আজঃ রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩
শিরোনাম

বিয়ে বাড়িতে চাঁদা দাবি, তৃতীয় লিঙ্গের ৪ জন গ্রেফতার

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ জানুয়ারী ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

রাজধানী মিরপুরে বিয়ে বাড়িতে চাঁদার দাবি করায় তৃতীয় লিঙ্গের চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (১৭ জানুয়ারি) বিকেলে মিরপুর তিন নম্বর সেকশনের আট নম্বর রোড এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার তৃতীয় লিঙ্গের চারজন হলেন- বৃষ্টি আফরিন (২৫), মধু (৩২), ঈশানী (২৫) ও সুমি (২২)।

পুলিশ জানায়, ওই এলাকার একটি বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠান চলছিল। এমন খবর পেয়ে বাড়িটিতে তৃতীয় লিঙ্গের চারজন উপস্থিত হয়ে ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। বিয়ে বাড়ির লোকজন চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে সেখানে চিৎকার শুরু করেন তারা। এক পর্যায়ে ওই বিয়ে বাড়ি থেকে তাদের এক হাজার ৫০০ টাকা দেওয়া হয়। এরপরও তারা বিয়ের অনুষ্ঠানে তাণ্ডব চালায়। এক পর্যায়ে তাদের বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার চেষ্টা করলে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে বাইরে থেকে দরজা বন্ধ করে দেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের উদ্ধার করে। এ সময় তৃতীয় লিঙ্গের ওই চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ সময় তৃতীয় লিঙ্গের ওই চারজনের কাছ থেকে এক হাজার ৫০০ টাকা জব্দ করা হয়। এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।


আরও খবর



সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদে স্বরূপকাঠি মহিলা আ.লীগের র‌্যালি

প্রকাশিত:বুধবার ০৮ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ০৮ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
হযরত আলী হিরু, স্বরূপকাঠি

Image

আন্দোলনের নামে সারাদেশে বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড, নারীর প্রতি সহিংসতা, পুলিশ হত্যা, সাংবাদিক নির্যাতন, গণপরিবহনে অগ্নিসংযোগসহ সাধারণ মানুষদের হয়রানির প্রতিবাদে পিরোজপুরের স্বরূপকাঠিতে মানববন্ধন ও র‌্যালি করেছে উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগ।

সংগঠনটির আয়োজনে বুধবার সকালে পৌরসভা ভবনের সামনে থেকে এক প্রতিবাদ র‌্যালি শুরু হয়ে পৌর শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে উপজেলা বাসষ্ট্যান্ড চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। পরে স্বরূপকাঠি প্রেসক্লাবের সামেন সড়কে অনুষ্ঠিত ঘন্টাব্যাপি মানববন্ধনে উপজেলা মহিলা আ.লীগ, যুব মহিলা লীগ সহ সংগগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা অংশ নেয়।

মনববন্ধনে বিএনপি-জামায়াতের সহিংস কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদ ও অনতিবিলম্বে এ ধরনের কর্মসূচি বন্ধ করার আহবান জানিয়ে বক্তব্য রাখেন উপজেলা মহিলা আ.লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নার্গিস জাহান, সাংগঠনিক সম্পাদক খনা চন্দ, সদস্য শিবানী সাহা, নাসিমা আক্তার, বিউটি মিত্র ও শায়লা পারভিন প্রমুখ।

নিউজ ট্যাগ: স্বরূপকাঠি

আরও খবর



অবরোধ সফল করতে সন্ত্রাসী সংগঠনের কৌশল নিয়েছে বিএনপি : জয়

প্রকাশিত:সোমবার ০৬ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ০৬ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

দেশব্যাপী চলমান অবরোধ কর্মসূচির সফল করতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল- বিএনপি'র সন্ত্রাসী সংগঠনের মতো কৌশল গ্রহণ করার কঠোর সমালোচনা করেছেন প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

নিজের ফেরিফায়েড এক্স (সাবেক টুইটার) অ্যাকাউন্টে একটি পোস্টে বিএনপির অফিসিয়াল পেজকে মেনশন করে জয় লেখেন, এদের কর্মকাণ্ড ঠিক যেন একটা সন্ত্রাসী সংগঠনের মতো। তাদের চলমান অবরোধ সফল করতে পিকেটার @bdbnp78-এর ছাত্র সংগঠন পুলিশের ভ্যানে ককটেল নিক্ষেপ করেছে।

গত ২৮ অক্টোবর বিএনপির মহাসমাবেশে সহিংসতার কথা উল্লেখ করে তিনি লেখেন, কয়েকদিন আগে এই দলের হিংস্র ক্যাডাররা একজন পুলিশ অফিসারকে পিটিয়ে হত্যা করেছে এবং কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে আগুন দিয়েছে। এই ঘটনায় ১০০ জনেরও বেশি পুলিশ অফিসার আহত হয়েছেন।

