আজঃ শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

ড্রেন থেকে গলাকাটা লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৭ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৭ অক্টোবর ২০২১ | ৩৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজশাহী নগরীর সাগরপাড়া এলাকায় এক ব্যক্তিকে গলাকেটে হত্যা করা হয়েছে। নগরীর বিদ্যুৎ অফিসের পেছনের ড্রেন থেকে গতকাল বুধবার দিবাগত রাত ২টার পর লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহতের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

রাজশাহী মহানগর পুলিশের বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারণ চন্দ্র বর্মন জানান, লাশটি পড়ে থাকতে দেখে থানায় খবর দেন এক পথচারী। পরে রাতেই লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিহত ব্যক্তির গলায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে উল্লেখ করে পুলিশের ওই কর্মকর্তা জানান, যে ড্রেন থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে, তার এক থেকে দেড়শ গজ দূরে তাঁকে আঘাত করা হয়েছে। সেখানে রক্তের দাগও আছে। ওই অবস্থায় দৌড়ে পালাতে গিয়ে ড্রেনে পড়ে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ওসি আরও জানান, লাশ উদ্ধারের সময় ঘটনাস্থলে একটি মোবাইল ফোন পাওয়া গেছে। এর সূত্র ধরে পুলিশ হত্যার রহস্য উদঘাটনে কাজ শুরু করেছে।


আরও খবর



পাকিস্তানে গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো জিন্নাহর ভাস্কর্য

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পাকিস্তানের জাতির পিতা মোহাম্মদ আলী জিন্নাহর ভাস্কর্য গুঁড়িয়ে দিয়েছে দেশটির স্বাধীনতাকামী দল বালুচ লিবারেশন আর্মি (বিএলএ)। দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ বেলুচিস্তানের বন্দরনগরী গাওদারে নির্মিত ভাস্কর্যটিতে সোমবার ভোরে বিস্ফোরণ ঘটায় বিএলএ। গাওদারের ডেপুটি কমিশনার অবসরপ্রাপ্ত মেজর আবদুল কবির খান সংবাদমাধ্যমকে জানান, দুষ্কৃতকারীরা ভাস্কর্যর বিভিন্ন অংশে আগেই বিস্ফোরক স্থাপন করেছিল।

সোমবার ভোরের দিকে সেগুলো বিস্ফোরিত হয়েছে। আর তাতেই পুরো ধ্বংস হয়ে যায়। এদিকে ওই ভাঙার দায় স্বীকার করে বিবৃতি দিয়েছে বালুচ লিবারেশন আর্মি। এ বছরের শুরুর দিকে গাওদারে জিন্নাহর ভাস্কর্য

স্থাপন করা হয়। পুলিশ জানাচ্ছে, এই ঘটনা কারা ঘটিয়েছে তা এখনো শনাক্ত করা যায়নি। সিসিটিভির ফুটেজে কয়েকজন মুখোশধারী ব্যক্তিকে ভাস্কর্যর আশপাশে ঘোরাঘুরি করতে দেখা গেছে, কিন্তু কারোর চেহারা বোঝা যায়নি।

এখন পর্যন্ত এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। তবে আবদুল কবির খান জানিয়েছেন, দ্রুত দুষ্কৃতকারীদের আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

বেলুচিস্তানের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী সরফরাজ বুগতি ভাস্কর্য গুঁড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে বলেন, জিন্নাহর ভাস্কর্য গুঁড়িয়ে দেওয়ার অর্থ পাকিস্তান রাষ্ট্রের মতাদর্শের ওপর আঘাত করা। আমি অপরাধীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও যথাযথ শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।


আরও খবর



কাওরান বাজারে বাসচাপায় স্কুটিচালকের মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ২০ অক্টোবর ২০21 | হালনাগাদ:বুধবার ২০ অক্টোবর ২০21 | ২৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর কাওরান বাজার এলাকায় বাসচাপায় মো. সাইয়াদুর হোসেন (৪৩) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (২০ অক্টোবর) বিকেল ৪টার দিকে কাওরান বাজারের নিউ স্টার রেস্তোরাঁর সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় ওই ব্যক্তি স্কুটি থেকে পড়ে গেলে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

তেজগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অপূর্ব হাসান জানান, আজ বিকেলে নামে ওই ব্যক্তি স্কুটি চালিয়ে ফার্মগেটের দিকে যাচ্ছিলেন। কাওরান বাজার এলাকার নিউ স্টার রেস্তোরাঁ অতিক্রম করার সময় হঠাৎ কাঁপতে কাঁপতে স্কুটি থেকে রাস্তায় পড়ে যান তিনি। এ সময় তার পেছনে থাকা গুলিস্তান-আব্দুল্লাহপুর রুটে চলাচলকারী একটি বাস তাকে চাপা দেয়। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। সাইয়াদুর হোসেনের বাসা পূর্ব নাখালপাড়া এলাকায় বলে জানা গেছে।

পুলিশ জানায়, দুর্ঘটনার শিকার ওই ব্যক্তির কোনো রোগ ছিল কি-না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তাকে চাপা দেওয়া বাসের গতিও তুলনামূলক কম ছিল। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে বাসচালকের কোনো দোষ খুঁজে পাওয়া যায়নি।

