আজঃ বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১
শিরোনাম

চন্দ্রিমা উদ্যানে জিয়ার লাশ ছিল প্রমাণ করেন: নানক

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৭ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ আগস্ট ২০২১ | ৪৪০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের প্রতি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেছেন, চন্দ্রিমা উদ্যানে কী কারণে মাতম করেন? কাঠের বাক্সের মধ্যে জিয়াউর রহমানের লাশ ছিল সেটা প্রমাণ করেন? চট্টগ্রাম থেকে যে কাঠের বাক্সটি এসেছিল সেই বাক্স খুলে তার স্ত্রী খালেদা জিয়াকেও খুলে দেখানো হয়নি।

শুক্রবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ আয়োজিত এক স্মরণ সভায় তিনি এ কথা বলেন। জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুননেছা মুজিব স্মরণে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, ১৫ আগস্টকে খুঁজতে গেলে আমাদের একাত্তরকে খুঁজতে হবে। সেদিন স্বাধীন বাংলাদেশ সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করেছিল কারা? সেদিন বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকে মুখ থুবড়ে ফেলার ষড়যন্ত্র করেছিল কারা? কারা সেদিন পাকিস্তানের সামরিক গোয়েন্দাদের প্রতিযোগী হিসেবে ভেতরে ঢুকে মুক্তিযুদ্ধকে বিপদগ্রস্ত করতে চেয়েছিল, সেই সামরিক অফিসার কারা? সেদিন বাংলাদেশকে পাকিস্তানের ফেডারেশন করতে চেয়েছিল জিয়া-মোশতাকরা।

তিনি বলেন, আগস্ট মাস এলে মির্জা ফখরুলদের বুকে থরথরে কাঁপন আসে। থরথর করে কাঁপেন তারা। এ আগস্ট মাস শোকাবহ মাস। এ মাসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবকে সপরিবারে হত্যা করে নির্বাচিত সাংবিধানিক সরকারকে উৎখাত করে আপনাদের জিয়াউর রহমান রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করেছিল। হত্যাকারীদের পুরস্কৃত করেছিল। যারা হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছিল তাদের নিরাপদে বিশেষ বিমানযোগে গার্লফ্রেন্ডসহ কারা বিদেশে পাঠিয়ে ছিল? সেই জিয়াউর রহমান। মির্জা ফখরুল সাহেব, বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের বিভিন্ন দূতাবাসে ফাস্ট সেক্রেটারি, সেকেন্ড সেক্রেটারি হিসাবে পুরস্কৃত করেছিল জিয়াউর রহমান।

মির্জা ফখরুলের উদ্দেশে আওয়ামী লীগের এ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আরও বলেন, ২১ আগস্ট খালেদা জিয়াকে যেতে দেওয়া হয় নাই বলে মন্তব্য করেন। সবকিছু উন্মুক্ত হয়ে গিয়েছে। গতকাল একটি আলোচনা সভায় কী বলেছেন? একটি আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র ছিল? বাংলাদেশে ২১ আগস্টে গ্রেনেড হামলা চালিয়েছিল এই খালেদা জিয়া ও তার কুলাঙ্গার পুত্র তারেক রহমান আর মতিউর রহমান-নিজামীরা। এটা দিবালোকের মতো স্পষ্ট।

তিনি বলেন, ২১ আগস্টে ব্যবহৃত আর্জেস গ্রেনেড পাকিস্তানি সেনাবাহিনী ব্যবহার করে। পাকিস্তানের ফ্যাক্টরিতে এটা তৈরি হয়। সেই গ্রেনেড কীভাবে বাংলাদেশে আসল?  হত্যাকাণ্ড ঘটালেন, সারাদিন কোনো পুলিশ ছিল না। তারপর আমরা যখন উদ্ধার করতে গেলাম তখন আমাদের ওপর পুলিশ অতর্কিত টিয়ারগ্যাস-লাঠিচার্জ করে হামলা করলো কেন? কেন সেদিন লাশ গুম করতে চেয়েছিলেন? কিন্তু জনতার বাধায় আপনারা সেদিন লাশ গুম করতে পারেননি।

জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, চন্দ্রিমা উদ্যানে মাতম করেন, কী কারণে করেন? এ লাশ কার ছিল? ওই কাঠের বাক্সের মধ্যে জিয়াউর রহমানের লাশ ছিল প্রমাণ করেন? চন্দ্রিমা উদ্যানে জিয়াউর রহমানের কোনো লাশ আছে বলে আমরা বিশ্বাস করি না।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের অতীতের বিভিন্ন ভূমিকার প্রশংসা করে নানক বলেন, একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে গেরিলা বাহিনীর দায়িত্ব পালন করেছে বঙ্গবন্ধুর ছাত্রলীগ। এ ছাত্রলীগ শেখ হাসিনাকে বাংলাদেশে ফিরে আনার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে। এক/এগারোর সময় বঙ্গবন্ধুকন্যাকে গ্রেফতারের পর প্রথম প্রতিবাদ করেছিল ছাত্রলীগ। স্বৈরাচার জিয়াউর রহমানকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ঢুকতে দেয়নি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ শাখার সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাসের সভাপতিত্বে সভা পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এছাড়া সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজাম্মেল হক, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর মিজানুর রহমান, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য বক্তব্য দেন। 


আরও খবর



শিক্ষা কার্যক্রমকে সময়োপযোগী করা অপরিহার্য : প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি, বিশ্ব পরিস্থিতির সঙ্গে তাল মিলিয়ে শিক্ষাব্যবস্থা আরও আধুনিকায়নের ওপর গুরুত্বারোপ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, শিক্ষা কার্যক্রমকে সময়োপযোগী করা অপরিহার্য।

সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) গণভবনে জাতীয় শিক্ষাক্রম রূপরেখার খসড়া উপস্থাপনা অবলোকন করে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা মনে করি যে বিশ্ব এগিয়ে যাচ্ছে, বিজ্ঞানপ্রযুক্তি এগিয়ে যাচ্ছে, আমাদের এর সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হবে। এ জন্য শিক্ষাকার্যক্রমকে সময়োপযোগী করা একান্তভাবে অপরিহার্য।

শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের নীতিমালার ভিত্তিতে আমরা কাজ করবো। কিন্তু আমাদের সব সময় সবার সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হবে এবং বিশ্ব পরিস্থিতির সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হবে। আর এ বিজ্ঞানপ্রযুক্তি জ্ঞানের ক্ষেত্রে বিশ্ব এগিয়ে যায় আমরা পিছিয়ে থাকতে পারি না।

বিজ্ঞান শিক্ষার গুরুত্ব তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আরেকটা বিষয় আমি লক্ষ্য করেছিলাম আমাদের দেশের ছেলে-মেয়েদের বিজ্ঞানের প্রতি অনিহা। বিজ্ঞান শিক্ষা তারা নিতেই চাই তো না। বিজ্ঞান বিভাগের লোকই পাওয়া যেতো না। এ রকম একটা সময় কিন্তু ছিল। আমরা বিজ্ঞান শিক্ষায় গুরুত্ব দিই। আমরা ১২টা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় করে দিয়েছি।

ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলতে সরকারের চলমান বিভিন্ন কার্যক্রম প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যেহেতু আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলছি, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার ক্ষেত্রে আমরা পদক্ষেপ নিয়েছি।

দীর্ঘদিন পর রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার কথা উল্লেখ করে সরকার প্রধান বলেন, আলহামদুলিল্লাহ রোববার থেকে আমরা স্কুল-কলেজ খুলে দিয়েছি, ধীরে ধীরে সবগুলো খুলে যাবে। যার ফলে আবার নতুনভাবে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হবে।

তিনি বলেন, আমাদের অত্যন্ত দুর্ভাগ্য আমরা প্রায় দেড় বছরের মতো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলতে পারিনি। যদিও অনলাইনে বা টেলিভিশনের মাধ্যমে বা ঘরে বসে- ঘরেই আমরা স্কুল এরই ধরনের বহুমুখী কার্যক্রম হাতে নিয়েছি, কাজ করেছি। কিন্তু স্কুলে যাওয়ার আনন্দ, কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ার আনন্দ থেকে শিক্ষার্থীরা বঞ্চিত হয়েছে।

