আজঃ শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

চলতি সপ্তাহেই ২১ কেন্দ্রে শিশুদের টিকা প্রয়োগ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | ৩১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে চলতি সপ্তাহ থেকে ২১টি কেন্দ্রে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিশু-কিশোরদের করোনা টিকা প্রয়োগ শুরু হবে। মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) দুপুরে এক অনুষ্ঠান শেষে অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, এই সপ্তাহের মধ্যেই শিশুদের টিকা দেওয়া শুরু হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর মাধ্যমেই তাদের নিবন্ধন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে। আর তাদের জন্য আলাদা টিকা কেন্দ্র তৈরি করা হবে।

খুরশীদ আলম বলেন, শিশু-কিশোরদের টিকার বিষয়টি নানা কারণে এখনো হয়ে উঠেনি। এর প্রধান কারণ হলো, এখন পর্যন্ত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) অনুমোদন দেয়নি। তবে সম্প্রতি স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেনেভায় গিয়ে ডব্লিউএইচওর ডিজির সঙ্গে কথা বলেছেন। এ বিষয়ে তারা সম্মতি দিয়েছেন। বিভিন্ন দেশে ফাইজারের টিকা দেওয়া হচ্ছে। সেটি মাথায় রেখে আমরাও একই টিকা দেবো।

স্বাস্থ্য মহাপরিচালক বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ১২ বছরের বেশি শিক্ষার্থীদের অনুমোদন না দিলেও বিভিন্ন দেশে তাদের ফাইজার দেওয়া হচ্ছে। আমাদেরও এমনটা পরিকল্পনা আছে। ইতোমধ্যে ২১টি কেন্দ্র ঠিক করা হয়েছে। এটি চাইলে সব জায়গায় দেওয়া সম্ভব নয়। কারণ, ফাইজারের টিকা সংরক্ষণের জন্য সারাদেশে ওরকম সুযোগ সুবিধা নেই।

তিনি আরও বলেন, ফাইজারের টিকা অন্যান্য টিকার চেয়ে একটু আলাদা। এজন্য আলাদা করে টিকা প্রয়োগকারীদের প্রশিক্ষণের দরকার আছে। তবে যেদিন থেকেই শিশুদের টিকা দেওয়া শুরু হবে, তার আগের দিনই সবাইকে জানিয়ে দেওয়া হবে।

কোন কোন জেলায় এই টিকা কার্যক্রম শুরু হবে জানতে চাইলে স্বাস্থ্যের ডিজি বলেন, জেলা ও সিটি করপোরেশনগুলোর যেখানে সুবিধা আছে, আপাতত সেখানেই দেওয়া হবে। বাকিগুলোতে পর্যায়ক্রমে দেওয়া হবে। এটাই এখন মেনে নিতে হবে।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা, অধিদফতরের পরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. শামিউল ইসলাম প্রমুখ।



আরও খবর
২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৪ জনের মৃত‌্যু

শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১

ডেঙ্গু: আরও ১২৩ জন হাসপাতালে

শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১




রাজধানীর বাড্ডায় ১০ কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার ২

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর বাড্ডা থেকে ১০ কেজি গাঁজাসহ দুই মাদক কারবারিকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা গুলশান বিভাগ। গ্রেফতার মাদক ব্যবসায়ীরা হলেন মো. রুবেল ইসলাম ও নাফিসা আক্তার।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) ডিবি গুলশান বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মাহবুবুল হক সজীব এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গোপন তথ্য আসে ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে গাঁজা নিয়ে ঢাকা হয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ যেতে উত্তর বাড্ডা বাসস্ট্যান্ডে কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ী অবস্থান করছে। তথ্যের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উত্তর বাড্ডা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ডিবি গুলশানের একটি দল। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালানোর চেষ্টা করলে একজন পুরুষ ও একজন নারীকে গ্রেফতার করা হয়।

এ সময় রুবেলের কাছে থাকা ল্যাগেজের ভেতর থেকে জব্দ করা হয় ৬ কেজি গাঁজা ও নাফিসার কাছে থাকা ট্রাভেল ব্যাগ থেকে জব্দ করা হয় ৪ কেজি গাঁজা।

