আজঃ শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

এক মাছের দাম চার লাখ টাকা!

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

Image

সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জে ধরা পড়েছে ২৫ কেজি ৩৬০ গ্রাম ওজনের জাভাভোল নামের একটি মাছ। এটির দাম চাওয়া হচ্ছে চার লাখ টাকা।

গতকাল রবিবার সন্ধ্যায় মাছটি নিয়ে জেলেরা লোকালয়ে আসলে উৎসুক জনতা ভিড় জমায়।

সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার বুড়িগোয়ালিনী গ্রামের আব্দুস সালাম নামের এক জেলে জানান, সুন্দরবনের মালঞ্চ নদীর ফিরিঙ্গি খালে শনিবার রাতে শুকুর আলীর জালে মাছটি ধরা পড়ে।

শুকুর আলী সাংবাদিকদের জানান, মাছটির ওজন ২৫ কেজি ৩৬০ গ্রাম। তিনি ৪ লাখ টাকায় মাছটি বিক্রি করবেন। এখন পর্যন্ত ব্যাপারীরা মাছটির দাম বলেছেন ৩ লাখ ৭৫ হাজার টাকা।

স্থানীয় মাছ ব্যবসায়ীরা জানান, জাভাভোল মাছ সহসা মেলে না। এছাড়া এই মাছের রয়েছে ঔষধি গুণ। এজন্য এ মাছের দাম বেশি। মাছ ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ওষুধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান এই মাছ কিনে নিয়ে যায়।

এই মাছের বৈজ্ঞানিক নাম প্রোটোনিবিয়া ডায়াকানথুস। এই মাছ মূলত সিঙ্গাপুর, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া এলাকায় পাওয়া যায়।


আরও খবর



বাংলাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা করতে হবে : পরিবেশমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনমন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী বলেছেন, বাংলা ভাষাকে জাতিসংঘের অন্যতম দাপ্তরিক ভাষা করতে হবে। ভাষাভাষী জনসংখ্যার দিক দিয়ে বাংলা পৃথিবীর সপ্তম বৃহত্তম ভাষা।

আজ বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের পক্ষে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন পরিবেশমন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, বিশ্বব্যাপী ভাষা অধিকার আন্দোলনে বাংলা ভাষা সংগ্রামীরাই অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন। ভাষা শহীদদের ত্যাগ ও বিসর্জন বিশ্বের কাছে অমূল্য। তাঁদের আত্মত্যাগের প্রেরণায় বাংলাদেশ আজ স্বাধীন ও গণতান্ত্রিক দেশ হিসেবে বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাড়িয়েছে। 

আরও পড়ুন>> সাম্প্রদায়িকতার বিষবৃক্ষ মুলোৎপাটনই আজকের দিনের অঙ্গীকার: ওবায়দুল কাদের

পরিবেশমন্ত্রী বলেন, ভাষা শহীদেরা বাংলা ভাষাকে কেবল অন্যতম রাষ্ট্রভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠাই করেননি, বরং আমাদের জাতীয়তাবোধ এবং মর্যাদা প্রতিষ্ঠার অতুলনীয় অবদান রেখেছেন। তাঁরা বাঙালি জাতির ঐক্য ও সংহতি দৃঢ় করেছেন এবং মাতৃভাষার প্রতি ভালোবাসা ও সম্মানের বীজ বপন করেছেন। তাঁদের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করতে বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে হবে। সর্বস্তরে মাতৃভাষার প্রসার ঘটাতে হবে। ভাষা শহীদদের স্মৃতি ধারণ করে পরিবেশ সুরক্ষায় সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. ফারহিনা আহমেদ, অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন) ইকবাল আব্দুল্লাহ হারুন, অতিরিক্ত সচিব (পরিবেশ) ড. ফাহমিদা খানম, বনশিল্প উন্নয়ন করপোরেশনের চেয়ারম্যান মো. নাসির উদ্দিন আহমেদ, বন অধিদপ্তরের প্রধান বনসংরক্ষক মো. আমীর হোসাইন চৌধুরী এবং পরিবেশ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক কাজী আবু তাহেরসহ মন্ত্রণালয় ও অধীন দপ্তরসমূহের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর
শপথ নিলেন নতুন ৭ প্রতিমন্ত্রী

শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪




পুতিনবিরোধী বরিস নাদেজদিনের প্রার্থিতা বাতিল

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ইউক্রেনের সঙ্গে যুদ্ধের বিরোধিতা করা বরিস নাদেজদিনের প্রার্থিতা বাতিল করে দিয়েছে রাশিয়ার নির্বাচন কমিশন। দেশটিতে আগামী মাসে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। খবর বিবিসি

ইউক্রেনের সঙ্গে যুদ্ধে ভ্লাদিমির পুতিনের কঠোর সমালোচক বরিস নাদেজদিন। তিনি নির্বাচন কমিশনের অভিযোগকে চ্যালেঞ্জ করার জন্য আবেদনপত্রের সঙ্গে জমা দেয়া ১৫ শতাংশ স্বাক্ষরকে ত্রুটিপূর্ণ বলেছেন। তবে নির্বাচন কমিশন তার এ অভিযোগকে অস্বীকার করেছে।

এদিকে নির্বাচন কমিশনের এমন পদক্ষেপের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ জানাতে রাশিয়ার সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হওয়ার ঘোষণা দিয়ে নাদেজদিন বলেন, পুরো রাশিয়া জুড়ে ২ লাখ স্বাক্ষর সংগ্রহ করেছি এবং এটি আমরা সততার সঙ্গেই করেছি।

রাশিয়ার কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, নাদেজদিনের জমা দেয়া স্বাক্ষরের মধ্যে ৯ হাজারই ভুয়া। রাশিয়াতে আগামী ১৫ থেকে ১৭ মার্চের মধ্যে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তবে এ নির্বাচনে কে জয়ী তা নিয়ে আর সন্দেহ থাকল না। কারণ ক্রেমলিম যাদেরকে নির্বাচনে প্রতিযোগিতা করার অনুমতি দিয়েছে তারাই এতে অংশ নিতে পারবেন। তবে নির্বাচনে চূড়ান্তভাবে কারা অংশ নিতে পারবেন তা আগামী শনিবার জানা যাবে।

২০২২ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনের অভিযান চালানোর পর থেকেই রাশিয়া সরকারের যে কয়জন সমালোচনা করছেন তার মধ্যে বরিস নাদেজদিন অন্যতম।

প্রেসিডেন্ট পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য নাদেজদিনের দৌড় ঝাঁপকে সন্দেহের চোখে দেখছেন দেশটির বিরোধীরা। তারপরও তাকে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছেন জেলে থাকা রাশিয়ার প্রধান বিরোধী দলের নেতা অ্যালেক্সি নাভালনি।

গত মাসে বিবিসিকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে নাদেজদিন বলেন, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতে পারলে তিনি প্রথম দিনই ইউক্রেনের সঙ্গে যুদ্ধ বন্ধ করবেন।

নিউজ ট্যাগ: বরিস নাদেজদিন

আরও খবর



ওপারে ভারী গোলাবর্ষণ, এপারে কাঁপছে ঘরবাড়ি

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
কক্সবাজার প্রতিনিধি

Image

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে আরাকান আর্মি ও সশস্ত্র বাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষে মর্টারশেল-গোলায় কাঁপছে কক্সবাজারের টেকনাফের নাফ নদ সীমান্ত। ওপারের মর্টারশেলে এপারের বাড়িঘর কাঁপছে। এতে সীমান্তের লোকজনের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) ভোর থেকে দুপুর পৌনে ২টা পর্যন্ত টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা, সাবরাং ও সেন্টমার্টিন সীমান্তে ভারী মর্টারশেলের শব্দ পায় স্থানীয় বাসিন্দারা। মর্টারশেলের আঘাতে এপারের সীমান্তে লোকজনের বাড়িঘর কাঁপছে।

