আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

বিশ্ববাজারে রেকর্ড দামে সোনা

প্রকাশিত:রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বিশ্ববাজারে হঠাৎ করে সোনার দামে ব্যাপক অস্থিরতা দেখা দিয়েছে। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে এ ধাতুটির দাম। এতে সৃষ্টি হয়েছে নতুন রেকর্ড। অতীতের রেকর্ড ভেঙে বিশ্ববাজারে সোনার দাম নতুন উচ্চতায় পৌঁছেছে। সামনে সোনার দাম আরও বাড়তে পারে বলেও আশঙ্কা করছেন খাত সংশ্লিষ্টরা।

বিশ্ববাজারে সোনার দাম লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ার মধ্যে দেশের বাজারেও এ ধাতুটির দামে ব্যাপক অস্থিরতা দেখা দিয়েছে। বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন (বাজুস) থেকে হুটহাট সোনার দাম বাড়ানোর ঘোষণা আসছে। এতে একের পর এক রেকর্ড ভেঙে দেশের বাজারে বর্তমানে সর্বোচ্চ দামে বক্রি হচ্ছে সোনা।

অবশ্য এ রেকর্ডও যে কোনো সময় ভেঙে যেতে পারে। কারণ বিশ্ববাজারে সোনার দাম আরও বাড়ার আশঙ্কা করছেন ব্যবসায়ীরা। তারা ধারণা করছেন, নতুন সপ্তাহে প্রতি আউন্স সোনার দাম প্রথমবারের মতো দুই হাজার একশ ডলার ছাড়িয়ে যেতে পারে। সেটি হলে দেশের বাজারেও সোনার দাম নতুন করে বাড়ানোর ঘোষণা আসবে।

হঠাৎ সোনার দামে অস্থিরতা দেখা দেওয়ার কারণ হিসেবে ব্যবসায়ীরা বলছেন, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ এবং ইসরায়েল-ফিলিস্তিন যুদ্ধের কারণে বৈশ্বিক এক ধরনের অস্থিরতা বিরাজ করছে। এর সঙ্গে সামনে বিভিন্ন দেশে নির্বাচন আসছে। সবকিছু মিলে এক ধরনের অনিশ্চিত অবস্থার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এসব কারণে বৈশ্বিক এক ধরনের অস্থিরতা সৃষ্টি হয়েছে। ফলে নিরাপদ বিনিয়োগ হিসেবে হঠাৎ সোনার চাহিদা বেড়ে গেছে। আর চাহিদা বাড়ার কারণে দামও বেড়েছে।

বিশ্ববাজারে সোনার লেনদেনের তথ্য পর্যালোচনায় দেখা যায়, গত সপ্তাহের শুরুতে প্রতি আউন্স সোনার দাম ছিল ২ হাজার ১ দশমিক ২৩ ডলার। সপ্তাহ শেষে তা বেড়ে ২ হাজার ৭১ দশমিক ৯৭ ডলারে চলে এসেছে। এতে সপ্তাহের ব্যবধানে সোনার দাম বেড়েছে ৭০ দশমিক ৭৪ ডলার বা ৩ দশমিক ৩০ শতাংশ। এর মধ্যে সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসেই দাম বেড়েছে ৩৬ দশমিক ২১ ডলার বা ১ দশমিক ৭৮ শতাংশ।

বিশ্ববাজারে সোনার এমন দাম বাড়ার মধ্যে দেশের বাজারেও দফায় দফায় সোনার দাম বাড়ানো হয়েছে। এমনকি ১০ দিনের মধ্যে তিন দফা সোনার দাম বাড়ানোর ঘটনা ঘটেছে। সর্বশেষ গত ৩০ নভেম্বর দেশের বাজারে সোনার দাম বাড়ানো হয়। এতে সব থেকে ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের এক ভরি সোনার দাম রেকর্ড ১ লাখ ৯ হাজার ৮৭৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। দেশের বাজারে এখনো পর্যন্ত এটি সোনার সর্বোচ্চ দাম।

