আজঃ শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

বিয়ের জন্য ডেট ফাঁকা নেই তাপসীর

প্রকাশিত:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | ৫৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বলিউড অভিনেত্রী তাপসী পান্নু ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কখনও লুকোচুরি করেননি। দীর্ঘ আট বছর ধরে ডেনমার্কের ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড় ম্যাথিয়াস বোয়ের সঙ্গে প্রেম করছেন তাপসী।

সে কথা আরও একবার স্বীকার করলেন এ অভিনেত্রী। তবে বিয়ে করার সময় পাচ্ছেন না বলেও জানান তাপসী। 

আদুকালামখ্যাত এ নায়িকা বলেন, ম্যাথিয়াসের সঙ্গে সম্পর্ক গোপন রাখতে চাই না। আট বছরের সম্পর্ক, লুকোনোর কিছু নেই। কিন্তু আমি ব্যক্তিগত জীবনকে আলাদা রাখতে চাই।

বিয়ের বিষয়ে এ অভিনেত্রী বলেন, আমার সব ডেট শিডিউল দেওয়া। পরিবার, বন্ধু-বান্ধব, এমনকি নিজের জন্যও ডেট ফাঁকা নেই। তা হলে বিয়ের দিন স্থির করব কী করে?

মুক্তির অপেক্ষায় আছে তাপসী পান্নু অভিনীত সিনেমা রশ্নি রকেট। ১৫ অক্টোবর ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পাবে এটি। এর জন্য বেশ পরিশ্রম করতে হয়েছে এ অভিনেত্রীকে। চরিত্রের প্রয়োজনে অ্যাথলেট বডি তৈরি করেছেন তিনি।


আরও খবর



পিরোজপুরে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা করেছেন স্বামী

প্রকাশিত:শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১ | ৪৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

এনজিও ঋণ পরিশোধ ও পারিবারিক বিরোধের জেরে পিরোজপুর সদর উপজেলায় স্ত্রী তাহমিনা বেগমকে (৪৪) কুপিয়ে হত্যা করেছেন স্বামী সত্তার শেখ। হত্যাকারী স্বামী আব্দুস সত্তার শেখ (৫০) শিকদার মল্লিক ইউনিয়নের জুজখোলা গ্রামের মৃত আলী শেখের পুত্র।

শুক্রবার (২২ অক্টোবর) ভোরে হত্যাকারী স্বামীকে আটক করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) রাতে শিকদার মল্লিক ইউনিয়নের জুজখোলা গ্রামে এ হত্যার ঘটনাটি ঘটেছে বলে জানিয়েছেন পিরোজপুর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আ জা মো. মাসুদুজ্জামান।

নিহত তাহমিনার ছেলে রবিউল ইসলাম জানান, মায়ের নামে স্থানীয় বিভিন্ন এনজিও ও ব্যক্তিদের কাছ থেকে ৫ থেকে ৬ লক্ষ টাকা সুদে ঋণ নিয়েছিল বাবা। এই ঋণ পরিশোধ নিয়ে বিভিন্ন সময় বাবা মা তাহমিনাকে মারধর করতেন। বৃহস্পতিবার তাদের একটি অটোরিকশা বাবা বিক্রি করার জন্য নিয়ে গেলে বাধা দিয়ে পরিবারের অন্যরা ফিরিয়ে নিয়ে আসে।

এ ঘটনায় বাবা সত্তার মাকে সন্ধ্যা থেকেই নানা হুমকি দিয়ে আসছিল বলে রাতে তার মা তাহমিনা তাদের জানান। রাত ১২টা পর্যন্ত তার মায়ের সঙ্গে কথা বলে তিনি পাশেই তার অন্য ঘরে ঘুমাতে যায়।

পরে সকালে তার বোন সনিয়া মাকে ডাকলে সাড়াশব্দ না পেয়ে ঘরের সামনে থেকে তালা মারা দেখতে পায়। পরে স্থানীয়রা ঘরের তালা খুলে দেখতে পায় তার মায়ের রক্তাক্ত দেহ খাটের ওপর পড়ে আছে। পরে স্থানীয় লোকজন পুলিশকে খবর দেয়।

