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ করা হয়।

আতিকুল ইসলাম বলেন, কুরবানির পশুর বর্জ্য দ্বারা যাতে নগরীর কোথাও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের সৃষ্টি না হয় সেজন্য নগরবাসীকে যথাসময়ে ৬ লাখ ৫০ হাজার বর্জ্য ব্যাগ, ৫০ মেট্রিক টন ব্লিচিং পাউডার এবং ৫ লিটার আয়তনের ১ হাজার ৫ ক্যান স্যাভলন বিতরণ করা হয়।

ডেঙ্গু ও চিকনগুনিয়া থেকে বাঁচতে নগরবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, করোনা মহামারিকালে যাতে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়ায় কারও মৃত্যু না হয়, সেজন্য নিজেদের ঘরবাড়ি ও আশেপাশের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার মাধ্যমে এডিস মশার বংশবিস্তারকে রোধ করতে হবে।

সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় সুস্থ, সচল ও আধুনিক ঢাকা গড়ে তোলার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন ডিএনসিসি মেয়র।



আরও খবর



গোল্ডেন বুট জিতেও সেরা একাদশে জায়গা হয়নি রোনালদোর

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ জুলাই ২০২১ | ২৩৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো জিতেছেন ইউরো ২০২০ টুর্নামেন্টের গোল্ডেন বুট। চেক প্রজাতন্ত্রের পাত্রিক শিক তাঁর সমান গোল করলেও গোলে একটি সহায়তা করায় পুরস্কারটি উঠেছে পর্তুগাল তারকার হাতে।

পর্তুগাল শেষ ষোলো থেকে বাদ পড়ায় এবার ইউরোর সেরা দল-এ জায়গা হয়নি রোনালদোর। আজ ইউরোর টিম অব দ্য টুর্নামেন্ট-এ ১১ খেলোয়াড়ের নাম নিজেদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে উয়েফা।

চ্যাম্পিয়ন ইতালি থেকে এই একাদশে জায়গা পেয়েছেন সর্বোচ্চ পাঁচ খেলোয়াড় জিয়ানলুইজি দোন্নারুমা, লিওনার্দো বোনুচ্চি, লিওনার্দো স্পিনাৎসোলা, জর্জিনিও ও ফেদরিক কিয়েসা।

রানার্সআপ ইংল্যান্ড থেকে জায়গা পেয়েছেন তিনজন রাহিম স্টার্লিং, হ্যারি ম্যাগুয়ার ও কাইল ওয়াকার। ডেনমার্ক, সুইজারল্যান্ড ও স্পেন থেকে জায়গা পেয়েছেন একজন করে খেলোয়াড়। এর মধ্যে ১৮ বছর বয়সী স্পেনের সেন্ট্রাল মিডফিল্ডার পেদ্রির অন্তর্ভুক্তি চমক জাগানিয়া হলেও প্রত্যাশিতই। তবে চেক প্রজাতন্ত্রের ফরোয়ার্ড পাত্রিক শিকের বাদ পড়াটা অবাক করে দেওয়ার মতো।

ইউরো ২০২০এর এই একাদশের কোচ প্রত্যাশিতভাবেই রবার্তো মানচিনি। ২০১৮ বিশ্বকাপে খেলতে না পারা ইতালিকে টানা ৩৪ ম্যাচ অপরাজিত রেখে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন বানানো কোচকে এড়াতে পারেনি উয়েফার টেকনিক্যাল কমিটি।

ইউরোর সেরা দল বাছাই করা মোট ১৬ সদস্যের এই কমিটিতে রয়েছেন এস্তেবান ক্যাম্বিয়াসো, ফাবিও ক্যাপেলো, রবি কিন, এইতর কারাঙ্কা ও ডেভিড ময়েসের মতো কোচ ও সাবেক খেলোয়াড়েরা। একাদশ সাজানো হয়েছে ৪-৩-৩ ফরমেশনে।

গোলপোস্টে ইতালির গোলকিপার জিয়ানলুইজি দোন্নারুমাকে বেছে নেওয়া হয়েছে প্রত্যাশিতভাবেই। এবার ইউরোর সেরা খেলোয়াড় হয়েছেন তিনি।

তাঁর সামনে চার ডিফেন্ডার কাইল ওয়াকার থাকবেন রাইটব্যাক পজিশনে, মাঝখানে দুই সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার হিসেবে থাকবেন বোনুচ্চি ও ম্যাগুয়ার। লেফটব্যাক পজিশনে থাকবেন এবার ইউরোয় দারুণ খেলা স্পিনাৎসোলা।

চোটের জন্য ইতালির সেমিফাইনাল ও ফাইনালে খেলতে পারেননি স্পিনাৎসোলা। তবে ইংলিশ তারকা ম্যাগুয়ারের চেয়ে বেশিসংখ্যক বল রিকভার করেও জর্জো কিয়েল্লিনি কেন একাদশে সুযোগ পেলেন না, সেটি বড় প্রশ্ন। ইতালির ইউরো জয়ে রক্ষণে দারুণ ভূমিকা অধিনায়ক কিয়েল্লিনির।

মধ্যমাঠে বাঁ প্রান্তে পেদ্রি, মাঝখানে জর্জিনিও এবং ডান পাশে পিয়ের-এমিল হইবিয়া। ডেনমার্কের সেমিফাইনালে ওঠায় দারুণ ভূমিকা রাখেন টটেনহাম হটস্পার্সের এই মিডফিল্ডার। এদিকে স্পেনের মধ্যমাঠে নিউক্লিয়াস ছিলেন পেদ্রি।

বার্সার এই কিশোর ৭৬.১ কিলোমিটার দৌড়ে পাসের মালা গেঁথেছেন মধ্যমাঠে। অ্যাটাকিং থার্ডেও সবচেয়ে বেশি পাস দিয়েছেন তিনি। জর্জিনিও ৮৬.৬ কিলোমিটার দৌড়েছেন। আক্রমণভাগে ডান প্রান্তে ইতালির ফরোয়ার্ড ফেদেরিক কিয়েসা, মাঝখানে বেলজিয়ামের স্ট্রাইকার রোমেলু লুকাকু ও বাঁয়ে ইংল্যান্ডের স্টার্লিং।

ইউরো ২০২০ একাদশ:

গোলকিপার: জিয়ানলুইজি দোন্নারুমা (ইতালি)।

ডিফেন্ডার: কাইল ওয়াকার (ইংল্যান্ড), লিওনার্দো বোনুচ্চি (ইতালি), হ্যারি ম্যাগুয়ার (ইংল্যান্ড) ও লিওনার্দো স্পিনাৎসোলা (ইতালি)।

মিডফিল্ডার: পিয়ের-এমিল হইবিয়া (ডেনমার্ক), পেদ্রি (স্পেন) ও জর্জিনিও (ইতালি)।

ফরোয়ার্ড: ফেদেরিক কিয়েসা (ইতালি), রোমেলু লুকাকু (বেলজিয়াম) ও রাহিম স্টার্লিং (ইংল্যান্ড)।


আরও খবর