আজঃ সোমবার ০৮ মার্চ ২০২১
শিরোনাম

চাল আমদানি : এলসি খোলার সময়সীমা বাড়লো

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ জানুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১৮১জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বেসরকারি পর্যায়ে চাল আমদানির জন্য এলসি খোলার সময়সীমা আগামী ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। এই আবেদনের শেষ সময় নির্ধারণ করা হয়েছিল ১০ জানুয়ারি। শনিবার (২৩ জানুয়ারি) খাদ্য মন্ত্রণালয় থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সর্বোচ্চ ৫ শতাংশ ভাঙা দানাবিশিষ্ট বাসমতি নয় এমন সেদ্ধ চাল শর্তসাপেক্ষে আমদানির জন্য অনুমতি দেওয়া হয়েছে বলে খাদ্য মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে।

চাল আমদানির শর্তে বলা হয়েছে, বরাদ্দপত্র ইস্যুর সাত দিনের মধ্যে ঋণপত্র (এলসি) খুলতে হবে। এ সংক্রান্ত তথ্য খাদ্য মন্ত্রণালয়কে তাৎক্ষণিকভাবে ই-মেইলে জানাতে হবে। ব্যবসায়ীদের মধ্যে যারা ১ থেকে ৫ হাজার টন বরাদ্দ পেয়েছেন, তাদের এলসি খোলার ১০ দিনের মধ্যে ৫০ শতাংশ এবং ২০ দিনের মধ্যে বাকি চাল বাজারজাত করতে হবে।

এছাড়া যেসব প্রতিষ্ঠান ৫ হাজার ১ টন থেকে ২০ হাজার টন বরাদ্দ পেয়েছে তাদের এলসি খোলার ১৫ দিনের মধ্যে ৫০ শতাংশ এবং ৩০ দিনের মধ্যে বাকি ৫০ শতাংশ চাল এনে বাজারজাত করতে হবে বলে শর্ত দিয়েছে খাদ্য মন্ত্রণালয়।

Share

আরও খবর
স্বর্ণের দাম আরেক দফা কমলো

শনিবার ০৬ মার্চ ২০২১




ঢাবির ভর্তি পরীক্ষা শুরু ২১ মে, আবেদন ৮ মার্চ থেকে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৭৪জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে প্রথম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে অনলাইনের মাধ্যমে প্রার্থীদের ভর্তির আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হবে আগামী ৮ মার্চ। এদিন বিকাল ৪টা থেকে শুরু হয়ে ৩১ মার্চ বুধবার রাত ১১.৫৯টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে।  টাকা জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ১ এপ্রিল রাত ১১:৫৯টা পর্যন্ত।

বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে ভর্তি কমিটির সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়।

নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবন মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত ওই সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, অনলাইন ভর্তি কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মো. মোস্তাফিজুর রহমান, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যান, বিভিন্ন ইনস্টিটিউটের পরিচালক, রেজিস্ট্রার এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ক-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ২১ মে, খ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ২২ মে, গ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ২৭ মে, ঘ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ২৮ মে এবং চ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা (সাধারণ জ্ঞান) ৫ জুন অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিটি ইউনিটের পরীক্ষা সকাল ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।

সভায় , , ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় ৬০ নম্বরের এমসিকিউ এবং ৪০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। শুধুমাত্র ইউনিটের পরীক্ষায় ৪০ নম্বরের এমসিকিউ এবং ৬০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

, , ইউনিটের এমসিকিউ পরীক্ষার জন্য ৪৫ মিনিট এবং লিখিত পরীক্ষার জন্য ৪৫ মিনিট সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। ইউনিটের এমসিকিউ পরীক্ষার জন্য ৩০ মিনিট এবং লিখিত পরীক্ষার জন্য ৪৫ মিনিট সময় নির্ধারণ করা হয়েছে।

ভর্তিচ্ছু আবেদনকারীদের ন্যূনতম যোগ্যতা হিসেবে মাধ্যমিক/সমমান এবং উচ্চ মাধ্যমিক/সমমান পরীক্ষায় আলাদাভাবে ইউনিটের জন্য জিপিএ ৩.৫, ইউনিটের জন্য জিপিএ ৩.০, ইউনিটের জন্য জিপিএ ৩.৫, ইউনিটের জন্য জিপিএ ৩.০ এবং ইউনিটের জন্য জিপিএ ৩.০ থাকতে হবে।

