আজঃ শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

বিপিএলের উন্নয়নে সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস সৌরভ গাঙ্গুলীর

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

বাংলাদেশ ক্রিকেটের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন সৌরভ গাঙ্গুলী। তিনি সাকিব-মুশফিক-মুস্তাফিজদের খেলা নিয়মিত দেখেন বলেও জানিয়েছেন। এছাড়া বাংলাদেশের নতুন কোচ চান্ডিকা হাথুরুসিংহেকে নিয়েও কথা বলেছেন সৌরভ। আজ শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর গুলশানে ক্রিকেটের নানা বিষয় নিয়ে তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন।

সৌরভ গাঙ্গুলী বলেন, এখানে যারা আছেন, বিশেষ করে কোচ আছেন হাথুরুসিংহে; উনি একটু সময় দিলে ভালো করবে বাংলাদেশ দল। টি-টোয়েন্টি আজ খুব গুরুত্বপূর্ণ ফরম্যাট। বাংলাদেশে ট্যালেন্ট রয়েছে প্রচুর। এখন শুধু পাওয়ার হিটিংটা আয়ত্ত করতে পারলে হয়ে যাবে। আর সেই পাওয়ার হিটিং মানে হেভি হিটিং; যেমন- হার্দিক পান্ডিয়া, রোহিত শর্মা, সূর্যকুমার যাদব বা ইংল্যান্ডের বাটলার, অস্ট্রেলিয়ার ম্যাক্সওয়েল, হেড, ক্যামেরুন গ্রিন এদের মতো।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বিশেষ করে বিপিএলের উন্নয়নে সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী। বিপিএলের মান কীভাবে ভালো করা যায় সে বিষয়ে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের সঙ্গে কথা বলেছেন সৌরভ গাঙ্গুলী।

বিপিএল নিয়ে সৌরভ বলেন, বিপিএলকে আরও ভালো করা যাবে। আমি পাপন ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলেছি। পাপন ভাই আমার দাদার মতো। কখনো ডাকলে ভেবে দেখব। তিনি আরও বলেন, বয়সভিত্তিক ক্রিকেটে বাউন্সি এবং গ্রিন পিচ বানাতে হবে। ওদেরকে অভ্যস্ত করতে হবে। তাহলেই তোমাদের ক্রিকেট স্ট্রাকচার আরও ভালো হবে।

এর আগে বৃহস্পতিবার ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন আয়োজিত মেয়র কাপ সিজন-৩-এর লোগো ও ট্রফি উন্মোচন করতে ঢাকায় আসেন সৌরভ গাঙ্গুলী। বিকেলে রাজধানীর গুলশানের ওয়েস্টিন হোটেলের বল রুমে এ লোগো ও ট্রফি উন্মোচন করেন তিনি।


আরও খবর
৪ বছরের জন্য ফুটবলে নিষিদ্ধ বিশ্বকাপজয়ী পগবা

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




২০ কোটি করে টাকা পাচ্ছেন সংসদ সদস্যরা

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

নিজ এলাকায় উন্নয়নের অঙ্গীকার পূরণের জন্য ২০ কোটি টাকা বরাদ্দ পাচ্ছেন সংসদ সদস্যদরা। রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী তাজুল ইসলাম এ তথ্য জানিয়েছেন।

এদিন সংসদে জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্ন বলেন, এমপিরা নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি দেন। তাছাড়া তার এলাকার উন্নয়নে এর আগেও একটা থোক বরাদ্দ থাকতো। এখন নতুন সরকার, এ সরকারের আমলে এমপিদের নিজ নিজ এলাকার উন্নয়নে বরাদ্দ সরকার দেবে কি না?

জবাবে মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, সংসদ সদস্যরা স্ব স্ব এলাকায় উন্নয়নের জন্য মানুষের কাছে অনেক অঙ্গীকার করেন, এটাই স্বাভাবিক। স্বাভাবিকভাবে সেসব অঙ্গীকার পূরণ করার জন্য এমপিদের যেমন আগ্রহ, তেমনি প্রধানমন্ত্রী বিষয়টি অত্যন্ত আন্তরিকভাবে অনুধাবন করেছেন বলে একটি প্রকল্প করে প্রতিজন এমপির নির্বাচনী এলাকার জন্য এরই মধ্যে পাঁচ বছর মেয়াদের জন্য ২০ কোটি টাকা দেয়ার একটি প্রকল্প প্রণয়ন করেছেন।

