আজঃ মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০21
শিরোনাম
ইউপি নির্বাচনকে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ করতে

বিদ্রোহী প্রার্থীদের ছাড় দিতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ মার্চ ২০২১ | ৭৫৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ করতে বিদ্রোহী প্রার্থীদের ছাড় দিতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ। বিএনপি দলীয়ভাবে এ নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে। অন্যদিকে বর্তমান সরকারের অধীনে আর কোনো নির্বাচনে প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টি (জাপা) অংশ নেবে কি না, সে বিষয়ে দলের আগামী প্রেসিডিয়াম সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এ কারণে ইউপি নির্বাচনকে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ করতে নতুন কৌশল নিয়েছে আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের সূত্র জানায়, আগামী এপ্রিলে অনুষ্ঠেয় ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে একক প্রার্থী দেবে আওয়ামী লীগ। একই সঙ্গে দলের কেউ স্বতন্ত্র প্রার্থী হলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হবে না। অর্থাৎ দলের নেতাদের অংশগ্রহণের বিষয়টি অনানুষ্ঠানিকভাবে অনেকটা উন্মুক্তই রাখা হচ্ছে। এসব সার্বিক বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠকে। গণভবনে শিগিগরই এই বৈঠকের আয়োজন করা হবে। এতে সভাপতিত্ব করবেন আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রসঙ্গত, গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনেও বিএনপি অংশগ্রহণ করেনি। তখনো উল্লিখিত পদ্ধতিতে নির্বাচনে অংশ নেয় আওয়ামী লীগ। ইউপি নির্বাচন পরিচালনাবিধি অনুযায়ী, দলীয় প্রার্থীদের নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের মনোনীত হতে হবে। তবে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের ক্ষেত্রে তা লাগবে না। নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে যোগ্যতা থাকলে যে কেউ স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে পারবেন। তবে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে আগ্রহীদের নির্বাচনি এলাকার ১ শতাংশ ভোটারের সমর্থন তালিকা দেওয়ার বিধি রয়েছে।

আসন্ন ইউপি নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলে মনোনয়নপ্রত্যাশীর ছড়াছড়ি। প্রতি ইউনিয়নে গড়ে ৭ থেকে ১০ জন বা তারও অধিক দলীয় নেতা চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হতে চান। দলীয় প্রতীক পেতে কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গেও নিয়মিত যোগাযোগ করছেন তারা। বিএনপি না থাকলে আওয়ামী লীগের নিজেদের প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা তৈরি হলে সেটা সংঘাতপূর্ণ হয়ে ওঠে কি না, তা নিয়েও চিন্তিত দলের নীতিনির্ধারকেরা। আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের নেতারা বলছেন, ইউপিতে ত্যাগী, যোগ্য ও দলের জন্য নিবেদিত নেতাদেরই দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হবে। আগে যারা বিদ্রোহী প্রার্থী বা তাদের সমর্থক ছিলেন, তাদের এবার দলীয় মনোনয়ন না দেওয়ার সিদ্ধান্ত রয়েছে।

স্থানীয় সরকারের সবচেয়ে বড় এই নির্বাচনে নিজেদের সাফল্য ধরে রাখতে উপযুক্ত দলীয় প্রার্থী খুঁজছে আওয়ামী লীগ। আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলের সম্ভাব্য প্রার্থীদের ব্যাপারে সুপারিশ পাঠাতে ইতিমধ্যে তৃণমূলে চিঠি পাঠিয়েছে আওয়ামী লীগ। এতে আওয়ামী লীগের আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের জন্য সংগঠনের সব জেলা-মহানগর শাখাকে তৃণমূলের রেজ্যুলেশন পর্যায়ক্রমে কেন্দ্রে পাঠানোর নির্দেশনা প্রদান করেছে।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নির্বাচন কমিশন আগামী ১১ এপ্রিল প্রথম ধাপে ২০টি জেলার ৬৩টি উপজেলার ৩২৩টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোট অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। একইভাবে নির্বাচন কমিশন বিভিন্ন ধাপে সারা দেশের প্রায় সাড়ে ৪ হাজার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ করবে। ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী মনোনয়নের ক্ষেত্রে আওয়ামী লীগের সুনির্দিষ্ট গঠনতান্ত্রিক বিধি মোতাবেক তৃণমূলের রেজ্যুলেশনের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।

