আজঃ বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১
শিরোনাম
স্পেনের কারাগারে ম্যাকাফি অ্যান্টিভাইরাস আবিষ্কারকের ‘আত্মহত্যা’ আগস্টে মুক্তি পাচ্ছে চলচ্চিত্র ‘চিরঞ্জীব মুজিব’ গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহীতে আরও ১৮ জনের মৃত্যু ‘আ.লীগ হীরার টুকরা, যতবার কেটেছে নতুন করে জ্যোতি ছড়িয়েছে’ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার নামে মিথ্যাচারের প্রতিবাদে মানববন্ধন স্বাক্ষর জালিয়াতি ও তথ্য গোপন করায় ছাত্র ইউনিয়নের দুই শীর্ষ নেতা বহিষ্কার ইতিহাসে আওয়ামী লীগ, বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ ও শেখ হাসিনা সমার্থক হয়ে থাকবে: : মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী পরীমনির মামলায় সেই নাসির-অমি ৫ দিনের রিমান্ডে ৯ দেশে ছড়িয়েছে ডেলটা প্লাস ধরন বিধিনিষেধের মধ্যেও শনাক্ত ও মৃত্যু বাড়ছে

বিশ্বকাপ বাছাই: নেইমার-রিচার্লিসনের জাদুতে ব্রাজিলের জয়

প্রকাশিত:শনিবার ০৫ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৫ জুন ২০২১ | ১৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দীর্ঘদিন পর মাঠে ফিরে ইকুয়েডরের বিপক্ষে জয় ছিনিয়ে আনতে অনেকটাই সংগ্রাম করতে হয়েছে ব্রাজিলকে। তবে সংগ্রাম করা লাগলেও শেষ পর্যন্ত লাতিন আমেরিকান অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইয়ে নিজেদের অবস্থান ধরে রাখতে পারলো দলটি। নিজেদের ঘরের মাঠে ইকুয়েডরের বিপক্ষে ২-০ গোলে জয়ী হয়েছে তিতের দল।

জাতীয় দলের জার্সিতে সুপারস্টার নেইমার যে বরাবরই দুর্বার। আরও একবার তার প্রমাণ পাওয়া গেল। ব্রাজিলের জয়ে গোল করেছেন এ ফরোয়ার্ড খেলোয়াড়। আর অন্য একটি গোল করিয়েছেন রিচার্লিসনকে দিয়ে। আর এই গোলের পেছনে অবদান নেইমারের।

শনিবার (৫ জুন) বাংলাদেশ সময় ভোরে ইকুয়েডর ও ব্রাজিল মুখোমুখি হয় এস্তাদিও বেইরা রিওতে। ম্যাচের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত একবারও প্রতিপক্ষ ব্রাজিলকে দমাতে পারেনি ইকুয়েডর। তবে স্বাগতিকরা বেশ কিছু সুযোগ হাতছাড়া করেছেন।

ব্রাজিল কোচ তিতে মূল একাদশে স্ট্রাইকার হিসেবে নেন গ্যাব্রিয়েল বারবোসকে। যে কারণে ম্যাচের ৪১ মিনিটে এর সুফল প্রায় পেয়ে গিয়েছিলেন। তিনি ম্যাচের প্রথমার্ধের শেষদিকে জালে বল পাঠিয়েছিলেন। কিন্তু অফসাইড হওয়ায় গোলশূন্য হয়েই বিরতিতে যায় ব্রাজিল।

দ্বিতীয়ার্ধ শুরু হওয়ারও ২০ মিনিট পর প্রথম গোল করে দলকে প্রথম লিড এনে দেন রিচার্লিসন। তবে এ গোলটি নেইমার নিজেই ডি-বক্সের বাম থেকে করতে পারতেন। কিন্তু তা না করে বল এগিয়ে নিয়ে গোল নিশ্চিত করান রিচার্লিসনকে দিয়ে। এক গোলের মাধ্যমেই জয়ের পথে হাঁটছিল ব্রাজিল। কিন্তু শেষ দিকে পেনাল্টি পায় তারা। ম্যাচের ৭৬ মিনিটে মাঠে নেমে মাত্র ১০ মিনিটের মধ্যে পেনাল্টি এনে দেন ফিরমিনো। পেনাল্টিতে নেইমারের নেয়া শটটি আটকে ফেলেন ইকুয়েডরের গোলরক্ষক অ্যালেক্সান্ডার ডমিঙ্গেজ। তবে নেইমারের শট নেয়ার আগেই গোল লাইন থেকে বেরিয়ে আসার জন্য বাঁশি বাজান রেফারি।