এটি চলমান। এ প্রকল্প শেষ হলে বা এমপিদের নির্বাচনী এলাকার উন্নয়ন ও অঙ্গীকার পূরণে আবারও নতুন করে প্রকল্প নেয়ার কথা বিবেচনা করা হবে বলে জানান মন্ত্রী। এসময় স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন।

নিউজ ট্যাগ: তাজুল ইসলাম

আরও খবর



মালদ্বীপের জলসীমায় ভারতীয় সেনা প্রবেশের অভিযোগ, ব্যাখ্যা চায় মুইজ্জু সরকার

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ভারত আগামী মে মাসের মধ্যে মালদ্বীপ থেকে নিজেদের সেনা প্রত্যাহার করে নেবে বলে শনিবার (০৩ ফেব্রুয়ারি) জানিয়েছে মালদ্বীপের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। দুই পক্ষের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের কয়েক দফা আলোচনার মধ্যে এ সিদ্ধান্ত হয়েছে। এর আগে, গত সপ্তাহে মালদ্বীপের বিশেষায়িত অর্থনৈতিক অঞ্চলে (ইইজেড) ভারতের সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা তিনটি মাছ ধরার নৌকায় করে ঢুকে পড়ার অভিযোগ উঠলো।

এ ঘটনায় ভারতের কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছে মোহামেদ মুইজ্জুর সরকার। মালদ্বীপের একজন সরকারি কর্মকর্তা বলেন, ভারতের কাছে বিষয়টি নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ব্যাখ্যা চেয়েছে সরকার। বডু কানেলি মাসভেরিঞ্জ ইউনিয়ন এক্স’–এ পোস্ট করা এক বার্তায় লিখেছে, আসুরুমা৩, নিরু৭ ও মাহোয়ারা৩ নৌযানে করে ভারতের সেনারা মালদ্বীপের জলসীমায় প্রবেশ করেছেন।

ইউনিয়ন শুক্রবার একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে, যাতে দেখে মনে হচ্ছে, ওই সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা ভারতীয় উপকূলরক্ষী বাহিনী। তারা মালদ্বীপের মাছ ধরার নৌকায় ছিলেন। এ সময় তাদের হাতে অস্ত্র ছিল। ওই ভিডিওতে ভারতীয় উপকূলরক্ষী বাহিনীর একটি জাহাজও দেখা যায়। মালদ্বীপের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, ভারতীয় সৈন্যরা আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে মালদ্বীপের নৌকায় চড়েছেন। যদিও মালদ্বীপের এ অভিযোগ নিয়ে এখনো কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি ভারত।

উল্লেখ্য, মালদ্বীপে ভারতের প্রায় ৮০ জন সেনা সদস্য নানা দায়িত্বে রয়েছেন। মে মাসে সেনা সদস্যদের প্রত্যাহার করে নেওয়ার পর বেসামরিক কর্মকর্তারা তাদের স্থলাভিষিক্ত হবেন বলেও উভয় দেশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। ভারতীয় সেনাদের প্রথম দলটি আগামী ১০ মার্চ এবং শেষ দলটি ১০ মে মালদ্বীপ ছেড়ে যাবে বলেও দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়।


আরও খবর



গাজায় যা ঘটছে তা গণহত্যা, আনাদোলুকে প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজায় যা ঘটছে তা গণহত্যা। এই গণহত্যার নিন্দাও জানিয়েছেন তিনি। শনিবার তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ নিন্দা জানান তিনি।  সাক্ষাৎকারে প্রধানমন্ত্রী স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় জাতিসংঘের প্রস্তাব বাস্তবায়নের প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, গাজায় বেসামরিক মানুষদের ওপর নিপীড়ন বন্ধে বিশ্বকে এগিয়ে আসতে হবে। গাজায় ত্রাণসামগ্রী পাঠিয়েছে বাংলাদেশ। এ সময় ফিলিস্তিনের সীমানা নিয়ে ১৯৬৭ সালের জাতিসংঘের প্রস্তাব মেনে নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি। 

আরও পড়ুন>> বৈশ্বিক শান্তি সম্মেলনে যোগ দিতে বাংলাদেশকে আমন্ত্রণ জানিয়ে জেলেনস্কির টুইট

এর আগে জার্মানির মিউনিখে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধের উপায় খুঁজে বের করার আহ্বান জানান তিনি।

বৈঠকের পর পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবসময় বলেন, আমরা সব ধরনের যুদ্ধের বিরুদ্ধে। জেলেনস্কির সঙ্গে আলোচনার সময় কীভাবে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধ করা যায়, সে বিষয়েও তিনি বার বার আলোচনা করেছেন।