প্রসঙ্গত, দেশের প্রায় সাড়ে চার হাজার ইউপির মধ্যে আগামী ১১ এপ্রিল প্রথম ধাপে ৩২৩টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন হবে বলে ইতিমধ্যে তপশিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। প্রথম ধাপে ৪১টি ইউপিতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট নেওয়া হবে। আইন অনুসারে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন দলীয় প্রতীকেই হতে যাচ্ছে।


আরও খবর



উত্তরায় হেফাজতের বিক্ষোভ

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ মার্চ ২০২১ | ১২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঢাকা, চট্টগ্রাম ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নেতাকর্মী নিহত হওয়ার প্রতিবাদে উত্তরায় বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ। শনিবার সকালে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কসংলগ্ন মালেকা বানু স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে এ কর্মসূচি শুরু হয়।

বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন হেফাজতের উত্তরা জোনের আমির মাওলানা নাজমুল হাসান। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন হেফাজতের ঢাকা মহানগরের আমির জোনায়েদ আল হাবিব।

অন্যদের মধ্যে মুফতি কামাল উদ্দিন, মুফতি কেফায়েত উল্লাহ, বিলাল ইবনে মুসলিম, মুফতি ওয়াহেদুল আলম, মাওলানা আনিসুর রহমান, মাওলানা আতিকুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের প্রতিবাদে শুক্রবার হতাহতের ঘটনায় আজ সারা দেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করছে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ। এছাড়া আগামীকাল রবিবার সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ডাক দিয়েছে সংগঠনটি।


আরও খবর



বিশ্বে করোনায় ২৭ লাখ ৯ হাজার মানুষের মৃত্যু

প্রকাশিত:রবিবার ২১ মার্চ 20২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২১ মার্চ 20২১ | ৭৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১২ কোটি ২৭ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। আর মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২৭ লাখ ৯ হাজার।

জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর সিস্টেম সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের (সিএসএসই) তথ্য অনুযায়ী, রবিবার সকাল পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২ কোটি ২৭ লাখ ৪৫ হাজার ২৬৯ জনে। এদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২৭ লাখ ৯ হাজার ৩১৮ জনের। আর এখন পর্যন্ত করোনা থেকে সেরে উঠেছেন ৬ কোটি ৯৪ লাখ ৯৯ হাজার ৯৭৪ জন।

বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি যুক্তরাষ্ট্রে। রবিবার সকাল পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ২ কোটি ৯৭ লাখ ৮২ হাজার ৭৫৪ জন। আর এই মহামারিতে দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৫ লাখ ৪১ হাজার ৯০৯ জনের।

যুক্তরাষ্ট্রের পর মৃত্যু বিবেচনায় করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ ব্রাজিল। আক্রান্ত ও মৃত্যু বিবেচনায় দেশটির অবস্থান দ্বিতীয়। লাতিন আমেরিকার এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ১৯ লাখ ৫০ হাজার ৪৫৯ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ৯২ হাজার ৭৫২ জনের।

মৃত্যু বিবেচনায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিবেশী মেক্সিকো রয়েছে তৃতীয় স্থানে। আক্রান্ত বিবেচনায় দেশটির অবস্থান ১৩ নম্বরে। মেক্সিকোতে রোববার সকাল পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ২১ লাখ ৯৩ হাজার ৬৩৯ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৯৭ হাজার ৮২৭ জনের।

আক্রান্তের দিক থেকে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ভারত মৃত্যু বিবেচনায় আছে চতুর্থ স্থানে। এ পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ১৫ লাখ ৫৫ হাজার ২৮৪ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৫৯ হাজার ৫৫৮ জনের।

মৃত্যু ও আক্রান্ত বিবেচনায় পঞ্চম স্থানে রয়েছে যুক্তরাজ্য। এখন পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ৪৩ লাখ ৪ হাজার ৮৩৯ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ২৬ হাজার ৩৫৯ জনের।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীন থেকে সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর বিশ্বব্যাপী এ পর্যন্ত ১৯২টি দেশে ছড়িয়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর



বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস আজ

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ এপ্রিল ২০২১ | ৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
১৯৪৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে জাতিসংঘ অর্থনীতি ও সমাজ পরিষদ আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য ক্ষেত্রের সম্মেলন ডাকার সিদ্ধান্ত নেয়। একই বছরের জুন ও জুলাই মাসে আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়

