আজঃ বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১
শিরোনাম

একদিনে রেকর্ড ৬ হাজার মৃত্যু ভারতে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১০ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১০ জুন ২০২১ | ১৩৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মহামারী করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ গত কয়েকটা দিন কিছুটা স্তিমিত হলেও গত দুই দিনে তা আবারও তাণ্ডব চালিয়েছে। টিকা কার্যক্রম চললেও তাই থামছে না মৃত্যুর মিছিল। যে মিছিলে গত ২৪ ঘণ্টায় শামিল হয়েছে আরও ১৩ হাজার ৬৮৯ জন। যার মধ্যে রেকর্ড ৬ হাজার ১৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে ভারতে। এই সময়ে দেশটিতে শনাক্ত হয়েছে আরও ৯৪ হাজার ৫২ জন।   

করোনা আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যানবিষয়ক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, এ নিয়ে বিশ্বে এ পর্যন্ত করোনা রোগীর মোট সংখ্যা ১৭ কোটি ৫১ লাখ ৫৮ হাজার ৭৫০। যাদের মধ্যে মারা গেছে ৩৭ লাখ ৭৬ হাজার ২৬১ জন। এ পর্যন্ত ভাইরাসটির সংক্রমণ থেকে ১৫ কোটি ৮৯ লাখ ৫৯ হাজার ১২৮ জন সুস্থ হলেও সক্রিয় রোগীর সংখ্যা এখনও ১ কোটি ২৪ লাখ ২৩ হাজার ৩৬১ জন।

বিশ্বে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় সবার ওপরে থাকা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছে ১৪ হাজার ১৫৬ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৪৫২ জনের। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩ কোটি ৪২ লাখ ৬৪ হাজার ৬৮২। যার মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ১৩ হাজার ৫০৭ জনের। চিকিৎসাধীন ৫৩ লাখ ৯৭ হাজার ১৩০ জন।

এর পরের স্থানেই অবস্থান করা এশিয়ার জনবহুল দেশ ভারতে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা বিশ্বে সর্বোচ্চ। তবে গত ২৪ ঘণ্টাতেই প্রাণহানি ঘটেছে রেকর্ড ৬ হাজার ১৩৮ জনের। যা আগের ২৪ ঘণ্টায় ছিল ২ হাজার ২১৩ জন। এ সময়ে নতুন করে শনাক্ত হয়েছে আরও ৯৩ হাজার ৮৯৬ জন, যা আগের ২৪ ঘণ্টায় ছিল ৯১ হাজার ২২৭ জন। যাতে এ পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৯১ লাখ ৮২ হাজার ৭২ জনে। আর মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৫৯ হাজার ৬৯৫ জনের। চিকিৎসাধীন ১১ লাখ ৮৩ হাজার ৪৭৫ জন।

তালিকার তৃতীয় স্থানে থাকা ল্যাটিন আমেরিকার ফুটবলপ্রিয় দেশ ব্রাজিলে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৪৮৪ জনের এবং শনাক্ত হয়েছে ৮৭ হাজার ৯৭ জন। যা নিয়ে দেশটিতে এখন মোট মৃতের সংখ্যা ৪ লাখ ৭৯ হাজার ৭৯১ আর মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ৭১ লাখ ২৫ হাজার ৩৫৭। চিকিৎসাধীন ১০ লাখ ৪৮ হাজার ৭৫০ জন।

তালিকায় এরপরের স্থানে থাকা ফ্রান্স, তুরস্ক, রাশিয়া, যুক্তরাজ্য ও ইতালিতে সংক্রমণের সংখ্যা ৪০ থেকে ৬০ লাখের মধ্যে থাকলেও তুরস্ক বাদে অপর দেশগুলোতে মৃত্যু লাখ ছাড়িয়েছে। তবে সংক্রমণে ১৫ নম্বরে থাকা মেক্সিকোতে মৃত্যুর সংখ্যা ২ লাখ ২৯ হাজার ১শ ছাড়িয়েছে। আর ৩২ নম্বরে উঠে আসা বাংলাদেশে মৃত্যুর সংখ্যা ১৩ হাজার ছুঁইছুঁই।



