আজঃ শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

ব্র্যাকের সকল প্রতিষ্ঠান ও পণ্য বয়কটের ঘোষণা

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ জানুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৪ জানুয়ারী 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

সারা দেশে ব্র্যাকের সকল প্রতিষ্ঠান ও পণ্য বয়কটের ঘোষণা দিবে শিক্ষার্থীরা। দেশের ৯২ শতাংশ মুসলমানরা শুধু ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় নয় ব্র্যাক সংশ্লিষ্ট সকল প্রতিষ্ঠান বয়কট করতে বাধ্য হবে। সোশ্যাল মিডিয়াতে ঝড় উঠে গিয়েছে সপ্তম শ্রেণী শরীফ শরীফার গল্প নিয়ে। এমনকি প্রচুর আলোচনা হচ্ছে বয়কট বিকাশ এ বিষয়ে নিয়ে।

গত তিনদিন ধরে ফেসবুকসহ বিভিন্ন ধরনের প্ল্যাটফর্ম গুলোতে একটাই কথা উঠেছে বয়কট বিকাশ এবং বয়কট ব্রাক নিয়ে। আর ইতিমধ্যে সারা বাংলার মানুষ জেনে গেছে কিন্তু যারা জানেন নি তাদের জন্য এই প্রতিবেদনটি গুরুত্বপূর্ণ। কারণ সমৃদ্ধি সময়ে ঘটনা প্রায় আন্তর্জাতিক পর্যায়ে চলে গিয়েছে। হঠাৎ করে কেন ব্র্যাকের সকল পণ্য বর্জন করছে সাধারণ মানুষেরা আর কেনই বা বিশ্ববিদ্যালয় এত সমালোচনার শিকার হচ্ছে।

দুই দফা দাবিতে মেনে না নেওয়ায় ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলরত শিক্ষার্থীরা ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের পাশাপাশি সারাদেশে ব্র্যাকের সকল পণ্য ও সেবা বয়কটের ডাক দিয়েছেন।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে রাজধানীর মেরুল বাড্ডাস্থ বিশ্ববিদ্যালয়টির স্থায়ী ক্যাম্পাসে মূল ফটকের সামনে এক ব্রিফিংয়ে এসব কথা জানানো হয়। আন্দোলনকারীদের পক্ষে মারুফ রহমান এ ঘোষণা দেন।

এসময় তিনি বলেন, আমরা ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বসেছিলাম। কিন্তু আমাদের দাবিগুলো মেনে নেয়া হয়নি। তাই আমরা ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের পাশাপাশি সারাদেশ সব বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্র্যাক বয়কটের (প্রতিষ্ঠানটির সকল পণ্য ও সেবা) ডাক দিলাম।

এর আগে দুপুর ১২টার থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের খণ্ডকালীন শিক্ষক আসিফ মাহতাবকে কেন চাকরিচ্যুত করা হয়েছে তার বিষয়ে স্পষ্ট ব্যাখ্য ও ট্রান্সজেন্ডার ইস্যুতে বিশ্ববিদ্যালয়টির স্পষ্ট অবস্থান কী তা বিবৃতির মাধ্যমে জানানোর দাবিতে মূল ফটকে অবস্থান নেন শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধনে প্রতিবাদকারীরা বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করে।

প্ল্যাকার্ডে শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন দাবি উল্লেখ করেন, শরিফ থেকে শরিফা মানিনা মানবো না, আমাদের এই বাংলায় ট্রান্সজেন্ডারের ঠাঁই নেই ট্রান্সজেন্ঠার আর হিজড়া এক না, এক না, নো টু এলজিবিটিকিউ, তোমার আমার বাংলায় ট্রান্সজেন্ডারের ঠাঁই নেই, নো টু রেইবো টেরোরিস্ট, ডাচ ব্র্যাক সাপোর্ট এলজিবিটিকিউ ? উই ব্র্যাকিয়ানস ডোনট সাপোর্ট এলজিবিটিকিউ. উই ডো নোট প্রমোট এলজিবিটিকিউ, সমকামিতার বিরুদ্ধে লড়াই করবো একসাথে আমার সোনার বাংলায় ট্রান্সজেন্ডারের ঠাঁই নেই এসময় বিভিন্ন স্লোগান দেয় শিক্ষার্থীর।

পরে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের পক্ষে কয়েকজন এসে আন্দোলনকারীদের ভেতরে গিয়ে আলোচনার প্রস্তাব দিলেও তারা রাজি হয়নি। এসময় আন্দোলনকারীরা নানান স্লোগান দিয়ে সেখানে অবস্থান করতে দেখা গেছে। এদিকে, বিকেলে সাড়ে ৫টার দিকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেতরে গিয়ে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে দুই ঘণ্টাব্যাপী আলোচনায় বসেন।

এসময় প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মুনতাসির মামুন। এসময় বাকি শিক্ষার্থীরা মূল ফটকের সামনে অবস্থান করছিলেন। আন্দোলনকারীরা জানিয়েছে, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাদের সঙ্গে আলোচনায় দাবি দুটির পক্ষে ও বিপক্ষে সন্তুষ্টিমূলক কোনো জবাব দিতে পারেনি।

অর্থাৎ, দাবি দুটি নিয়ে মাঝামাঝি অবস্থান বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এ কারণে সবার সঙ্গে (শিক্ষার্থী) আলোচনা করে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

--সপ্তম শ্রেণী শরীফ শরিফা গল্প-- ঘটনাটি ঘটেছে মূলত সপ্তম শ্রেণীর একটি পাঠ্য প্রস্তুত গল্প থেকে। এখানে একটি যোগ্য গল্প হচ্ছে এটি ট্রান্সজেন্ডারকে কেন্দ্র করে দেখা হয়েছে। আর এই গল্পকে কেন্দ্র করে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আসিফ মাহতাব উৎসব এক অনুষ্ঠানে বলেন আপনারা এই বই কিনবেন তারপর প্রথম দুই পেজ ছিড়ে দিয়ে আবার তাদের এই বইটি বিক্রি করতে বলবেন। তিনি প্রতিবাদ জানানোর কথা বলেছিলেন। এ বিষয় নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যাপক আলোচনা হয়েছে।

তিনি প্রতিদিনের মতো ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় ক্লাস নিয়ে বাসা ফিরেছেন এবং রাতের দিকে তাকে ফোন করে জানিয়ে দেয়া হয়েছে তাকে আর আসতে হবে না ক্লাস নেওয়ার জন্য। ঘটনাটি তিনি ফেসবুকে শেয়ার করেন এবং এরপর থেকেই মানুষ বিকাশ বয়কট করা শুরু করে এবং বয়কট বিকাশ নামের স্লোগান দিতে থাকেন।

বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীসহ সারা বাংলাদেশের মানুষ এখন একটাই স্লোগান দিচ্ছে ব্র্যাকের সকল পণ্য বয়কট করার জন্য। ইতিমধ্যে অনেকের দোকানপাটে বিকাশ বন্ধ করে দিচ্ছে এবং অনেকে এর প্রতিবাদ জানাচ্ছে। তবে ব্র্যাকের অফিসিয়াল ভাবে কোন ধরনের তথ্য বা আপডেট পাওয়া যায়নি এ পর্যন্ত। তারা সপ্তম শ্রেণী শরিফ শরীফার গল্প প্রতিবাদমূলক এরকম স্লোগান দিচ্ছে।


আরও খবর



জাবির ‘ডি’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষে প্রথম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) ভর্তি পরীক্ষায় জীববিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ডি’ ইউনিটের ফল প্রকাশিত হয়েছে। বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষাবিষয়ক ওয়েবসাইটে এ ফল প্রকাশ করা হয়।

ডি ইউনিটে ছাত্রদের মধ্যে প্রথম হয়েছেন রেদোয়ানুল হক মারুফ। তিনি ৮৯ দশমিক ৬০ নম্বর পেয়েছেন। অন্যদিকে ছাত্রীদের মধ্যে প্রথম হয়েছেন ফাহরিমা ইউসুফ ইলমা। তিনি ৯০ দশমিক ৮০ নম্বর পেয়েছেন।

এ বছর ডি ইউনিটে ছাত্রদের আসন সংখ্যা ১৫৫টি এবং ছাত্রীদের আসন সংখ্যা ১৫৫টি। সর্বমোট ৩১০টি আসনের বিপরীতে আবেদনকারী ছাত্র সংখ্যা ৩২ হাজার ৯৫ জন এবং ছাত্রী ৩৭ হাজার ৩২১ জন। সে হিসেবে ছাত্রদের প্রতি আসনের বিপরীতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন ২৪১ জন। অন্যদিকে ছাত্রীদের প্রতি আসনের বিপরীতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন ২০৮ জন ভর্তিচ্ছু।

