আজঃ শনিবার ২২ জুন ২০২৪
শিরোনাম

ফার্মেসিতে নরমাল ডেলিভারি করাতে গিয়ে গৃহবধূর মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
জুয়েল বসুনীয়া, নীলফামারী

Image

নীলফামারী জেলার ডোমার উপজেলার ভোগডাবুরী ইউনিয়নের গোঁসাইগঞ্জে রেজিস্টার বিহীন শামীম ফার্মেন্সিতে চতুর্থ বার ডেলিভেরি করতে গিয়ে তিন সন্তানের জননী মমতাজ বেগমের মৃত্যু ঘটেছে।

শনিবার সকাল দশটায় শামীম ফামেন্সির তত্ত্বাবধায়ক সুইটি বেগম নরমাল ডেলিভেরি পর মমতাজ বেগমের রক্ত খনন বন্ধ করতে না পারায় তার মৃত্যু ঘটেছে বলে স্থানীয়দের দাবি। মমতাজ বেগম ভোগডাবুরী ইউনিয়নের সবুজপাড়া গ্রামের আব্দুস সুবহানের স্ত্রী।

স্থানীয়রা আরো বলেন, সুইটি বেগম দীর্ঘদিন থেকে তার রেজিস্টার বিহীন শামীম ফার্মেন্সিতে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়ে নরমাল ডেলিভারি করে আসছে। ইতোপূর্বে ওই ফার্মেসীতে নরমাল ডেলিভারি করতে গিয়ে একাধিক মা ও শিশু মৃত্যু ঘটেছে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে হস্তক্ষেপ না নেওয়ায় সুইটি বেগম স্থানীয় গ্রাম্য ডাক্তারদের সহযোগিতায় বেপরোয়া ভাবে তার কার্যক্রম চালিয়ে আসছে।

সুইটির স্বামী মোকলেসার রহমান বলেন, সুইটি ওই রোগীর গায়ে হাত দেওয়ার আগেই মমতাজ বেগমের সন্তান প্রসব হয়েছে। সন্তান প্রসবের পর তার খিচুনি দেখা দিলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়। তবে তিনি রক্তক্ষরণের কথা অস্বীকার করেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা ডাঃ রায়হান বারী বলেন, ভুক্তভোগী পরিবার থেকে অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ওই ফার্মেসির বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজ ট্যাগ: নীলফামারী

আরও খবর



সোনার দাম ভরিতে বাড়ল ১০৭৩ টাকা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

Image

কয়েক দফা কমার পর এবার দেশের বাজারে সোনার দাম বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন (বাজুস)। সবচেয়ে ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের এক ভরি (১১ দশমিক ৬৬৪ গ্রাম) সোনার দাম এক হাজার ৭৩ টাকা বাড়িয়ে নতুন মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে এক লাখ ১৬ হাজার ৯৫৫ টাকা। এতদিন যা ছিল ১ লাখ ১৫ হাজার ৮৮২ টাকা।

মঙ্গলবার (১১ জুন) বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বাজুস) মূল্য নির্ধারণ ও মূল্য পর্যবেক্ষণ স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান মাসুদুর রহমানের সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, স্থানীয় বাজারে তেজাবী সোনার দাম বেড়েছে। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় সোনার নতুন দাম নির্ধারণ করা হয়েছে। যা আগামীকাল বুধবার (১২ জুন) থেকে কার্যকর হবে।

নতুন দাম অনুযায়ী, সবচেয়ে ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি (১১.৬৬৪ গ্রাম) সোনা এক লাখ ১৬ হাজার ৯৫৫ টাকা, ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি সোনার দাম এক লাখ ১১ হাজার ৬৩৬ টাকা, ১৮ ক্যারেটের ৯৫ হাজার ৬৯১ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির সোনার দাম ৭৯ হাজার ১১৭ টাকায় বিক্রি করা হবে।