করোনাভাইরাসের মহামারি তাণ্ডবের মধ্যে ৭ এপ্রিল বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস ২০২১ পালিত হবে। এ বছর দিবসের প্রতিপাদ্য একটি সুন্দর এবং সুস্থ বিশ্ব গড়ার লক্ষ্যে এগিয়ে যেতে হবে।

দিবসটি উদযাপন উপলক্ষে প্রতি বছরই স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং স্বাস্থ্য বিষয়ে কাজ করে এমন বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থাসমূহ নানা কর্মসূচি গ্রহণ করে। কিন্তু এবার বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবসে সরকার ঘোষিত লকডাউনের তৃতীয় দিনে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়নি।

তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস ২০২১ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) এর আয়োজনে বুধবার (৭ এপ্রিল) জুম মিটিং অনুষ্ঠিত হবে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের চিকিৎসা ও শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলী নূর, সচিব, স্বাস্থ্যেসেবা বিভাগের সচিব মো. লোকমান হোসেন মিয়া। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার টিম লিড, হেলথ সিস্টেম ডা. সাংগে ওয়াংমো।

১৯৪৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে জাতিসংঘ অর্থনীতি ও সমাজ পরিষদ আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য ক্ষেত্রের সম্মেলন ডাকার সিদ্ধান্ত নেয়। একই বছরের জুন ও জুলাই মাসে আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সাংগঠনিক আইন গৃহীত হয়, ১৯৪৮ সালের ৭ এপ্রিল এই সংগঠন আইন আনুষ্ঠানিকভাবে কার্যকর হয়। এইদিন বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস বলে নির্ধারিত হয়। প্রতিবছর সংস্থাটি এমন একটি স্বাস্থ্য ইস্যু বেছে নেয়, যা বিশেষ করে সারা পৃথিবীর জন্যই গুরুত্বপূর্ণ। সেদিন স্থানীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে পালিত হয় এ দিবসটি।


আরও খবর



পানির সংকট দূর করতে সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করছে রাঙামাটির কৃষক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ এপ্রিল ২০২১ | ১১২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাঙামাটি থেকে শহিদুল ইসলাম হৃদয়

চলতি মৌসুমে চাষিরা কাপ্তাই হ্রদের জলে ভাসা জমিতে যে হারে ধানের আবাদ করেছে সে তুলনায় ফলন হবে কিনা তা নিয়ে হতাশায় কপাল চাপড়াচ্ছে রাঙামাটির কৃষকেরা।

তারা বলছে প্রতিবছরের এই সময়ে হালকা বৃষ্টি থাকলেও এবছর বৃষ্টির কোনো আবাস এখন পর্যন্ত চোখে পড়েনি, তার মধ্যে পানির সংকটের কারণে নানা দুর্ভোগে পরতে হচ্ছে তাদের। এভাবে চলতে থাকলে নষ্ট হতে পারে আবাদি জমির ফসল। এবছর হ্রদের পানি খুব ধীরগতিতে কমছে, হঠাৎ পানি বেড়ে গেলে ফসলি জমি পানির নিচে তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কাও করছে এখানকার চাষিরা।

সবুজের চাদরে ভরা এই আবাদি ফসল টিকিয়ে রাখার বর্তমান মুখ্য বিষয় হয়ে দাড়িয়েছে পানি, এক মাত্র পানির সংকট দূর হলে আগামীতে এই জলে ভাসা জমি থেকে ফলন আরো বাড়াতে পারবে বলে জানিয়াছেন স্থানীয় চাষিরা।