করোনাকালীন সময়ে শিক্ষা কার্যক্রম সচল রাখতে সংশ্লিষ্টদের ভূমিকার প্রশংসা করে শেখ হাসিনা বলেন, করোনাকালীন সময়ে যখন সব কিছু স্থবির তখন আপনারা যথেষ্ট উদ্যোগ নিয়েছেন। বিশেষ করে শিক্ষার ক্ষেত্রে এখনকার যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে কীভাবে শিক্ষা ব্যবস্থাকে আরও শিক্ষার্থীদের কাছে আকর্ষণীয় করা যায়। আবার সেই সঙ্গে সঙ্গে জীবন-জীবিকার পথটাও যেন খোলে। সেই বিষয়টার দিকে বিশেষ দৃষ্টি দিয়ে আপনারা এ কার্যক্রমগুলো করেছেন।

শিক্ষার্থীদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে বিভিন্ন এলাকায় নতুন নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নির্মাণ করার কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা এ পর্যন্ত যথেষ্ট পদক্ষেপ নিয়েছি। যেসব এলাকায় স্কুল ছিল না। সেসব এলাকায় আমরা স্কুল তৈরি করে দিচ্ছি।

তিনি বলেন, আমাদের নদী-নালা, খাল বিলের দেশ। ছোট ছোট শিশুদের যোগাযোগ ও যাতায়াতের ব্যবস্থা বিবেচনা করেই কিন্তু আমরা বিভিন্ন এলাকায় স্কুল তৈরির করার ব্যবস্থা নিয়েছি।


আরও খবর
কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নতুনভাবে ভাবতে হবে

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




গণটিকার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া শুরু ৭ সেপ্টেম্বর

প্রকাশিত:বুধবার ২৫ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৫ আগস্ট ২০২১ | ৬৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে সারা দেশে অনুষ্ঠিত গণটিকা কার্যক্রমের দ্বিতীয় ডোজ আগামী ৭ সেপ্টেম্বর থেকে দেওয়া শুরু হবে। এই টিকা কার্যক্রম শুরুর আগে দেশে আরও টিকা আসবে বলে জানা গেছে।

কেন্দ্রীয় ঔষধাগারে (সিএমএসডি) আজ বুধবার সকালে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক আবুল বাশার খুরশীদ আলম।

অধ্যাপক আবুল বাশার খুরশীদ আলম বলেন, গণটিকা কার্যক্রমের দ্বিতীয় ডোজ ৭ সেপ্টেম্বর থেকে দেওয়া শুরু হবে। এই কয়দিনে আরও টিকা আসবে। দ্বিতীয় ডোজ সম্পন্ন করতে কোনো সমস্যা হবে না।

কেন্দ্রীয় ঔষধাগার মিলনায়তনে আজ করোনাভাইরাস মোকাবিলায় প্রবাসী বাংলাদেশের উপহার হিসেবে প্রাপ্ত ভেন্টিলেটর বিতরণ অনুষ্ঠানে অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল বাশার খুরশীদ আলম। এতে আরও উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় ঔষধাগারের মহাপরিচালক আবু হেনা মোরশেদ, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হাসপাতালবিষয়ক পরিচালক ফরিদ উদ্দিন মিয়াসহ অধিদপ্তরের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা।


আরও খবর
করোনায় শনাক্ত ও মৃত্যু আরও কমল

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




তৃতীয় মেয়াদে জয় পেলেন জাস্টিন ট্রুডো

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর 20২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর 20২১ | ৩৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কানাডার নির্বাচনে তৃতীয়বারের মতো জয়লাভ করে ক্ষমতায় ফিরছেন প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। আজ মঙ্গলবার সংবাদমাধ্যম টরোন্টো স্টার'র এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, প্রাথমিক গণনায় দেখা গেছে ৩৩৮ আসনের হাউস অব কমনসে ট্রুডোর লিবারেল পার্টি ১৫৮টি আসনে 'হয় এগিয়ে আছে নয় বিজয়ী' হয়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, ট্রুডো তার সমর্থকদের বলেছেন, সব কানাডিয়ানের মঙ্গলের জন্যে অন্য দলগুলোকে সঙ্গে নিয়ে কাজ করা হবে।

হোটেলের বলরুমে সমবেত সমর্থকদের তিনি বলেন, 'এই মহামারির মধ্যে আমাদের নির্বাচিত করে আবার সুন্দর ভবিষ্যতের জন্যে কাজ করার সুযোগ দিচ্ছেন। আজ আমরা যা দেখলাম তা হলো লাখো কানাডিয়ান প্রগতিশীল পরিকল্পনার প্রতি রায় দিয়েছেন।'

বিরোধী কনজারভেটিভ পার্টি এগিয়ে আছে ১২১টি আসনে। দলটির দ্বিতীয় শীর্ষ নেতা ইতোমধ্যে পরাজয় মেনে নিয়েছেন।

ব্লক কুইবেকোয়া পেয়েছে ৩১টি আসন ও বামপন্থি নিউ ডেমোক্রেটিক পার্টির (এনডিপি) পেয়েছে ২৬টি আসন।

এর আগে দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম সিবিসি'র সমীক্ষায় বলা হয়েছিল হাউস অব কমনসে সরকার গড়তে ট্রুডোর লিবারেল পার্টিকে অন্য দলের সমর্থন নিতে হতে পারে।

সিবিসি জানায়, ট্রুডো তার মন্ট্রিয়েল আসন থেকে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচনের প্রাক্কালে তিনি ভোটারদের বলেছিলেন, 'নির্বাচনের মাধ্যমে দেশের জন্যে সঠিক পথটি বেছে নেওয়া হবে। আমরা যেন সামনে এগিয়ে যেতে পারি।'

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, এই মহামারিতে কেন নির্বাচনের আয়োজন করা হয়েছে তা ভোটারদের বোঝাতে বেশ বেগ পেতে হয়েছে ২০১৫ সাল থেকে ক্ষমতায় থাকা ট্রুডোকে।

গত ২০১৯ সালে নির্বাচনে ১৫৭টি আসন জিতে অন্য বিরোধীদের সমর্থন নিয়ে ট্রুডোর লিবারেল পার্টি ক্ষমতায় আসে।

ট্রুডোর লিবারেল পার্টির ক্ষমতায় ফেরার সংবাদে আজ মার্কিন ডলারের বিপরীতে কানাডিয়ান ডলার দাম বেড়েছে। তার এই বিজয় দেশটিতে বিনিয়োগকারীদের আর্থিক সহায়তা চালিয়ে যাওয়ার ইঙ্গিত দিচ্ছে।


আরও খবর
পায়রা সেতুর নাম পরিবর্তনের দাবিতে মানববন্ধন

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

বিস্কুটের কার্টন থেকে নবজাতক উদ্ধার

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




চলচ্চিত্রাঙ্গন ছেড়ে যাচ্ছেন অনেক শিল্পী ও কলাকুশলী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৩২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনা দেশের চলচ্চিত্রের ব্যাপক ক্ষতিসাধন করেছে। লকডাউরেন কারণে সিনেমা নির্মাণ বন্ধ থাকায় চলচ্চিত্রের শিল্পী ও কলাকুশলীরা বেকার হয়ে পড়েছে। লকডাউন উঠে গেলেও চলচ্চিত্রের স্বাভাবিক পরিস্থিতি এখনো ফিরেনি।

চলচ্চিত্রের এই দুর্দশার কারণে অনেক কলাকুশলী চলচ্চিত্রাঙ্গন ছেড়ে চলে গেছেন। কাজ না থাকায় অভাব-অনটনে দিন কাটাচ্ছেন চলচ্চিত্রের নিম্ন আয়ের শিল্পী ও কলাকুশলীরা। ঢাকায় জীবনযাপন কঠিন হয়ে পড়ায় অনেকেই সিনেমা ছেড়ে গ্রামে ফিরে গেছেন।

চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি, শিল্পী সমিতিসহ সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলো থেকে যে তথ্য পাওয়া যায়, তাতে প্রায় শতাধিক শিল্পী ও কলাকুশলী ঢাকা ছেড়ে গ্রামে চলে গেছেন। কেউ কেউ বলছেন এ সংখ্যা দুই শতাধিকও হতে পারে। এর মধ্যে দৈনিক পারিশ্রমিক পাওয়া অভিনয় শিল্পী যেমন আছেন তেমনি টেকনিশিয়ানসহ অন্যান্য কর্মজীবীও রয়েছেন।