দ্বিতীয়বার সুযোগ পান তরুণ ফুটবলার নেইমার। তবে এবার ঠিকই বল জালে জড়িয়েছেন তিনি। এটি ব্রাজিলের জার্সিতে নেইমারের ৬৫তম গোল। নেইমারের জাদুকরি এ গোলের মাধ্যমে পয়েন্ট টেবিলে নিজেদের অবস্থান শক্ত করে ব্রাজিল।

বিশ্বকাপ বাছাইয়ের পাঁচ ম্যাচে পূর্ণ ১৫ পয়েন্ট অর্জন করে এখন শীর্ষে ব্রাজিল। এদিকে পাঁচ ম্যাচে ১১ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার দুই নম্বরে রয়েছে আর্জেন্টিনা আর পাঁচ ম্যাচের তিনটিতে জয়ী হয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে ইকুয়েডর।


নিউজ ট্যাগ: নেইমার

আরও খবর



সীমান্তবর্তী ৭ জেলায় লকডাউনের সুপারিশ

প্রকাশিত:রবিবার ৩০ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ৩০ মে ২০২১ | ১৩৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধির কারণে ভারতের সীমান্তবর্তী সাত জেলায় লকডাউনের সুপারিশ করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিশেষজ্ঞ কমিটি। সীমান্তবর্তী সাত জেলা হলো- নওগাঁ, নাটোর, সাতক্ষীরা, যশোর, রাজশাহী, কুষ্টিয়া ও খুলনা। এ ছাড়া নোয়াখালী ও কক্সবাজারের সংক্রমণ নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছে কমিটি। আজ রবিবার এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হতে পারে বলে জানা গেছে বিশেষজ্ঞ কমিটি সূত্রে।

সূত্র জানায়, গতকাল শনিবার এক বৈঠকে বিশেষজ্ঞ কমিটি সীমান্তবর্তী সাত জেলায় লকডাউনের সুপারিশ করেছে। এসব জেলায় করোনার সংক্রমণ বেশি। আজ এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হতে পারে।

জানা গেছে, বিশেষজ্ঞ কমিটির এ সুপারিশ রবিবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়ে জানানো হবে। মন্ত্রণালয়ে বিকেলে মন্ত্রিসভার এক বৈঠকে সাত জেলার লকডাউনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে।


আরও খবর



সাতক্ষীরায় হু হু করে বাড়ছে করোনা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০১ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০১ জুন ২০২১ | ১৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সীমান্ত জেলা সাতক্ষীরায় করোনা রোগীর সংখ্যা উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে। মে'র প্রথম সপ্তাহে ১২ শতাংশ রোগীর দেহে করোনা জীবাণু পাওয়া গেলেও মাস শেষে বেড়ে ৪৯ শতাংশে দাঁড়ায়। বাজার-ঘাট ও বিপণিবিতানে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। ঈদের আগে বিভিন্ন জেলায় ঘরেফেরা মানুষ ও ভারত ফেরতরা সাতক্ষীরায় আসার পরই সংক্রমণ বাড়ছে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

সীমান্ত জেলা সাতক্ষীরায় প্রায় ২৫ লাখ লোকের বাস। এ জেলার সঙ্গে ভারতের রয়েছে ১৩৭ কিলোমিটার সীমান্ত।

পরিসংখ্যান বলছে, ভারত প্রত্যাগত পাসপোর্ট যাত্রী সাতক্ষীরায় আসার পর করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে। ভারত থেকে আগত ৩৩৭ জনের মধ্যে ১৭ জনের করোনা পজিটিভ পাওয়া যায়। তাছাড়া সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দরে স্বাস্থ্যবিধির নিয়ম না মেনেই অবাধে ঢুকছে ভারতীয় পণ্যবাহী ট্রাক। আবার বাজার ও মার্কেটগুলোতে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি। আক্রান্তের সংখ্যা এতই বৃদ্ধি পেয়েছে যে, করোনা ডেডিকেটেড সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সংস্থান না হওয়ায় সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালেও ২৩ জন করোনা উপসর্গের রোগীকে ভর্তি করা হয়েছে।