বাড্ডা থানায় এ বিষয়ে একটি মামলা হয়েছে। ওই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে আসামিদের রিমান্ড আবেদন করে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলেও তিনি জানান।


আরও খবর
শাহবাগে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ

শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১




মিস আর্থ বাংলাদেশ, সেরার মুকুট জিতলেন নাইমা

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মিস আর্থ বাংলাদেশ প্রতিযোগিতার এবারের আসরে সেরার মুকুট জিতলেন উম্মে জমিলাতুন নাইমা। গত শুক্রবার রাজধানীর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে আয়োজিত গালা রাউন্ডে তাকে মিস আর্থ বাংলাদেশ-২০২১ বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।

গালা রাউন্ডে মিস এয়ার, ফায়ার ও ওয়াটার বাংলাদেশ হিসেবে ভূষিত হয়েছেন যথাক্রমে সাকিলা তানহা, পিয়াল সরকার ও ফাহমিদা বর্ষা। এছাড়া মিস বিউটিফুল ফেস ও মিস সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সার নির্বাচিত হয়েছেন যথাক্রমে ফারজাহান পিয়া ও আরুশা আবিদা।

আয়োজনটির ন্যাশনাল ডিরেক্টর নায়লা বারী, মিস আর্থ বাংলাদেশ-২০২০ বিজয়ী মেঘনা আলম এবং রোটারি ফার্স্ট লেডি রোকেয়া ফারুকী বিজয়ীদের মুকুট পরিয়ে দেন। আসরটি আয়োজন করে লাইসেন্সি প্রতিষ্ঠান ত্রিপল নাইন গ্লোবাল ও রোটারি ডিস্ট্রিক্ট ৩২৮১।

আয়োজকরা জানান, প্রতিযোগীদের শিক্ষা, মেধা, পরিবেশ চিন্তা ও উপস্থাপনার ভঙ্গিকে মানদণ্ড হিসেবে বিবেচনা করেই তাদের নির্বাচিত করা হয়েছে। গালা রাউন্ডে প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

অনুষ্ঠানে সোনালী ব্যাগের আবিষ্কারক ড. মোবারক আহমদ খান, অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ, মুকিত মজুমদার বাবু, মোতাসিম বিল্লাহ ফারুকী, নায়লা বারী ও ড. এস আই খানকে ফ্রেন্ডস অব নেচার সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়।


আরও খবর



ইভ্যালি-ধামাকাসহ ৪ প্রতিষ্ঠানের সদস্যপদ স্থগিত

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইভ্যালিসহ চার প্রতিষ্ঠানের সদস্যপদ স্থগিত করেছে ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব)। আজ বুধবার এই স্থগিতাদেশের বিষয়টি জানিয়েছে ই-ক্যাব। প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে ইভ্যালি ডট কম লিমিটেড, ধামাকা শপিং, সিরাজগঞ্জ শপ ও গ্লিটার্স আরএসটি ওয়ার্ল্ড।

ই-ক্যাবের মহাব্যবস্থাপক জাহাঙ্গীর আলম শোভন জানান, কিছু সদস্য প্রতিষ্ঠানের নামে বিভিন্ন ধরনের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ই-ক্যাব অভ্যন্তরীণ ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয়। ভোক্তা ও বিক্রেতাদের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ই-ক্যাব ১৬টি প্রতিষ্ঠানকে ভিন্ন ভিন্ন অভিযোগে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করে। এর মধ্যে অভিযোগের বিষয়ে জবাব না দেওয়া, সন্তোষজনক জবাব না দেওয়া, ডিজিটাল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা-২০২১ পরিচালনা না করা এবং ক্রেতা-ভোক্তাদের পাওনা সময়মতো পরিশোধ না করার কারণে চারটি প্রতিষ্ঠানের সদস্যপদ স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে।