ওই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও স্থানীয় কামরুজ্জামান চান সরদার জানান, আব্দুস সত্তার বিভিন্ন এনজিও ও ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে তা পরিশোধ করতে না পেরে ঋণগ্রস্থ হয়ে পড়েন। এ কারণে পরিবারের মধ্যে কলহ লেগে থাকত। হয়তো এর জেরে সে তার স্ত্রীকে হত্যা করেছে। পরে শুক্রবার ভোরে ঘাতক স্বামী তার ছোট কন্যা সাদিয়া আক্তারকে (৬) সাথে নিয়ে থানায় হাজির হন।

পিরোজপুর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আ জ মো মাসুদুজ্জামান জানান, সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা করেন স্বামী। হত্যাকারী স্বামীকে আটক করা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তে পাঠানো হচ্ছে।

নিউজ ট্যাগ: স্ত্রীকে খুন

আরও খবর



ইসি হওয়া উচিত সব দলের ঐকমত্যে : সিইসি

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজনৈতিক দলের ঐকমত্যের ভিত্তিতে নির্বাচন কমিশন (ইসি) হওয়া উচিত বলে মনে করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। আজ বুধবার বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

রাজনৈতিক দলগুলোর ঐকমত্য কীভাবে হবে- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে কে এম নূরুল হুদা বলেন, সেটা মহামান্য রাষ্ট্রপতি করতে পারেন। যেমন গতবার রাষ্ট্রপতি সব দলের নেতাদের সঙ্গে সংলাপ করেছিলেন। তবে সেটা রাষ্ট্রপতির বিষয়। কী করবেন সেটা ওই স্টেজের বিষয়, আমাদের করণীয় কিছু নেই।

সবার কাছে গ্রহণযোগ্য ইসি নিয়োগের রাজনৈতিক দলের ঐকমত্যের বিষয়টির ওপর জোর দিয়ে সিইসি আরও বলেন, পরের ইসি গঠন করার ব্যাপারে রাজনৈতিক দলের ঐকমত্যের ভিত্তিতে হওয়া উচিত। সেটা আমি সমর্থন করি। সমর্থনযোগ্য নির্বাচন কমিশন যেন হয়।

এ সময় ইসি গঠনে আইন প্রণয়নের বিষয়ে জানতে চাইলে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান বলেন, আইন প্রণয়নের বিষয়টি আইন মন্ত্রণালয় ও সংসদের বিষয়। এ নিয়ে ইসির মতামত দেওয়ার কিছু নেই। নির্বাচন কমিশনের কাছে এই বিষয়ে মতামত চাওয়া হয় না। যদি মতামত চাওয়া হয় তবে সেটি সেসময় ভাবা যাবে বলেও জানান তিনি।

বর্তমান পাঁচ সদস্যের ইসির মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ফেব্রুয়ারিতে। রাষ্ট্রপতি প্রধান দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ করে সার্চ কমিটির মাধ্যমে এই কমিশন নিয়োগ দিয়েছিলেন। সংবিধানের আইনের বিধানাবলী সাপেক্ষে নির্বাচন কমিশন গঠনের দাবি উঠলেও ক্ষমতাসীন দলের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, সংবিধান অনুযায়ীই নির্বাচন কমিশন গঠিত হবে।

যদিও নির্বাচন ও স্থানীয় সরকার বিষয়ে অভিজ্ঞরা বলছেন যে, সংবিধানে সুস্পষ্টভাবে আইনের বিধানাবলী সাপেক্ষে নির্বাচন কমিশনে নিয়োগ প্রদানের নির্দেশনা থাকলেও গত ৫০ বছরে কোনো সরকারই এমন একটি আইন প্রণয়নের উদ্যোগ গ্রহণ করেনি।

সংবিধানের ১১৮(১) অনুচ্ছেদে বলা আছে, প্রধান নির্বাচন কমিশনার এবং অনধিক চারজন নির্বাচন কমিশনারকে নিয়ে বাংলাদেশের একটি নির্বাচন কমিশন থাকিবে। উক্ত বিষয়ে প্রণীত কোনো আইনের বিধানাবলী-সাপেক্ষে রাষ্ট্রপতি প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে এবং অন্যান্য নির্বাচন কমিশনারকে নিয়োগদান করবেন।

সেই ধরনের কোনো আইন হতে পারে কি না- জানতে চাইলে কে এম নূরুল হুদা বলেন, আইন তৈরি করে পার্লামেন্ট। এটা আইন মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে হয়। তাদের কাছ থেকে এমন কোনো ইঙ্গিত আসেনি আইন করতে হবে, কি হবে না। তারা বলে যে, সাংবিধানিক যে ব্যবস্থা রয়েছে সে অনুযায়ী হবে।

এটা আমরা টেলিভিশন, পত্রপত্রিকায় দেখি। এ বিষয়ে তাদের সঙ্গে আমাদের কোনো আলোচনা হয়নি। আইন করার বিষয়ে আমাদের সঙ্গে কোনো আলোচনা হয়নি, যোগ করেন সিইসি।

৬০-৮০ ভাগ ভোট পড়ে, ইসি আস্থায়

এ সময় নির্বাচন কমিশনের প্রধান দাবি করেন, বর্তমান ইসি আস্থা সংকটে নেই। তিনি বলেন, ইসি মোটেই অনাস্থার জায়গা নয়। জনগণের আস্থা নেই একথা বলা যাবে না, জনগণ তো বলেনি আস্থা নেই।

সিইসি আরও বলেন, রাজনৈতিক দলের লোকেরা যেটা বলেন, অনেক সময় তারা নির্বাচনে প্রতিযোগিতা করে, তারা বলে জনগণের আস্থা নেই। যদি আস্থা না থাকে যেসব নির্বাচন হচ্ছে তাতে উপচেপড়া ভোটার থাকে কীভাবে, লাইন থাকে, ৬০-৮০ শতাংশ লোক ভোট দেয়। এটা আস্থার জায়গা।

জনগণের আস্থা অবশ্যই আছে, জনগণ ঠিকই ভোট দিতে যায়, জোর দিয়ে বলেন কে এম নূরুল হুদা।


আরও খবর



‘দুর্গাপূজায় রাতে মণ্ডপে হামলার পরিকল্পনায় প্রচারণা চালাচ্ছে জঙ্গিরা’

প্রকাশিত:রবিবার ১০ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১০ অক্টোবর ২০২১ | ৭২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জঙ্গিরা অনলাইনে সক্রিয়, আসন্ন দুর্গাপূজা উৎসবকে কেন্দ্র করেই তাদের এই সক্রিয়তা। রাতে মণ্ডপে হামলার পরিকল্পনায় প্রচারণা চালাচ্ছে তারা। যখন পুলিশ ও লোকজন কম থাকে, তখনই তারা হামলার পরিকল্পনা করছে। তবে কেউ তাদের পোস্ট দেখে উদ্বুদ্ধ হয়েছে, এমন কাউকে পাওয়া যায়নি। আমরা অ্যালার্ট আছি।

রোববার (১০ অক্টোবর) রাজধানীর ঢাকেশ্বরী মন্দিরে কেন্দ্রীয় পূজামণ্ডপের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম এক প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, শারদীয় দুর্গাপূজা কেন্দ্র করে তেমন ঝুঁকি দেখছি না। তবে আশঙ্কার কথাও উড়িয়ে দিচ্ছি না। জঙ্গিরা এখন অনলাইনে সক্রিয়। তারা নানান পোস্ট দিচ্ছে। তারা সেলফ রেডিকালাইজড হয়ে (লোন উলফ) হামলায় উদ্বুদ্ধ হয়েছে, অন্যকে উদ্বুদ্ধ করছে।

শফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা মন্দিরগুলোকে সিসিটিভি ক্যামেরার আওতায় এনেছি। এ ছাড়াও ঢাকা শহরের বড় মন্দিরগুলোতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হবে। সিসিটিভি কন্ট্রোল রুম করা হবে। ছোট মন্দিরগুলোতে পুলিশের মোবাইল টিম কাজ করবে।

তিনি বলেন, প্রতিটি মণ্ডপের আশপাশের সাদা পোশাকের কর্মকর্তা, ডিবি পুলিশ, স্পেশাল ব্রাঞ্চ (এসবি) ও র‍্যাব সমন্বিতভাবে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলবে। সবার প্রতি আমার অনুরোধ এ উৎসবে কোনোভাবেই স্বাস্থ্যবিধি ভঙ্গ করা যাবে না। আমার অনুরোধ আপনারা স্বাস্থ্যবিধি মেনে মন্দিরে আসবেন। যারা বয়স্ক এবং টিকা নেননি, তাদের পূজামণ্ডপে না আনার অনুরোধ করছি।