বাজুস থেকে সোনার দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেওয়া হয় গত ২৯ নভেম্বর। এরপর বিশ্ববাজারে আরও দুই কার্যদিবস লেনদেন হয়েছে। এ দুই কার্যদিবসে প্রতি আউন্স সোনার দাম প্রায় ৪০ ডলার বেড়ে গেছে। এতে বিশ্বাবাজারে সোনার দামে নতুন রেকর্ডও সৃষ্টি হয়েছে। গত সপ্তাহের শেষে কার্যদিবসের লেনদেনে প্রতি আউন্স সোনার দাম ২ হাজার ৭২ ডলার পর্যন্ত উঠে। এর আগে ২০২০ সালের আগস্টে প্রতি আউন্স সোনার দাম ২ হাজার ৫১ ডলার পর্যন্ত উঠেছিল।

যোগাযোগ করা হলে বাজুসের সাবেক সভাপতি ওয়াদুদ ভূইয়া বলেন, বিশ্ববাজারে সোনার এত দাম আমি আগে কখনো দেখিনি। সামনে সোনার দাম আরও বাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। ধারণ করা হচ্ছে এবার প্রতি আউন্স সোনার দাম ২ হাজার একশ ডলার হয়ে যাবে।

তিনি বলেন, যখন অনিশ্চয়তা দেখা দেয় তখন সোনাসহ বিভিন্ন ধাতুর চাহিদা বেড়ে যায়। এখন ইসরায়েল-ফিলিস্তিন এবং রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে এক ধরনের বৈশ্বিক অস্থিরতা দেখা দিয়েছে। তাছাড়া সামনে বিভিন্ন দেশে নির্বচন আসছে। ফলে এক ধরনের অনিশ্চিত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। এ কারণে হার্ড কারেন্সির (ডলার, ইউরোসহ বিভিন্ন মুদ্রা) পরিবর্তে সোনাসহ বিভিন্ন ধাতুর চাহিদা বেড়ে গেছে। ফলে দাম বেড়েছে।

বাজুসের সাবেক আরেক সভাপতি এনামুল হক বলেন, দাম বাড়ার কারণ-সোনার যে পরিমাণ চাহিদা, সেই পরিমাণ সরবরাহ নেই। এ চাহিদা বাড়ার কারণ মানুষ সোনাকে নিরাপদ মনে করে।

নিউজ ট্যাগ: সোনার দাম

আরও খবর
২৪ দিনে প্রবাসী আয় ১৮ হাজার কোটি টাকা

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




অর্ধশতাব্দী পর আবার চাঁদের পিঠে নামছে মার্কিন মহাকাশযান

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

প্রায় ৫০ বছরেরও বেশি সময় পর আবার চাঁদের পিঠে অবতরণ করতে যাচ্ছে একটি মার্কিন মহাকাশযান।  হাউসটনভিত্তিক একটি প্রতিষ্ঠানের পাঠানো এ মহাকাশযানটি বৃহস্পতিবার চন্দ্রপৃষ্ঠে অবতরণের চেষ্টা চালানোর কথা রয়েছে।

পরিকল্পনা অনুযায়ী সবকিছু সংগঠিত হলে এদিন প্রতিষ্ঠান ইনটুইটিভ মেশিন তার ষড়ভুজ আকৃতির রোবট অডিসিয়াসকে রাত ১০টা ৩০ মিনিটে (২২:৩০ জিএমটি) চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে অবতরণের পথ নির্দেশনা দেবে। এর আগে বুধবারই এ মহাকাশযানটি চাঁদের কাছাকাছি পৌঁছায়। খবর দ্য নিউইয়র্ক টাইমস, এএফপি।

বাণিজ্যিক মহাকাশযানের মাধ্যমে পরিচালিত এ চন্দ্রাভিযানে অর্থায়ন করেছে যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান নাসা। চলতি দশকের শেষ দিকে চাঁদে নভোচারী পাঠানোর পথ সুগম করাই এ অভিযানের লক্ষ্য। 

আরও পড়ুন>> প্রথমবারের মতো গ্রহাণুতে পানির অস্তিত্ব শনাক্ত

অভিযান পরিচালনার দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিরা আশা করছেন, চাঁদের মাটি স্পর্শ করার ঐতিহাসিক মুহূর্তের প্রায় ১৫ সেকেন্ড পর তারা চন্দ্রাভিযান সফল হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারবেন। সংশ্লিষ্ট বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান তাদের ওয়েবসাইটে অভিযানটি সরাসরি সম্প্রচার করবে। চন্দ্রপৃষ্ঠের কাছাকাছি গিয়ে রোবট অডিসিয়াস তার ইগলক্যাম-এর সাহায্যে ল্যান্ডার অবতরণের মুহূর্তের সর্বশেষ কয়েক সেকেন্ডের ছবি তুলবে।