সোনার দাম বাড়ানো হ‌লেও অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে রূপার দাম। ক্যাটাগরি অনুযায়ী বর্তমানে ২২ ক্যারেটে প্রতি ভরি রুপার দাম দুই হাজার ১০০ টাকা, ২১ ক্যারেটের দাম দুই হাজার ৬ টাকা, ১৮ ক্যারেটের দাম এক হাজার ৭১৫ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির রুপার দাম এক হাজার ২৮৩ টাকা।

আজ (মঙ্গলবার) ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি (১১.৬৬৪ গ্রাম) সোনা বিক্রি হয়েছে এক লাখ ১৫ হাজার ৮৮২ টাকায়। এ ছাড়া ২১ ক্যারেটের সোনার ভরি এক লাখ ১০ হাজার ৬১০ টাকা, ১৮ ক্যারেটের ৯৪ হাজার ৮১৭ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির সোনা ৭৮ হাজার ৩৮২ টাকায় বিক্রি হয়েছে।


আরও খবর



ছুটির দিনগুলোকে যেভাবে উপভোগ্য করে তুলবেন

প্রকাশিত:রবিবার ১৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৬ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জীবন ধারা ডেস্ক

Image

শুরু হয়েছে ঈদের ছুটি। ঈদের ছুটির সঙ্গে আরও ২-৩ দিন ক্যাজুয়াল লিভ নিয়ে কিছুদিন বেশ আনন্দে কাটাতে পারেন। পরিবারের সঙ্গে সময় যাপন করতে পারেন। আবার নিজেকে সময় দিতে পারেন নিজের মতো করে। ইচ্ছেমতো আলসেমিও করতে পারেন। কাজের ব্যস্ততায় যারা ঠিকঠাক ঘুমাতে পারেন না, ছুটিতে মর্জিমতো ঘুমিয়েও নিতে পারেন। যাই করেন না কেন, দিনগুলোকে আনন্দময় করে তুলুন।

পারিবারিক পরিবেশে আড্ডা: ঈদের ছুটিতে পরিবারকে সময় দিন। বাবা-মা, ভাই-বোন, স্ত্রী-সন্তান, আত্মীয়-স্বজন সবাইকে নিয়ে ব্যস্ত থাকুন। আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে যান। তাদের দাওয়াত দিন। শহুরে জীবন যাপনে একক পরিবারের সংখ্যাই বেশি। আর একক পরিবারে বাস করতে করতে একাকীত্বতা ভর করে। ছুটিতে গ্রামে যান কিংবা শহরে থাকুন, দিনগুলো পরিবার ও আত্মীয়দের সঙ্গে কাটান। গল্প-গুজব, অতীত স্মৃতি রোমন্থন, হাসি-ঠাট্টা ছাড়াও বিভিন্ন ধরনের খেলা খেলতে পারেন। লুডু, দাবা, বালিশ খেলা, ক্যারাম ইত্যাদির মাধ্যমে দিনগুলোকে রঙিন করতে পারেন। সন্তানকেও তার বন্ধু, চাচাতো ভাই বোনদের সঙ্গে খেলতে দিন।

পছন্দের রান্না: ইদ-উল-আজহা মানেই ভরপুর খাওয়া দাওয়ার আয়োজন। গরুর মাংসের বাহারি পদ এসময়ই মানানসই। ঈদের দিন সকালে নিজের পছন্দমতো কোনো পদ রান্না করতে পারেন। যেমন আমের পুডিং, সাবুদানার ডেজার্ট, নবাবী সেমাই, শাহী জর্দা সেমাই ইত্যাদি। দুপুর কিংবা রাতে গরুর মাংসের স্টেক, রেইনবো বিফ কারি, চুই ঝালে গরুর মাংস, আচারি মাংস, কালাভুনা ইত্যাদি কোনো একটি বা দুটি পদ রাঁধতে পারেন। এক্সপেরিমেন্টাল অন্যান্য পদও রান্না করতে পারেন। পরিবারের অন্যদের সাহায্য নিতে পারেন। প্রয়োজনে পরিবারের ছোটদের সাহায্য নিন। এতে তাদের সময়টাও বেশ আনন্দে কাটবে।

