আজঃ সোমবার ০৮ মার্চ ২০২১
শিরোনাম

বিশ্ববিদ্যালয়ের ফটকের সামনে মহাসড়ক অবরোধ করেছেন শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিত:শনিবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০21 | হালনাগাদ:শনিবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০21 | ১০৮জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দ্বিতীয় দফায় ১৩ ঘণ্টার আল্টিমেটাম শেষে ফের বরিশাল-পটুয়াখালী মহাসড়ক অবরোধ করেছেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (ববি) শিক্ষার্থীরা।

অবরোধের কারণে আজ শনিবার সকা‌লে ভোগান্তিতে পড়েছেন বরিশাল, ভোলা, পটুয়াখালী, বরগুনা, পায়রা বন্দর ও কুয়াকাটাগামী যাত্রীরা। এর আগে গতকাল শুক্রবার রাতে রনি ও ফিরোজ নামের দুই পরিবহণ শ্রমিককে গ্রেপ্তার করে কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশ। গত মঙ্গলবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার ঘটনায় এঁরা জড়িত ছিলেন বলে জানিয়েছেন কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম। তবে আন্দোলনকারীরা বলছেন, এই গ্রেপ্তারের ব্যাপারে তাঁরা অবগত নন। শিক্ষার্থীরা তাঁদের তিন দফা দাবি আদায়ে আন্দোলন করছেন এবং দাবি পূরণ হলেই তাঁরা আন্দোলন প্রত্যাহার করবেন বলে জানান।

কুয়াশাচ্ছন্ন আবহাওয়ার মধ্যে আজ সকাল সা‌ড়ে ৯টার কিছু সময় পর বিশ্ববিদ্যালয়ের ফটকের সামনে বরিশাল-পটুয়াখালী মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। এতে করে সড়কের দুপাশে আটকা পড়েছে কয়েকশ যানবাহন। চরম দুর্ভোগে পড়েছে যাত্রীরা।

ব‌রিশাল বিশ্ববিদ্যাশল‌য়ের শিক্ষার্থী‌দের আন্দোল‌নের অন্য‌তম নেতা মাহামুদুল হাসান তমাল বলেনন, প্রশাসন অনেকটা গা ছাড়া ভাব দে‌খি‌য়ে‌ছে সে জন্য আমা‌দের মৌ‌লিক অধিকারের জায়গা থে‌কে আন্দোলন কর‌তে হ‌চ্ছে। আর সড়ক অব‌রো‌ধের কার‌ণে জনগ‌ণের যে ভোগা‌ন্তি হ‌চ্ছে তার জন্য দুঃখ প্রকাশ কর‌ছি, ত‌বে এ ছাড়া আমা‌দের কিছু করার নেই।

আন্দোলনকারীরা অভিযোগ করেন, গত মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) মধ্যরাতে তাঁদের ওপর হামলার ঘটনা ঘ‌টে। প‌রে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে আহতেরা হামলাকারীদের নামের তালিকা দিলেও প্রশাসন তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা না করে অজ্ঞাতদের আসামি করে থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়। আবার সে অভি‌যো‌গে ঘটনার স‌ঠিক বিবরণ না দি‌য়ে শুধু জখ‌মের কথা উল্লেখ করা হয়। যা শিক্ষার্থীরা প্রত্যাখ্যান করেছেন এবং দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন।

Share

আরও খবর



মেক্সিকোতে বন্দুকধারীদের গুলিতে পার্টিতে আসা ১১ জন নিহত

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৮৫জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মেক্সিকোর পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য জালিস্কোতে পিকআপ ট্রাকে করে আসা অজ্ঞাত বন্দুকধারীদের গুলিতে পার্টিতে আসা অন্তত ১১ জন নিহত হয়েছে। শনিবারের এ হামলার ঘটনায় এক নারী ও এক তরুণ আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। খবর ডয়েচে ভেলের।

রাজ্যটির সরকারি কৌঁসুলির দপ্তর জানিয়েছে, রাজ্যের প্রধান শহর গুয়াদালাহারার তোনালা উপশহরে একটি বাড়ির বাইরে গুলির জখমসহ ১০ জনকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায় আর ভিতরে আরেকজন পুরুষের মৃতদেহ পাওয়া যায়।

আহত নারী ও তরুণকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। তাদের আঘাত তেমন গুরুতর নয় বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে দপ্তরটি। 

প্রশান্ত মহাসাগর তীরবর্তী এই জালিস্কো রাজ্য মেক্সিকোর মাদক সংক্রান্ত যুদ্ধের কেন্দ্রস্থল। দেশটির শক্তিশালী মাদক অপরাধী চক্র জালিস্কো নিউ জেনারেশন কার্টেলের (সিজেএনজি) উৎপত্তি এই রাজ্যটিতেই।

গত ডিসেম্বরে রাজ্যটির সাবেক গভর্নর আরিস্তোতেলেস সানদোভালকে এখানকার সৈকত শহর পুয়ের্তো ভাইয়ার্তার একটি রেস্তোরাঁয় গুলি করে হত্যা করা হয়েছিল।