উল্লেখ্য, ভর্তি পরীক্ষা ঢাকাসহ ৮টি বিভাগীয় শহরে অনুষ্ঠিত হবে।

Share

আরও খবর



অবশেষে জামিন পেলেন কার্টুনিস্ট কিশোর

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৪ মার্চ ২০২১ | ৬৪জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় প্রায় ১০ মাস কারাগারে থাকার পর মুক্তি পেলেন কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোর। বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) দুপুর ১২টা ২৫ মিনিটে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ থেকে তাকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে।

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এর জেল সুপার আব্দুল জলিল মুক্তি দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জেল সুপার জানান, আহমেদ কবির কিশোরের জামিনের কাগজ সকাল ১১টার দিকে কাশিমপুর কারাগারে পৌঁছায়। পরে তা যাচাই-বাছাই শেষে কিশোরকে মুক্তি দেওয়া হয়। এসময় কারাফটকে উপস্থিত ছিলেন কিশোরের স্বজনেরা।

এর আগে কিশোরের করা আবেদনের শুনানি নিয়ে বুধবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ জামিনাদেশ দেন।

লেখক মুশতাক আহমেদ ও কার্টুনিস্ট কিশোরকে গত বছরের মে মাসে আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক কথাবার্তা ও গুজব ছড়ানোর অভিযোগে তারাসহ মোট ১১ জনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়।

লেখক মুশতাক ও কার্টুনিস্ট কিশোর ছয়বার জামিন আবেদন করলেও জামিন পাননি তারা।

শেষ গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ফের জামিন আবেদন নাকচ হয় তাদের। এর পরদিনই কারাগারে মৃত্যু হয় মুশতাকের। এর পরিপ্রেক্ষিতে দেশব্যাপী ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবি উঠেছে।

Share

আরও খবর



গাবতলী-নবীনগর পর্যন্ত সড়কে হবে ১০ লেন: সেতুমন্ত্রী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১১২জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের গাবতলী থেকে সাভারের নবীনগর পর্যন্ত ১০ লেনে উন্নতিকরণের পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

এছাড়া রাজধানীর প্রবেশ মুখের ব্যস্ততম গাবতলী সেতুটিও বাংলাদেশের মধ্যে সর্বপ্রথম আট লেনের সেতু করা হবে। অতিদ্রুত সেতুর কাজ শুরু করা হবে বলেও জানান মন্ত্রী।

আজ মঙ্গলবার সকালে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের দ্বিতীয় সালেহপুর সেতুর নির্মাণ কাজের সূচনা অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যোগ দিয়ে তিনি এসব কথা জানান।

এ সময় তিনি আরও জানান, সাভার অঞ্চলের যেসব স্থানে সড়ক মহাসড়কের ওপর বাজার রয়েছে সেসব স্থানে যানজট নিরসনে বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এছাড়া তিনি আরও বলেন, সড়ক মহাসড়কগুলো চার লেন, ছয় লেন বা আট লেন করা হলেও যদি সড়কের ব্যবস্থাপনা ও দক্ষতা বাড়ানো না হয় তাহলে সেগুলো কোনও কাজে আসবে না।

Share

আরও খবর



আবারো ভয়ের মুখে রোহিঙ্গা শরণার্থীরা

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১০৩জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারতে অনুপ্রবেশের কারণে দেশটির সরকার গ্রেপ্তার করতে পারে এই আশঙ্কায় ভারত থেকে পালিয়ে যাচ্ছে কিংবা এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে লুকিয়ে পড়ছে রোহিঙ্গা শরণার্থীরা।

গত মাসে ভারতের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দেশজুড়ে বেশকিছু সংখ্যক রোহিঙ্গাকে ধরে কারাগারে পাঠিয়েছে। এর ফলে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে ভারতে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা মুসলিম শরণার্থীদের মনে ভয় দেখা দিয়েছে।