টেকনাফ পৌরসভার নাফ নদের কাছাকাছি বসবাস করেন রুহুল আমিন। তিনি বলেন, শুক্রবার ভোর থেকে গোলাগুলির শব্দ পাওয়া যাচ্ছে। ভোরে অনেকের ঘুম ভেঙেছে ওপার থেকে আসা বিকট শব্দে। সীমান্তের ওপারে মিয়ানমারের বকশিপাড়া থেকে মুহুর্মুহু প্রচণ্ড গোলার বিকট শব্দ আসছে। ঘরবাড়ি কাঁপছে। অনেক সময় মনে হয় ভূমিকম্প হচ্ছে।

নাফ নদ এলাকার বাসিন্দারা জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত মিয়ানমার থেকে থেমে থেমে আসছে বিস্ফোরণের শব্দ। মিয়ানমারের আকাশে চক্কর দিতে দেখা গেছে হেলিকপ্টার। মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের মংডুর শহরকে ঘিরে চলছে এ সংঘাত। মেগিচং, কাদিরবিল, নুরুল্লাহপাড়া, মাংগালা ও ফাদংচা নামের গ্রামেই এসব বিস্ফোরণের বিকট শব্দ হচ্ছে। এসব এলাকা মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিপির কয়েকটি ফাঁড়ি রয়েছে। যেগুলোর দখল নেওয়ার চেষ্টা করছে বিদ্রোহীরা।

টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুর হোছাইন বলেন, নাফ নদের পূর্ব ও দক্ষিণাংশের ওপারে মিয়ানমার সীমান্তে গতকাল রাতভর থেমে থেমে গোলাগুলির আওয়াজ শোনা গেছে। আজ সকালে দুটি বিকট শব্দে এপারের মাটি কেঁপে ওঠে। দুপুর পর্যন্ত থেমে থেমে বিস্ফোরণের শব্দ আসছিল।

সেন্টমার্টিন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান বলেন, শুক্রবার ভোর থেকে দুপুর পর্যন্ত মিয়ানমার সীমান্ত এলাকায় থেমে থেমে গোলাগুলি হওয়ার আওয়াজ শুনতে পান তারা। মাঝে মধ্যে মাটি কাঁপানো শব্দও শুনেছেন তারা।

শাহপরীর দ্বীপের আব্দুল আমিন বলেন, শাহপরীর দ্বীপের ওপারে মিয়ানমারের মংডুতে আজ সকালে হেলিকপ্টার উড়তে দেখা গেছে। এর কিছুক্ষণ পর বিকট দুটি শব্দে কেঁপে ওঠে সীমান্ত এলাকা।

শাহপরীর দ্বীপ ক্যাম্প পাড়ার বাসিন্দা আব্দুল মোতালেব বলেন, মিয়ানমারে রাতভর থেমে থেমে গোলাগুলির শব্দ পাওয়া গেছে। সকালে দুটি বিকট শব্দে এপারের মাটি কেঁপে উঠেছে। এখনও থেমে থেমে আসছে শব্দ।

টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আবদুস সালাম বলেন, স্থানীয় লোকজন আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন। কারণ, সম্প্রতি বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি এলাকার বিভিন্ন জায়গায় মিয়ানমারের অভ্যন্তরের সমস্যায় দুগ্রুপের মধ্যে গোলাগুলিতে হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। এপারেও গুলি আসবে- এমন আতঙ্ক ছড়িয়েছে স্থানীয়দের মধ্যে।

বিজিবির টেকনাফস্থ ২ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. মহি উদ্দিন আহমেদ বলেন, মিয়ানমারের অভ্যন্তরে রাতভর গোলাগুলির শব্দ শুনতে পেয়েছেন সীমান্তে থাকা বিজিবির সদস্যরা। নাফ নদ সীমান্তে বিজিবির টহল জোরদার করা হয়েছে।

টেকনাফে উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আদনান চৌধুরী বলেন, মিয়ানমারের সংঘাতময় পরিস্থিতির কারণে বিজিবি ও কোস্টগার্ডের টহল বাড়ানো হয়েছে সীমান্ত এলাকায় বসবাসরত মানুষকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।


আরও খবর



হুথিদের হুঙ্কার, হামলার জবাব হামলা দিয়েই দেওয়া হবে

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

লোহিত সাগরে জাহাজ চলাচল নিয়ে উত্তেজনাকর পরিস্থিতির জেরে ইয়েমেনের সশস্ত্র হুথি বিদ্রোহী গোষ্ঠীর ৩৬টি লক্ষ্যবস্তুতে শনিবার (০৩ ফেব্রুয়ারি) রাতে হামলা চালিয়েছে আমেরিকা ও ব্রিটেন।

তবে এসব হামলার জবাব হামলা দিয়েই দেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে বিদ্রোহী গোষ্ঠীটি। হুথির রাজনৈতিক পরিষদের অন্যতম শীর্ষ নেতা মোহাম্মদ আল বুখাইতি এই হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে (সাবেক টুইটার) মোহাম্মদ আল বুখাইতি বলেন, ফিলিস্তিনের গাজার অবরোধ প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত হুথি গোষ্ঠীর এই সামরিক অভিযান অব্যাহত থাকবে। ইয়েমেনে সর্বশেষ মার্কিন ও ব্রিটিশ হামলার জবাব দেওয়া হবে।

এ সময় তিনি বলেন, উত্তেজনার (হামলার) জবাব উত্তেজনা (হামলা) দিয়ে দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, ইয়েমেনের বেশ কয়েকটি প্রদেশে মার্কিন-ব্রিটিশ জোটের বোমা হামলা আমাদের অবস্থানের পরিবর্তন করবে না। আমরা নিশ্চিত করছি যে, গাজায় গণহত্যা বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত এবং এর বাসিন্দাদের উপর চাপিয়ে দেওয়া অবরোধ তুলে না নেওয়া পর্যন্ত ইসরায়েলের বিরুদ্ধে আমাদের সামরিক অভিযান অব্যাহত থাকবে। এজন্য আমাদের যত ত্যাগের প্রয়োজন আমরা করব।

তিনি আরও বলেন, আমাদের যুদ্ধ নৈতিক। আমরা যদি গাজায় নিপীড়িতদের সমর্থন করার জন্য হস্তক্ষেপ না করতাম, তাহলে মানুষের মধ্যে মানবতা থাকত না। ইয়েমেনের বিরুদ্ধে আমেরিকান-ব্রিটিশ আগ্রাসন বিনা জবাবে পার পাবে না। আমরা উত্তেজনার জবাব উত্তেজনা দিয়েই দিব।


আরও খবর



রূপগঞ্জে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রূপগঞ্জ (নারায়নগঞ্জ) প্রতিনিধি

Image

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার ভুলতা গাউছিয়া এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ১ হাজার অবৈধ স্থাপনা ও দোকান পাট উচ্ছেদ করা হয়েছে।

শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) উপজেলা নির্বাহী অফিসার আহসান মাহমুদ রাসেল এর নেতৃত্বে নারায়ণগঞ্জ জেলা এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট আরাফাত নোমান এ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন রূপগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট সীমন সরকার, রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা, ভুলতা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমান, হাইওয়ে পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ আলী আশরাফ মোল্লা, রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সৈয়দা ফেরদৌসী আলম নীলা, ভুলতা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আরিফুল হক ভুইয়া, গোলাকান্দাইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল হাসান তুহিনসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, মার্কেট মালিক পক্ষের প্রতিনিধিসহ পুলিশ ও আনসার সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। 

অভিযানে মহাসড়কের উপর অবৈধভাবে গড়ে ওঠা  কাপড়, জুতা,  সবজি, ফল, মাছসহ বিভিন্ন ধরনের সহস্রাধিক দোকান পাট উচ্ছেদ করে মহাসড়ক ও ফুটপাত দখলমুক্ত করা হয়।


আরও খবর