আজঃ রবিবার ২১ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

বিএনপির সময়ে ব্যাপকহারে গুম-খুন দেখেছিলাম: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ১০ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ১০ ডিসেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ২০০৪ সালে আমেরিকান রাষ্ট্রদূত পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যে উদ্ধৃতি দিয়েছিলেন, সেখানে দেখা গেছে ৪৭০ জনের মতো গুম হয়েছিলেন এক বছরে। এই গুম-খুন তখন প্রতিনিয়ত হতো। দেশে এই গুম-খুন এখন সচরাচর দেখছি না। এগুলো ব্যাপকহারে দেখেছিলাম ২০০১ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত (বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালে)। রোববার (১০ ডিসেম্বর) সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা জঙ্গি ও সন্ত্রাসীদের উত্থান দেখেছি। ২১ আগস্ট আমাদের প্রধানমন্ত্রীকে বোমা মেরে উড়িয়ে দেওয়ার যে প্রচেষ্টা, সেই দৃশ্যটা আপনারাও দেখেছেন। তখন জায়গায় জায়গায় বোমা হামলা হতো। ৬৩টি জেলায় একসঙ্গে বোমা হামলা হতো। এসব কিন্তু সে আমলেই হয়েছিল। এগুলো ইতিহাস হয়ে রয়ে গেছে। এগুলো করে তারা স্বপ্ন দেখছে বিভ্রান্তি ছড়ানোর। 

আরও পড়ুন>> আমি পুলিশ, কিন্তু আগে তো মানুষ: ডিবিপ্রধান

তিনি বলেন, গত দুই বছর ধরে বিএনপি-জামায়াত বা অন্য যেকোনো দল যে প্রোগ্রাম করতে চেয়েছে, আমরা কোনোটাতেই বাধা দেইনি। তারা মানববন্ধন, লং মার্চ এমনকি অবরোধ করেছে। আমরা কোনোটাতেই বাধা দেইনি। সম্প্রতি ২৮ অক্টোবর যে ঘটনা ঘটেছে, সেখানেও আমরা বাধা দেইনি। তারা সেদিন সারাদেশ থেকে নেতাকর্মী নিয়ে এসেছিল। তারা আমাদের পরিষ্কার জানিয়েছিল নাইটেংগেল মোড় থেকে ফকিরাপুল চৌরাস্তা অবধি জায়গার মধ্যে অবস্থান করবে। কিন্তু আমরা দেখলাম, তারা সেই প্রতিশ্রুতি না মেনে নাইটেংগেল মোড় থেকে কাকরাইলের ডিপ্লোমা ইনস্টিটিউটের সামনে ও বিচারপতির বাসভবনের সামনে প্রায় দুই হাজার সদস্য জড়ো হয়েছিল।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, কাদের ভাইয়ের আহ্বানে আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশে যাচ্ছিলেন আমার এলাকার কয়েকজন মহিলা। তাদের নির্মমভাবে পেটানো হয়েছে। এরপর দেখলাম তারা আরও মারমুখী। তারা জাজেস কমপ্লেক্সে ঢুকেও ভাঙচুর করলেন। পরে আমাদের পুলিশ বাহিনী তাদের নিয়ন্ত্রণে আনতে কাজ করেছে।


আরও খবর
ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪




প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন বিকেলে

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
কূটনৈতিক প্রতিবেদক

Image

সদ্যসমাপ্ত চীন সফর নিয়ে আজ রোববার সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিকাল ৪টায় গণভবনে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চীনের প্রধানমন্ত্রী লি কিয়াংয়ের আমন্ত্রণে গত সোমবার চীনে সরকারি সফরে বেইজিং যান। দেশে ফিরেছেন বৃহস্পতিবার।

গতকাল শনিবার প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

গ্রেট হল অব দ্য পিপল-এ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকে দেশটির প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়ন-অগ্রযাত্রায় চীনের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। বিনিয়োগ আরও বাড়ানোর পাশাপাশি চারটি ক্ষেত্রে বাংলাদেশকে সহযোগিতার ব্যাপারে আশ্বস্ত করেছেন তিনি।

বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে শি জিনপিংয়ের আলোচনার বিষয়বস্তু নিয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

শি জিনপিংকে উদ্ধৃত করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, চীন বাংলাদেশের আরও বেশি বিনিয়োগ করতে চায়। এ ছাড়াও অনুদান, সুদমুক্ত ঋণ, কম সুদে ঋণ এবং বাণিজ্যিক ঋণ এ চার ক্ষেত্রে বাংলাদেশকে বিশেষভাবে সহযোগিতা করবে দেশটি। এ বিষয়ে দুদেশের টেকনিক্যাল কমিটি যৌথভাবে কাজ করবে। শিগগিরই চীন থেকে টেকনিক্যাল কমিটি বাংলাদেশে যাওয়ার বিষয়ে আলোচনা হবে।

