আজঃ শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

দুধ খেলে কি ডায়াবেটিস বাড়ে?

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জীবন ধারা ডেস্ক

Image

শরীরের নিঃশব্দ ঘাতক ডায়াবেটিস। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে না থাকলে শরীরে নানাবিধ জটিলতা দেখা দেয়। রক্তে শর্করার মাত্রা বাড়লে তা নিয়ন্ত্রণে জীবনযাপন পদ্ধতিতে অনেক পরিবর্তন আনতে হয়।

ডায়াবেটিস রোগীদের সব থেকে বড় সমস্যা কী খাবেন আর কী খাবেন না। খাবারে একটু অনিয়ম হলেই শরীরে শর্করার পরিমাণ বেড়ে যায়। এ কারণে খাবারের ব্যাপারে তাদের সাবধান থাকা জরুরি।

এমন অনেক ধরনের খাবার আছে যা খেলে রক্তে শর্করার পরিমাণ বেড়ে যায়। এবার সুষম খাদ্য দুধকে নিয়েও উঠেছে এই প্রশ্ন। দুধ কি আদৌ ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য সুরক্ষিত?

দুধ সুষম খাদ্য। এতে প্রোটিন, ক্যালশিয়াম, স্বাস্থ্যকর ফ্যাট, ভিটামিন সি থেকে ভিটামিন ডি সব ধরনের পুষ্টিগুণই আছে। ছোট থেকে সবার প্রতিদিনের ডায়েটের অংশ হিসেবে দুধকে রাখার পরামর্শ দেন পুষ্টিবিদরা। কিন্তু সমস্ত পুষ্টিগুণের মধ্যে উপস্থিতি মিলেছে মিষ্টিরও। এবার প্রশ্ন, এই প্রাকৃতিক মিষ্টি উপাদান কি ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য ক্ষতিকর?

ভারতীয় গণমাধ্যম এই সময়ের এক প্রতিবেদন বলছে, দুধের মধ্যে সব থেকে বেশি ব্যবহৃত গরুর দুধ। এক গ্লাস দুধ অর্থাৎ ২৪০ মিলিলিটার কাপ দুধে ১৬০ ক্যালোরি, ৭.৭ গ্রাম প্রোটিন, ৮ গ্রাম ফ্যাট এবং রয়েছে প্রাকৃতিক মিষ্টি। সঠিক ভাবে বলতে গেলে গরুর দুধে ১২ গ্রাম মিষ্টি থাকে।

গরুর দুধের পর সব থেকে চাহিদা মহিষের দুধের। এতে গরুর দুধের থেকে ১০০ শতাংশ বেশি ফ্যাট রয়েছে। এছাড়া ৪০ শতাংশ বেশি ক্যালোরিও পাওয়া যায়। তবে প্রচুর পুষ্টিগুণ থাকা সত্ত্বেও অনেকে এই দুধ ব্যবহারে দ্বিধাগ্রস্ত হন। একইসঙ্গে অত্যাধিক ফ্যাট থাকার কারণে হার্টের সমস্যায় এই দুধ খেতে বারণ করা হয়।

দুধে কি রক্তে শর্করা বাড়ে?

গরু, মহিষ বা ছাগলের দুধ যে প্রাণীরই হোক না কেন তা প্রাকৃতিকভাবে মিষ্টি। ফলে দুধ খেলে রক্তে সুগারের মাত্রা বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে একইসঙ্গে দুধে ফ্যাট ও প্রোটিন থাকার কারণে বিপদজনক নয় বলে জানিয়েছেন পুষ্টিবিদরা।

ডায়াবিটিস রোগীদের কি দুধ খাওয়া উচিত?

একাধিক গবেষণা বলছে, বিশুদ্ধ দুধ স্বাস্থ্যের জন্য দারুণ ভালো। এমনকী টাইপ ২ ডায়াবেটিসের ঝুঁকি ১১ থেকে ১৭ শতাংশ কমিয়ে দিতে পারে। বিশেষ করে দইয়ের মতো দুগ্ধজাত পণ্য ডায়াবেটিসে দারুণ উপকারী। এ কারণে ডায়াবেটিসে আক্রান্তরাও নির্দ্বিধায় দুধ খেতে পারেন। 

নিউজ ট্যাগ: ডায়াবেটিস

আরও খবর
২৯ ফেব্রুয়ারি: ইতিহাসের এই দিনে

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

আজকের রাশিফল: বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ফেনীতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ১ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রাজিব মাসুদ, ফেনী