এর আগে গত মাসে একটি মার্কিন প্রতিষ্ঠানের চন্দ্রাভিযান ব্যর্থ হয়। এতে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর চন্দ্রাভিযান পরিচালনার সক্ষমতা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দেয়। সবশেষ ১৯৭২ সালে নাসা সফলভাবে চাঁদে অ্যাপোলো ১৭ মিশন পরিচালনা করেছিল। 

জর্জ ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটির স্পেস পলিসি ইনস্টিটিউটের পরিচালক ও যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় মহাকাশ কাউন্সিলের সাবেক সদস্য স্কট পেস বলেন, যুক্তরাষ্ট্র কয়েক দশক অনুপস্থিত থাকার পর তার চন্দ্রাভিযানের সক্ষমতা নতুন করে গড়ে তোলার চেষ্টা চালাচ্ছে।

তিনি  আরও বলেন, মাঝেমধ্যেই এমন কথা শোনা যায়, আমরা অতীতে সফল চন্দ্রাভিযান পরিচালনা করেছি তাহলে এখন কেন পারব না? এ অভিযান কীভাবে করতে হয়, তা প্রতিটি প্রজন্মকেই শিখতে হবে বলেও জানান স্কট।


আরও খবর



বিপিএলে সর্বোচ্চ রানের স্কোর রংপুরের

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

রংপুর রাইডার্স ছেড়ে চলে গেছেন বাবর আজম, আজমতুল্লাহ ওমরজাই। তাদের পরিবর্তে নতুন তিন বিদেশি ক্রিকেটারকে নিয়ে মাঠে নেমেছে রংপুর। জিমি নিশাম, রেজা হেনড্রিকস, ইমরান তাহিরকে নিয়ে মাঠে নেমেই পজিটিভ শুরু পেয়েছে রংপুর। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে বিশাল সংগ্রহ পেয়েছে উত্তরবঙ্গের দলটি।

শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাট করতে নামে রংপুর। প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ২১১ রান সংগ্রহ করে নুরুল হাসান সোহানের দল।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে দলকে ভালো শুরু এনে দুই ওপেনার রনি তালুকদার ও রেজা হেনড্রিকস। উদ্বোধনী জুটিতে ৬১ রান সংগ্রহ করেন এই দুই ব্যাটার। এরপর ১৭ বলে ২৪ রান করে আউট হন রনি।

রনির বিদায়ের পর ক্রিজে আসা সাকিব আল হাসানকে সঙ্গে নিয়ে রানের চাকা সচল রাখেন হেনড্রিকস। ৬০ রানের জুটি গড়েন হেনড্রিকস ও সাকিব। সাবলীল ব্যাটিংয়ে ফিফটি তুলে নেন হেনড্রিকস।

এরপর দ্রুতই জোড়া উইকেট হারায় রংপুর। সাকিব ১৬ বলে ২৭ ও হেনড্রিকস ৪১ বলে ৫৮ রান করে সাজঘরে ফিরে যান। এই দুই ব্যাটারের বিদায়ের পর জিমি নিশামকে সঙ্গে নিয়ে ঝড়ো ব্যাটিং করতে থাকেন সোহান।

আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে ফিফটি তুলে নেন নিশাম। শেষ পর্যন্ত ২০ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ২১১ রানের পুঁজি পায় রংপুর। নিশাম ২৬ বলে ৫১ ও সোহান ২১ বলে ৩১ রানে অপরাজিত থাকেন। চট্টগ্রামের পক্ষে সালাউদ্দিন শাকিল নেন ২টি উইকেট।


আরও খবর



স্বরূপকাঠিতে ৪টি চোরাই ট্রলারসহ চোর চক্রের একজন গ্রেফতার

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
হযরত আলী হিরু, স্বরূপকাঠি

Image

পিরোজপুরের স্বরূপকাঠিতে চারটি চোরাই ট্রলারসহ চোর চক্রের একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার সাইদুল রহমান (৪৫) উপজেলার সোহাগদল ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের আ. রশিদ বেপারীর ছেলে। উদ্ধার হওয়া ট্রলার চারটির আনুমানিক মূল্য তের লক্ষ টাকা বলে জানায় পুলিশ।