আরও খবর
করোনার ডেল্টা প্লাসে প্রথম মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১




বৃষ্টি বাড়বে যেদিন থেকে

প্রকাশিত:শনিবার ০৫ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৫ জুন ২০২১ | ২০৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
রবিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত আবহাওয়া পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঢাকা, চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায়; রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের কিছু কিছু এবং খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে

মৌসুমি বায়ু বর্ষাকালে দেশের আকাশে অবস্থান করায় বৃষ্টিপাত হয়ে থাকে। এই বায়ু এখন মিয়ানমারের দিকে আছে। এটি আগামী সোমবার দেশের টেকনাফ আকাশে প্রবেশ করবে। এ কারণে বাড়বে বৃষ্টি। তবে বর্ষার ঝুম বৃষ্টি জুনের মাঝামাঝির দিকে হতে পারে। শনিবার আবহাওয়া অধিদপ্তর এসব তথ্য দিয়েছে।

আবহাওয়াবিদ মো. শাহীনুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুন উপকূলে এখন অবস্থান করছে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু। আগামী ২-৩ দিনের মধ্যে বাংলাদেশের টেকনাফ উপকূলে পৌঁছতে পারে এই বায়ু। এর প্রভাবে দেশের দক্ষিণাংশে ৭ জুনের (সোমবার) পর থেকে বৃষ্টি বাড়তে থাকবে। বায়ু শক্তিশালী হলে বৃষ্টিপাতও বেশি হবে।

এই আবহাওয়াবিদ জানান, বৃষ্টি প্রথম বাড়বে দেশের দক্ষিণাঞ্চল বরিশাল, খুলনা ও চট্টগ্রামে। পাশাপাশি একই সময়ে বাড়বে ময়মনসিংহ ও সিলেটে। এরপর সেই বায়ু দেশের মাঝামাঝি চলে আসতে পারে। পরে দক্ষিণ-পশ্চিম এ মৌসুমি বায়ু ধীরে ধীরে বাংলাদেশ পার হয়ে ভারতের মাঝামাঝি একটা স্থানে গিয়ে থেমে থাকে। ৩-৪ মাস সেখানে অবস্থান করে সরে যায়। সেই পর্যন্ত বাংলাদেশ-ভারত অঞ্চলে বৃষ্টিপাত বেশি হয়।

আবহাওয়াবিদরা বর্ষা মৌসুম শুরুর আগে হালকা বৃষ্টিকে ট্রানজিশন পিরিয়ড বলেন। বর্তমানে সেই ট্রানজিশন পিরিয়ড চলছে, যেখানে পশ্চিমা লঘুচাপের প্রভাবে দেশে এখন মাঝেমধ্যে বৃষ্টি হচ্ছে। সে কারণে আজও (শনিবার) ঢাকায় ভোরের দিকে ও দুপুরে বৃষ্টি হয়েছে।

গত রাতেও (শুক্রবার) ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম, সিলেট ও রাজশাহীতে বৃষ্টি হয়েছে। তবে সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে সিলেটে, সেখানে ১০৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। এ ছাড়া ময়মনসিংহের নেত্রকোনায় ২০ মিলিমিটার ও ময়মনসিংহ অঞ্চলে ৪৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

রবিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত আবহাওয়া পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঢাকা, চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায়; রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের কিছু কিছু এবং খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে সারা দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে।

এ ছাড়া রংপুর, দিনাজপুর, নীলফামারী, চাঁদপুর জেলাসহ ঢাকা, রাজশাহী ও খুলনা বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং এটি কিছু এলাকায় কমতে পারে। পাশাপাশি সারা দেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে বলে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে।


আরও খবর



ইসরায়েলের নতুন সরকার প্রধান হচ্ছেন নাফতালি বেনেত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৩ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৩ জুন ২০২১ | ৮৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

অবশেষে নেতানিয়াহুকে হটাতে ইসরায়েলের বিরোধীদলগুলো সরকার গঠনে একমত হয়েছে। দেশটির বিরোধী ৮ দল জোট সরকার গঠন করলো। ইসরায়েলের নতুন সরকারের প্রধান হচ্ছেন ইয়ামিনা দলের প্রধান নাফতালি বেনেত।

কাতার ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আলজাজিরার বরাতে জানা যায়, ইসরায়েলের রাষ্ট্রপতির কার্যালয় থেকে জানানো হয়েছে ডানপন্থী ইয়ামিনা দলের প্রধান বেনেত পরবর্তী ইস্রায়েলি প্রধানমন্ত্রী হিসাবে দায়িত্ব পালন করবেন এবং লাপিদ বিকল্প প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করবেন

টুইটারে এক বিবৃতিতে ইয়ার লাপিদ বলেন, এই সরকার ইসরায়েলি সমাজ কে ঐক্যবদ্ধ করতে বদ্ধপরিকর। নতুন সরকার সবার জন্য কাজ করবে, যারা আমাদের পক্ষে তাদের জন্য যারা আমাদের পক্ষে না তাদের জন্যও।

দেশটির অতি ডানপন্থী নেতা নেফতালি বেনেতের নেতৃত্বাধীন ইয়ামিনা পার্টির সঙ্গে সেন্ট্রিস্ট পার্টির নেতা ইয়ার ল্যাপিড ঐক্য করার পর এই জোট সরকার গঠনের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হলো। তবে দেশটির সরকার হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার আগে সংসদীয় ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত হয়ে ক্ষমতায় বসতে হবে। এর মধ্য দিয়ে ইসরায়েলে অবসান হতে চলেছে বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর ১২ বছরের শাসন।



আরও খবর
করোনার ডেল্টা প্লাসে প্রথম মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১




ভারতে স্যানিটাইজার কারখানায় ভয়াবহ আগুনে নিহত ১৮

প্রকাশিত:সোমবার ০৭ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৭ জুন ২০২১ | ৯১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারতের পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ মহারাষ্ট্রের পুনের একটি স্যানিটাইজার তৈরির কারখানায় আগুন লেগে অন্তত ১৮ জন মারা গেছেন। এ ঘটনায় কারখানার বেশ কয়েকজন শ্রমিক নিখোঁজ রয়েছেন। খবর এনডিটিভি।

সোমবার মহারাষ্ট্রের একটি কারখানায় ভয়াবহ এ অগ্নিকাণ্ড ঘটে।

বার্তা সংস্থা পিটিআইয়ের খবর অনুসারে, পুনের এসভিএস অ্যাকুয়া টেকনোলজিসের একটি প্ল্যান্টে দুপুরের দিকে আগুন লাগে। ফায়ার সার্ভিসের ছয়টি গাড়ি উদ্ধারকাজে অংশ নিয়েছে।

স্থানীয় দমকল বিভাগ এনডিটিভিকে জানিয়েছে, কারখানায় আগুন লাগার সময় ৩৭ জন কর্মী কাজ করছিল। ২০ জন শ্রমিককে উদ্ধার করা হয়। ১৮ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।


আরও খবর
করোনার ডেল্টা প্লাসে প্রথম মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১




সাতক্ষীরায় দ্বিতীয় দফায় লকডাউন চলছে

প্রকাশিত:রবিবার ১৩ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৩ জুন ২০২১ | ৮২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সাতক্ষীরায় দ্বিতীয় দফায় লকডাউন চলছে। আজ রোববার সকাল থেকে ব্যারিকেড বসিয়ে জনসমাগম ও যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করছে পুলিশ। তবে লকডাউনে খানিকটা ঢিলেঢালাভাব দেখা গেছে। জরুরি সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান খোলা রয়েছে। এ ছাড়া খুলনা ও যশোর থেকে সাতক্ষীরায় প্রবেশের পথ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

এদিকে, সাতক্ষীরায় করোনা সংক্রমণের হার আশঙ্কাজনক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। আজ রোববার সকাল পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় সাতক্ষীরায় ৮১ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৫২ জনের করোনা পজিটিভ এসেছে। শনাক্তের হার ৬৪ দশমিক ২০ শতাংশ।