ড. হাছান মাহমুদ জানান, বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি গাজায় নিরপরাধ নারী-পুরুষের ওপর হামলা কীভাবে বন্ধ করা যায়, তা নিয়েও আলোচনা করেছেন।


আরও খবর



১৪ মামলায় জামিন পেলেন ইমরান খান

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে মোট ১৪টি মামলায় জামিন দিয়েছেন ইসলামাবাদের সন্ত্রাসবাদ বিরোধী আদালত (এটিসি)। শনিবার ইসলামাবাদ এটিসির বিচারক মালিক ইজাজ আসিফ এক শুনানি শেষে এই রায় দিয়েছেন।

ইমরান খানের পাশাপাশি তার রাজনৈতিক দল পাকিস্তান তেহরিক-ই ইনসাফের (পিটিআই) জ্যেষ্ঠ নেতা শাহ মেহমুদ কুরেশিকেও ১৩ মামলায় জামিন দেওয়া হয়েছে।

যেসব মামলাগুলোতে ইমরান ও কুরেশি জামিন পেয়েছেন সবগুলোই গত ৯ মে দাঙ্গার সঙ্গে সম্পর্কিত। ইসলামাবাদ হাই কোর্টে হাজিরা দিতে গিয়ে গত ৯ মে আদালত চত্বরে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন ইমারান খান। তারপর অভূতপূর্ব বিক্ষোভে ফেটে পড়ে তার দল পাকিস্তান তেহরিক-ই ইনসাফের নেতা-কর্মী-সমর্থকরা। পাকিস্তানের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো সেবার সেনানিবাস ও সামরিক বাহিনীর বিভিন্ন স্থাপনায় হামলা হয়।

আরও পড়ুন>> নওয়াজের সঙ্গে জোট গঠনে রাজি বিলাওয়াল ভুট্টো

যে ১৪টি মামলায় জামিন পেয়েছেন ইমরান, সেগুলোর মধ্যে ১২টি ৯ মে দাঙ্গায় উসকানি সংক্রান্ত; বাকি ২টির মধ্যে একটি পাকিস্তানের সারিক বাহিনীর জেনারেল হেডকোয়ার্টার (জিএইচকিউ) এবং অপরটি সামরিক বাহিনীর জাদুঘরে হামলার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট।

আর যে ১৩ মামলায় শাহ মুহম্মদ কুরেশি জামিন পেয়েছেন, সেগুলোর সবই দাঙ্গায় উসকানি সংক্রান্ত।

পাকিস্তানের পার্লামেন্ট ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির নির্বাচন হয়েছে গত ৮ ফেব্রুয়ারি, বৃহস্পতিবার। অ্যাসেম্বলির মোট আসনসংখ্যা ২৬৬টি। এসব আসনের মধ্যে একটি ব্যতীত বাকি সবগুলোতে নির্বাচনী ভোটগ্রহণ হয়েছে বৃহস্পতিবার।

বার্তাসংস্থা রয়টার্সের তথ্য অনুযায়ী, গতকাল শুক্রবার রাত পর্যন্ত ২৪৫টি আসনের ফলাফল জানা গেছে। সেখানে দেখা গেছে, ৯৮টি আসনে জয়ী হয়েছেন ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই ইনসাফ (পিটিআই), ৬৯টি আসন পেয়েছে নওয়াজ শরিফের নেতৃত্বাধীন পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএলএন) এবং বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারির নেতৃত্বাধীন পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) পেয়েছে ৫১টি আসন।

আরও পড়ুন>> নির্বাচন নিয়ে যা বললেন পাকিস্তানের সেনাপ্রধান

গতকাল শুক্রবার রাতে লাহোরে নিজ বাসবভবনের সামনে জড়ো হওয়া কর্মী-সমর্থকদের উদ্দেশে দেওয়া এক ভাষণে পিএমএলএনকে বিজয়ী বলে দাবি করেন নওয়াজ শরিফ। তিনি আরও জানান, অন্যান্য দল ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের নিয়ে জোট সরকার করতে চায় পিএমএলএন।

পিএমএলএনের জ্যেষ্ঠ নেতা ও পাকিস্তানের সাবেক অর্থমন্ত্রী ইসাক দার জানিয়েছেন, অনেক পিটিআই-স্বতন্ত্র বিজয়ী প্রার্থী ইতোমধ্যে পিএমএলএনের সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করেছেন।