পুলিশ সদস্যের নৃশংস হত্যাকাণ্ডকে স্বাগত জানিয়ে, বিএনপির একজন সিনিয়র নেতা সমাবেশ সফল হয়েছে বলে প্রকাশ্যে যে দাবি করেছেন সেটাকে সহিংসতা ও খুনিদের মহিমান্বিত করার প্রচেষ্টা হিসেবে দেখেছেন জয়।

এছাড়া বিএনপি-জামায়াত ক্যাডারদের অতীত কর্মকাণ্ডের কথা স্মরণ করে জয় লেখেন, ২০১৩ এবং ২০১৫ সালে ৮ মাস ধরে বিএনপি-জামায়াত এই ধরনের অবরোধ ডেকে ৯০ জন পুলিশ সদস্যকে হত্যা করেছিলো।

এদিকে শনিবার (৪ নভেম্বর) এক সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিএনপিকে তাদের আন্দোলনের নামে সহিংসতা এবং মানুষ হত্যার বিষয়ে সতর্ক করে এগুলো থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, এই ধরনের সহিংস কর্মকাণ্ড কীভাবে বন্ধ করতে হয় সরকারের তা জানা আছে।

ঢাকাবাসীসহ দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যারা আগুন দিয়ে পোড়াবে তাদের প্রতিরোধ করতে হবে। দরকার হলে তাদের ধরে ওই আগুনের মধ্যে ফেলতে হবে। যে হাত দিয়ে আগুন দেবে সেই হাত আগুনে পুড়িয়ে দিতে হবে। তাহলেই তাদের শিক্ষা হবে।

রাজধানীতে গত ২৮ অক্টোবর বিএনপির মহাসমাবেশ ঘিরে ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরদিন ২৯ অক্টোবর হরতাল পালন করে বিএনপি। এরপর ৩১ অক্টোবর থেকে সারা দেশে তিন দিনের অবরোধ কর্মসূচি শেষ হয় ২ নভেম্বর। হরতাল ও অবরোধ চলাকালে সারা দেশে অ্যাম্বুলেন্সসহ যাত্রীবাহী বেশ কিছু যাত্রীবাস ও পণ্যবাহী গাড়িতে ভাঙচুর চালায় ও আগুন দেয় অবরোধকারীরা।

এরপর সরকারবিরোধী আন্দোলনে নিহতদের স্মরণে গত শুক্রবার (৩ নভেম্বর) সারা দেশে দোয়া মাহফিল করে বিএনপি। শনিবার বিরতি দিয়ে রবি ও সোমবার (৫ ও ৬ নভেম্বর) দেশব্যাপী ৪৮ ঘণ্টার সর্বাত্মক অবরোধ পালন করছে দলটি। এতে গত দুই দিনে রাজধানী ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, বগুড়া, চট্টগ্রাম, গাজীপুরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে গাড়ি ভাঙচুর এবং আগুন, পুলিশের ওপর হামলাসহ নানা ধরনের নাশকতার খবর পাওয়া গেছে।


আরও খবর
ফার্মগেটে ককটেল বিস্ফোরণ, আহত ২

শনিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২3




ঠাকুরগাঁওয়ে কৃষিকাজের আড়ালে ইংরেজি চর্চা কৃষকের

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
রেদওয়ানুল হক, ঠাকুরগাঁও

Image

সুজন পাহান বয়স বাইশ বছর। বাবা বগা পাহান জন্মের দুই বছর পর স্ত্রী-সন্তান রেখে চলে যায়। এরপর দু'বছরের শিশুপুত্রকে নিয়ে চলে মা দুলালী পাহান এর অভাবের সংসার। বছর কয়েক পর তার বাবা মারা যায়। অন্যের বাড়িতে কাজ করে ছেলের লেখাপড়া করান দুলালী পাহান। পঞ্চম শ্রেণিতে থাকা অবস্থায় তার মা অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। এরপর মায়ের দেখা-শোনা ওষুধসহ সংসারের যাবতীয় দায়-দায়িত্ব এসে পড়ে সুজন পাহানের কাঁধে।

নিজে কর্ম করে খাওয়ার মতো কিছুই রেখে যাননি তার বাবা। বসভিটাটুকুও অন্যের। কিন্তু মায়ের স্বপ্ন, অভাবের সঙ্গে লড়াই করে বড় হয়ে উঠা একমাত্র মেধাবী ছেলে একদিন অনেক বড় চাকরি করবে। সুজনের বাড়ি ঠাকুরগাঁওয়ের রুহিয়ার কশালগাঁও গ্রামে। আদিবাসী মুন্ডা সম্প্রদায়ের পরিবারে তার বেড়ে ওঠা।

মায়ের স্বপ্ন আঁকড়ে ধরে সুজন মাঠে কাজ করার পাশাপাশি নিজের পড়াশোনা অব্যাহত রেখেছেন। সুজনের সহপাঠীরা শিক্ষাজীবন থেকে অকালে ঝরে পড়লেও সুজন কষ্ট করে নিজের শিক্ষা-জীবনকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। সুজন বর্তমানে রুহিয়া ডিগ্রি কলেজে ডিগ্রি ২য় বর্ষের পরিক্ষা দিয়ে ৩য় বর্ষে ভর্তির অপেক্ষায় রয়েছেন।

হাতে কাস্তি নিয়ে ফসলের মাঠে ধান কাটতে কাটতে, কখনও আবার গৃহস্থালির কাজ করতে করতে, চলতে ফিরতে শিশুদের নিয়ে সব সময় ইংরেজিতে কথা বলার চর্চা চালিয়ে রেখেছেন মুন্ডা জনগোষ্ঠীর অদম্য সুজন। প্রতিবেশীরা ভিনদেশি ভাষা বুঝতে না পারায় অনেক সময় হাসি-ঠাট্টা করে তাকে পাগলও বলে। তবুও ইংরেজিতে কথা বলার চর্চা থামাননি এই কৃষক যুবক। ছোট্ট এক একটি কুঁড়ে ঘর থেকে তিনি স্বপ্ন দেখেছে নিজের জীবনমান উন্নয়ন করে কীভাবে সমাজের পিছিয়ে পড়া শিশুদের সামনে এগিয়ে নেয়া যায়। তাদের কাছে নিজেকে অনুপ্রেরণা হিসেবে গড়ে তোলা যায়।

গতকাল কশালগাঁও গ্রামে গিয়ে কথা হয় সুজন পাহানের সঙ্গে। তিনি বলেন, স্মার্ট ও টেকনোলজির যুগে ভালো কিছু করতে গেলে বাংলা ভাষার পাশাপাশি আন্তর্জাতিক ভাষা ইংরেজি শেখাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু আভাব অনটনের সংসারে যেখানে পাঠ্যবই পড়ার সময় নেই সেখানে ভালো ইংরেজি শিখতে চাওয়াটা নিজের কাছেও কখনও কখনও অপ্রাসঙ্গিক লেগেছে, তবে ইংরেজিতে কথা বলার প্রবল আগ্রহ ও ইচ্ছাশক্তির কাছে অসম্ভব বলে কিছু নেই। আমি নিজের ভেতর সম্ভাবনা দেখছি। ফেসবুকে ইংরেজিতে কথা বলার ভিডিও দেখেই ইংরেজি রপ্ত করার চেষ্টা করেছি এবং নিজের ইংরেজি চর্চার ভিডিও ফেসবুকে আপলোড করছি। কোনো প্রতিষ্ঠান থেকে ইংরেজি কোর্স করার সুযোগ সৃষ্টি হয়নি জীবনে।

তিনি বলেন, সারা দিন ইংরেজিতে কথা বলার চেষ্টা করি। মানুষ হাসি-ঠাট্টা করে। অনেকেই ভাবে আমার বুঝি মাথার সমস্যা দেখা দিয়েছে, কিন্তু আমি এসবের তোয়াক্কা করি না। মাঠের ফসলের সঙ্গে কাজের সময়, গৃহস্থালির কাজে ও গবাদি পালনের সময় সবখানে ইংরেজিতে কথা বলার চেষ্টা করি।

মাঠে কাজ করে যা আয় হয় তা নিত্যদিনের খরচ আর জীবনযাপনে চলে যায় পাহানের। তার একটি ছোট চাকরি হলেও স্বপ্ন পূরণে একধাপ এগোতে পারতেন বলে জানান পাহান।

কোথাও কোনো সহযোগিতা পেয়েছিলেন কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, একটি বেসরকারি এনজিও সংস্থা ২০১৮ সালে দুই ধাপে ২৪ হাজার টাকা দিয়েছিল, এ ছাড়াও উপজেলা পরিষদ থেকে আদিবাসী ছাত্র ছাত্রীদের শিক্ষাবৃত্তির অংশ হিসেবে ২০১৫ সালে ৪০০ টাকা ২০১৯ সালে শিক্ষা উপকরণ পেয়েছিলাম যা আমার লেখাপড়ার কাজে সহযোগী ভূমিকা পালন করেছে। সেই থেকে আর কোনো সাহায্য পাইনি।

সুজনের সঙ্গে মাঠে কাজ করেন কৃষক বিনয় পাহান। তিনি বলেন, আমি সুজনের সঙ্গে একই স্কুলে পড়তাম, অভাবের কারণে পড়াশোনা ছেড়েছি। কিন্তু সুজন অভাবের সঙ্গে যুদ্ধ করে পড়াশোনা করছে। ও অনেক মেধাবী।

সুজন সমাজে পিছিয়ে পড়া শিশুদের মাঝে বিলাতে চান নিজের ভেতরে থাকা শিক্ষার আলো। তার আগে নিজেকে ভেঙে গড়ার সুযোগ দরকার সবার আগে।

কথা হয় সুজনের মা দুলালি পাহানের সঙ্গে। তিনি বলেন, আমার ছেলের ইচ্ছাশক্তি অনেক। কষ্টে তাকে বড় করেছি। যদি নিজে কাজ করতে পারতাম তাহলে তাকে কখনও সংসার সামলাতে এত চাপ নিতে হতো না। ছেলেটার একটি চাকরি হলে খুব ভালো হতো। নিজেকে মেলে ধরতে পারতো দেশের কল্যাণে।


আরও খবর



জয়পুরহাটে ফিলিং স্টেশনে বিস্ফোরণে দগ্ধ কর্মচারীর মৃত্যু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৯ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
সুজন কুমার মন্ডল, জয়পুরহাট

Image

জয়পুরহাটের আক্কেলপুর ফিলিং স্টেশনে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দগ্ধ সাইফুল ইসলাম (৫০) মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার (৯ নভেম্বর) সকালে রাজধানীর শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। সাইফুল ইসলাম আক্কেলপুর পৌরসভার হাজিপাড়ার বাসিন্দা।

আক্কেলপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুর রহমান সাইফুল ইসলাম মারা যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে আক্কেলপুর ফিলিং স্টেশনের পাম্প লিকেজ হলে সেটি বন্ধ করতে যান সাইফুল। এসময় বিস্ফোরণ হয়ে দগ্ধ হন তিনি। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

গুরুতর আহত সাইফুলকে প্রথমে জয়পুরহাট আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করালে সেখানে তার অবনতি হলে তাকে রাজধানীর শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

নিউজ ট্যাগ: জয়পুরহাট

আরও খবর



দেশের ইতিহাসে সোনার সর্বোচ্চ দাম

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ২৬ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

Image

সোনার দাম আবারও বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন (বাজুস)। ভালো মানের অর্থাৎ ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি সোনার দাম ১ হাজার ৭৫০ টাকা বাড়া‌নো হয়েছে। এর ফলে এ ক্যাটাগরির সোনার নতুন মূল্য হবে ১ লাখ ৮ হাজার ১২৫ টাকা (প্রতি ভরি)। যা দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ দাম। এর আগে রেকর্ড দাম ছিল ১ লাখ ৬ হাজার ৩৭৬ টাকা। 

রোববার (২৬ নভেম্বর) বাজুসের মূল্য নির্ধারণ ও মূল্য পর্যবেক্ষণ ক‌মি‌টির ভাইস চেয়ারম্যান এনামুল হক ভুইয়া লিটন এর সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বাজুস জানায়, স্থানীয় বাজারে তেজাবী সোনার দাম বেড়েছে। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় সোনার নতুন দাম নির্ধারণ করা হয়েছে। সোমবার (২৭ নভেম্বর) থেকে নতুন দাম কার্যকর করা হবে।

নতুন দাম অনুযায়ী, সবচেয়ে ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি (১১.৬৬৪ গ্রাম) সোনা ১ লাখ ৮ হাজার ১২৫ টাকা, ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি সোনার দাম ১ লাখ ৩ হাজার ২২৬ টাকা, ১৮ ক্যারেটের ৮৮ হাজার ৪৭১ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির সোনার দাম ৭৩ হাজার ৭১৮ টাকায় বিক্রি করা হবে।

সোনার দাম বাড়ানো হ‌লেও অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে রুপার দাম। ক্যাটাগরি অনুযায়ী বর্তমানে ২২ ক্যারেটের রুপার দাম (ভ‌রি) ১ হাজার ৭১৫ টাকা, ২১ ক্যারেটের দাম ১ হাজার ৬৩৩ টাকা, ১৮ ক্যারেটের দাম ১৪০০ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির রুপার দাম ১০৫০ টাকা।

রোববার সবচেয়ে ভালো মানের সবচেয়ে ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি (১১.৬৬৪ গ্রাম) সোনা ১ লাখ ৬ হাজার ৩৭৬ টাকা, ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি সোনার দাম ১ লাখ ১ হাজার ৫৩৫ টাকা, ১৮ ক্যারেটের ৮৭ হাজার ১৩ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির সোনার দাম ৭২ হাজার ৫৫০ টাকায় বেচাকেনা হয়েছে।


আরও খবর
এলপিজির নতুন দাম নির্ধারণ রোববার

শুক্রবার ০১ ডিসেম্বর ২০২৩