ঘুরাঘুরি চাই-ই চাই: ঈদের ছুটিতে ঘুরাঘুরি হবে না, তা কী করে হয়। যদি ছুটিতে ঢাকাতেই থাকেন তাহলে ডে লং ট্যুরে যেতে পারেন। জিন্দা পার্ক, পানাম সিটি, ড্রিম হলিডে পার্ক, বালিয়াটি জমিদার বাড়ি, মহেরা জমিদার বাড়ি, গোলাপগ্রাম, ফ্যান্টাসি কিংডম ইত্যাদি জায়গা থেকে ঘুরে আসতে পারেন। তবে যাওয়ার আগে দেখবেন ভ্রমণস্থানগুলো খোলা আছে কিনা। শিশুদের নিয়ে চিড়িয়াখানা কিংবা জাদুঘরেও চলে যেতে পারেন। পুবাইল-গাজীপুরের দিকে অনেক রিসোর্ট আছে। পরিবার ও আত্মীয়দের নিয়ে কোনো একটি রিসোর্টেও যেতে পারেন। যদি ঈদে গ্রামের বাড়িতে যান, তাহলে নিজ জেলার ঐতিহ্যবাহী স্থানগুলোতে বেড়ান।

প্রিয় সিনেমা, ওয়েব সিরিজ: ঈদের আনন্দকে বাড়াতে সিনেমা হল কিংবা সিনেপ্লেক্সে সিনেমা দেখতে যেতে পারেন। যদি একান্তই যেতে না পারেন, তাহলে বাসায়ই সবার সঙ্গে একত্রে প্রিয় সিনেমা দেখুন। দেখতে পারেন প্রিয় ওয়েব সিরিজও। এতে সুন্দর সময় কাটবে। হৈচৈ, নেটফ্লিক্স, চরকি, বায়োস্কোপ, বিঞ্জ, দীপ্ত প্লেসহ অনেক ওটিটি প্ল্যাটফর্মে চোখ রাখতে পারেন। দারুণ কিছু পেয়ে যাবেন।

বই পড়ুন: ব্যস্ততার কারণে যে বই পড়া হয়নি, যে বই অর্ধেক শেষ করে পুরোটার স্বাদ নেওয়া হয়নি, সেগুলো পড়ে ফেলতে পারেন। পড়া শেষ হলে অন্যকে বই পড়তে উৎসাহী করে তুলুন। বইয়ের সঙ্গে সময় বেশ ভালো কাটবে। 

নিজের যত্ন নিতে ভুলবেন না: ঈদের ভারি খাবার খেয়ে নিজের যত্ন নিতে ভুলবেন না। মজাদার খাবার খাওয়ার সাথে সাথে শরীরচর্চা করা, হাঁটার কথা ভুলবেন না। অনেক কাজ করে যদি হাতে-পায়ে ময়লা জমে যায়, তবে কুসুম গরম পানির সঙ্গে লেবু মিশিয়ে কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রাখুন। ৮-১০ মিনিট পর তা আলতো করে ঘষে ধুয়ে নিন। রান্নাঘর ও রোদে যাওয়ার আগে সানস্ক্রিন ক্রিম লাগান। ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে ঘরোয়া উপাদান দিয়ে রূপচর্চা করুন।

নিউজ ট্যাগ: ঈদের ছুটি

আরও খবর



শিবপুরে দুর্বৃত্তের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে যুবক নিহত

প্রকাশিত:সোমবার ১০ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১০ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নরসিংদী প্রতিনিধি

Image

নরসিংদীর শিবপুরে দুর্বৃত্তের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আহমদুল কবির (৩৭) নামে এক যুবক নিহত হয়েছে।