ময়নাতদন্তের জন্য তার মরদেহ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: কারওয়ান বাজার

আরও খবর
শাহবাগে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ

শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১




দৌলতদিয়ায় পারাপারের অপেক্ষায় ৬০০ ট্রাক

প্রকাশিত:শনিবার ০৯ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৯ অক্টোবর ২০২১ | ৪৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
নদী পারের জন্য দৌলতদিয়া জিরো পয়েন্ট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের আড়াই কিলোমিটার বাংলাদেশ হ্যাচারিজ পর্যন্ত প্রায় দুই শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া ঘাটে পদ্মা পারের অপেক্ষায় রয়েছে প্রায় ৬০০ পণ্যবাহী ট্রাক। শনিবার সকাল ৯টায় সরেজমিন রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ মোড়ে গিয়ে এ চিত্র দেখা যায়।

জানা যায়, ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে খোলা আকাশের নিচেই কাটছে ওই ট্রাকচালকদের নির্ঘুম রাত। ২৪ ঘণ্টা অপেক্ষা করেও ট্রাক চালকরা দেখা পাচ্ছেন না কাঙ্খিত ফেরির। ফলে মানবেতর জীবনযাপন করছেন চালক ও সহকারীরা।

এদিকে ঘাট এলাকায় শত শত পণ্যবাহী ট্রাক নদী পারের জন্য অপেক্ষায় থাকলেও চাপ নেই যাত্রীবাহী দূরপাল্লার পরিবহন ও ব্যক্তিগত ছোট গাড়ির। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যাত্রীবাহী বাস ও ব্যক্তিগত ছোট গাড়ী নদী পার করার কারণে ঘাটে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে না যাত্রীদের। ঘাট এলাকাতে এসে কিছু সময় পরই ফেরিতে উঠে যাচ্ছে পরিবহন ও ছোটগাড়িগুলো।

নদী পারের জন্য দৌলতদিয়া জিরো পয়েন্ট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের আড়াই কিলোমিটার বাংলাদেশ হ্যাচারিজ পর্যন্ত প্রায় দুই শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক। তবে এ সময় ওই এলাকায় নদী পারের জন্য কোনো দূরপাল্লার বাস বা ব্যক্তিগত ছোট গাড়ি অপেক্ষা করতে দেখা যায়নি।

অন্যদিকে, দৌলতদিয়া-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের গোয়ালন্দ মোড় হতে রাজবাড়ীর দিকে কল্যাণপুর বাজার পর্যন্ত প্রায় তিন কিলোমিটার সড়কে নদী পারের জন্য অপেক্ষা করছে আরও প্রায় তিন শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক। আর ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোয়ালন্দের স্কেলের কাছে আরও অপেক্ষা করছে প্রায় অর্ধশত পণ্যবাহী ট্রাক। সব মিলে নদী পারের জন্য এই মুহূর্তে অপেক্ষা করছে প্রায় ৬০০ পণ্যবাহী ট্রাক।

ঝিনাইদহ থেকে ছেড়ে আসা পাট বোঝাই ট্রাক চালক মিঠু, কামরুল মিয়াসহ একাধিক চালক ও শ্রমিকরা জানান, শুক্রবার বিকালে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ মোড় এলাকায় নদী পারের জন্য তাদের ২৪ ঘণ্টার ওপড়ে ফাঁকা সড়কে অবস্থান করতে হচ্ছে। বেশি বিপাকে পড়েছেন তারা গোয়ালন্দ মোড়ে; কারণ এ সড়কটি পুরোই ফাঁকা। নেই কোনো খাবার হোটেল, নেই টয়লেটের ব্যবস্থাও।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কার্যালয় (বিআইডাব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) শিহাব উদ্দিন বলেন, শনিবার ফেরি চলাচল করছে ১৯টি। আর আমাদের ঘাট চালু আছে চারটি। আমরা চেষ্টা করছি এই দীর্ঘ সারি ঘাট এলাকায় যেন না থাকে। তবে তিনি এই দীর্ঘ সারিকে স্বাভাবিক বলেই মনে করছেন। কারণ বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ট্রাকের চাপ বেড়েছে।


আরও খবর



অভিনেতা চ্যালেঞ্জারের ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | ৫৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক ও নির্মাতা হুমায়ূন আহমেদের হাত ধরে অভিনয়ে আসেন অভিনেতা চ্যালেঞ্জার। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।

দক্ষ অভিনয় দিয়ে অল্প সময়ে দর্শকদের মন জয় করে নেন তিনি।

জনপ্রিয় এই অভিনেতার আজ ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী। ২০১০ সালে ব্রেন ক্যান্সারের কাছে হেরে গিয়ে পৃথিবী থেকে বিদায় নেন তিনি।

অভিনেতা চ্যালেঞ্জার ১৯৫৯ সালে ঢাকার খিলগাঁওয়ে জন্মগ্রহণ করেন। তিন ভাই ও দুই বোনের মধ্যে তিনিই ছিলেন সবার বড়। তার ছোট বোন মনিরা মিঠুও ছোট পর্দায় জনপ্রিয় একজন অভিনেত্রী।