বৈঠকে পদ্মা সেতু, বঙ্গবন্ধু টানেলসহ বিভিন্ন আইকনিক স্থাপনা নির্মাণ, বাংলাদেশের অবকাঠামো উন্নয়ন সহযোগিতার জন্য চীনা প্রেসিডেন্টকে ধন্যবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, কয়েক দশকে অভূতপূর্ব উন্নতি করেছে চীন। এ উন্নয়ন আমাদের মতো উন্নয়নশীল দেশগুলোর জন্য অনুপ্রেরণার উৎস।


আরও খবর
মেট্রোরেল চলাচল পুরোপুরি বন্ধ

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪




দেশে বিয়ারের সবচেয়ে বড় চালান জব্দ, আটক ৩

প্রকাশিত:শনিবার ২৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৯ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
পটুয়াখালী প্রতিনিধি

Image

পায়রা বন্দর এলাকা থেকে ঢাকা নেয়ার পথে ২৬ হাজার ৮৮০ ক্যান চাইনিজ বিয়ারসহ ৩ যুবককে আটক করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সদস্যরা।

শুক্রবার (২৮ জুন) ভোররাতে পটুয়াখালী সেতুর টোল প্লাজা থেকে একটি কাভার্ডভ্যানসহ ৩ জনকে আটক করা হয়।

জব্দকৃত বিয়ারের বাজার মূল্য ২ কোটি ১৫ লক্ষ ৪ হাজার টাকা। চায়না থেকে নৌপথে এসব মাদক পায়রা বন্দর হয়ে কলাপাড়ায় এসেছে বলে ধারণ করা হচ্ছে।

আটককৃতরা হলো- বাসিরুল ইসলাম (২৮), মেহেদী হাসান রাব্বি (২৩) ও রুবেল মুন্সী (২৭)। এদের মধ্যে বাসিরুল ও মেহেদী পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ঠিকাদারি চাইনিজ প্রতিষ্ঠান ওরিয়েন্টাল পার্লে বিভিন্ন পদে কর্মরত। রুবেল মুন্সী ওই কাভার্ডভ্যানের চালক।

পটুয়াখালী মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক এনায়েত হোসেন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে এসব মাদক উদ্ধার করা হয়েছে। পায়রা বন্দর এলাকা থেকে ঢাকায় পাচার কালে একটি কাভার্ডভ্যানকে ধাওয়া করে পটুয়াখালী টোর প্লাজায় আটকে তা থেকে এসব মাদকদ্রব্য জব্দ করা হয়। স্বাধীনতার পরে বরিশাল বিভাগে অবৈধ মাদকের এটাই সবচেয়ে বড় চালান বলে জানান এই কর্মকর্তা।


আরও খবর



দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে আরেক ট্রাকের ধাক্কা, নিহত ২

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০৬ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
শাকিল মোল্লা, রাজবাড়ী

Image

রাজবাড়ীর কালুখালীতে দাঁড়িয়ে থাকা ফলবাহী একটি ট্রাকে পেছন থেকে অন্য ট্রাক ধাক্কা দেয়ায় উভয় ট্রাকের দুই হেলপার নিহত হয়েছেন।

শনিবার (৬ জুলাই) সকাল ৬টায় রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের কালুখালী ফায়ার সার্ভিসের পূর্বপাশে কালীবাড়ি নামকস্থানে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- কুষ্টিয়া জেলার খাজানগর গ্রামের ফেলু হোসেনের ছেলে লিটন হোসেন (৩৫) ও রাজশাহী জেলার চারঘাট গ্রামের আনসারের ছেলে আনিছুর (৩৫)।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন পাংশা হাইওয়ে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুন-উর-রশীদ।

তিনি জানান, রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের ফায়ার সার্ভিস পূর্বপাশে কালীবাড়ি নামকস্থানে মহাসড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা ফলবাহী ট্রাক ইঞ্জিন নষ্ট হওয়ার কারণে রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে ছিল। সকাল ৬টার দিকে রাজবাড়ী থেকে কুষ্টিয়াগামী একটি ফলের খালি ঝুড়ি ভর্তি ট্রাক ওভারটেক করতে গেলে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাককে স্বজোরে পেছন থেকে ধাক্কা দিলে চলমান ট্রাকের হেলপার আনিসুর ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

এ সময় দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকের হেলপার লিটন হোসেন গুরুতর আহত হলে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে কালুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কর্তব্যরত চিকিৎসক কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে করলে সেখানে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

ওসি হারুন-উর-রশীদ বলেন, ওভারটেক করার সময় পেছন থেকে এক ট্রাকে অন্য ট্রাক ধাক্কা দেয়ায় উভয় ট্রাকের হেলপার নিহত হয়েছেন। উভয় ট্রাকের চালক পলাতক রয়েছে। তাদেরকে আটকের চেষ্টা চলছে।


আরও খবর



চলতি অর্থবছরে ভোগ্যপণ্যের আমদানি কমেছে ১৫ শতাংশ

প্রকাশিত:রবিবার ২৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৩ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
অর্থ ও বাণিজ্য ডেস্ক