জাবির ডি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা মোট ২ দিন ছেলে ও মেয়েদের আলাদা ৪টি শিফটে নেওয়া হয়েছে। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ডি ইউনিটের প্রথমদিনের ভর্তি পরীক্ষা মোট ৪টি শিফটে অনুষ্ঠিত হয়। জীববিজ্ঞান অনুষদ ভুক্ত জাবি ডি ইউনিটের ১ম দিনের ৪টি শিফটে শুধুমাত্র মেয়েদের পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়। এরপর দ্বিতীয় দিনে ২৮ ফেব্রুয়ারি বুধাবার জাবির ডি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় পুরনরায় ৪টি শিফটে অনুষ্ঠিত হয় ছেলেদের।

ভর্তি পরীক্ষার ফল ও পরীক্ষা সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি সম্পর্কিত ওয়েবসাইট ju-admission.org এ পাওয়া যাবে।


আরও খবর



ইবিতে ফের শিক্ষার্থীকে বিবস্ত্র করে রাতভর নির্যাতন

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ইবি প্রতিনিধি

Image

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি)'র ছাত্র হলের গণরুমে এক নবীন শিক্ষার্থীকে উলঙ্গ করে রাতভর র‌্যাগিং ও নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের লালন শাহ হলের ১৩৬ নম্বর কক্ষে এই ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী ওই ছাত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের আল-ফিকহ অ্যান্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী।

অভিযুক্তরা হলেন- শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়াবিজ্ঞান বিভাগের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী মুদাচ্ছির খান কাফী এবং ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের একই শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী মোহাম্মদ সাগর। তারা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাসিম আহমেদ জয়ের অনুসারী বলে জানা গেছে।

ভুক্তভোগী সূত্রে জানা গেছে, গত ৭ ফেব্রুয়ারি রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের লালন শাহ হলের ১৩৬ নম্বর কক্ষে পরিচয়পর্বের জন্য ডাকে অভিযুক্তরা। কক্ষে যাওয়ার পর তার সঙ্গে অমানবিক আচরণ করে অভিযুক্ত সিনিয়র শিক্ষার্থীরা। এসময় ভুক্তভোগীকে খারাপ ভাষায় গালিগালাজ, রড দিয়ে আঘাত করা, জোরপূর্বক উলঙ্গ করে বেঞ্চের উপর দাঁড় করিয়ে রাখা ও নাকে খত দেয়া এবং আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে বার বার রুম থেকে বের করে দেয়া হয় বলে জানায় ভুক্তভোগী। ওইদিন রাত সাড়ে ১২ টা থেকে ভোর সাড়ে ৪টা পর্যন্ত দফায় দফায় নির্যাতন চালানো হয় তার উপর। এছাড়াও ভয় দেখিয়ে বার বার বেডসহ জিনিস-পত্র বাইরে ফেলে দেয়া হয় বলে জানান ভুক্তভোগী।

এ দিকে ভয়ভীতি দেখানোয় ঘটনার চারদিন পরেও প্রশাসনের কাছে কোনো অভিযোগ দেয়নি ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থী। ভুক্তভোগী বলেন, গত বুধবার আমার সঙ্গে এমন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে। তবে পরে হলের ছাত্রলীগের সিনিয়র ভাইয়েরা বিষয়টা মিমাংসা করে দেয়। এরপর অভিযুক্তদের হলে তেমন একটা দেখা যায়নি। আমি চাই না কোন ঝামেলা হোক।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক ছাত্রলীগ কর্মী জানান, ঘটনার পরের দিন বিশ্ববিদ্যালয়ের জিয়া মোড় সংলগ্ন এলাকায় ডেকে নিয়ে ভুক্তভোগীর কাছে অভিযুক্তদের ক্ষমা চাইতে বলেন ছাত্রলীগ কর্মী মেহেদী হাসান হাফিজ ও নাসিম আহমেদ মাসুম। এ সময় অভিযুক্তদের চড়-থাপ্পড় দিয়ে বিষয়টি মীমাংসা করে দেন তারা। পরে ওই দিন রাতে ফের ভুক্তভোগী ও অভিযুক্তদের হলে ডেকে নিয়ে দ্বিতীয় দফায় বিষয়টি মীমাংসা করে দেন ছাত্রলীগ কর্মী শাহিন আলম, মাসুম ও লিখন।