প্রকৃত নাম ছিল এএসএম তোফাজ্জল হোসেন, ডাক নাম সাদেক। তাকে চ্যালেঞ্জার নামটি দিয়েছিলেন হুমায়ূন আহমেদ। তিনি সবচেয়ে বেশি অভিনয় করেছেন হুমায়ূন আহমেদের পরিচালনা-লেখা নাটক ও সিনেমায়।

হুমায়ূন আহমেদ পরিচালিত হাবলংগের বাজারে নাটক দিয়ে চ্যালেঞ্জারের অভিনয়ে অভিষেক হয়। এছাড়া একই পরিচালকের দুই দুয়ারী সিনেমা দিয়েও বড় পর্দায় যাত্রা শুরু হয় তার।

অভিনয় ক্যারিয়ারে দুই শতাধিক নাটকে অভিনয় করে সব বয়সী দর্শকের কাছে সমান জনপ্রিয় ছিলেন চ্যালেঞ্জার। যেকোনো চরিত্রে খুব সহজে মানিয়ে নিতে পারতেন তিনি। ন্যাচারাল অভিনয় করার ক্ষমতা ছিল তার। ধনী, গরিব, নাপিত, মন্ত্রী যেকোনো চরিত্র ফুটিয়ে তুলতে পারতেন এই অভিনেতা।

হুমায়ূন আহমেদ পরিচালিত চ্যালেঞ্জার অভিনীত সিনেমাগুলো হচ্ছে- দুই দুয়ারী, শ্যামল ছায়া, নয় নম্বর বিপদ সংকেত ও দারুচিনি দ্বীপ।

 


আরও খবর



কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ, পীরে চিশতী গ্রেফতার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ওরসের নামে ফাঁদ পেতে মুরিদদের কাছ থেকে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে কথিত পীরে চিশতী আবদুল মোতালেব। সারা দেশে তিনি ওরসের নামে মুরিদ তৈরি করেন। আর সেই মুরিদদের সরকারি চাকরি, ফ্ল্যাটের মালিকানা ও স্থানীয় নির্বাচনে নৌকা প্রতীক পাইয়ে দেওয়ার কথা বলতেন।

কথিত পীরের ফাঁদে পড়ে অসংখ্য মুরিদ তার হাতে তুলে দিয়েছেন কোটি কোটি টাকা। কাঙ্ক্ষিত চাকরি কিংবা নৌকার প্রার্থী কোনোটিই জোটেনি মুরিদদের ভাগ্যে। শেষ পর্যন্ত কথিত পীর আবদুল মোতালেবকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

প্রতি বৃহস্পতিবার পীরে চিশতী আবদুল মোতালেব মুরিদদের নিয়ে মজমার আয়োজন করেন।দেশজুড়ে ওরস মাহফিলের নামে হাজারো মুরিদ তৈরি করেছেন কথিত এ পীর।ঢাকার উত্তরাতে রাজউক প্রকল্পের আওতায় ফ্ল্যাটের মালিকানা পাইয়ে দেওয়ার কথা বলেও টাকা হাতিয়েছেন তিনি।

প্রতারিত ভক্তরা একটি গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, তিনি চাকরির জন্য নিয়েছেন সাড়ে ৪ লাখ টাকা। আর ফ্ল্যাটের জন্য নিয়েছেন ৬০ হাজার টাকা। বলেছে ১ মাসের মধ্যে চাকরি হয়ে যাবে। এরপর দোয়া করে দিয়েছেন সবাইকে।

কথিত এই পীর নিজেকে নির্মাণ শ্রমিক লীগের সহ-সভাপতি দাবি করেছেন। নিজেকে জনপ্রতিনিধি হিসেবে দেখতে চেয়েছেন। তার দাবি, এ জন্যই প্রতারণায় অর্জিত অর্থের বেশিরভাগই তিনি তুলে দিয়েছেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ মহিলা লীগের কোষাধ্যক্ষ শেখ আক্তারি বেগম পারুলের হাতে।তবে আক্তারি বেগম তার এই দাবি নাকচ করে দিয়েছেন।

তিনি বলেন, মোতালেব কে আমি চিনিও না, জানিও না। সে আমার নাম ভাঙিয়ে এসব করেছে। আমি তার বিচার চাই।

 গোয়েন্দা পুলিশ বলছে, প্রতারণার মাধ্যমে প্রাপ্ত অর্থের বেশিরভাগই আমোদ-ফূর্তিতে খরচ করেছেন কথিত এই পীর।

 ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা বিভাগের উপ পুলিশ কমিশনার মশিউর রহমান বলেন, সে বিভিন্ন সময় মোনাজাত করে, ওরস করে টাকা কামাত। এরমাধ্যমে নারীদের সঙ্গেও অন্তরঙ্গ হতো। এসব করে ব্যাপক টাকা কামিয়েছে। এই লোকটা দামি-গাড়ি ছাড়া চলাচল করে না। দলবাজির পেছনে টাকা খরচ করত।

নিউজ ট্যাগ: পীরে চিশতী আটক

আরও খবর