Image

ফেনীতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দেবীপুর এলাকায় সিএনজি ফিলিং স্টেশনে অটোরিকশায় গ্যাস নেওয়ার সময় সিলিন্ডার বিস্ফোরণে একজন নিহত হয়েছেন। সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সাইদুল ইসলাম (৩০) দেবীপুর প্রাইম সিএনজি ফিলিং স্টেশনের কর্মচারী। তার গ্রামের বাড়ি ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলার রাধানগর ইউনিয়নের দক্ষিণ আঁধার মানিক গ্রামে। এ ঘটনায় জাহিদ আলম (২৭) নামে এক অটোরিকশা চালক আহত হয়েছেন। তাকে ফেনী ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

ফেনীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) থোয়াই অংপ্রু মারমা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, সকালে অটোরিকশা চালক ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের ফেনী সদর উপজেলার দেবীপুর প্রাইম সিএনজি ফিলিং স্টেশন গ্যাস নেওয়ার জন্য আসেন। সকাল ৭টার দিকে তার অটোরিকশার সিলিন্ডারে গ্যাস দেওয়ার এক পর্যায়ে সিলিন্ডার বিস্ফোরণ ঘটে। এ সময় ফিলিং স্টেশনের কর্মচারী সাইদুল ইসলাম বিস্ফোরণে মারাত্মকভাবে ঝলসে যান।

এ সময় পাশে দাঁড়ানো অটোরিকশা চালক জাহিদও আহত হয়। স্থানীয় লোকজন দ্রুত তাদের উদ্ধার করে ফেনী ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসক সাইদুল ইসলামকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিউজ ট্যাগ: ফেনী

আরও খবর



জেল থেকে জ্যাকলিনকে হুমকি দিচ্ছেন তার প্রেমিক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

নিজের নিরাপত্তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্দেজ। প্রেমিক সুকেশ চন্দ্রশেখরই নাকি এর জন্য দায়ী।

গেলো দুবছর ধরে আর্থিক তছরুপের কেসে জেলবন্দি জ্যাকলিন ফার্নান্দেজের প্রেমিক সুকেশ চন্দ্রশেখর। এ মুহূর্তে দিল্লির ম্যান্ডোলি জেলে বন্দি রয়েছেন তিনি। জেলে বসেই নাকি প্রতিনিয়ত হুমকি দিচ্ছেন জ্যাকলিনকে। আর তাতেই ভয় রয়েছেন জ্যাকলিন।

এবার সুকেশের বিরুদ্ধে দিল্লি পুলিশ কমিশনর সঞ্জয় অরোরার কাছে লিখিত অভিযোগ জমা দিলেন তিনি। তার অভিযোগের ভিত্তিকে দিল্লি পুলিশের একটি বিশেষ দল প্রাথমিক তদন্ত শুরুও করেছেন।

শোনা যায়, এক সময় নাকি কনম্যান সুকেশের প্রেমে পড়েছিলেন কিক খ্যাত অভিনেত্রী। সম্পর্কে থাকাকালীন সুকেশের কাছ থেকে একাধিক দামি উপহারও পেয়েছেন তিনি। সুকেশের সঙ্গে নাম জড়ানোর জেরে একাধিক বার বিতর্কের মুখে পড়েছেন জ্যাকলিন। প্রতারণাকাণ্ডের তদন্ত চলাকালীন একাধিক বার আদালতে হাজিরা দিতে হয়েছে অভিনেত্রীকে।

শুধু তাই-ই নয়, অভিনেত্রীর বিদেশযাত্রাতেও জারি করা হয়েছিল নিষেধাজ্ঞা। সেই নিষেধাজ্ঞা তোলা হয় গেলো বছর। সম্পর্কের কথা জ্যাকলিন যতই অস্বীকার করুন না কেন সুকেশে ছাড়ার পাত্র নয়। তিনি জেলে বসেই ক্রমাগত প্রেমপত্র লিখে গিয়েছেন অভিনেত্রীকে। তাতেই বিব্রত হয়েছেন জ্যাকলিন। সুকেশের প্রেমপত্র কখনও রয়েছে ভালবাসার কথা, কখনও ছিল প্রচ্ছন্ন হুমকি। অবশেষে দিল্লি পুলিশের দ্বারস্থ হয়ে অভিনেত্রী জানান, দ্রুত সুকেশের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে, এবং তার নিরাপত্তার দিকটা সুনিশ্চিত করতে।


আরও খবর
টেইলর সুইফট ইফেক্টে আক্রান্ত সিঙ্গাপুর

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




দুই ডোজ টিকা নিলেও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারেন: বিএসএসএমইউ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | অনলাইন সংস্করণ
স্বাস্থ্য ডেস্ক