রোববার (৯ জুন) দিবাগত রাতের কোন একসময় উপজেলার চক্রধা ইউনিয়নের বাড়ৈগাও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এই ঘটনা ঘটে।

সোমবার (১০ জুন) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত আহমদুল কবির দুই ছেলে সন্তানের জনক, বাড়ৈগাও গ্রামের মৃত আব্দুস সালামের ছেলে।

জানা যায়, বিগত ২০১৪ সালে নিহতের প্রতিবেশি চাচাতো ভাই জালাল ও খোরশেদ নামের আপন দুইভাইকে হত্যা করা হয়। ওই মামলার সাক্ষী ছিলেন নিহত আহমদুল কবির।

নিহতের ছোট ভাই লেলিন জানান, গতকাল রোববার রাত ১২ টার দিকে কয়েকজন লোক এসে ভাইয়ের সাথে কথাবার্তা বলে বাড়ী থেকে ডেকে নিয়ে যায়। পরে সোমবার সকাল ৬টার দিকে শুনতে পাই আমার ভাইয়ের মরদেহ পরে আছে স্কুল মাঠে। পুর্ব শত্রুতার জেরে পরিকল্পিতভাবে আমার ভাই কে হত্যা করা হয়েছে।

খবর পেয়ে শিবপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: ফরিদ উদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

ওসি জানান, ঘটনাটি কে বা কারা ঘটিয়েছে, তা তদন্ত করা হচ্ছে। নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি হত্যা মামলা করার প্রস্তুতি চলছে।


আরও খবর



‘ডিজিটাল বাংলাদেশের অন্যতম প্রাপ্তি ভূমি ব্যবস্থাপনায় ডিজিটালাইজেশন’

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০৮ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রাহুল সরকার, চট্টগ্রাম ব্যুরো

Image

শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বদান্যতায় ও নির্দেশনায় ডিজিটাল বাংলাদেশ সৃষ্টি হয়েছে। সেই ডিজিটাল বাংলাদেশের একটি অন্যতম প্রাপ্তি হচ্ছে ভূমি ব্যবস্থাপনায় ডিজিটালাইজেশন।

শনিবার (৮ জুন) সকালে চট্টগ্রাম এম এ আজিজ স্টেডিয়াম সংলগ্ন জিমনেশিয়াম হলে বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয় ও জেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত সপ্তাহব্যাপী ভূমিসেবা সপ্তাহের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে বেলুন উড়িয়ে ও ফিতা কেটে সপ্তাহব্যাপী ভূমিসেবা সপ্তাহের উদ্বোধন ও শেষে মেলার স্টল পরিদর্শন করেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আগামী ২০৪১ সালে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। স্মার্ট পদ্ধতিতে ভূমিসংক্রান্ত সকল সেবা দুর্নীতি ও হয়রানিমুক্তভাবে জনসাধারণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়া স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের একটি অন্যতম ক্ষেত্র। একই সঙ্গে, পিতা-মাতা ও পরিবার পরিজন নিয়ে নিজেদের নিরাপদভাবে থাকার জন্য বর্তমান প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের ভূমি ব্যবস্থাপনা বিষয়ে জ্ঞান অর্জনের আহ্বান জানাই।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামানের সভাপতিত্বে ও সিনিয়র সহকারী কমিশনার রাজীব হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিভাগীয় কমিশনার মো. তোফায়েল ইসলাম, সিএমপি কমিশনার কৃষ্ণ পদ রায়, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি, পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি সঞ্জয় সরকার।

এ ছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) কবির আহম্মেদ, মহানগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদুল ঘশ চৌধুরী সৈয়দ ও জেলা সংসদের ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম সরোয়ার কামাল।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন চান্দগাঁও সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইউসুফ হাসান। অনুষ্ঠানে বিভাগীয় ও জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