শহরের রাঙাপানি এলাকার কৃষক নরেন্দ্র চাকমা বলেন, আমাদের এলাকার ৫০টির মত পরিবার এই জলে ভাসা জমিতে চাষের উপর নির্ভরশীল। প্রতিবছরের ন্যায় এবছরও চাষ করলেও পানির সংকটের কারণে এবছর লাভের তুলনায় লোকসান গুনতে হবে বলে মনে হচ্ছে। কারণ এক দিকে হ্রদের পানি খুব ধীরগতিতে কমছে অন্যদিকে ফসলি জমির জন্য পানি আনতে হয় অনেক দূর-দূরান্ত থেকে। এই জমিতে পানির কমতি থাকার কারণে ইতিমধ্যেই আবাদি ফসলের চেহারা পাল্টাতে শুরু করেছে। তাই সরকারের পক্ষ থেকে যদি পানির ব্যবস্থা কিংবা একটা ডিপ টিউবলের পানির ব্যবস্থা করে দেয়া হতো তাহলে আমরা অনেকটা উপকৃত হতাম এবং আগামীতে এই ফসল থেকে উৎপাদন বাড়ানো সম্ভব হতো।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষ্ণ প্রসাদ মল্লিক প্রতিবেদককে জানিয়েছে, এই ভড়া মৌসুমে রাঙামাটি জেলার সিংহ ভাগ জলে ভাসা জমিতে ধানের চাষ হয়। যেটা হ্রদের পানির উচ্চতার উপর নির্ভর করে চাষ করা হয়, পানি কমতে থাকলে কৃষকেরা চাষ করতে শুরু করে। এধরণের জমি আমাদের জরিপ মতে ৫ হাজার ৫০০ হেক্টর জমি কিন্তু এবার হ্রদের পানি কমার যে প্রবণতা সে তুলনায় এখন পর্যন্ত ৩ হাজার ৬০০ হেক্টর জমিতে চাষ হয়েছে তার মধ্যে সদরেই ২ শত ৩০ হেক্টর জমিতে ধাণের আবাদ হয়েছে। যদি হ্রদের পানি আরো আগে থেকে কমতো তাহলে চাষা বাদ জমির পরিমাণ আরো  বাড়তো।

তিনি আরো বলেন, কৃষকেরা এরপরও চাষ করে কিন্তু আমরা তা আমাদের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করিনা কারণ ঐ চাষ থেকে ফলন পাওয়ার কোনো নিশ্চয়তা থাকেনা।


আরও খবর



করোনা: মৃত্যুর সংখ্যা ২৮ লাখ ৫৮ হাজার ছাড়িয়েছে

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ এপ্রিল ২০২১ | ৬৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান থেকে ছড়িয়ে পড়ে করোনাভাইরাস। এক পর্যায়ে উৎপত্তিস্থল চীনে ভাইরাসটির প্রাদুর্ভাব কমলেও বিশ্বের অন্যান্য দেশে এর প্রকোপ বাড়তে শুরু করে

দুনিয়াজুড়ে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়া রোগীর সংখ্যা ১৩ কোটি ১৩ লাখ ছাড়িয়েছে। বাংলাদেশ সময় রবিবার সকাল ৮টার দিকে আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারস এ তথ্য জানিয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাস বৈশ্বিক মহামারিতে এ পর্যন্ত বিশ্বের ২১৯টি দেশ ও অঞ্চল আক্রান্ত হয়েছে। এ পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে মোট শনাক্তের সংখ্যা ১৩ কোটি ১৩ লাখ ৪৭ হাজার ৬১৯। এর মধ্যে ২৮ লাখ ৫৮ হাজার ৮৬৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছে ১০ কোটি ৫৭ লাখ ২৬ হাজার ১২৬ জন।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান থেকে ছড়িয়ে পড়ে করোনাভাইরাস। এক পর্যায়ে উৎপত্তিস্থল চীনে ভাইরাসটির প্রাদুর্ভাব কমলেও বিশ্বের অন্যান্য দেশে এর প্রকোপ বাড়তে শুরু করে। চীনের বাইরে করোনাভাইরাসের প্রকোপ ১৩ গুণ বৃদ্ধি পাওয়ার প্রেক্ষাপটে গত ১১ মার্চ দুনিয়াজুড়ে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। তবে আশার কথা হচ্ছে, এরইমধ্যে করোনার একাধিক টিকা আবিষ্কৃত হয়েছে।

ওয়ার্ল্ডোমিটারস-এর তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা যুক্তরাষ্ট্রে। সেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা তিন কোটি ১৩ লাখ ৮৩ হাজার ১২৬। মৃত্যু হয়েছে পাঁচ লাখ ৬৮ হাজার ৫১৩ জনের।

আক্রান্তের হিসাবে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ব্রাজিল। দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এক কোটি ২৯ লাখ ৫৩ হাজার ৫৯৭। এর মধ্যে তিন লাখ ৩০ হাজার ২৯৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা এক কোটি ২৪ লাখ ৮৪ হাজার ১২৭। এর মধ্যে এক লাখ ৬৪ হাজার ৬৫৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর