আজঃ মঙ্গলবার ২৫ জানুয়ারী ২০২২
শিরোনাম

বিশ্বজুড়ে আরও ৩১ লাখ করোনায় আক্রান্ত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জানুয়ারী ২০২২ | ৩২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়ছে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন। বাড়ছে মৃত্যু ও শনাক্তের হার। মহামারি এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে ৮ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। একই সময়ে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩১ লাখের বেশি মানুষের।

আন্তর্জাতিক জরিপকারী সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্য মতে, বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) সকাল পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৫৫ লাখ ৩০ হাজার ২৮১ জন। আর এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩১ কোটি ৭৫ লাখ ১৭ হাজার ৪৬০ জনের। সারাবিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়েছেন ২৬ কোটি ২৮ লাখ ২২ হাজার ৩৮৫ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৮ হাজার ৩২ জন। এর আগের দিন করোনায় মারা যান ৭ হাজার ৮৪৭ জন। একই সময়ে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩১ লাখ ৪২ হাজার ৪৮০ জনের। এর আগের দিন করোনা শনাক্ত হয় ২৭ লাখ ৭২ হাজার ৬৮ জনের। 

করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্র। গত ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি করোনা শনাক্ত ও প্রাণহানি হয়েছে দেশটিতে। এই সময়ে দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭ লাখ ৮৮ হাজার ৭৯১ জন এবং মারা গেছেন ২ হাজার ২৩৮ জন। এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে ৬ কোটি ৪৩ লাখ ৪৪ হাজার ৬৯৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া, করোনায় প্রাণ গেছে ৮ লাখ ৬৬ হাজার ৮৮২ জনের।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর ২০২০ বছরের ১১ মার্চে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে বৈশ্বিক মহামারি হিসেবে ঘোষণা করে।


আরও খবর
সৌদি আরবে প্রতি ঘণ্টায় ৭ ডিভোর্স

সোমবার ২৪ জানুয়ারী ২০২২




হিলি ট্রেন ট্র্যাজেডি দিবস আজ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আজ দিনাজপুরের হিলি ট্রেন ট্র্যাজেডি দিবস। ২৭ বছর আগে হিলি রেলস্টেশনে দুটি ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষে বহু হতাহতের ঘটনা ঘটে। সেই দিনের কথা আজও ভুলতে পারেনি হিলিবাসী। দিনটি উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন স্থানীয়রা।

১৯৯৫ সালের ১৩ জানুয়ারি, দিনটি ছিল শুক্রবার। রাত সোয়া ৯টার দিকে গোয়ালন্দ থেকে পার্বতীপুরগামী ৫১১ নম্বর লোকাল ট্রেনটি হিলি রেলস্টেশনের ১ নম্বর লাইনে এসে দাঁড়ায়। এর কিছুক্ষণ পর সৈয়দপুর থেকে খুলনাগামী ৭৪৮ নম্বর আন্তঃনগর সীমান্ত এক্সপ্রেস ট্রেনটি একই লাইনে ঢুকে পড়ে। এ সময়ই ঘটে ভয়াবহ মুখোমুখি সংঘর্ষ। এতে বিকট শব্দে গোয়ালন্দ লোকাল ট্রেনের ইঞ্জিনসহ দুটি বগি দুমড়েমুচড়ে আন্তঃনগর ট্রেনের ওপর উঠে যায়।

ভয়াবহ এই ট্রেন দুর্ঘটনায় দুটি ট্রেনের অর্ধশতাধিক যাত্রী নিহত হয়। আহত হয় দুই শতাধিক। নিহতদের অনেকের দেহ ছিন্নবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে থাকে। পরে স্থানীয় মানুষ, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের লোকজনের সহায়তায় লাশ উদ্ধারসহ আহতদের দ্রুত উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠায়। সে সময় সরকারিভাবে নিহতের সংখ্যা ২৭ জন ঘোষণা করা হয়। আর আহতের সংখ্যা বলা হয় শতাধিক।

খবর পেয়ে ছুটে আসেন বিএনপি সরকারের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া। ঘোষণা দেন নিহত ও আহতদের আর্থিক ক্ষতিপূরণের। এদের মধ্যে অনেকে ক্ষতিপূরণ পেলেও কয়েকজন আজও পায়নি তাদের ক্ষতিপূরণের টাকা।

হাকিমপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি জাহিদুল ইসলাম জাহিদ বলেন, সেদিনের কথা আজও মনে পড়লে শরীর শিউরে উঠে। সে রাতে দুর্ঘটনার সময়ে আমরা হিলি বাজারে প্রেসক্লাবে বসে ছিলাম। এমন সময় একটি বিকট শব্দ শুনতে পাই। এতো বিকট শব্দ ছিলো যে আমরা স্থির করতে পারছিলাম না, কোথায় কি হচ্ছে। ছুটে যাই রেলস্টেশনের দিকে। গিয়ে দেখি এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা, শত শত মানুষের আহাজারি। ক্ষতবিক্ষত মানুষের দেহের বিভিন্ন অংশ পড়ে আছে। আহতরা বাঁচার জন্য আহাজারি করছে, অনেকের শরীর ছিন্নবিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। বুঝে উঠতে পারছিলাম না আমার কি করা উচিত। অবশেষে স্থানীয়দের সহযোগিতায় আহতদের উদ্ধার করে হিলি হাসপাতালে নিয়ে যাই। এতো লাশ, এতো রক্তমাখা ক্ষতবিক্ষত দেহ আগে কখনও দেখিনি। সেই দিনের ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনাটি আজও হিলির মানুষকে আতঙ্কে রাখে।

ক্ষতিগ্রস্ত কয়েকটি পরিবার ও এলাকার লোকজন জানান, তাৎক্ষণিক ট্রেন দুর্ঘটনার কারণ হিসেবে স্থানীয় প্রশাসন ও রেল কর্তৃপক্ষ তাদের প্রাথমিক তদন্তে হিলি রেলস্টেশনের কর্তব্যরত স্টেশন মাস্টার ও পয়েন্টসম্যানের দায়িত্বহীনতাকেই দায়ী করেছেন।

হিলি রেলওয়ে একতা ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বুলু জানান, প্রতি বছরের ন্যায় এবছরও হিলি রেলস্টেশন প্লাটফর্মে ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহতদের রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। পাশাপাশি আলোচনা সভা ও কালো ব্যাজ ধারণের কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে।


আরও খবর



মঠবাড়িয়ায় ৪ ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ কাল, সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ জানুয়ারী ২০২২ | ৯৯০জন দেখেছেন
মনিরুল ইসলাম, মঠবাড়িয়া

Image

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় আগামীকাল (৫ জানুয়ারী) পঞ্চম ধাপের ৪ টি ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। উপজেলার ১১ টি ইউনিয়নের মধ্যে গত ১১ এপ্রিল প্রথম ধাপে ৬ টি ইউনিয়নে নির্বাচন সম্পন্ন হওয়ায় এবার ৪ টি ইউনিয়নে নির্বাচন হচ্ছে। বাকি একটি ইউনিয়নে (মঠবাড়িয়া সদর) এর নির্বাচন কবে অনুষ্ঠিত হবে তা নিয়ে অনিশ্চয়তায় রয়েছে।

আগামীকাল অনুষ্ঠিতব্য চারটি ইউনিয়নে ৩৯ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে ২৯ জনই স্বতন্ত্র প্রার্থী। চারটি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের ৪ জন ও ইসলামী আন্দোলনের হাতপাখা প্রতীকের ৪ জন, তাছাড়াও দলীয় প্রতীকে জাতীয় পার্টি (এরশাদ) ০১ জন ও জাতীয় পার্টি (জেপি) থেকে ০১ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। নৌকা প্রতীকের পাশাপাশি গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন অন্যান্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরাও। হালকা শীতকে উপেক্ষা করে যে যার মতো সাধারণ ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন। বসে নেই মেম্বার প্রার্থীরাও। হাট-বাজার, পাড়া মহল্লা, চায়ের দোকান সর্বত্র চলছে নির্বাচনী আলোচনা। আলোচনা-সমালোচনা থেকে পিছিয়ে নেই সাধারণ ভোটাররাও। তাদের মধ্যেও চলছে চুলছেড়া বিশ্লেষণ। বিভিন্ন ইউনিয়ন ঘুরে সাধারণ ভোটারদের সাথে কথা বলে জানাগেছে প্রতিটি ইউনিয়নেই হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের সম্ভাবনা রয়েছে।

এদিকে বিভিন্ন ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকের কর্মীদের বিরুদ্ধে হাতপাখা, লাঙ্গল, বাই সাইকেল ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের কর্মীদের মারধর, প্রচারণায় বাঁধা ও প্রচার মাইক ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে প্রার্থীরা সংবাদ সম্মেলন করে নৌকার প্রার্থীদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ তুলে ধরছেন। এদিকে ভোট গ্রহণের দিন সুষ্ঠু ভোট নিয়ে ভোটারদের মধ্যে শংকা বিরাজ করছে। তবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে বলে জোর আশ্বাস দেয়া হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানাগেছে, আগামীকাল উপজেলার চারটি ইউনিয়ন পরিষদের সাধারণ নির্বাচনে বড়মাছুয়া ও ধানীসাফায় ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া বাকী দুই ইউনিয়ন দাউদখালী ও টিকিকাটায় সাধারণ পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হবে। চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীরা হলেন-২নং ধানীসাফা ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ তালুকদার, ৪নং দাউদখালী ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান ফজলুল হক খান রাহাত, টিকিকাটা ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম রিপন জমাদ্দার ও ১১নং বড়মাছুয়া ইউনিয়নে আয়েশা আক্তার মনি। এছাড়া দলীয় প্রতীকে ধানীসাফা ইউনিয়নে মোঃ ইউসুব আলী মুন্সী (হাতপাখা), দাউদখালী ইউনিয়নে সেকান্দার আলী খান (লাঙ্গল), আব্দুস শুক্কুর তালুকদার (বাইসাইকেল), মোঃ নূরুল ইসলাম মোল্লা (হাতপাখা), টিকিকাটা ইউনিয়নে মহিউদ্দিন আহমেদ লাবু মৃধা (হাতপাখা) এবং বড়মাছুয়া ইউনিয়নে জসিম হাওলাদার (হাতপাখা) প্রতিদ্বদ্বীতা করছেন।

অপরদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা হলেন ধানীসাফায় রফিকুল ইসলাম আকন, আবু জাফর হাওলাদার, আজিজুর রহমান, এএইচএম জামাল উদ্দিন, শহীদুল হক, ইউসুফ আলী সরদার, কাঞ্চন আলী শিকদার, মো: মামুন, সাইদুল মল্লিক ও মো: শামীম আহসান। দাউদখালীতে জাহিদুল আলম শামীম, মোঃ আইউব আলী খান, মোঃ জাহাঙ্গীর খান, একেএম মাহমুদুল হাসান তৌফিক ও মুছা তালুকদার। টিকিকাটায় সুফী জহির উদ্দীন, মোসাঃ সালমা, মো: শহিদুল ইসলাম, এনামুর রহমান ও মোঃ আব্দুল হালিম এবং বড়মাছুয়ায় বর্তমান চেয়ারম্যান নাসির হোসেন হাওলাদার, কামরুজ্জামান স্বপন খান, দুলাল হাওলাদার, মাইনুল ইসলাম, মোঃ বশির আহমেদ, ছিদ্দিকুর রহমান, মোঃ আব্দুল লতিফ, মোঃ জামাল শিকদার, মোঃ হাবিবুর রহমান ও মো: নুরুল আমিন।

উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ নাজমুল হোসেন জানান, মঠবাড়িয়ায় আগামীকাল চারটি ইউনিয়ন পরিষদে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। দুএকটি বিশৃঙ্খলার ঘটনা ছাড়া এখন পর্যন্ত পরিস্থিতি শান্তিপূর্ণ রয়েছে। অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভাবে নির্বাচন সম্পন্নের লক্ষ্যে সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।


আরও খবর



সিনিয়র সচিব হলেন ৩ কর্মকর্তা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ ডিসেম্বর ২০২১ | ৫৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সিনিয়র সচিব হলেন প্রশাসনের আরও তিনজন কর্মকর্তা। তিনজন সচিবকে সিনিয়র সচিব করে মঙ্গলবার (২৮ ডিসেম্বর) জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এদের আগের কর্মস্থলেই সিনিয়র সচিব হিসেবে পদায়ন করা হয়েছে।

সিনিয়র সচিব হয়েছেন- বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব তপন কান্তি ঘোষ, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব (জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের সচিব হিসেবে বদলির আদেশাধীন) মো. মাহবুব হোসেন এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া।

তপন কান্তি ঘোষের সিনিয়র সচিবের পদমর্যাদা ৩০ ডিসেম্বর, মাহবুব হোসেন সিনিয়র সচিবের পদমর্যাদা ৩১ ডিসেম্বর ও তোফাজ্জল হোসেনের সিনিয়র সচিবের পদমর্যাদা ১২ জানুয়ারি থেকে কার্যকর হবে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।

সরকারে এখন সিনিয়র সচিবের সংখ্যা হলো ১৬ জন। সিনিয়র সচিবদের পদমর্যাদা মন্ত্রিপরিষদ সচিব ও সচিবদের মাঝামাঝি। ২০১২ সালের ৯ জানুয়ারি তৎকালীন মহাজোট সরকার প্রশাসনে প্রথমবারের মতো সিনিয়র সচিব নামে পদ চালু করে।

নিউজ ট্যাগ: সিনিয়র সচিব

আরও খবর



ফাঁদে ফেলে অর্থ আদায়: এবার পুলিশ পরিদর্শকের স্ত্রী গ্রেফতার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ জানুয়ারী ২০২২ | ৮২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রংপুরে ফাঁদে ফেলে সাধারণ মানুষদের জিম্মি করে টাকা আদায়ের ঘটনায় এবার এক পুলিশ পরিদর্শকের স্ত্রীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৪ জানুয়ারি) বিকেলে রংপুর নগরীর ঠিকাদার পাড়া বিকন মোড় এলাকার একটি বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতার ওই নারীর নাম কানিজ ফাতিমা আনিসা (৩৬)। তার স্বামীর নাম হাবিবুর রহমান। তিনি পুলিশ সুপার কার্যালয়ে পরিদর্শক পদে কর্মরত।

আনিসাকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন রংপুর মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হোসেন আলী। তিনি বলেন, সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে টাকা আদায় ও টর্চারসেলে নির্যাতনের অভিযোগে ২ জানুয়ারি রাতে নগরীর গ্র্যান্ড হোটেল মোড় এলাকার বাড়ি থেকে শাহারুখ করিম অনিক (৩৪) ও তার স্ত্রী আসমানী আক্তারকে (২৪) গ্রেফতার করে র‌্যাব। এ ঘটনায় থানায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়। ওই মামলায় আসামিরা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। জবানবন্দিতে কানিজ ফাতিমা আনিসার নাম উঠে আসে।

হোসেন আলী আরও বলেন, মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে অভিযান চালিয়ে তাকে বিকন মোড় এলাকার একটি বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর তাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে রংপুর মহানগর পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, গ্রেফতার আনিসা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে পরিদর্শক পদে কর্মরত হাবিবুর রহমানের স্ত্রী।

তবে এ বিষয়ে জানতে হাবিবুর রহমানের মোবাইল নম্বরে কল দিলে তিনি নিজেকে পুলিশ পরিদর্শক পরিচয় দেন। তবে আনিসার ব্যাপারে জানতে চাইলে ওই নারী তার স্ত্রী নন বলেই ফোন কেটে দেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা পুলিশ সুপার ফেরদৌস আলী চৌধুরীর মোবাইল ফোনে কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

এর আগে সোমবার বিকেলে রংপুর র‌্যাব-১৩ এর সহকারী পরিচালক মাহমুদ বশির আহমেদ স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বেশ কিছুদিন ধরে অনিকের স্ত্রী আসমানী রংপুর মহানগরীর বিভিন্ন ব্যক্তির সঙ্গে পরিচিত হয়ে কৌশলে তাদের আস্তানায় ডেকে নিয়ে যেতেন। এরপর অনিকসহ অজ্ঞাত চার-পাঁচজন ওইসব ব্যক্তির অশ্লীল ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়া এবং হত্যার ভয় দেখিয়ে চাঁদা আদায় করত। এভাবেই লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে এ চক্রটি।

এমন একটি অভিযোগের ভিত্তিতে র‌্যাব-১৩ বিষয়টি আমলে নিয়ে সত্যতা অনুসন্ধানের জন্য তাৎক্ষণিক ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং জিম্মিকারী ব্যক্তিদের আইনের আওতায় নিয়ে আসতে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ায়। এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাবের একটি টিম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রোববার রাতে রংপুর মহানগরীর গ্র্যান্ড হোটেল মোড় এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেফতার করে।

অভিযান চলাকালে র‌্যাব তাদের বাসার ষষ্ঠ তলায় একটি টর্চার সেলের সন্ধান পায়। এ সেল থেকে দুটি চাপাতি, ইলেকট্রিক শকের তার, মাদক সেবনের সরঞ্জামাদি, হাতুড়ি, ছুরি, স্ট্যাম্প, ভিডিও ধারণের দুটি মোবাইল ফোন এবং একটি ল্যাপটপ উদ্ধার করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার দম্পতি বিভিন্ন ব্যক্তিকে জিম্মি করে চাঁদা আদায় এবং নির্যাতনের কথা স্বীকার করেছেন। সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দিয়ে আটকদের হস্তান্তর করা হয়েছে। তাদের সহযোগীদেরও আইনের আওতায় আনতে র‌্যাবের কার্যক্রম অব্যাহত আছে।

নিউজ ট্যাগ: রংপুর

আরও খবর



লক্ষাধিক ভোটের ব্যবধান হবে, ভোট দিয়ে বললেন তৈমূর

প্রকাশিত:রবিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী বিএনপির বহিষ্কৃত নেতা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার। লক্ষাধিক ভোটের ব্যবধানে জেতার আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

রোববার সকাল সাড়ে ৮টায় নারায়ণগঞ্জ ইসলামিয়া কামিল মাদরাসা কেন্দ্রে ভোট দেওয়া শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

নাসিকের ২৭টি ওয়ার্ডের ১৯২টি কেন্দ্রে সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। যা একটানা চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। সবগুলো কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোটগ্রহণ চলছে।

শীত আর কুয়াশা উপেক্ষা করেই সকালে ভোটাররা দলে দলে কেন্দ্রগুলোতে ভিড় করছেন। ভোটকে কেন্দ্র করে তাদের মধ্যে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা দেখা গেছে।

ভোটাররা বলছেন, স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমে তারা তাদের সিটি মেয়রকে বেছে নেবেন। তারা আশা করছেন, ভোটগ্রহণের শুরু থেকে গণনা পর্যন্ত একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ বিরাজমান থাকবে।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা যায়, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ২৭টি ওয়ার্ড মিলে প্রায় ২০ লাখ মানুষ বাস করলেও ভোটার সংখ্যা ৫ লাখ ১৭ হাজার ৩৫৭ জন। এদের মধ্যে নারী ভোটার ২ লাখ ৫৭ হাজার ৫১৯ এবং পুরুষ ২ লাখ ৫৯ হাজার ৮৩৪ জন।

শনিবার ইসির জনসংযোগ পরিচালক (যুগ্ম-সচিব) এসএম আসাদুজ্জামান জানান, ১৯২টি কেন্দ্রে ১ হাজার ৩৩৩ ভোটকক্ষ থাকবে। মোট ইভিএম ২ হাজার ৯১২ ইউনিট। স্মার্টবুথ রয়েছে ২টি কেন্দ্র। মডার্ন গার্লস স্কুল (১২৩ ও ১২১ কেন্দ্র), ওয়ার্ড নম্বর- ৬। ১৯২টি কেন্দ্রের মধ্যে ৩০টি কেন্দ্রকে অতি গুরুত্বপূর্ণ বা ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। সেগুলোতে বাড়তি সতর্কতা নেওয়া হয়েছে।

ভোটকক্ষে ৫ লাখ ১৭ হাজার ৩৬১ ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পাবেন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ৫৯ হাজার ৮৪৬ জন, নারী ভোটার ২ লাখ ৫৭ হাজার ৫১১ জন ও হিজড়া ভোটার ৪ জন। ভোটের মাঠে মেয়র পদে সাতজন, সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডে ৩৪ জন ও সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে ১৪৫ জনসহ মোট ১৮৯ জন প্রতিদ্বন্দ্বী রয়েছেন।


আরও খবর