Image

দুই ডোজ টিকা নিলেও করোনাভাইরাসের নতুন জেএন.১ সাব-ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যায়। মঙ্গলবার (২০ জানুয়ারি) করোনার সর্বশেষ জিনোম সিকোয়েন্সিং গবেষণার ফলাফল জানানোর সময় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএসএমইউ) উপাচার্য অধ্যাপক শরফুদ্দিন আহমেদ এ তথ্য জানান। 

আরও পড়ুন>> প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের দ্বিতীয় ধাপের ফল প্রকাশ

তিনি জানান, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এ বছরের শুরুতে নতুন এ সাব-ভ্যারিয়েন্টের কথা জানিয়েছে। বিএসএমএমইউ গত জানুয়ারির তৃতীয় সপ্তাহ থেকে ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত কোভিড আক্রান্ত ৪৮ রোগীর নমুনার জিনোম সিকোয়েন্সিং করেছে। গবেষণায় ৩ জনের নমুনায় সাব-ভ্যারিয়েন্ট জেএন.১ শনাক্ত করা হয়েছে। তাদের একজন সম্প্রতি দেশের বাইরে গিয়েছিলেন। তাদের আগেই করোনার দুই ডোজ টিকা নেওয়া ছিল।

অধ্যাপক শরফুদ্দিন বলেন, এ সাব-ভ্যারিয়েন্টের উপসর্গ করোনার অন্য ধরনগুলোর মতো। এতে আক্রান্তদের জ্বর, ঠান্ডা, গলাব্যাথা, মাথাব্যথা এবং হালকা কাশির হালকা উপসর্গ ছিল। তবে এর দীর্ঘমেয়াদী প্রভাব জানতে গবেষণা চালিয়ে যাওয়ার বিকল্প নেই। পাশাপাশি যাদের এ ধরনের হালকা উপসর্গ দেখা যাবে, তাদেরও কোভিড পরীক্ষা করা উচিত বলে পরামর্শ দেন তিনি।


আরও খবর



দুর্দান্ত ঢাকার ষষ্ঠ হারে সিলেটের দ্বিতীয় জয়

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

চলমান বিপিএলে টানা পাঁচ ম্যাচ হারের পর ষষ্ঠ ম্যাচে দুর্দান্ত ঢাকার বিপক্ষে জয়ের দেখা পেয়েছিল সিলেট স্ট্রাইকার্স। লিগ পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচেও রাজধানীর দলটি হারিয়েছে শান্ত-মিথুনরা। মিরপুরে নিজেদের অষ্টম ম্যাচে ঢাকাকে পাঁচ উইকেটে হারিয়েছে গতবারের রানার্স আপরা।

বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) টস জিতে জিতে দুর্দান্ত ঢাকাকে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানায় সিলেট স্ট্রাইকার্স। প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে শান্ত-মিথুনদের ১২৫ রানের লক্ষ্য দেয় তাসকিন-শরিফুলরা। জবাব দিতে নেমে ৬ বল ও পাঁচ উইকেট হাতে থাকতেই জয় তুলে নেয় সিলেট। এতে টানা ছয় ম্যাচ হারল দুর্দান্ত ঢাকা।

ছোট লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতে হোঁচট খায় সিলেট। ২ বলে শূন্য রান করে সামিত প্যাটেল এবং ৯ বলে ৮ রান করে সাজঘরে ফেরেন হ্যারি টেক্টর। তিন নম্বরে ব্যাট করতে এসে সিলেট শিবিরে হাল ধরেন নাজমুল হাসান শান্ত।

৯ বলে ৮ রান করে জাকির হাসান আউট হলে, শান্তকে সঙ্গ দেন অধিনায়ক মিথুন। তবে ইনিংস বড় করতে পারেননি সিলেট দলপতি। ১২ বলে ১৭ রান করে আউট হন এই ডানহাতি ব্যাটার। এরপর ২৫ বলে ৩৩ রান করে সাজঘরে ফেরেন শান্তও। 

আরও পড়ুন>> খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ

সপ্তম উইকেটে বেনি হাওয়েলকে সঙ্গে নিয়ে রান তুলতে থাকেন রাইয়ান বার্ল। দুজনের নিয়ন্ত্রিত ব্যাটিংয়ে জয়ের পথে গিয়ে যেতে থাকে সিলেট। শেষ পর্যন্ত বেনি হাওয়েলের ৩০ রান এবং রাইয়ান বার্লে ২৯ রানের ইনিংসে ভর করে ৬ বল এবং পাঁচ উইকেট হাতে থাকতেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় সিলেট। দুর্দান্ত ঢাকার হয়ে সর্বোচ্চ তিন উইকেট শিকার করেন শরিফুল ইসলাম। দুই উইকেট শিকার করেন উসমান কাদির।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিংয়ে শুরুতেই সাব্বির হোসেন আউট হলে, সাইফ হাসান ও নাঈম শেখের ব্যাটে ভর করে ভালো শুরু পায় দুর্দান্ত ঢাকা। দুজনের ব্যাট থেকে আসে ৭৮ রান। নাইম ৩৬ এবং ৪১ রানে সাইফ আউট হলে, উইকেট মিছিল শুরু করে বাকিরা। শেষ পর্যন্ত সাইম আইয়ুব (১০), লাসিথ ক্রসপুলে (১২) এবং তাসকিনের ৮ রানে ভর করে ১২৫ রানের লড়াকু পুঁজি পেয়েছিল দুর্দান্ত ঢাকা।


আরও খবর



প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি দেওয়া সৌদি যুবদল নেতা গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

২০২৩ সালের এপ্রিলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিদেশ সফরে ছিলেন। সেসময় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের অফিসিয়াল ইমেইল [email protected][email protected] নামের আইডি থেকে ইংরেজিতে একটি হুমকি বার্তা সম্বলিত ইমেইল আসে।

হুমকি বার্তায় বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ২৭ এপ্রিল ভোর ৪টায় গুলি করা হবে। তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি ডিএমপি ও পুলিশ সদর দপ্তরের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে জানানো হয়। ফলে বিদেশ সফরকালেই প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা বাড়ানো হয়।

এ ঘটনা সৌদি আরবে অবস্থানরত বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত ও সাবেক আইজিপি জাবেদ পাটোয়ারীর মাধ্যমে সৌদি সরকার এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে অবগত করা হয়। এরপর চলতি বছরের ২৯ জানুয়ারি দুজনকে শনাক্ত করে বাংলাদেশে পাঠানো হলে তাদের গ্রেপ্তার করে সিটিটিসি।

গ্রেপ্তাররা হলেন, সৌদি যুবদলের সভাপতি কবির হোসেন ও সহযোগী দীন ইসলাম।

সিটিটিসি বলছে, রাষ্ট্রীয় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির পাঁয়তারার অংশ হিসেবে খোদ প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছিল।

সিটিটিসি প্রধান ও ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মো. আসাদুজ্জামান রবিবার (০৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান।

সিটিটিসি জানায়, ইমেইলের সাবজেক্ট লাইনে লেখা ছিল- Prime Minister Sheikh Hasina will be shot at 4 am on April 27. Bangladesh police do not have the power to prevent this attack (২৭ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভোর ৪টায় গুলি করা হবে। বাংলাদেশ পুলিশের ক্ষমতা নেই এই হামলা ঠেকানোর)। ইমেইলের বডিতেও একই হুমকি বার্তা লেখা ছিল।

সিটিটিসি প্রধান বলেন, বিষয়টি অবহিত হওয়ার পর তাৎক্ষণিকভাবে হুমকি বার্তার ভয়াবহতা, জাতীয় নিরাপত্তা ও শান্তি-শৃংখলার স্বার্থে বিষয়টি নিয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করা হয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি বার্তামূলক ইমেইল প্রেরণকারীকে দ্রুত শনাক্ত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসার জন্য সিটিটিসি সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন ডিভিশনকে নির্দেশনা প্রদান করা হয়।

গোপনীয় অনুসন্ধান এবং প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণ শেষে ইমেইল বার্তা পাঠানো ব্যক্তিকে শনাক্ত করতে সক্ষম হয় সিটিটিসি। হুমকি বার্তা পাঠানো ব্যক্তির নাম দীন ইসলাম বাদল বলে নিশ্চিত হয় পুলিশ। হুমকি বার্তা প্রদানকারীর ইন্টারনেট (IP) অ্যাকটিভিটি পর্যালোচনা করে তার অবস্থান সৌদি আরব বলে তদন্তে নিশ্চিত হয় তদন্ত টিম।

এ ঘটনায় গত বছর ২০২৩ এর ২০ এপ্রিল ডিএমপি মিডিয়া পাবলিক রিলেশন সেন্টারের ইমেইলে প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকিদাতাসহ অজ্ঞাতনামা সহযোগীদের বিরুদ্ধে রমনা মডেল থানায় মামলা করে সিটিটিসি। যার মামলা নং ১৫।


আরও খবর