আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১
শিরোনাম

বলিউড ভাগ্য সুপ্রসন্ন না অথচ ওটিটি প্ল্যাটফর্মে রাজত্ব করছেন যারা

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ মে ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৩ মে ২০২১ | ১০৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত দুই বছর ধরে ওটিটি প্ল্যাটফর্মের জনপ্রিয়তা শুধু বাড়ছেই। বিশেষ করে করোনাকালে ওটিটি প্ল্যাটফর্মে অভ্যস্ত হয়েছে মানুষ। এই প্ল্যাটফর্মগুলোর কারণে সুযোগ পাচ্ছে পুরনো দক্ষ অভিনেতাদের পাশাপাশি অনেক নতুন মেধাবী মুখ।

বলিউডের বেশ কয়েকজন অভিনেতা-অভিনেত্রীকে ছাড়া যেন ওটিটির কোনো সিরিজ বা সিনেমার কথা চিন্তাই করতে পারেন না দর্শকরা। নওয়াজুদ্দিন, পঙ্কজ ত্রিপাঠি, মনোজ বাজপেয়ীর মতো গুণী অভিনেতারা বলিউডে তাদের কাজের প্রকৃত মূল্য না পেলেও ওটিটি প্ল্যাটফর্মে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন তারা। তেমনই সাত তারকা সম্পর্কে জেনে নিন যাদের বলিউড ভাগ্য সুপ্রসন্ন না হলেও ওটিটি প্ল্যাটফর্মে রাজত্ব করছেন তারা।

পঙ্কজ ত্রিপাঠি: বলিউডে বেশ কিছু ছবিতে অভিনয় করেও সাড়া ফেলতে পারেননি পঙ্কজ ত্রিপাঠি। কিন্তু মির্জাপুর এবং সেক্রেড গেমস প্রকাশের পর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি এই অভিনেতাকে। তার অসাধারণ অভিনয় দক্ষতা বরাবরই মুগ্ধ করে দর্শকদের।

রাধিকা আপ্তে: ওটিটি প্ল্যাটফর্মে রাজত্ব করার আগে বেশ কিছু মারাঠি, হিন্দি ও ইংরেজি ছবিতে অভিনয় করেছেন রাধিকা আপ্তে। কিন্তু এখন তাকে ওটিটি কুইন বলা হয়। লাস্ট স্টোরিজ, সেক্রেড গেমস, রাত আকেলি হ্যায় সহ অনেকগুলো কাজে রাধিকা প্রমাণ করেছেন, তিনি অপ্রতিদ্বন্দ্বী।

নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকী: সেক্রেড গেমস নওয়াজুদ্দিনের ক্যারিয়ার পুরোপুরি বদলে দিয়েছে। মুম্বাই ডন গণেশ চরিত্রটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। ভারতের বাইরেও পরিচিতি পেয়েছেন তিনি। সেক্রেড গেমস-এর পর রাত আকেলি হ্যায় এবং সিরিয়াস ম্যানর মতো আরও কিছু কাজ দর্শক মহলে প্রশংসা পেয়েছে।

সোভিতা ধুলিপালা: বহুবার প্রত্যাখ্যাত হয়ে ছোট ছোট চরিত্রে অভিনয়ের পর সোভিতা এখন নিজের যায়গা গড়ে নিয়েছেন। জোয়া আখতারের মেড ইন হ্যাভেন-এর পর রাতারাতি সোভিতাকে নিয়ে মাতামাতি শুরু হয়। প্রথম সিজন তুমুল জনপ্রিয়তা পায়। দর্শক অপেক্ষা করছেন দ্বিতীয় সিজনের।

জয়দীপ আহলাওয়াত: বেশ কিছু চরিত্রে অভিনয় করেও তেমন সাড়া পাচ্ছিলেন না জয়দীপ। আনুশকা শর্মার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের পাতাল লোক এর পরে তার ভাগ্য বদলে যায়। এই ওয়েবসিরিজের পরে তিনি নিজের অভিনয়ের জাদু দেখিয়েছেন আজিব দাস্তানস-এ।

মনোজ বাজপেয়ী: ওটিটি প্ল্যাটফর্মের সবচেয়ে মেধাবী তারকাদের একজন মনোজ। বলিউডের এই দক্ষ অভিনেতা রাজত্ব করছেন ওটিটি প্ল্যাটফর্মে। দ্য ফ্যামিলি ম্যান-এ তার চরিত্র মুগ্ধ করেছে দর্শকদের। দর্শক অপেক্ষায় আছেন দ্বিতীয় সিজনের।

দিব্যেন্দু শর্মা: পেয়ার কা পঞ্চনামা ছবির মাধ্যমে দর্শকমহলে পরিচিতি পান দিব্যেন্দু শর্মা। এরপর টয়লেট এক প্রেম কথা ছবিতে অভিনয় করে প্রশংসা পেয়েছেন। তবে এগুলোর কোনটির সাথেই মির্জাপুর এর মুন্না ভাইয়া চরিত্রের তুলনা চলে না। এই চরিত্র দিব্যেন্দু শর্মাকে তুমুল জনপ্রিয়তা এনে দিয়েছে।


আরও খবর



ঘাটে আটকা অসংখ্য অ্যাম্বুলেন্স, রোগীদের কী হবে?