সাতক্ষীরায় পর্যাপ্ত চিকিৎসক ও শয্যা সংকটে করোনা রোগীদের চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছে স্বাস্থ্য বিভাগ। বর্তমানে জেলায় ৬৮৩ জন কোভিড রোগী রয়েছে। তাদের মধ্যে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৫০ জন ও সদর হাসপাতালে ৩৫ জন চিকিৎসাধীন। অন্য রোগীরা প্রাতিষ্ঠানিক ও পারিবারিক কোয়ারেন্টিনে রয়েছে।

সাতক্ষীরার সিভিল সার্জন ডা. হুসাইন শাফায়েত জানান, মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কোভিড রোগীদের জন্য আটটি আইসোলেশন ও ১৩৫টি শয্যা ছাড়াও আট শয্যার নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ) রয়েছে। এ ছাড়া সদর হাসপাতালের করোনা ইউনিটে শয্যা রয়েছে মাত্র ৩৫টি। আরও শয্যা ও জনবল না থাকায় চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন চিকিৎসকেরা।


আরও খবর



শরীয়তপুরের ডামুড্যায় মুক্তিযোদ্ধাকে লাঞ্চিত করার প্রতিবাদে মানববন্ধন

প্রকাশিত:সোমবার ৩১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ৩১ মে ২০২১ | ১২৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শরীয়তপুর প্রতিনিধি:

শরীয়তপুরের ডামুড্যায় বীর মুক্তিযোদ্ধা খলিল বেপারীকে লাঞ্চিত করার প্রতিবাদে ওয়াসিম মাদবরের বিরুদ্ধে মানববন্ধন, মিছিল ও সমাবেশ করা হয়েছে।

জানা যায়, বুধবার(২৬ মে) সন্ধ্যার পর বীর মুক্তিযোদ্ধা খলিল বেপারী স্থানীয় সেলিম ফকিরের চায়ের দোকানে চা খেতে যায়। আগে থেকেই প্রস্তুত হয়ে থাকা ইসলামপুরের ওয়াসিম মাদবর গংরা খলিল বেপারীকে বেধড়ক মারধর করতে থাকে। মারধরের এক পর্যায়ে তাকে ভ্যান গাড়ির সাথে চেপে ধরে তার মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয়। মারধরের সময় তাকে জুতা দিয়েও পেটানো হয় বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

এঘটনায় সোমবার(৩১ মে) সকাল ১১ টায় ডামুড্যা উপজেলা শহীদ মিনার চত্তরে উপজেলার সকল মুক্তিযোদ্ধার পরিবার, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে মানববন্ধন, মিছিল ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে। সমাবেশে বক্তারা ২৪ ঘন্টার মধ্যে মূল অপরাধীকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার দাবী জানান। যদি তাদের গ্রেফতার করতে প্রশাসন  ব্যর্থ হয়, তাহলে কঠিন থেকে কঠিনতর কর্মসূচি দেবেন বলে হুশিয়ারি দেন।

মানববন্ধনে শরীয়তপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমিটির সভাপতি, জেলা পরিষদের সদস্য, পূর্ব মাদারীপুর কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি আবুল মনসুর আজাদ শামিম খান বলেন, গত কয়েক দিন আগে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান, দেশ মাতৃকার মাথার মুকুট বীর মুক্তিযোদ্ধা খলিল বেপারীকে রক্তাক্ত করে লাঞ্চিত করা হয়েছে। কিন্তু ৫ দিন অতিবাহিত হয়ে যাওয়ার পরও কোনো আসামি গ্রেফতার করা হয়নি। উল্টো আসামী পক্ষের লোকজন খলিল বেপারীকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করতেছে। প্রশাসনের ভূমিকায় আমরা হতাশ, আমরা শুধু বলব অতি দ্রুত আসামীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হোক।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বাতেন হাওলাদার, বীর মুক্তিযোদ্ধা আ. রব ফকির, বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল হক সরদার, বীর মুক্তিযোদ্ধা সালাহ উদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ইসমাঈল বেপারী, বীর মুক্তিযোদ্ধা হাসেম বেপারীসহ উপজেলার প্রায় সকল মুক্তিযোদ্ধা, তাদের পরিবার ও অঙ্গ-সংঠনসমূহ।


আরও খবর