প্রসঙ্গত, পাকিস্তানের সংবিধান অনুসারে কোনো স্বতন্ত্র প্রার্থী যদি নির্বাচনে জয়ী হন, তাহলে ফলাফল প্রকাশের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তাকে কোনো না কোনো রাজনৈতিক দলে যোগ দিতে হয়।

তবে পিটিআই-স্বতন্ত্র প্রার্থীদের বিষয়টি ভিন্ন। পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন এবং উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকার কারণে নিজেদের দলীয় প্রতীক ক্রিকেট ব্যাট ব্যবহার করতে পারেননি পিটিআই প্রার্থীরা। বাধ্য হয়েই স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জন্য বরাদ্দ প্রতীক ব্যবহার করতে হয়েছে তাদের।

সূত্র : দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন


আরও খবর



সুবর্ণচরে ধর্ষণের জন্যই সিঁধ কাটা হয় : পুলিশ সুপার

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নোয়াখালী প্রতিনিধি

Image

নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলায় গৃহবধূকে ধর্ষণ করতেই সিঁধ কাটা হয় এবং এরপর চুরির নাটক সাজান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদ্য বহিষ্কৃত সভাপতি আবুল খায়ের ওরফে মুন্সি মেম্বার (৫০)। 

বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১২টার দিকে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান।

তিনি জানান, আবুল খায়ের মুন্সি তার সহযোগী মেহরাজকে (৪৮) দিয়ে ঘরের সিঁধ কাটিয়ে গরু বেপারী হারুনকে (৪২) নিয়ে ওই নারীর ঘরে প্রবেশ করে তাকে ধর্ষণ করেন। সেসময় মেহরাজ ওই নারীর পঞ্চম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়েকে ধর্ষণ করেন। এ ঘটনার পরপরই সিঁধ কাটার কাজে ব্যবহৃত কোদাল, কাঁচি, কালো প্যান্ট ও কানটুপি জব্দ করেন পুলিশ।   

আরো পড়ুন :মা-মেয়েকে দলবদ্ধ ধর্ষণ : প্রধান আসামি আ.লীগ নেতা গ্রেফতার

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে গ্রেপ্তার সাবেক ইউপি সদস্য আবুল খায়ের মুন্সিকে প্রধান আসামি ও হারুনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাত এক ব্যক্তিকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। 

মামলার পর তাৎক্ষণিক পুলিশ আবুল খায়ের ও বুধবার রাত ৩টার দিকে উপজেলার চরক্লার্ক ইউনিয়ন থেকে মেহরাজকে গ্রেপ্তার করে। 

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, হারুনের সহযোগিতায় ওই নারীকে আবুল খায়ের মুন্সি ও হারুন পালাক্রমে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন। মেহরাজ পাশের রুমে থাকা কিশোরীকে (১২) ধর্ষণ করেন। ধর্ষণ শেষে ফিরে যাওয়ার সময় স্বর্ণের কানের দুল ও ঘরে থাকা নগদ টাকা নিয়ে যান তারা। পরে ওই কিশোরীর হাতের বাঁধন খুলে দেন এবং ঘটনার বিষয়ে কাউকে কিছু বললে তাদের প্রাণে মেরে ফেলবে বলে হুমকি দেন।

মূলত হারুন গৃহবধূর বসতঘরে মালামাল রয়েছে বলে মেহরাজকে চুরি করতে ইন্ধন যোগান। মেহরাজ রাজি হলে সিঁধ কেটে ঘরে প্রবেশ করেন তারা। পরে হারুনের সঙ্গে মুন্সী মেম্বারকে দেখে মেহরাজ অবাক হন এবং বুঝতে পারেন ধর্ষণ করতেই তাকে দিয়ে চুরির নাটক সাজানো হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিজয়া সেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইব্রাহীম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বেগমগঞ্জ সার্কেল) নাজমুল হাসান রাজীব, সহকারী পুলিশ সুপার (চাটখিল সার্কেল) নিত্যানন্দ দাস, চরজব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম প্রমুখ। 

প্রসঙ্গত, উপজেলার চরওয়াপদা ইউনিয়নের চর কাজী মোখলেছ গ্রামের একটি বাড়িতে সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) রাত ২টা থেকে ৩টার মধ্যে সিঁধ কেটে মা-মেয়েকে দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

নিউজ ট্যাগ: সুবর্ণচর

আরও খবর
৯ ছাত্রীর চুল কাটার ঘটনায় শিক্ষিকা বরখাস্ত

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