নেছারাবাদ থানায় নিয়মিত মামলা দায়ের শেষে বুধবার দুপুরে গ্রেফতারকৃত সাইদুলকে পিরোজপুর আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চোরাই ট্রলার বেচাকেনার খবর পেয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে পাটিকেলবাড়ি পুলিশ ফাঁড়ির এসআই ওয়ালিদ হোসেনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ উপজেলা দৈহারী ইউনিয়নের গনকপাড়া এলাকার রঙ্গলাল সুতারের বাড়ি সংলগ্ন ষ্টিল ব্রিজের কাছে অভিযান চালায়। এসময় পুলিশের উপস্থিতিটের পেয়ে অন্য আসামীরা পালিয়ে গেলেও ওই চোরচক্রের সদস্য সোহাগদল ইউনিয়নের সাইদুল রহমানকে আটক করে পুলিশ। এসময় পুলিশ চোরদের বিক্রির উদ্দেশ্যে আনা হানিফ ঘরামী নামের একটি স্টিলবডি ট্রলার জব্দ করে থানায় নিয়ে আসে। যার আনুমানিক মূল্য তিন লক্ষ টাকা। পরে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে আটক সাইদুল জানায় পাশ্ববর্তী বানারীপাড়া উপজেলার দান্ডয়াট গ্রামের আশ্রাব আলী সরদারের ছেলে আইউব সরদার (৩০) এ চক্রের মূল হোতা। এছাড়াও সাইদুলের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ সাইদুলের বাড়ির খাল থেকে চোরাইকৃত আল্লাহ ভরশা, সেতু প্লাস ও মার্জিয়া প্লাস নামের আরও তিনটি স্টিলবড়ি ট্রলার জব্দ করে থানায় নিয়ে আসে।

পরে পুলিশ বাদী হয়ে গ্রেফতার সাইদুল রহমান ও পালাতক আইউব সরদারকে আসামী করে নেছারাবাদ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

নেছারাবাদ থানার ওসি (তদন্ত) এইচ এম শাহিন বলেন, আসামীরা সংঘবদ্ধ চোরচক্রের সদস্য, তারা দীর্ঘদিন বিভিন্ন এলাকা থেকে ট্রলার চুরি করে বিক্রি করে আসছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার আসামীর কাছ থেকে তাদের অন্য এক সহযোগীর নাম পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে আরও তথ্য সংগ্রহের জন্য আসামীর বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে রিমান্ডের আবেদন করবে পুলিশ।


আরও খবর



নিরঙ্কুশ জয় দাবি করে ইমরান খানের ভাষণ

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

কারাগার থেকে অনুমোদন নিয়ে এআই (কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সহায়তায় বানানো) ভাষণে বিজয় উদযাপনের আহ্বান জানিয়েছেন পাকিস্তানের কারাবন্দি সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও প্রধান বিরোধী দল তেহরিক-ই-ইনসাফের চেয়ারম্যান ইমরান খান।

শুক্রবার দিবাগত রাতে (১০ ফেব্রুয়ারি) ইমরানের এক্স (সাবেক টুইটার) অ্যাকাউন্ট থেকে পোস্ট করা এক ভাষণে তিনি এ আহ্বান জানান। আল জাজিরার লাইভ প্রতিবেদনে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

ভাষণে ইমরান খান বলেন, পাকিস্তানের নির্বাচনে জনগণ ভোটের শক্তি দেখিয়েছেন। আমার প্রিয় পাকিস্তানি ভাই-বোনেরা, আপনাদের ওপর আমার পূর্ণ ভরসা ছিল। আমার বিশ্বাস ছিল আপনারা ভোট দিতে ঘর থেকে বের হবেন, আপনারা আমার বিশ্বাসের মর্যাদা রেখেছেন। আর আপনাদের দেওয়া জবাব সবাইকে হয়রান করে ফেলেছে।

তিনি বলেন, আপনাদের ভোটের কারণে লন্ডন পরিকল্পনা ভেস্তে গেছে। দুই বছর ধরে চালানো চরম নিপীড়ন এবং অন্যায় আচরণের বিরুদ্ধে আমরা ভোট দিয়েছি। আপনারা ভোটের শক্তি দেখিয়েছেন, এখন এর হেফাজত করতে হবে।

নওয়াজ শরীফের জয়ের আগেই বিজয়ী ভাষণ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এটা কোনো পাকিস্তানি মেনে নেবে না। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমেও তার বেওকুফের মতো আচরণের সমালোচনা চলছে।