সাতক্ষীরার সিভিল সার্জন ডা. হোসাইন সাফায়েত বলেন, ঈদের আগে ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে বাড়ি এসেছে, তারা ইচ্ছামতো ঘুরেছে, এসব কারণে সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে।

তবে জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামালের দাবি, ভারত থেকে অবৈধভাবে বাংলাদেশে আসা বাংলাদেশিদের কারণে সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে।

তিনি বলেন, ভারত থেকে কতজন অবৈধভাবে সাতক্ষীরায় এসেছে, এমন সব তথ্য-উপাত্ত পর্যালোচনা করা হবে। আগামী ৩ জুলাই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এদিকে সীমান্তে টহল বাড়িয়ে দেওয়ার কথা জানিয়ে সাতক্ষীরা বিজিব ৩৩ ব্যাটালিয়ন উপ-অধিনায়ক রেজা আহমেদ বলেন, একইসঙ্গে যারা মাদক ও গরু ব্যবসার সঙ্গে জড়িত তাদের বাড়ি ও গতিবিধি নজরদারিতে রাখা হয়েছে।

জেলায় এখন পর্যন্ত এক হাজার ৫৮৫ জনের দেহে করোনা জীবাণু পাওয়া গেছে। যার মধ্যে ৪৭ জন মারা যান। এছাড়া করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ২০৯ জন।


নিউজ ট্যাগ: সাতক্ষীরা

আরও খবর



৫৩ দিন পর ফিরোজায় ফিরলেন খালেদা

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ৯৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে ৫৩ দিন চিকিৎসা শেষে গুলশানে নিজের বাসা ফিরোজায় ফিরলেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। শনিবার (১৯ জুন) রাত ৮টা ৩৫ মিনিটে সিলভার রঙের গাড়িতে গুলশানের বাসভবন ফিরোজায় আসেন তিনি। এসময় তার সঙ্গে কাজের সহকারী ফাতেমাও ছিলেন।

এর আগে রাত সোয়া ৮টার দিকে হাসপাতাল থেকে গাড়িতে করে তিনি বাসার উদ্দেশে রওনা হন। খালেদা জিয়ার বাসভবনে ফেরাকে কেন্দ্র করে বাসার আশেপাশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তৎপর রয়েছে। বিভিন্ন সংস্থার লোকজনকেও দেখা গেছে।

বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, দলের নেতাকর্মীদের নির্দেশনা দেওয়া ছিল, যেন কেউ ফিরোজার সামনে ভিড় না করেন। এ কারণে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ছাড়া কয়েকজন নেতা উপস্থিত ছিলেন।

খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. মোহাম্মদ আল মামুন বলেন, শারীরিক অবস্থার উন্নতি হওয়ায় মেডিকেল বোর্ড হাসপাতাল থেকে ম্যাডামকে (খালেদা জিয়া) ছেড়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তিনি বিকালে হাসপাতাল থেকে গুলশানের বাসায় গেছেন।

মামুন বলেন, খালেদা জিয়ার জন্য গঠিত মেডিকেল টিমই তাকে তার বাসায় চিকিৎসা দিবে। গত ১১ এপ্রিল ৭৬ বছর বয়সী এই বিএনপি প্রধানের করোনা শনাক্ত হয়। এরপর ২৭ এপ্রিল তাকে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালে ভর্তির একদিন পর ২৮ এপ্রিল অধ্যাপক শাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে ১০ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়।

গত ১১ এপ্রিল খালেদা জিয়ার করোনার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। শুরুতে গুলশানের বাসভবন ফিরোজার দ্বিতীয় তলায় একটি রুমে চিকিৎসা চলছিল বিএনপি নেত্রীর। গত ১৫ এপ্রিল এভারকেয়ার হাসপাতালে সিটি স্ক্যান করানো হয় খালেদা জিয়ার। এরপর ফিরিয়ে আনা হয় গুলশানের বাসভবনে। অবস্থার অবনতি হলে ২৭ এপ্রিল একই হাসপাতালে ভর্তি করা হয় বিএনপি-প্রধানকে।