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৮ মে ২০২১ | ৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌপথে স্বাভাবিক অবস্থায় ১৬টি ফেরি যাত্রী ও যানবাহন নিয়ে চলাচল করে। লকডাউনে কারণে ১৪ এপ্রিল থেকে সীমিত করা হয় ফেরি চলাচল। লকডাউনের শুরুতে জরুরি সেবায় ছোট

বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌ পথে করোনা প্রতিরোধে শুক্রবার মধ্যরাত থেকে হঠাৎ করে বন্ধ করে দেয়া হয় ফেরি চলাচল। আর এতে শনিবার চরম ভোগান্তিতে পড়েছে হাজারো মানুষ। মাদারীপুরে বাংলাবাজার ঘাটে শনিবার সকাল থেকেই ঢাকামুখী জরুরি সেবার যানবাহনসহ অসংখ্য মুমূর্ষু রোগীর অ্যাম্বুলেন্স পারের অপেক্ষায় আটক পরে।

রোগীর স্বজনরা এসময় অভিযোগ করে, হঠাৎ করে বন্ধ হয়ে গেছে ফেরি চলাচল। আমরা কিছুই জানি না। ফেরি চলাচল বন্ধ জানরে রোগী নিয়ে বের হতাম না।

তারা জানান, দ্রুত নদী পার হয়ে হাসপাতালে সময়মত রোগীকে নিয়ে যেতে না পারলে রোগীর যেকিছু হতে পারে।

গতকাল শুক্রবার ঈদ ঘিরে দিনের বেলায় বাড়ি ফেরা মানুষের ঢল নামে মাদারীপুরের বাংলাবাজার ফেরি ঘাটে। আর এতে নতুন করে অসংখ্য মানুষের মাঝে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা বাড়ছে।

বিআইডব্লিউটিসি'র ঘাট সূত্র জানায়, বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌপথে স্বাভাবিক অবস্থায় ১৬টি ফেরি যাত্রী ও যানবাহন নিয়ে চলাচল করে। লকডাউনে কারণে ১৪ এপ্রিল থেকে সীমিত করা হয় ফেরি চলাচল। লকডাউনের শুরুতে জরুরি সেবায় ছোট সাত ফেরি চলাচল করলেও। শুক্রবার ঘরমুখী যাত্রী ও জরুরি প্রয়োজনে আসা যানবাহনের প্রচণ্ড চাপ থাকায় সব কটি ফেরি চলাচল স্বাভাবিক ছিল।

বিআইডব্লিউটিসি শিমুলিয়া ফেরিঘাটের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) সাফায়াত আহম্মেদ জানান, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে আজ থেকে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌপথ ফেরি চলাচল পুরোপুরি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তবে সন্ধ্যার পর জরুরি সেবায় সীমিত পরিসরে ছোট কয়েকটি ফেরি চলবে।


আরও খবর



হোটেল থেকে তরুণীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত:শনিবার ০১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০১ মে ২০২১ | ১১৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কক্সবাজার শহরের আবাসিক হোটেল থেকে উদ্ধার হওয়া তরুণীর পরিচয় শনাক্ত করেছে পুলিশ। শনিবার (১ মে) দুপুরে ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে তার মৃতদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।

জানা গেছে, ছেনুয়ারা নামে ২১ বছর বয়সী ওই তরুণী টেকনাফের মোছনী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা। কক্সবাজার সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুনীর-উল-গিয়াস বলেন, এ ঘটনায় হোটেলটির মালিক মোতাহের হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। হোটেলের কক্ষে তরুণীর সঙ্গে থাকা পলাতক যুবককে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

আর কীভাবে তরুণীর মৃত্যু হয়েছে; তা ময়না তদন্ত রিপোর্টের পর জানা যাবে এবং এ ঘটনায় একটি মামলা দায়েরও হয়েছে বলে জানান তিনি। উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ১০টার দিকে আবাসিক হোটেল সী পার্ল-২ এর একটি কক্ষ ভাড়া নেয় এক তরুণ ও এক তরুণী।

শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত কক্ষের ভিতরে তাদের কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে হোটেল কর্তৃপক্ষের সন্দেহ হয়। পরে হোটেল কর্তৃপক্ষ একটি বিকল্প চাবি দিয়ে কক্ষটির তালা খুললে তরুণীটিকে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়।

এসময় কক্ষের ভিতরে ওই তরুণ ছিলেন না। পরে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে ফ্যানের সঙ্গে বিছানার চাদর প্যাঁচানো অবস্থায় ওই তরুণীর মৃতদেহ উদ্ধার করে।


আরও খবর



স্পীডবোট দুর্ঘটনায় ইজারাদারসহ তিন জনের বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ মে ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ মে ২০২১ | ১২১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাংলাবাজার শিমুলিয়া নৌরুটে স্পিড বোট দুর্ঘটনায় ইজারাদারসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে নৌ-পুলিশ। সোমবার (৩ মে) দিনগত রাতে মাদারীপুরের চরজানাজাত নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির এসআই লোকমান হোসেন বাদী হয়ে মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটের ইজারাদারসহ স্পিড বোটের মালিক ও চালকসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে শিবচর থানায় মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিরাজ হোসেন জানান, এই মামলার তদন্তভার নৌ-পুলিশের উপরেই থাকবে। আর গুরুতর আহত অবস্থায় স্পিড বোট চালক পুলিশের নজরদারিতে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।


আরও খবর



বাঁশখালীতে নিহত শ্রমিকদের পরিবার পাবে ২ লাখ টাকা করে

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ এপ্রিল ২০২১ | ৮৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চট্টগ্রামের বাঁশখালীর নির্মাণাধীন বিদ্যুৎকেন্দ্রে বেতনের দাবিতে বিক্ষোভকালে পুলিশের গুলিতে নিহত সাত জন শ্রমিকের প্রত্যেক পরিবারকে দুই লাখ করে টাকা দেওয়া হবে। আর এ ঘটনায় আহত ১৫ শ্রমিকের চিকিৎসার জন্য প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা দেওয়া হবে।

সোমবার (২৬ এপ্রিল) এক বিবৃতিতে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এই সহায়তার ঘোষণা দিয়েছেন। শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিল হতে এই অর্থ দেওয়া হবে।

শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাঁশখালীর ঘটনা অত্যন্ত মর্মান্তিক এবং বেদনাদায়ক। তিনি বলেন, একটি শ্রমজীবী পরিবারের কর্মক্ষম ব্যক্তিটির মৃত্যু হলে ওই পরিবারটি অসহায় হয়ে পড়ে। সেই অসহায় শ্রমিক পরিবারকে শ্রম মন্ত্রণালয়ের শ্রমিক কল্যাণ তহবিল হতে সহযোগিতার সুযোগ রয়েছে। প্রতিমন্ত্রী নিহত শ্রমিকদের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং যারা আহত হয়ে চিকিৎসাধীন তিনি তাদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করেন।

বাংলাদেশ শ্রম আইন অনুযায়ী গঠিত বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিল হতে কর্মস্থলে দুর্ঘটনায় কোন শ্রমিক নিহত হলে ওই শ্রমিকের পরিবারকে সর্বোচ্চ দুই লাখ পর্যন্ত এবং আহতদের চিকিৎসার জন্য পঞ্চাশ হাজার টাকা পর্যন্ত সহায়তার বিধান রয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১৭ এপ্রিল বাঁশখালী উপজেলার গণ্ডামারা এলাকায় শিল্প গ্রুপ এস আলম এবং চীনা প্রতিষ্ঠান সেফকো থ্রি পাওয়ার কনস্ট্রাকশন কোম্পানি লিমিটেডের অর্থায়নে এসএস পাওয়ার প্ল্যান্ট নামে নির্মাণাধীন বিদ্যুৎকেন্দ্রে বেতনের দাবিতে রাস্তায় নামলে পুলিশ গুলিতে সাত জন শ্রমিক নিহত এবং ১৫ জন শ্রমিক আহত হন।


আরও খবর



ভারতে করোনা কেড়ে নিল আরও প্রায় ৪ হাজার প্রাণ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১ | ৫২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারতে নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে পড়া করোনাভাইরাস একই দিনে আরো ৩ হাজার ৮৭৯ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে। এই ভাইরাসের ছোবলে এরই মধ্যে দেশটিতে মোট প্রাণহানি ছাড়িয়েছে আড়াই লাখ। এছাড়া একদিনে দেশটিতে ৩ লাখ ৩০ হাজারের কাছাকাছি মানুষের শরীরে শনাক্ত হয়েছে করোনা ভাইরাস।

যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয় এবং ভারতীয় অশোক বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মে মাসের শেষ নাগাদ প্রতিদিন সংক্রমণ ৮ লাখ ছাড়িয়ে যেতে পারে। আর বিজ্ঞানভিত্তিক জার্নাল দ্য ল্যানসেট জানিয়েছে, আগস্টের মধ্যে দেশটিতে মৃত্যু ছাড়াতে পারে ১০ লাখ।

করোনার বিস্তার রোধে কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পাশাপাশি লকডাউনের পরামর্শ দিয়েছেন গবেষকরা। একইসঙ্গে সব বয়সী ভারতীয়কে টিকাদান কর্মসূচির আওতায় আনারও আহ্বান জানিয়েছেন তারা।

মহারাষ্ট্রে মার্চের পর প্রথমবার দৈনিক সংক্রমণ ৪০ হাজারের নিচে শনাক্ত হল। অন্যদিকে দিল্লিতে লকডাউনের সময়সীমা বৃদ্ধি করেও ঠেকানো যাচ্ছে না সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার। এখনও পর্যন্ত ভারতে করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত মানুষের সংখ্যা মোট ২ কোটি ৩০ লাখের মতো।


আরও খবর