তিনি দাবি করেন, নির্বাচনে জয় পাবে পিটিআই সমর্থিতরা। দেশবাসীকে ধন্যবাদ দিয়ে বিজয় উল্লাস এবং শোকরানা নামাজ আদায়েরও আহ্বান জানান তিনি।

এর আগে, নির্বাচনে পিছিয়ে থেকেও শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) পাকিস্তানের তিন বারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও মুসলিম লীগের (পিএমএল-এন) নেতা নওয়াজ শরিফ বিজয়ী ভাষণ দেন।

কাতার ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার প্রকাশিত ফলাফলে ফলাফলে দেখা গেছে, ২৪৪ আসনের মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ৯৮টি আসনে জয় পেয়েছেন। যার অধিকাংশই ইমরান খানের পিটিআই সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী।

এ ছাড়া নওয়াজ শরীফের পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ (পয়স্বিনী-এন) ৬৯টি আসন, বিলাওয়ালের পাকিস্তান পিপলস পার্টি ৫১টি আসনে জয় পেয়েছে। আর ২৫টি আসনে জিতেছেন অন্য প্রার্থীরা। ভোট স্থগিত হয়েছে ১টি কেন্দ্রের।


আরও খবর



দেশের প্রয়োজনে সীমান্তে পুলিশের প্রতিটি সদস্য প্রস্তুত : আইজিপি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

ঘুমধুম সীমান্ত এলাকায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সঙ্গে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী পুলিশ কাজ করছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন।

তিনি বলেছেন, দেশের প্রয়োজনে দায়িত্ব পালনের জন্য বাংলাদেশ পুলিশের প্রতিটি সদস্য প্রস্তুত আছে।

মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে গত ২৮ অক্টোবর বিএনপির সমাবেশে গুরুতর আহত রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন পুলিশ সদস্য রাজ্জাককে দেখতে এসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। ভারতে উন্নত চিকিৎসা শেষে রাজ্জাককে রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘুমধুম সীমান্ত এলাকার পরিস্থিতি ভয়াবহ। স্থানীয় লোকজন আতঙ্কে আছে, সীমান্ত এলাকায় পুলিশ কী ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে জানতে চাইলে আইজিপি বলেন, এখন পর্যন্ত আহত হয়ে যারা আমাদের দেশে এসেছেন তাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা সরকার করছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ পুলিশ, বিজিবি ও প্রশাসন সবাই মিলে সরকারের নির্দেশনার আলোকে দায়িত্ব পালন করছে। বাংলাদেশ পুলিশের প্রতিটি সদস্য প্রস্তুত আছে দেশের প্রয়োজনে দায়িত্ব পালনের জন্য।

সীমান্ত এলাকায় মর্টার শেলের আঘাতে দুজন নিহত হয়েছে, এখন তারা কাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করবে? জানতে চাইলে আইজিপি বলেন, কে মর্টার শেল নিক্ষেপ করেছে তা এখনো সুনিশ্চিত না। এ ঘটনায় আমরা একটা মামলা নিয়েছি। মামলার আসামি অজ্ঞাত। তদন্তে যাদের নাম আসবে পরবর্তী সময়ে সে বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সীমান্তের বর্তমান পরিস্থিতিতে পুলিশ সদস্যদের প্রতি কী নির্দেশনা আছে জানতে চাইলে পুলিশপ্রধান বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আমাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আছে। জেলা পুলিশসহ এপিবিএন সতর্ক আছে। সীমান্তে বিজিবি দায়িত্ব পালন করছে। তাদের দায়িত্ব পালনে যে সহযোগিতা চাচ্ছে আমরা সে সহযোগিতা দিচ্ছি। স্থানীয় প্রশাসন, পুলিশ, বিজিবি ও গোয়েন্দা সংস্থা মিলে যে ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন সে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে আইজিপি বলেন, বর্তমান সীমান্ত পরিস্থিতিতে রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকায় নজরদারী বৃদ্ধি করা হয়েছে। এসব এলাকায় পুলিশের উপস্থিতি বৃদ্ধিসহ পেট্রোল বৃদ্ধি করা হয়েছে। সীমান্ত এলাকায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে পুলিশসহ সব সংশ্লিষ্ট সংস্থা দায়িত্ব পালন করছে।

এসময় পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) প্রধান মনিরুল ইসলাম ও ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমানসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর
জানুয়ারিতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৪৮৬ মৃত্যু

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