আক্রান্তের ২৭ দিন পর ৪ মে পরীক্ষায় করোনা নেগেটিভ হন। কিন্তু করোনা পরবর্তী জটিলতা ও অন্যান্য শারিরীক অসুস্থতার কারণে তিনি হাসপাতালে থেকে চিকিৎসা নিয়েছেন। সিসিইউতে থাকা অবস্থায় গত ২৮ মে হঠাৎ জ্বরে আক্রান্ত হন খালেদা জিয়া। গত ৩ জুন চিকিৎসকদের পরামর্শে তাকে কেবিন ফিরিয়ে আনা হয়।

উন্নত চিকিৎসার জন্য সরকারের কাছে গত ৬ মে খালেদা জিয়ার পরিবার তাকে বিদেশে নেয়ার অনুমতি চেয়ে আবেদন করে। কিন্তু সরকার তা নাকচ করে দেয়।

৭৬ বছর বয়সী খালেদা জিয়ার বাতজ্বর, হাঁটুর ব্যাথা, চোখের সমস্যা, ডায়াবেটিসসহ নানা শারীরিক জটিলতা রয়েছে।

গত বছর ২৫ মার্চ করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে এক নির্বাহী আদেশে খালেদা জিয়াকে ছয় মাসের জন্য কারাগার থেকে মুক্তি দেয়া হয়।


আরও খবর



জলবায়ু পরিবর্তন থেকে বাঁচতে গাছ লাগাতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ০৫ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৫ জুন ২০২১ | ৮৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমাদের পরিবেশ আমাদেরই রক্ষা করতে হবে। এ দেশ আমাদের। আজকে জলবায়ু পরিবর্তনের অভিঘাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে হলে, আমাদের সবুজ বাংলাকে আরও সবুজ করতে হবে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের স্বাধীনতা দিয়ে গেছেন। বাংলাদেশকে আমরা সোনার বাংলা হিসেবে গড়তে চাই।

শনিবার (৫ জুন) সরকারি বাসভবন গণভবনে জাতীয় বৃক্ষরোপণ অভিযান-২০২১ উদ্বোধনের সময় প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন।

তিনি বলেন, আসুন আমরা সবাই মিলে ব্যাপকভাবে বৃক্ষরোপণ করি এবং আমাদের সোনার বাংলাকে আরও সোনার সবুজ বাংলা করি। বনায়নে ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সাফল্যের কথা জানিয়ে টানা তিনবারের সরকার প্রধান বলেন, আজকের বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশ। আমরা এগিয়ে যাব।

বনায়নের ক্ষেত্রে আমাদের অনেক সাফল্য। আমরা যে ব্যবস্থা নিয়েছি তার ফলে আজকে আমাদের প্রায় ২২ শতাংশ বনায়ন সৃষ্টি হয়েছে। তাছাড়া আমাদের পারিবারিকভাবে বাগান সৃষ্টি হচ্ছে। সবাই এখন সচেতন।

প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীকে আহ্বান জানিয়ে বলেন, আসুন আমরা সবাই মিলে ব্যাপকভাবে বৃক্ষরোপণ করি এবং আমাদের সোনার বাংলাকে আরও সোনার সবুজ বাংলা করি। আজকের বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশ। আমরা এগিয়ে যাব।

গণভবনে চারা রোপন করে বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, আজকে বিশ্ব পরিবেশ দিবস। আমি নিজে বৃক্ষরোপণ করলাম। সেই সঙ্গে আমি দেশবাসীকে আহ্বান জানাব, যার যেখানে যতটুকু জায়গা আছে গাছ লাগান। তিনটা করে গাছ লাগাতে পারলে সব থেকে ভালো হয়। আর সেটা যদি না পারেন একটা করে হলেও লাগাবেন। আমরা চাই যে একটা ফলজ, একটা বনজ, একটা ভেষজ এ ধরনের গাছ লাগাবেন। পরিবেশ রক্ষায়, নিজের আর্থিক সচ্ছলতা ও পরিবেশ রক্ষার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি উপযোগী সেটা হলো ব্যাপকভাবে বৃক্ষরোপণ করা।

প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব কে এম শাখাওয়াত মুন জানান, এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন, সচিব জিয়াউল হাসান, প্রধানমন্ত্রীর স্পিচ রাইটার মো. নজরুল ইসলামসহ সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।


আরও খবর



আন্তর্জাতিক জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী দিবস আজ

প্রকাশিত:শনিবার ২৯ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৯ মে ২০২১ | ১০৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image


আন্তর্জাতিক জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী দিবস আজ। বিশ্বের অন্যান্য দেশের ন্যায় বাংলাদেশেও যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি পালন করা হচ্ছে।

শনিবার সকালে শান্তিরক্ষীদের স্মরণে ঢাকার পুরাতন বিমানবন্দর মসজিদ কমপ্লেক্সে দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়েছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী এম এ মোমেন প্রধান অতিথি হিসেবে শান্তিরক্ষী র‌্যালি-২০২১ অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেছেন।

শনিবার ঢাকা সেনানিবাসের সেনাকুঞ্জে আয়োজিত অনুষ্ঠানে শহীদ শান্তিরক্ষীদের নিকটাত্মীয় ‍ও আহত শান্তিরক্ষীদের সংবর্ধনা এবং জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমের ওপর বিশেষ উপস্থাপনার আয়োজন করা হয়েছে।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ভিটিসির মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বিটিভি ওয়ার্ল্ড সংবর্ধনা অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করবে।

সেনাকুঞ্জে আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, তিন বাহিনীর প্রধান, সংসদ সদস্য, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার (পিএসও), পুলিশের মহাপরিদর্শক, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, বাংলাদেশে জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কারী, সংবাদমাধ্যম ব্যক্তিত্বসহ উচ্চ পদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকবেন।

দিবসটি উপলক্ষে বিশেষ বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো আবদুল হামিদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ তার বাণীতে বলেন, বাংলাদেশ আজ বিশ্ব দরবারে শান্তি ও সম্প্রীতির এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। তাদের অনন্য অবদানের জন্য আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে। বাংলাদেশের শান্তিরক্ষীরা শান্তিরক্ষা মিশনে একটি মর্যাদাপূর্ণ অবস্থান নিশ্চিত করতে সক্ষম হয়েছে।

তিনি জাতিসংঘ শান্তি রক্ষা মিশনে বাংলাদেশসহ অন্যান্য দেশের সকল শান্তিরক্ষীকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান। বিশ্বশান্তি রক্ষার মহান দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে আত্মোৎসর্গকারী বীর শান্তিরক্ষী সদস্যদের তিনি পরম শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন।

অপরদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বাণীতে বলেন, বাংলাদেশ আজ সারাবিশ্বে শান্তিরক্ষায় সক্রিয় অংশগ্রহণকারী দেশ হিসেবে যে গৌরব ও মর্যাদা লাভ করেছে, তা আমাদের শান্তিরক্ষীদের অসামান্য পেশাদারিত্ব, সাহস, বীরত্ব ও দক্ষতারই অর্জিত ফসল।

তিনি বলেন, করোনা মহামারির মধ্যেও বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে শান্তি স্থাপনে বাংলাদেশী শান্তিরক্ষীগণ পেশাদারিত্ব, দক্ষতা ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছেন এবং যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশে শান্তি ফিরিয়ে আনার মাধ্যমে ঐ সকল দেশের জনগণের আস্থা অর্জন করেছেন।

বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ সরকার ও জনগণের পক্ষ থেকে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমের প্রতি তার সমর্থন পুনর্ব্যক্ত করে শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশের শান্তিরক্ষীরা যাতে আরও আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে জাতিসংঘের আহ্বানে সাড়া দিতে পারেন, সে জন্য আওয়ামী লীগ সরকারের সকল প্রয়াস অব্যাহত থাকবে।



আরও খবর