Image

চাহিদা অনুযায়ী ঋণপত্র (এলসি) খুলতে না পারায় ভোগ্যপণ্যের আমদানি কমেছে। চলতি ২০২৩-২৪ অর্থবছরের প্রথম ৯ মাসে (জুলাই- মার্চ) ভোগ্যপণ্যের এলসি খোলা কমেছে প্রায় ১৫ শতাংশ। পাশাপাশি নিষ্পত্তি কমেছে ২০ শতাংশেরও বেশি।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, ২০২২- ২৩ অর্থবছরের (জুলাই-মার্চ) সময়ে ভোগ্যপণ্য আমদানির জন্য এলসি খোলা হয়েছিল ৬১৪ কোটি ৮৪ লাখ ডলারের। যা চলতি ২০২৩-২৪ অর্থবছরের একই সময়ে এসে দাঁড়িয়েছে ৫২৪ কোটি ৭৯ লাখ ডলারে। সে হিসাবে চলতি বছরের প্রথম ৯ মাসে এলসি খোলা কমেছে ৯০ কোটি ৫ লাখ ডলারের। এলসি খোলার হার কমেছে ১৪ দশমিক ৬৫ শতাংশ।

এদিকে ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রথম ৯ মাসে ভোগ্যপণ্যের ঋণপত্র নিষ্পত্তি হয়েছিল ৬০৩ কোটি ২৩ লাখ ডলারের। চলতি ২০২৩- ২৪ অর্থবছরের একই সময়ে ভোগ্যপণ্যের এলসি নিষ্পত্তি হয়েছে ৪৮২ কোটি ১৮ লাখ ডলারের। সে হিসাবে চলতি বছরের প্রথম ৯ মাসে ১২১ কোটি ৫ লাখ ডলারের এলসি কম নিষ্পত্তি হয়েছে। শতকরা হিসাবে এলসি নিষ্পত্তির হার হ্রাস পেয়েছে ২০ দশমিক শূন্য ৭ শতাংশ। আমদানিকারকরা জানান, ডলার-সংকটের চাপ সামলাতে বিলাসী পণ্যের ওপর কড়াকড়ি শর্ত আরোপ করা হলেও তা একটা পর্যায়ে নিত্যপণ্যের ওপরও পড়েছে। ডলারের মূল্যবৃদ্ধি এবং সরবরাহ স্বাভাবিক না থাকায় আমদানিকারকেরা পণ্য আমদানি করতে পারছেন না। বাজারমূল্যের চেয়ে বেশি দামে ডলার সরবরাহ করে পণ্য আমদানি করা হয়েছে। তবে এত দামে ডলার কিনে ব্যবসা টিকিয়ে রাখা কঠিন। এমন পরিস্থিতিতে ভোগ্যপণ্যের চাহিদা সত্ত্বেও আমদানির জন্য এলসি খোলা এবং নিষ্পত্তি দুটোই কমেছে। এতে পণ্যের দাম বেড়ে গেছে। সাধারণ মানুষের ওপর বাড়তি দামের প্রভাব পড়েছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রথম ৯ মাসে শিল্পের কাঁচামাল আমদানির জন্য এলসি খোলা হয়েছিল ১ হাজার ৭৯১ কোটি ৩৮ লাখ ডলারের। আর চলতি ২০২৩-২৪ অর্থবছরের একই সময়ে শিল্পের কাঁচামালের এলসি খোলা হয়েছে ১ হাজার ৭৬৬ কোটি ১২ লাখ ডলারের। সে হিসাবে ২৫ কোটি ২৬ লাখ ডলারের এলসি কম খোলা হয়েছে। একইভাবে গত অর্থবছরের প্রথম ৯ মাসে শিল্পের কাঁচামাল আমদানির জন্য এলসি নিষ্পত্তি হয়েছিল ২ হাজার ৮২ কোটি ১৪ লাখ ডলারের। আর চলতি ২০২৩-২৪ অর্থবছরের একই সময়ে শিল্পের কাঁচামাল আমদানির জন্য এলসি নিষ্পত্তি হয়েছে ১ হাজার ৬২৭ কোটি ২৯ লাখ ডলারের। সে হিসাবে চলতি বছরের প্রথম ৯ মাসে ৪৫৫ কোটি ৮৫ লাখ ডলারের এলসি কম নিষ্পত্তি হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: এলসি আমদানি

আরও খবর



বিএনপির অবস্থান ভারতের বিরুদ্ধে নয়, শেখ হাসিনা সরকারের বিরুদ্ধে: ফখরুল

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বিএনপির অবস্থান ভারতের বিরুদ্ধে নয়, শেখ হাসিনা সরকারের বিরুদ্ধে বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষায় বিএনপি সব সময় সোচ্চার বলেও দাবি করেন তিনি। মঙ্গলবার (২৫ জুন) গুলশানে দলের চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রীর সম্প্রতি ভারত সফরে দেশটির সঙ্গে হওয়া সকল চুক্তি বিএনপি প্রত্যাখ্যান করেছে জানিয়ে ফখরুল বলেন, সরকার সব সময় ভারতকে সকল সুবিধা দিলেও, নিজেদের ন্যায্য হিস্যা আদায় করতে ব্যর্থ হয়েছে।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত করছে সরকার। তার মুক্তির দাবিতে শিগগিরই কর্মসূচি ঘোষণা দেয়া হবে।


আরও খবর
ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