নিজাম উদ্দিন নামের একজন রোহিঙ্গা শরণার্থী সপরিবারে গত মাসে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের একটি গ্রাম থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসেন। তিনি বলেন, কয়েক বছর ধরে পশ্চিমবঙ্গে কয়েকশ রোহিঙ্গা বসবাস করে আসছিল। কিন্তু রাজ্যে কয়েকজন রোহিঙ্গাকে গ্রেপ্তার করার পর, অনেকেই গা ঢাকা দিয়েছে। তাদের বেশির ভাগ অন্য রাজ্যে আত্মগোপন করেছে। বাকীরা বাংলাদেশে ঢুকেছে।

নিজাম উদ্দিন বলেন, আমার পরিবার ধরা পড়লে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ প্রথমে আমাদের কারাগারে পাঠাতো, তারপর মিয়ানমারে পাঠিয়ে দিত। মিয়ানমার এখনো রোহিঙ্গাদের জন্য অত্যন্ত অনিরাপদ। আমরা সেই নরকে যেতে চাই না। আটক হওয়ার ভয়ে আমি ভারত থেকে পালিয়েছি।

শরণার্থী বিষয়ে কাজ করেন ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এমন একজন কর্মকর্তার কাছে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে অভিযান চালানো সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে তিনি কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানান।

এক বছর আগের হিসাব অনুযায়ী, মোট ৪০ হাজার রোহিঙ্গা শরনার্থী ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। ভারত ১৯৫১ সালের জাতিসংঘ শরণার্থী কনভেনশনে স্বাক্ষর করেনি। তাই ভারতে অনুপ্রবেশকারী সব রোহিঙ্গাকে তারা অবৈধ অভিবাসী হিসেবে দেখে থাকে।

Share

আরও খবর



‘হয় পরীক্ষা নাও, না হয় জীবন নাও’

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৬৯জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

তিন বছর ধরে থার্ড ইয়ারে আছি। ২০১৯ সালের পরীক্ষা আমরা ২০২১ সালে এসে দিচ্ছি। আমাদের বন্ধুরা প্রাইভেটে পড়ে গ্র্যাজুয়েশন শেষ করে জবে ঢুকে গেছে। আর আমরা অর্ধেক পরীক্ষা দিয়ে আবারও আটকে গেলাম। আমরা চাই চলমান পরীক্ষা নির্ধারিত শিডিউলে নেওয়া হোক।

বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) নীলক্ষেত অবরোধ চলাকালে ঢাকা কলেজের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের ২০১৬-১৭ সেশনের তৌকির আহমেদ নিজেদের শিক্ষাজীবন দীর্ঘ হওয়ার কথা বলছিলেন।

শিক্ষার্থীরা জানান, ২০১৫-১৬ সেশনের ২৪ ফেব্রুয়ারির পরীক্ষাটা বাকি ছিল। কিন্তু গতকাল আকস্মিক নোটিশে পরীক্ষা স্থগিত হওয়ার ফলে অর্নাস কমপ্লিট হলো না। অপরদিকে ২০১৬-১৭ সেশনের ২৫, ২৮ ফেব্রুয়ারি ও ৩, ৬ মার্চ পরীক্ষা ছিল।

তিতুমীর কলেজের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের কুতুব উদ্দীন বলেন, আমরা একমাস ধরে পরীক্ষা দিচ্ছি। তখন করোনা হলো না। কোন যুক্তিতে আজকের পরীক্ষা স্থগিত হলো। আমরা অনতিবিলম্বে পরীক্ষা দিয়ে গ্র্যাজুয়েশান শেষ করতে চাই।

কর্মসূচি পালনকালে শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করেন। দাবি মোদের একটাই, পরীক্ষা চাই। পরীক্ষা কেন স্থগিত প্রশাসন জবাব চাই, রক্ত চাইলে রক্ত নিন তবুও পরীক্ষা নিন। শিক্ষার্থীদের কয়েকজন কাফনের কাপড় পরে রাস্তায় শুয়ে পড়ে। বুকে লাল কালিতে লেখা পরীক্ষা নাও, না হয় জীবন নাও

নিউজ ট্যাগ: ঢাকা কলেজ
Share

আরও খবর