এদিকে র‌্যাগিংয়ের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন অভিযুক্ত মোহাম্মদ সাগর। তিনি বলেন, এরকম কোনকিছু ঘটেনি। এই বিষয়ে আমি কিছু জানি না। আমি ওইদিন হলে ছিলাম না। তবে কথার একপর্যায়ে হলের পাশের রুমে ছিলেন বলে জানান সাগর। এদিকে অন্য অভিযুক্তদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাদেরকে পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাসিম আহমেদ জয় বলেন, ব্যক্তিগতভাবে কেউ অপরাধ করলে দায় সংগঠন নেবে না। বিষয়টি মীমাংসা করা হয়েছে। ঘটনাটি শোনার পর আমরা ভুক্তভোগী ছাত্রের পাশে দাঁড়িয়েছি। তাকে গণরুম থেকে অন্য রুমে থাকার ব্যবস্থা করে দেয়া হয়েছে। এ ছাড়াও সার্বিক সহায়তা ভুক্তভোগীকে দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

এই বিষয়ে ছাত্র উপদেষ্টা ড. শেলীনা নাসরীন বলেন, বিষয়টি আমি শুনিনি। তবে এই ধরনের ঘটনা ঘটলে ভয় না পেয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানাতে হবে।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের লালন শাহ হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. আকতার হোসেন বলেন, আমি আনঅফিসিয়ালি বিষয়টা শুনেছি। পরে নিজের থেকেও খোঁজখবর নিয়েছি, হলের নেতাদের ডেকে কথা বলেছি। তারা বিষয়টি অস্বীকার করেছেন এবং মিউচুয়াল করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন। তবে বিষয়টি আমার কাছে ভয়াবহ বলে মনে হচ্ছে। সুনির্দিষ্টভাবে অভিযোগ না আসলে এই বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করা আমার পক্ষে কঠিন। আমি কোন কিছুর পরোয়া করবো না, সুনির্দিষ্ট অভিযোগ আসলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. শাহাদৎ হোসনে আজাদ জানান, বিষয়টি শুনেছি, অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, ২০২৩ সালে নবীন ছাত্রী ফুলপরীকে বিবস্ত্র করে রাতভর র‌্যাগিং ও নির্যাতনের ঘটনায় দেশব্যাপী আলোচিত ছিল ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়। এই ঘটনায় জড়িত পাঁচ ছাত্রীকে আজীবন বহিষ্কার করে কর্তৃপক্ষ।


আরও খবর



বিদ্যার দেবী শ্রী শ্রী সরস্বতী পূজা আজ

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ধর্ম ও জীবন

Image

বিদ্যার দেবী শ্রী শ্রী সরস্বতী পূজা আজ বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি)। হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম এই ধর্মীয় উৎসবে পঞ্চমী তিথিতে বিদ্যা ও জ্ঞানের অধিষ্ঠাত্রী দেবী সরস্বতীর চরণে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করবেন অগণিত ভক্ত। অজ্ঞতার অন্ধকার দূর করতে কল্যাণময়ী দেবীর চরণে প্রণতি জানাবেন তারা।

সনাতন ধর্মালম্বীদের মতে, দেবী সরস্বতী সত্য, ন্যায় ও জ্ঞানালোকের প্রতীক। তিনি বিদ্যা, বাণী ও সুরের অধিষ্ঠাত্রী। সরস্বতী মহাভাগে বিদ্যে কমললোচনে, বিশ্বরূপে বিশালাক্ষী বিদ্যংদেহী নমোহস্তুতে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা এই মন্ত্র উচ্চারণ করে বিদ্যা ও জ্ঞান অর্জনের জন্য দেবী সরস্বতীর অর্চনা করবেন।