পোল্যান্ডকে হারিয়ে সেমিফাইনালে বাংলাদেশ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

বঙ্গবন্ধু কাপ-২০২৪ আন্তর্জাতিক কাবাডি টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ। আজ বৃহস্পতিবার (৩০ মে, ২০২৪) মিরপুর শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়ামে গ্রুপপর্বে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে পোল্যান্ডকে ৭টি লোনাসহ ৭৯-২৮ পয়েন্ট হারিয়ে টানা চার ম্যাচ তুলে নেয়। পাশাপাশি এ জয়ের মধ্য দিয়ে টুর্নামেন্টের প্রথম দল হিসেবে (গ্রুপ-এ) শেষ চার নিশ্চিত করে আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। প্রথমার্ধে বাংলাদেশ ৩৮-১৫ পয়েন্ট এগিয়ে ছিল।

দারুণ ক্রীড়াশৈলী দেখিয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন বাংলাদেশের অধিনায়ক তারকা রেইডার আরদুজ্জামান মুন্সি। প্রতিপক্ষের কাছ থেকে তিনি একাই ২৫ পয়েন্ট তুলে নেন।

আগামীকাল শুক্রবার (৩১ মে) গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচ খেলতে নামবে লাল-সবুজরা। যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ নেপাল। সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

আজ ম্যাচের শুরু থেকেই পোলিশদের চেপে ধরেন মিজান, আরদু, আল-আমিন, রাজিব, ইয়াসিনরা। ম্যাচের তৃতীয় মিনিটেই প্রথম লোনা তুলে নেয় বাংলাদেশ। এ সময় স্বাগতিকরা ১০-১ পয়েন্ট ব্যবধানে এগিয়ে ছিল। ষষ্ঠ মিনিটে দ্বিতীয় লোনার দেখা পায়। ফলে লাল-সবুজরা এগিয়ে যায় ১৯-২ পয়েন্টে। এরপর ১৪ মিনিটে তৃতীয় লোনা পায় বাংলাদেশ। এ সময় দুদলের পয়েন্টের পার্থক্য ছিল ৩০-১০। প্রথমার্ধে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বিতাই গড়তে পারেনি এ আসরে ইউরোপের একমাত্র প্রতিনিধি পোল্যান্ড।

দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম মিনিটেই (২১ মিনিট) চতুর্থ লোনা তুলে নেয় বাংলাদেশ। প্রতিপক্ষের চেয়ে ৪১-১৫ পয়েন্ট ব্যবধানে ছিল আব্দুল জলিলের শিষ্যরা। ২৯ মিনিটে পঞ্চম লোনাসহ ৫১-২১ পয়েন্টে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয়ার্ধের ৩৪ মিনিটে ষষ্ঠ লোনা স্বাগতিকদের। এ সময় দল এগিয়ে ছিল ৬১-২৪ পয়েন্টে। ৩৯ মিনিটে সপ্তম লোনা লাভ করে বাংলাদেশ। এ সময় ৭১-২৭ পয়েন্টে এগিয়ে ছিল বাংলাদেশ।

পোল্যান্ডকে বিপক্ষে বড় জয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে উচ্ছ্বসিত বাংলাদেশের কোচ আব্দুল জলিল। ম্যাচশেষে তিনি বলেন, গ্রুপপর্ব থেকে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছি। যা প্রাথমিক লক্ষ্য ছিল। পোল্যান্ডের বিপক্ষে বড় জয় দলকে আরও উজ্জীবিত আত্মবিশ্বাসী করেছে। আগামীকাল গ্রুপপর্বে আমাদের শেষ ম্যাচ রয়েছে নেপালের বিপক্ষে। ওই ম্যাচেও জিততে চাই। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেমিফাইনালে যেতে চাই। আশাকরি টানা চার ম্যাচের মতো নেপালের বিপক্ষেও আমরা জিতব।


আরও খবর