জানা গেছে, ইভ্যালির বিরুদ্ধে অভিযোগ- দীর্ঘদিন ধরে বারবার সময় নেওয়ার পরও ক্রেতাদের সমস্যার সমাধান না করা, ই-ক্যাবকে প্রয়োজনীয় তথ্য না দেওয়া, ডিজিটাল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা ২০২১ প্রকাশিত হওয়ার পর ১০ দিনের মধ্যে পণ্য ডেলিভারি না করা, ই-ক্যাব সদস্যভুক্ত সাপ্লায়ারদের পাওনা পরিশোধের বিষয়ে সন্তোষজনক পদক্ষেপ গ্রহণ না করার অভিযোগ রয়েছে। ক্রেতা-বিক্রেতাদের পাওনার কথা বিবেচনা করে প্রতিষ্ঠানটির সদস্যপদ স্থগিত করা হয়েছে।

ধামাকা শপিংয়ের বিরুদ্ধে কয়েক মাস অতিবাহিত হওয়ার পরও ক্রেতাদের পণ্য বা মূল্য ফেরত না দেওয়া এবং ক্রেতা ও সরবরাহকারীদের অভিযোগসমূহের সমাধানে সুনির্দিষ্ট তারিখ প্রদান না করা এবং পদক্ষেপ গ্রহণ না করা; ডিজিটাল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা-২০২১ প্রতিপালন না করা ছাড়াও পূর্বের ঘোষণা ছাড়া অনির্দিষ্টকালের জন্য ব্যবসায়িক কার্যক্রম বন্ধ করা এবং কবে চালু হবে এ বিষয়ে নির্দিষ্ট তারিখ ঘোষণা না করাসহ বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে।

অন্যদিকে সিরাজগঞ্জ শপের বিরুদ্ধে অভিযোগ ডিজিটাল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা-২০২১ প্রতিপালন না করা ও ক্রেতাদের মূল্য ফেরতের বিষয়ে অনিয়ম।

আর গ্লিটার্স আরএসটি ওয়ার্ল্ড প্রতিষ্ঠানটি ই-কমার্সের নামে বেআইনি এমএলএম ব্যবসার সঙ্গে জড়িত রয়েছে বলে ই-ক্যাবের অনুসন্ধানে প্রমাণ পাওয়ায় তাঁদের সদস্যপদ স্থগিত হয়েছে বলে জানা গেছে।


আরও খবর
নাটকীয় উত্থানে ঘুরে দাঁড়াল পুঁজিবাজার

বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর 20২১

নাটকীয় উত্থানে ঘুরে দাঁড়াল পুঁজিবাজার

বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর 20২১




অধ্যাপক আফসার আহমেদ আর নেই

প্রকাশিত:শনিবার ০৯ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৯ অক্টোবর ২০২১ | ৪৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক এবং সাবেক প্রো ভিসি অধ্যাপক আফসার আহমেদ মারা গেছেন। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তার মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। তিনি একাধারে কবি, নাট্যকার, অনুবাদক, গবেষক ও সাহিত্য সমালোচক ছিলেন।

আফসার আহমেদের মরদেহ রাজধানী জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিউটে রাখা হয়েছে। তার বয়স হয়েছিল ৬২ বছর। তার হঠাৎ মৃত্যুতে পরিবার, স্বজন ও বন্ধু মহলে শোকের ছায়া নেমেছে।

আফসার আহমদের জন্ম ১৯৫৯ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর, মানিকগঞ্জ জেলার সিঙ্গাইর উপজেলার উত্তর জামশা গ্রামে। বাংলা ভাষা ও সাহিত্য বিভাগ থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর উভয় পরীক্ষায় প্রথম শ্রেণিতে প্রথম স্থান অধিকার করেন তিনি। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় মধ্যযুগের বাঙলা আখ্যান কাব্যের আলোকে বাংলাদেশের নৃগোষ্ঠী নাট্য শীর্ষক অভিসন্দর্ভের জন্য তাকে পিএইচডি ডিগ্রি প্রদান করে।

তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে প্রভাষক হিসেবে শিক্ষকতা জীবন শুরু করেন। পরবর্তীকালে রবীন্দ্রোত্তর কালের অন্যতম শ্রেষ্ঠ নাট্যকার সেলিম আল দীন-এর সঙ্গে ১৯৮৬-৮৭ শিক্ষাবর্ষে বাংলাদেশের প্রথম পূর্ণাঙ্গ নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগ প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিষ্ঠাকাল থেকে তিনি নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগে শিক্ষকতায় নিয়োজিত থেকে বিভাগের সভাপতি, বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ও মানবিক অনুষদের ডীন, প্রক্টর, সিনেট-সিন্ডিকেটের নির্বাচিত সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।



আরও খবর



চট্টগ্রামে ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষ্যে বৃহত্তম ধর্মীয় শোভাযাত্রা

প্রকাশিত:বুধবার ২০ অক্টোবর ২০21 | হালনাগাদ:বুধবার ২০ অক্টোবর ২০21 | ৩৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষ্যে দেশের বৃহত্তম ধর্মীয় শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে বন্দরনগরী চট্টগ্রামে। আজ বুধবার সকালে নগরীর জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া মাদরাসা থেকে শুরু হওয়া এ শোভাযাত্রায় নেতৃত্ব দেন আল্লামা সৈয়দ মো. সাবের শাহ। আঞ্জুমান-এ-রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্ট শোভাযাত্রার আয়োজন করে।

জশনে জুলুছ নামের বিশাল এই শোভাযাত্রাটি নগরীর ষোলশহর মাদরাসা থেকে শুরু হয়ে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মানুষ এই শোভাযাত্রায় অংশ নেয়।

মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা.)-এর জন্ম ও ওফাত দিনকে সাড়ম্বরে উদ্‌যাপনে নগরীর জামেয়া সুন্নিয়া মাদরাসার খানকাহ থেকে সকালে শুরু হয় বৃহত্তম এই শোভাযাত্রা। এ বছর শোভাযাত্রার নেতৃত্ব দেন পাকিস্তানের সিরিকোট দরবার শরীফের পীর সাহেব আওলাদে রাসুল খ্যাত আল্লামা সৈয়দ মো. সাবের শাহ। মহানবী (সা.)-এর শুভাগমনের দিনকে উৎসবমুখর করে তোলার লক্ষ্যে জুলুছে অংশ নেন বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ।

ধর্মীয় শোভাযাত্রাটি চলাকালে পুরো নগরী মুখরিত থাকে হামদ নাতে রাসুলের সুর ও সংগীতে। এভাবে দিনটি উদযাপন করতে পারায় অনুভুতির কথা জানান মিছিলে অংশগ্রহণকারীরা।

আনজুমানে রাহমানিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্ট ১৯৭৪ সাল থেকে এ ধরনের আয়োজন করছে। সংস্থাটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোছাহেব উদ্দীন বখতেয়ার বলেন, হজরত মোহাম্মদ (সা.) সমগ্র সৃষ্টির জন্য রহমত। সেই হিসেবে আজকের দিনটি সমগ্র বিশ্বের জন্য খুশির দিন। আল্লাহ পাক নির্দেশ দিয়েছেন, তোমরা কোনো রহমত পেলে খুশি উদযাপন করো। আমরা আমাদের রাসুলে পাক (সা.)-এর শিক্ষা সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে চাই।

করোনার কারণে অন্যবারের চেয়ে পরিসর সংকোচন করা হলেও সর্ববৃহৎ এই জুলুছে লাখো মানুষের উপস্থিতি উৎসবমূখর পরিবেশ মহানবীর প্রতি ধর্মপ্রাণ মানুষের ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ বলে জানান আল্লামা সৈয়দ সাবির শাহ।

শোভাযাত্রা শুরুর আগে দেশের অগ্রগতি কামনা করে আল্লামা সাবির শাহ দেশের ও বিশ্বমানবতার শান্তি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করেন।


আরও খবর
ফেনীতে ৫০ কেজি গাঁজাসহ আটক ৪

বুধবার ২০ অক্টোবর ২০21