আজঃ বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১
শিরোনাম

দেশের করোনার হটস্পট এখন ফরিদপুর

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৭ জুলাই ২০২১ | ১২৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশের করোনার হটস্পট এখন ফরিদপুর। গত ২৪ ঘন্টায় একক জেলা হিসেবে সর্বোচ্চ মৃত্যু দেখলো জেলাটি। ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালটিতে গত ২৪ ঘন্টায় করোনা ও উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে করোনায় ১৬ জন এবং উপসর্গ নিয়ে ৫ জন মারা গেছেন।

বর্তমানে হাসপাতালটিতে ৪০৬ জন ভর্তি রয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় ভর্তি হয়েছেন ৪৪ জন রোগী। প্রতিনিয়ত রোগীর চাপ বাড়াতে হাসপাতালে সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছে ডাক্তার ও নার্সরা। গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় ৯৬০ জনের নমুনা পরীক্ষা করে সর্বোচ্চ ৩০৫ জনের দেহে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৩১ দশমিক ৭৩ শতাংশ।

ফরিদপুরে এখন পর্যন্ত ১৫ হাজার ৬৬৭ জন রোগীর করোনা শনাক্ত হয়। সরকারি হিসেবে এ পর্যন্ত ৩০৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।

ফরিদপুরের সিভিল সার্জন ডা: ছিদ্দীকুর রহমান বলেন, গত ২৪ ঘন্টায় ফরিদপুর পিসিআর ল্যাবে ৯৬০ জনের নমুনা পরীক্ষার করে শনাক্ত হয়েছে ৩০৫ জন। করোনার বিধিনিষেধ না মানার কারণে ফরিদপুরে বেড়েছে করোনা আক্রান্ত ও মৃত্যু।


আরও খবর



১০ দিনের মধ্যে ইভ্যালিকে গ্রাহকদের ২১৪ কোটি টাকা পরিশোধ করতে হবে: টিক্যাব

প্রকাশিত:রবিবার ১১ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ জুলাই ২০২১ | ১২৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ডিজিটাল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা ২০২১ মোতাবেক ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালিকে গ্রাহকদের কাছ থেকে অগ্রিম বাবদ নেয়া ২১৪ কোটি টাকা অবিলম্বে ফেরত প্রদান অথবা পণ্য সরবরাহের দাবি জানিয়েছে টেলি কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (টিক্যাব)। ১১ জুলাই ২০২১ (রবিবার) দুপুরে সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ দাবি জানান টিক্যাবের আহ্বায়ক মুর্শিদুল হক।

বিজ্ঞপ্তিতে মুর্শিদুল হক বলেন, গত ৪ জুলাই ২০২১ বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ডব্লিউটিও সেল কর্তৃক ডিজিটাল কমার্স পরিচালনায় স্বচ্ছতা, দায়বদ্ধতা, জবাবদিহিতা, ভোক্তাদের আস্থা বৃদ্ধি ও অধিকার নিশ্চিতের লক্ষ্যে জাতীয় ডিজিটাল কমার্স পলিসি ২০২০ (সংশোধিত) এর অনুচ্ছেদ ৩.৩.৬ অনুসারে ডিজিটাল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা ২০২১ প্রণয়ন করে গেজেট প্রকাশিত হয়। ডিজিটাল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা ২০২১ এর ৩.৩.২ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে পণ্যের সম্পূর্ণ মূল্য পরিশোধ করা হয়ে থাকলে ক্রেতা ও বিক্রেতা একই শহরে অবস্থান করলে ক্রয়াদেশ গ্রহণের পরবর্তী সর্বোচ্চ ০৫ (পাঁচ) দিন এবং ভিন্ন শহরে বা গ্রামে অবস্থিত হলে সর্বোচ্চ ১০ (দশ) দিনের মধ্যে পণ্য ডেলিভারি প্রদান করতে হবে। অথচ আমরা দেখতে পাচ্ছি ঢাকাসহ সারাদেশের গ্রাহকদের হাজার হাজার অর্ডার ইভ্যালি, আলেশা মার্টসহ বিভিন্ন ই-কর্মাস প্রতিষ্ঠান মাসের পর মাস ধরে ফেলে রেখেছে। ১-৬ মাস পর্যন্ত অপেক্ষার পরও গ্রাহকদের পণ্য বা অর্থ কিছুই ফেরত দেয়া হচ্ছে না। অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর অফিসে গিয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করেও কোন ফল মিলছে না। অথচ ডিজিটল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা ২০২১ অনুযায়ী ১০ দিনের মধ্যে প্রতিষ্ঠানগুলোর গ্রাহকদের পণ্য বা অর্থ ফেরত দেয়ার কথা।