এর আগে সকালে ডিএমপির বিভিন্ন ইউনিট প্রধানদের নিয়ে কমিশনার মণ্ডপে আসেন ও মণ্ডপের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন করেন। পূজা উদযাপন কমিটির লোকজনের সঙ্গে কথা বলেন।


আরও খবর
শাহবাগে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ

শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১




দেবহাটায় স্কুলছাত্রী ধর্ষণ হত্যার অভিযুক্ত পার্থ মন্ডল গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সাতক্ষীরা থেকে দিলীপ কুমার দেব: সাতক্ষীরার চাঞ্চল্যকর পূর্ণিমা দাস ধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ডের মূল আসামি পার্থ মন্ডল(২১) কে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় আটক করেছে পুলিশ। সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বৈকারী সীমান্ত থেকে ভারতে পালিয়ে যাওয়াকালে তাকে আটক করা হয়। এবিষয় রবিবার বেলা ১২ টায় সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারের কার্যলয়ে প্রেস ব্রিফিং করেছেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তফিজুর রহমান।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন,  গত ২৪ তারিখ সকাল অনুমান ৬ টার সময় সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার টিকেট গ্রামের তারক বাবুর পুরাতন পরিত্যক্ত বাড়িতে স্থানীয়রা পূর্ণিমা দাসের মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশের সংবাদ দেয়।

তাৎক্ষণিকভাবে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ ) সজীব খান এর নেতৃত্বে ও জেলা গেয়েন্দা শাখার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইয়াছিন আলম চৌধুরী-এর সমন্বয়ে একটি চৌকস টিম মামলার মূল রহস্য উদঘাটন শুরু করে এজাহার নামীয় একমাত্র আসামী দেবহাটার টিকেট গ্রামের শিবু মন্ডলের ছেলে পার্থ মন্ডল (২১)কে সাড়াশি অভিযান পরিচালনা করে বৈকারী সীমান্ত থেকে আটক হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে আসামী পার্থ মন্ডল স্বীকারোক্তিকালে জানায়, গাভা একেএম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পড়াশুনা কালে ভিকটিম পূর্ণিমা দাস ও আসামী পার্থ মন্ডল এর মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তিন বছর ধরে প্রেম ছিল।

বর্তমানে ভিকটিম পূর্ণিমা দাস দশম শ্রেণির ছাত্রী এবং আসামী পার্থ মন্ডল এসএসসি পাশ করে খান বাহাদুর আহসান উল্লাহ প্যারামেডিক্যালে ২য় সেমিস্টারে অধ্যায়নরত।

গত ৪ মাস পূর্বে তাদের প্রেমের সম্পর্ক উভয় পরিবারের সাথে জানাজানি হয়ে গেলে উভয় পরিবার তাদের প্রেমের সম্পর্ক মেনে না নেওয়ায় হতাশাগ্রস্ত হয়ে আসামী পার্থ মন্ডল বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরে চিকিৎসায় সুস্থ হয়ে যায়। আসামী অসুস্থ থাকাকালীন তার প্রেমিকা পূর্ণিমা দাস আসামীর কোন খোঁজ খবর না নিয়ে তাকে এড়িয়ে চলে। পরবর্তীতে এলাকায় এবং এলাকার বাহিরে একাধিক ছেলের সাথে অবৈধ সম্পর্কে জড়ায়। এধরনের সংবাদ আসামীর কানে আসলে আসামী পার্থ মন্ডল ভিকটিম পূর্ণিমা দাসের প্রতি ক্ষিপ্ত হয় এবং মনে মনে পরিকল্পনা করে সে পূর্ণিমা দাসকে না পেলে অন্য কাউকে তাকে পেতে দেবে না। সুযোগ বুঝে আসামী ভিকটিম পূর্ণিমা দাসকে হত্যা করবে। হত্যা সংঘটনের এক থেকে দেড় মাস পূর্ব হতে মোবাইল ফোনের কথোপকথনের মাধ্যমে তাদের মধ্যে আবার সখ্যতা তৈরী হয়।

পূর্বপরিকল্পনার অংশ হিসেবে গত ২৪ তারিখ সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার সময় দেবহাটা উপজেলার টিকেট গ্রামের তারক বাবুর পুরাতন পরিত্যক্ত বাড়িতে ভিকটিম পূর্ণিমা দাস আসামী পার্থ মন্ডল-এর সাথে দেখা করে। ঘটনাস্থলে কথাবার্তার এক পর্যায়ে আসামী তার কাছে থাকা কালো ক্যাবল তার দিয়ে ভিকটিমের গলায় পেঁচিয়ে দিয়ে শ্বাসরোধ করে অচেতন করে মাটিতে ফেলে দেয় এবং পরবর্তীতে ভিকটিমকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে ভিকটিমের শরীরে বিভিন্ন স্থানে কামড় দিয়ে ক্ষত-বিক্ষত করে সর্বশেষ তার হাত দিয়ে গলার টুটি চেপে ধরে মৃত্যু নিশ্চিত করে।

হত্যার পর দ্রুত সাতক্ষীরা শহরে সাইকেলযোগে পালিয়ে চলে এসে শহরের বড় বাজারস্থ প্রাণ সায়ের খালে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন সীমসহ ফেলে দিয়ে রাতে পুরাতন সাতক্ষীরার এলাকায় বসুন্ধরা ম্যাচে অবস্থান করে।

পরেরদিন ভোরে সাতক্ষীরার বিভিন্ন জায়গায় ছোটাছুটি করে বৈকারী সীমান্ত থেকে ভারতে যাওয়ার সয়ম আটক হয়। আসামীর স্বীকারোক্তি অনুযায়ী হত্যাকাজে ব্যবহৃত ক্যাবল ও তার সাইকেল উদ্বার করা হয়। তার ব্যবহৃত  মোবাইল ফোনটি উদ্ধারের প্রচেষ্টা অব্যহত আছে।


আরও খবর
সাতক্ষীরা সীমান্তে ১৫টি ময়ূরসহ দুজন আটক

মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১




আট মাসে ৮১৩ নারী ধর্ষণ, ১১২ কন্যাশিশু যৌন হয়রানি শিকার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশে গত আট মাসে ৮১৩ জন নারী ধর্ষণ ও ১১২ জন কন্যাশিশু যৌন হয়রানির শিকার হয়েছে বলে তথ্য উঠে এসেছে জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরামের এক পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদনে। এই সময়ে ১৪০ জন অপহরণ ও পাচার হয়েছে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে আব্দুস সালাম হলে কন্যাশিশুর পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদন ২০২১ উপস্থাপন করেন জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরামের সম্পাদক নাছিমা আক্তার জলি। এ সময় জাতীয় ও স্থানীয় ২৪টি সংবাদমাধ্যমে আসা নির্যাতনের প্রতিবেদনও তুলে ধরেন তিনি।

ফোরামের সম্পাদক নাছিমা বলেন, ২০১৬-২০ সালের অক্টোবর পর্যন্ত সারা দেশে ২৬ হাজার ৬৯৫টি ধর্ষণ মামলা হয়েছে। প্রতি বছর এ মামলার পরিমাণ আশঙ্কাজনকভাবে বেড়েছে। এ ছাড়া ২০২০ সালের আগস্ট থেকে চলতি বছরের আগস্ট পর্যন্ত ১ হাজার ২৫৩ জন কন্যাশিশু বাল্যবিয়ের শিকার হয়েছে।

প্রতিবেদনে যৌতুক, গৃহকর্মী নির্যাতন, আত্মহত্যা ও হত্যাসহ নানা নির্যাতনের চিত্র তুলে ধরে এ বিষয়ে ৯ সুপারিশ করেছে ফোরাম। শিশু নির্যাতন ও ধর্ষণ ঘটনাকে বিশেষভাবে গুরুত্ব দিয়ে দ্রুত সময়ে বিচার শেষ করা, যৌন হয়রানি প্রতিরোধ ও প্রতিকার আইন, কন্যাশিশু নির্যাতনকারীদের রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক আশ্রয়-প্রশ্রয় দেওয়া বন্ধ করা, পৃথক অধিদপ্তর গঠন, বাল্যবিয়ে বন্ধে প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নজরদারি বাড়ানো।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন ফোরামের সভাপতি ও সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার। আরও উপস্থিত ছিলেন- এডুকো বাংলাদেশের ডিরেক্টর অব প্রোগ্রাম ফারজানা, একশনএইড বাংলাদেশের চাইল্ড স্পন্সরশিপ ম্যানেজার মনিকা বিশ্বাস ও ফোরামের সদস্যরা।


আরও খবর