সরস্বতী পূজা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন।

সরস্বতী পূজা উপলক্ষে হিন্দু সম্প্রদায় বিশেষ করে শিক্ষার্থীরা আজ বাণী অর্চনাসহ নানা ধর্মীয় অনুষ্ঠানের আয়োজন করবে। রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশের মন্দির, বাসাবাড়ি ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে পূজা ছাড়াও অন্যান্য অনুষ্ঠানমালায় রয়েছে, পুষ্পাঞ্জলি প্রদান, প্রসাদ বিতরণ, ধর্মীয় আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, সন্ধ্যা আরতি ও আলোকসজ্জা।

প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহ্যবাহী জগন্নাথ হলে মহাসাড়ম্বরে বিদ্যা ও জ্ঞানের অধিষ্ঠাত্রী দেবী সরস্বতীর পূজার আয়োজন করা হয়েছে।


আরও খবর
শবে বরাত সম্পর্কে হাদিসে যা বলা হয়েছে

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত বাতাস ঢাকায়

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা রোববার সকালে বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত শহরগুলোর তালিকার শীর্ষে উঠে আসে। ১০০ শহরের মধ্যে ঢাকার বাতাস আজ সবচেয়ে বেশি অস্বাস্থ্যকর। রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টা ২৮ মিনিটে বায়ুর মান পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সের (আইকিউএয়ার) সূচক থেকে জানা গেছে এ তথ্য।

তালিকার শীর্ষে অবস্থান করা ঢাকার বায়ুর মানের স্কোর হচ্ছে ৩৯৪। এর অর্থ দাঁড়ায় এখানকার বায়ু আজ খুবই অস্বাস্থ্যকর। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারতের দিল্লি। এই শহরটির স্কোর হচ্ছে ২৪৪ অর্থাৎ সেখানকার বায়ুর মানও খুবই অস্বাস্থ্যকর। এদিকে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারতের মুম্বাই। শহরটির দূষণ স্কোর ২৩৩ অর্থাৎ সেখানকার বায়ুর মানও খুবই অস্বাস্থ্যকর

আইকিউএয়ারের মানদণ্ড অনুযায়ী, স্কোর শূন্য থেকে ৫০ এর মধ্যে থাকলে বায়ুর মান ভালো বলে বিবেচিত হয়। ৫১ থেকে ১০০ হলে মাঝারি বা সহনীয় ধরা হয় বায়ুর মান। সংবেদনশীল গোষ্ঠীর জন্য অস্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচিত হয় ১০১ থেকে ১৫০ স্কোর। ১৫১ থেকে ২০০ পর্যন্ত অস্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচিত হয়। স্কোর ২০১ থেকে ৩০০ হলে খুবই অস্বাস্থ্যকর বলে বিবেচনা করা হয়। এছাড়া ৩০১-এর বেশি হলে তা দুর্যোগপূর্ণ বলে বিবেচিত হয়।


আরও খবর



বিএনপির গলার জোর কমে গেছে: সেতুমন্ত্রী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি নেতাদের মিথ্যাচারের ভাঙা রেকর্ড শুনতে শুনতে কান ঝাঁঝরা হয়ে গেছে। এখন তাদের গলার জোর একটু কমে গেছে। মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি বলেছিল নির্বাচন হবে না। পরে বলল নির্বাচনের পর সরকার পাঁচদিনও টিকবে না। সাত জানুয়ারি নির্বাচন হয়েছে, আজ ২৭ ফেব্রুয়ারি। তারা আসলে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে যা চায়, সেটি পাওয়া হলো না। তারা শুনতে চেয়েছিল সরকারের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে নিষেধাজ্ঞা আসবে অথবা ভিসানীতি কার্যকর হবে। তাদের সেই স্বপ্ন পূরণ হলো না।

মার্কিন প্রতিনিধি দলের সঙ্গে সাক্ষাতের বিষয়ে কাদের বলেন, মার্কিন প্রতিনিধি দল বিএনপির কথা শুনেছে। তবে যাওয়ার সময় প্রেসিডেন্ট বাইডেনের চিঠির বিষয়টি সামনে এনে বলে গেছে, তারা সরকারের ব্যর্থতা পায়নি। সেজন্য সম্পর্ক উন্নয়নের অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন তারা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন, সুজিত রায় নন্দী, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক শামসুন্নাহার চাপা, উপ প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল আউয়াল শামীম, উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান প্রমুখ।


আরও খবর
শপথ নিলেন নতুন ৭ প্রতিমন্ত্রী

শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