তিনি আরো বলেন, সম্প্রতি বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া প্রতিবেদন অনুযায়ী বাংলাদেশ ব্যাংক জানায় ইভ্যালির মোট দায় ৪০৭.১৮ কোটি টাকা। গ্রাহকের কাছ থেকে অগ্রিম বাবদ ২১৩.৯৪ কোটি টাকা এবং মার্চেন্টদের নিকট হতে ১৮৯.৮৫ কোটি টাকার মালামাল বাকিতে গ্রহণ করেছে প্রতিষ্ঠানটি। স্বাভাবিক নিয়মে প্রতিষ্ঠানটির কাছে কমপক্ষে ৪০৩.৮০ কোটি টাকার চলতি সম্পদ থাকার কথা থাকলেও রয়েছে মাত্র ৬৫.১৭ কোটি টাকা। বাকি অর্থ কোথায় তার কোন হদিস নেই। এ অবস্থায় গ্রাহকরা তাদের অগ্রিম পেমেন্ট করা অর্থ নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন। ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ রাসেলসহ ইভ্যালি কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন সময় আগামী দুই মাসে ইভ্যালি লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিণত হবে, দায়ের তুলনায় ইভ্যালির ব্রান্ডভ্যালু অনেক বেশি এসব কথা বলে মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছেন। কিন্তু অর্থ লোপাটের অভিযোগের কোন সন্তোষজনক উত্তর তারা দিচ্ছেন না। আমরা আশঙ্কা করছি গ্রাহক ও মার্চেন্টদের কাছে ইভ্যালির দায়ের পরিমাণ আরও বেশি হতে পারে।

টেলি কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (টিক্যাব) এর আহ্বায়ক বলেন, গত বছর থেকে করোনা মহামারির ফলে সারাদেশে সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রায় অনেকটাই স্থবিরতা নেমে আসে। এক্ষেত্রে প্রযুক্তি ব্যবহার করে অনলাইন প্লাটফর্মে পণ্য কেনাকাটায় অনেকটা সুফল পাওয়া গিয়েছে। ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতি সাধারণ মানুষের আস্থাও বেশ বৃদ্ধি পেয়েছে। এ অবস্থায় দুএকটি প্রতিষ্ঠানের কারণে গ্রাহকদের মাঝে আস্থার সংকট তৈরি হলে তা সার্বিকভাবে দেশের অর্থনীতিকেই ক্ষতিগ্রস্ত করবে।

তিনি বলেন, ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের পণ্য সারাদেশের গ্রাহকদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। মেইড ইন বাংলাদেশ পণ্য সারাবিশ্বে ছড়িয়ে দিতেও আমরা ই-কর্মাস প্রতিষ্ঠানগুলোকে ব্যবহার করতে পারি। প্রতিযোগিতা বাড়াতে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান অ্যামাজনকে দেশের বাজারে নিয়ে আসা যায় কি তা ভেবে দেখা যেতে পারে। অ্যামাজনের মাধ্যমে ২০১৫ সাল থেকে এ পর্যন্ত আমাদের প্রতিবেশী ভারত বৈশ্বিক বাজারে প্রায় ৩৩ বিলিয়ন ডলারের পণ্য বিক্রি করেছে। সম্প্রতি পাকিস্তানেও অ্যামাজনকে ব্যবসা পরিচালনা করার অনুমতি দেয়া হয়েছে। বাংলাদেশও কিভাবে এর সুফল পেতে পারে তা বিবেচনা করা প্রয়োজন।

বিজ্ঞপ্তিতে টেলি কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (টিক্যাব) এর পক্ষ থেকে গ্রাহকদের স্বার্থরক্ষায় ৩ দফা প্রস্তাবনা তুলে ধরা হয়-

১) ইভ্যালি, আলেশা মার্ট সহ যে সকল ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান গ্রাহকদের অর্ডার মাসের পর মাস ধরে ফেলে রেখেছে ডিজিটল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা ২০২১ অনুযায়ী ১০ দিনের মধ্যে সেসকল অর্ডারের বিপরীতে গ্রাহকদের পণ্য অথবা অর্থ ফেরত প্রদান করতে হবে।

২) ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরসহ সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে যেসকল অভিযোগ জমা পড়েছে সেগুলো দ্রুততার সাথে নিষ্পত্তি করতে হবে।

৩) ই-কর্মাস প্রতিষ্ঠানগুলো যাতে কোন ধরনের আর্থিক অনিয়ম বা প্রতরণার আশ্রয় না নিতে পারে সেজন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষগুলোকে নিয়মিত মনিটরিং করতে হবে ও অভিযোগ প্রমাণ হলে গ্রাহকদের আস্থা ফেরাতে প্রতিষ্ঠানগুলোকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় আনতে হবে। 