প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ ওব্রাদর ২০১৮ সালের শেষ দিকে মেক্সিকোর দায়িত্বভার গ্রহণ করে সহিংসতা নিয়ন্ত্রণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, কিন্তু তারপর থেকে নির্বিচার হত্যাকাণ্ড ও বছরে প্রায় লাখো মানুষ হত্যার মতো ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আনতে হিমশিম খাচ্ছেন তিনি।

নিউজ ট্যাগ: মেক্সিকো
Share

আরও খবর



কৃষক আন্দোলনের ১০০তম দিনে ভারতে আবরো সড়ক অবরোধ

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৬ মার্চ ২০২১ | ৫৮জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারতে কৃষক আন্দোলনের ১০০তম দিন আজ শনিবার। এরই মধ্যে আজ নয়াদিল্লির বাইরে ছয় লেনের এক্সপ্রেসওয়ে অবরোধ করতে জড়ো হয়েছেন কৃষকেরা। নতুন তিনটি কৃষি আইন বাতিল ও সরকারের ওপর চাপ প্রয়োগ করতে ট্রাক ও ট্রাক্টকসহ বিভিন্ন যানবাহন নিয়ে পাঁচ ঘণ্টার জন্য এই অবরোধ করছেন কৃষকেরা।

তবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দেশটির বিস্তৃত কৃষি খাতের জন্য কৃষি আইনকে একটি প্রয়োজনীয় সংস্কার বলে মনে করছেন। এ ছাড়া কৃষি আইন ঘিরে বিক্ষোভকে রাজনৈতিকভাবে অনুপ্রাণিত বলে দাবি করছেন।

পাঞ্জাব রাজ্যের ৬৮ বছর বয়সী কৃষক অমরজীত সিং বলছেন, মোদি সরকার এই আন্দোলনকে অপমানের জায়গা থেকে দেখছে। তারা কৃষকদের দুর্দশা দেখতে পারছে না। প্রতিবাদ করা ছাড়া আর কোনো উপায় তারা আমাদের জন্য রেখে যায়নি।

৫৮ বছর বয়সী কৃষক রাজা সিং বলেন, তীব্র ঠান্ডা আমাদের আন্দোলনে কোনো প্রভাব ফেলেনি এবং মৃত্যুও কোনো প্রভাব ফেলবে না।

Share

আরও খবর



আন্দোলন দমাতে মিয়ানমারে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৬ মার্চ ২০২১ | ৭৮জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আন্দোলন দমাতে এবার বিভিন্ন শহরে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ করল মিয়ানমারের জান্তা সরকার। সে সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের ওপর দমনপীড়ন অব্যাহত রেখেছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। এরই ধারাবাহিকতায় এবার স্বাস্থ্যকর্মীদের ওপর নেমে এসেছে নির্যাতনের খড়গ।

সংবাদ সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, শুক্রবার (৬ মার্চ) দেশটির বিভিন্ন অঞ্চলে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।

ইয়াঙ্গুন বিদ্যুৎ সরবরাহ করপোরেশনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ব্যবস্থাপনায় বিপর্যয় ঘটার ফলেই বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। কবে বা কখন সরবরাহ ব্যবস্থা ঠিক হবে তা বলা যাচ্ছে না।

তাদের অপরাধ, তারা চলমান আন্দোলনে আহত বিক্ষোভকারীদের সেবা দিয়েছেন। আর এ কারণে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর নির্মম নির্যাতনের শিকার হন তারা। শুক্রবার (৫ মার্চ) মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনীর এমন নৃশংসতার ভিডিও প্রকাশ পায়।

এদিকে গত মাসে শুরু হওয়া অন্দোলনে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫৫ জনে দাঁড়িয়েছে। এর মধ্যেই জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার অংশ হিসেবে সেনানিয়ন্ত্রিত ৫টি চ্যানেল বন্ধ করে দিয়েছে ইউটিউব।

Share

আরও খবর



প্রবাসীর স্ত্রীর পরকীয়ায় প্রতিবাদ করায় কুপিয়ে জখম

প্রকাশিত:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | ৯৭জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া সম্পর্ক নিয়ে প্রতিবাদ করায় প্রকাশ্যে পিস্তল ঠেকিয়ে তুলে নিয়ে মজিবার রহমান নামে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। বেধড়ক পিটিয়ে আহত করা হয়েছে তারই চাচাতো ভাই খোকন আলীকে।

মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে দামুড়হুদা উপজেলার নতিপোতা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আননাস আলী নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

আহতরা হলেন- নতিপোতা গ্রামের দক্ষিণপাড়ার মৃত শমসের আলীর ছেলে মজিবর রহমান (৪৫) ও একই গ্রামের আনসার আলীর ছেলে খোকন আলী (৪০)। তাদের সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, বছর খানেক ধরে নতিপোতা গ্রামের বসতিপাড়ার এক সৌদি প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে একই গ্রামের দক্ষিণপাড়ার মজিবরের ছেলে জিনারুলের অবৈধ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিষয়টি গ্রামে জানাজানি হলে অলোচনা-সমালোচনার ঝড় ওঠে। এই নিয়ে মঙ্গলবার রাতে এলাকার চায়ের মোড়ের একটি দোকানে জিনারুলের সাথে খোকনের বাগবিতণ্ডা হয়। পরে বিষয়টি স্থানীয়রা মিটিয়ে দেন।

আহত খোকন আলী জানান, বিষয়টি স্থানীয়রা মিটিয়ে দিলেও কিছুক্ষণ পর বাড়ি ফেরার সময় দক্ষিণপাড়া মসজিদের সামনে থেকে মজিবরের ছেলে জিনারুল আমাকে ও আমার চাচাতো ভাই মজিবরকে পিস্তল দেখিয়ে জোরপূর্বক ধরে তাদের বাড়ি নিয়ে যায়। এসময় জিনারুলের বাবা মজিবর ও তার দুই ভাই জিল্লু ও মিনারুল, দুলালের ছেলে রাজা ও কালিয়াবকরী গ্রামের মৃত পাথারের ছেলে মিজারসহ বেশ কয়েকজন আমাদের দুজনকে বাঁশ দিয়ে বেধড়ক পেটাতে থাকে। এক পর্যায়ে জিনারুল ধারালো দেশীয় অস্ত্র দিয়ে মজিবরের মাথায় কোপ দিলে গুরুতর জখম হয় মজিবর। পুলিশ আসতে দেখে আমাকে ছেড়ে দিয়ে পালিয়ে যায় তারা। পরে মজিবর ও আমাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নেয় স্বজনরা। এ ঘটনায় আজ সকালে থানায় গিয়ে আমরা মামলা করবো। তারা এলাকার কুখ্যাত সন্ত্রাসী। তাদের কাছে পিস্তল ও শটগানসহ ভারী অস্ত্র আছে।

সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সাকিল আর সালান জানান, মজিবরের মাথায় দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কোপ মেরে জখম করা হয়েছে। এখনি শঙ্কামুক্ত বলা যাচ্ছে না। তার মাথায় অসংখ্য সেলাই দেওয়া হয়েছে। সিটি স্ক্যানের পর বোঝা যাবে তিনি শঙ্কামুক্ত কিনা।

এ বিষয়ে দামুড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল খালেক জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয় পুলিশ। পরে অভিযান চালিয়ে ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে আননাস আলীকে আটক করে পুলিশ। তবে, এখনও পর্যন্ত কেউ থানায় এসে অভিযোগ করেনি। নতিপোতা গ্রামের জিনারুল ইসলাম ও তার ফুফাতো ভাই মিজার পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী ও চিহ্নিত চাঁদাবাজ। তাদের নামে দামুড়হুদা মডেল থানা, মেহেরপুর সদর ও মুজিবনগর থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: চুয়াডাঙ্গা
Share

আরও খবর
গুলি করে ইউপি সদস্যকে হত্যা

সোমবার ০৮ মার্চ ২০২১




ট্রাম্পের অভিশংসন বিচার শুরু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১০৩জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দ্বিতীয় অভিশংসন বিচার মঙ্গলবার সিনেটে শুরু হচ্ছে। দ্রুত বিচার শেষ করতে সিনেট নেতারা একটি সময়সীমা নিয়ে একমত হয়েছে। ৬ জানুয়ারি মার্কিন কংগ্রেস ভবন ক্যাপিটলে প্রাণঘাতী হামলার জন্য সমর্থকদের উসকানি দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এখবর জানিয়েছে।

ডেমোক্র্যাটরা বলছে ট্রাম্পকে দোষী সাব্যস্ত করার মতো যথেষ্ট প্রমাণ রয়েছে। তবে ট্রাম্পের আইনজীবীরা বলছেন, হামলার সঙ্গে ট্রাম্পের সম্পৃক্ততা নেই এবং এই অভিশংসন বিচার অসাংবিধানিক। মঙ্গলবার তারা বিচারের আইনি এখতিয়ারকে চ্যালেঞ্জ জানাবেন।

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে ট্রাম্প হলেন একমাত্র প্রেসিডেন্ট যিনি দুবার অভিশংসন বিচারের মুখোমুখি হলেন। এবার যদি তিনি দোষী সাব্যস্ত হন তাহলে আর নির্বাচনে প্রার্থী হতে পারবেন না। ট্রাম্পকে অভিশংসিত করতে ১০০ আসনের সিনেটের দুই-তৃতীয়াংশের সমর্থন প্রয়োজন। সিনেটে ডেমোক্র্যাটদের আসন রয়েছে ৫০ টি। রিপাবলিকানরা তাদেরকে সমর্থন জানাবে এমন ইঙ্গিত খুব বেশি নেই।

সোমবার বিচারপূর্ব এক বিবৃতিতে ট্রাম্পের আইনজীবীরা দাবি করেন, অভিশংসন বিচার অসাংবিধানিক। কারণ ট্রাম্প দায়িত্ব ছেড়ে দিয়েছেন এবং এখন তিনি একজন নাগরিক।

Share

আরও খবর