কোনো সমিতির সদস্য নন এমন অনেকেই চলচ্চিত্রে কাজ করেন। তারা দিনে এনে দিনে খান। দীর্ঘ সময় কর্মহীন থাকায় তারা বাসা ভাড়া দিতে হিমশিম খাচ্ছিলেন। কেউ আবার ঝুকছেন অন্য পেশায়।

পরিচালক সমিতির মহাসচিব শাহীন সুমন বলেছেন, দীর্ঘ সময় ধরে এত শিল্পী-কলাকুশলীর পাশে থাকা অসম্ভব। তিনি বলেন, ঈদ বা অন্য কোনো উপলক্ষে এককালীন কিছু সহায়তা করা যায়। তাতে সবার প্রয়োজন মিটছে কিনা সে প্রশ্ন থেকে যায়। সবার পরিবারের সদস্য একরকম নয়। সবার জীবনযাপনও একরকম নয়। 


আরও খবর
হাইকোর্টে জামিন পেলেন মডেল মৌ

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

আমার পছন্দের পুরুষকে একটু রাফ হতে হবে

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




চাঁদাবাজি ঠেকাতে সুনামগঞ্জে পরিবহন ধর্মঘট

প্রকাশিত:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ২৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সুনামগঞ্জ থেকে দূরপাল্লার কোনো বাস রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে চলছে না। সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়কের বাইপাস এলাকায় পরিবহনশ্রমিকের নামে চাঁদাবাজি করায় আন্তঃজেলা বাসগুলোর শ্রমিকরা অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট শুরু করেছেন।

এ কারণে সুনামগঞ্জ-ঢাকা, সুনামগঞ্জ-কুমিল্লা, সুনামগঞ্জ-ময়মনসিংহসহ দূরপাল্লার যাত্রীরা বিপদে পড়েছেন। সারাদেশ থেকে আসা পর্যটক, পোশাকশ্রমিক বিভিন্ন গন্তব্যের যাত্রীরা বেকায়দায় পড়েছেন।

তাহিরপুরের বাদাঘাট এলাকা থেকে ঢাকায় যেতে আসছেন মো. রিয়াজুল ইসলাম। তিনি বলেন, আমি একজন বিদেশযাত্রী। ভ্যাকসিন নিতে ঢাকা যাওয়া লাগে। এখন বাসস্টেশনে এসে জানতে পারলাম আজ থেকে ঢাকাগামী বাস চলবে না। এতে আমরা বিপাকে পড়েছি। আগে জানলে আমি ঢাকা যাওয়ার বিকল্প ব্যবস্থা করতাম।

শ্যামলী পরিবহনের শ্রমিক আব্দুল করিম বললেন, আমরা প্রতিদিন ঢাকায় যাওয়ার সময় সিলেট বাইপাস থেকে চাঁদা নেয় কিছু মানুষ। আমরা বিষয়টি প্রশাসনকে জানিয়েছি। কিন্তু তারা চাঁদা বন্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। তাই আজ আমরা বাধ্য হয়েই অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটের ডাক দিয়েছি।

সুনামগঞ্জ জেলা পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক নূরুল হক বললেন, সুনামগঞ্জ থেকে ছেড়ে যাওয়া আন্তঃজেলা বাসগুলো সিলেটের বাইপাস সড়কে গেলেই চাঁদাবাজির শিকার হয়। ১ সেপ্টেম্বর থেকে এই অরাজক পরিস্থতির সৃষ্টি হয়েছে। চাঁদাবাজি ঠেকাতে সিলেটের শ্রমিকনেতারা, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে নালিশ করায় তারা আরও বেপরোয়া হয়েছে। শ্রমিকদের মারধরও করেছে তারা। এই অবস্থায় পরিবহন ধর্মঘট অব্যাহত আছে।

সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান বলেন, সিলেটের পথে চাঁদাবাজি বন্ধে পুলিশ ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে। আমরা সুনামগঞ্জের শ্রমিকনেতাদের সঙ্গে কথা বলেছি, তারা নিজেরা বসে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানিয়েছেন।

 

নিউজ ট্যাগ: পরিবহন ধর্মঘট

আরও খবর
পায়রা সেতুর নাম পরিবর্তনের দাবিতে মানববন্ধন

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

বিস্কুটের কার্টন থেকে নবজাতক উদ্ধার

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১