আরও খবর
আজ ব্যাংক বন্ধ

বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১




মুন্সীগঞ্জে গৃহবধূকে হত্যার চেষ্টার ভিডিও ভাইরাল, স্বামী আটক

প্রকাশিত:রবিবার ০১ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০১ আগস্ট ২০২১ | ১১৩জন দেখেছেন
Image

মুন্সীগঞ্জ থেকে জিতু রায়ঃ 

মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার মালখানগর ইউনিয়নের কাজিরবাগ গ্রামে এক গৃহবধূকে মারধরের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। এই ঘটনায় পুলিশ নির্যাতিতা গৃহবধূর স্বামী মুরাদ শেখকে(৪০) আজ রবিবার ১ আগস্ট বিকাল ৩টার দিকে আটক করেছে।

জানাগেছে, ওই গ্রামের হেলাল শেখের ছেলে মাদকাসক্ত মুরাদ শেখ দির্ঘদিন যাবৎ তার স্ত্রী হালিমা বেগমকে মারধর করে আসছিল।

আজ রবিবার সকালে হালিমা বেগম(২৫) নামের গৃহবধূকে কিল ঘুশি মেরে নির্মমভাবে মারধর করে হত্যার চেষ্টা করে তার পাষণ্ড স্বামী মুরাদ। স্থানীয় মহিলারা বাধা দিলে মুরাদ তাদের চাপাতি নিয়ে তেরে আসে। এ সময় প্রতিবেশি খাদিজা তার মোবাইলে মারধরের দৃশ্য ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিলে তা ভাইরাল হয়ে পরে । পরে স্থানীয় মেম্বার ও লোকজন গিয়ে হালিমাকে উদ্ধার করে ৯৯৯ এ ফোন দেয়।

স্থানীয়রা জানায়, দীর্ঘ দিন যাবত হালিমাকে মারধর করে আসছে হেলাল শেখের ছেলে মুরাদ। এর আগে বেশ কয়েকবার পানিতে চুবিয়ে মারার চেষ্টা করেছিলো। গত শনিবার এ নিয়ে স্থানীয় মেম্বার বিচার করেছে কিন্তু মুরাদ থামেনি।

ভিডিও ধারণ কারি খাদিজা জানান, মুরাদ হাতে চাপাতি নিয়ে মারধর করে এবং কেও ধরতে আসলে তাকেও চাপাতি নিয়ে তেরে আসে।

মালখানগর ইউ পি সদস্য মো. আবু সাঈদ জানান, আমি ঘটনা শুনতে পেরে ঘটনাস্থালে যাই। গিয়ে দেখি মুরাদ হালিমার পেটে, পিঠে, মুখে কিল ঘুষি মারছে। আমি তাকে উদ্ধার করি এবং মুরাদকে আটকে রেখে পুলিশকে খবর দেই।

বাংলাদেশ মানবাধিকার উন্নয়ন কমিশনের মুন্সিগঞ্জ জেলা শাখার চেয়ারম্যান এ এন হুমায়ুন কবির সাংবাদিকদের বলেন, আমরা যেখানে মানবধিকার হরণ হয় সেখানে আমরা তাদের পাশে দাড়াই। আমরা হালিমার চিকিৎসার কথা বলেছি। তার ভাই জানিয়েছে তারা চিকিৎসা করবে। যদি তার উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজন হয় আমরা সহায়তা করব।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সিরাজদিখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) বোরহান উদ্দিন বলেন, স্থাণীয় এক মানবধিকার কর্মী আমাকে গৃহবধূকে মারধরের বিষয়টি জানালে আমি পুলিশ পাঠিয়ে ঘাতক স্বামীকে আটক করে থানায় নিয়ে আসি। অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। আসামী বিয়ের পর থেকেই স্ত্রীকে মারধর করতেন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।


আরও খবর
মুন্সিগঞ্জে শিশু হত্যার অভিযোগ

মঙ্গলবার ১৩ জুলাই ২০২১




সুর চৌধুরী ও তার স্ত্রীর অ্যাকাউন্ট থেকে অর্থ উত্তোলন-স্থানান্তর স্থগিত

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ জুলাই ২০২১ | ১২৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
পি কে হালদারের ক্ষমতার অন্যতম উৎস ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের তৎকালীন ডেপুটি গভর্নর এস কে সুর চৌধুরী। তার মাধ্যমেই পি কে হালদার বিভিন্ন অনিয়ম চাপা দিতেন

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর এস কে সুর চৌধুরী ও তার স্ত্রী সুপর্না সুর চৌধুরীর ব্যাংক অ্যকাউন্ট থেকে অর্থ উত্তোলন ও স্থানান্তর স্থগিত করেছে এনবিআর।

বুধবার জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সেল থেকে সব ব্যাংকে এ নির্দেশনা পাঠানো হয়। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত তাদের অ্যাকাউন্ট থেকে অর্থ উত্তোলন ও স্থানান্তর বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।

বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান দখল করে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা আত্মসাতে অভিযুক্ত প্রশান্ত কুমার হালদারকে (পি কে হালদার) সহযোগিতার অভিযোগ রয়েছে সুর চৌধুরীর বিরুদ্ধে।

এনবিআরের চিঠি পাওয়ার সঙ্গে-সঙ্গে নির্দেশনা কার্যকর করতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে একটি পরিপালন প্রতিবেদন পাঠাতে হবে এনবিআরে।

পি কে হালদারের অনিয়মের সহযোগী হিসেবে আটক ইন্টারন্যাশনাল লিজিংয়ের সাবেক এমডি রাশেদুল হক ও পিপলস লিজিংয়ের সাবেক চেয়ারম্যান উজ্জল কুমার নন্দি আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ করেন। রাশেদুল হক জবানবন্দিতে বলেন, পি কে হালদারের ক্ষমতার অন্যতম উৎস ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের তৎকালীন ডেপুটি গভর্নর এস কে সুর চৌধুরী। তার মাধ্যমেই পি কে হালদার বিভিন্ন অনিয়ম চাপা দিতেন। আর আর্থিক প্রতিষ্ঠান দেখভালের দায়িত্বপ্রাপ্ত তৎকালীন মহাব্যবস্থাপক ও বর্তমানে নির্বাহী পরিচালক মো. শাহ আলমকে প্রতি মাসে দেওয়া হতো দুই লাখ টাকা। এ ছাড়া বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিদর্শন বিভাগের সহকারী পরিচালক থেকে যুগ্ম পরিচালক পর্যায়ের কর্মকর্তারা বছরে দু'বার পরিদর্শনে আসতেন। অনিয়ম না ধরার জন্য প্রতিবার তাদের পাঁচ থেকে সাত লাখ টাকা দেওয়া হতো। এরপর গত ফেব্রুয়ারিতে তাদের ও পরিবারের সদস্যদের অ্যাকাউন্ট তলব করে এনবিআর।

আদালতে জবানবন্দির বিষয়টি খতিয়ে দেখতে ইতোমধ্যে উচ্চপর্যায়ের একটি কমিটি গঠন করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। আর শাহ আলমকে আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে পরিদর্শন বিভাগের কোনো কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।


আরও খবর
আজ ব্যাংক বন্ধ

বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১




গত ২৪ ঘণ্টায় ময়মনসিংহে করোনা ইউনিটে আরও ২০ মৃত্যু

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৮ জুলাই ২০২১ | ১০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে করোনায় সাতজন এবং উপসর্গ নিয়ে ১৩ জন মারা গেছেন। রবিবার (১৮ জুলাই) সকালে মমেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটের ফোকালপারসন ডা. মহিউদ্দিন খান মুন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এ তথ্য নিশ্চিত করে করোনা ইউনিটের ফোকাল পারসন ডা. মহিউদ্দিন খান মুন আরও জানিয়েছেন, করোনা ডেডিকেটেড ইউনিটে নতুন ৩৮ জন ভর্তিসহ এখন পর্যন্ত ৪১১ জন এবং আইসিইউতে ২২ জন চিকিৎসাধীন আছেন।

এদিকে সিভিল সার্জন ডা. নজরুল ইসলাম বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় ৭৫২ টি নমুনা পরীক্ষায় আরো ১৯৮ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ২৬ দশমিক ৩২ শতাংশ। জেলায় মোট আক্রান্ত ১১ হাজার ৪৯৫ জন। সুস্থ হয়েছেন ৮ হাজার ৩১৩ জন।


আরও খবর



সীমান্ত বন্ধের মেয়াদ বাড়লো

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৩ জুলাই ২০২১ | ৯৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতি বিবেচনায় সীমান্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে স্থলসীমান্ত বন্দর দিয়ে সপ্তাহে তিন দিন প্রবেশ করবেন বাংলাদেশিরা

করোনাভাইরাস সংক্রমণ কমাতে ভারতের সঙ্গে স্থলসীমান্ত বন্ধের মেয়াদ ফের ১৭ দিন বাড়লো। ফলে আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের স্থলসীমান্ত বন্ধ থাকবে।

মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (পূর্ব) মাশফি বিনতে শামস বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতি বিবেচনায় সীমান্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে স্থলসীমান্ত বন্দর দিয়ে সপ্তাহে তিন দিন প্রবেশ করবেন বাংলাদেশিরা। তাদের কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক।

জানা গেছে, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে স্থলসীমান্ত বন্ধের জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো সুপারিশ অনুযায়ী আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত সীমান্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে ভারত থেকে বাংলাদেশিদের দেশে ফেরার ক্ষেত্রে আগের নিয়ম বলবৎ থাকবে।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর