আজঃ রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩
শিরোনাম

ফেনীতে অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
রাজিব মাসুদ, ফেনী

Image

ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনীর মহিপাল থেকে স্ত্রীসহ পুলিশ সদস্যকে অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায়ের ঘটনায় চক্রের সদস্য বরগুনার বালিয়াতলী ইউনিয়নের ছোট তালতলী এলাকার লতিফ মিয়ার ছেলে মো. চাঁন মিয়া (৫০), বড়বগি ইউনিয়নের রিতুল বাড়িয়া এলাকার জব্বার হাওলাদারের ছেলে হেকিম হাওলাদার (৪০) ও বরিশালের বাবুগঞ্জ থানার বোদারপুর ইউনিয়নের জামাল হোসেন খানের ছেলে মকিবুল হাসান (৩০) কে গ্রেফতার করে পুলিশ।

সোমবার বেলা ১১টার দিকে পুলিশ সুপার জাকির হাসান সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন। অপহরণের শিকার ওই দম্পতির বাড়ি ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর উপজেলায়। পুলিশে চাকরির কারণে পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া থানায় বসবাস করেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার জানান, ২৮ আগস্ট ওই দম্পতি চট্টগ্রাম যেতে ফেনীর মহিপালে গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছিলেন। এসময় তাদের একটি চক্র কৌশলে মাইক্রোবাসে ওঠায়। পরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনীর লালপোল পৌঁছানোর পর তাদের গামছা দিয়ে চোখ-মুখ বেঁধে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। তখন এ দম্পতির কাছে তিন লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে অপহরণকারীরা। তাৎক্ষণিক পকেটে থাকা নগদ ২০ হাজার টাকা, ৪২ হাজার টাকা মূল্যের দুটি মোবাইল, ৪৫ হাজার টাকা মূল্যের একজোড়া কানের দুল হাতিয়ে নেয়।একপর্যায়ে তারা ওই পুলিশ সদস্যকে লোহার রড দিয়ে এলোপাতাড়ি মারধর করে আরও এক লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। নির্যাতনের মুখে বিকাশের মাধ্যমে ৮০ হাজার টাকা এনে দেওয়ায় রাত ১০টার দিকে লালপোল এলাকায় দুজনকে ছেড়ে দেওয়া হয়। পথচারীদের সহায়তায় ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হন তারা।এ ঘটনায় পুলিশ সদস্যের স্ত্রী হনুফা বেগম বাদী হয়ে ছয়জনকে আসামি করে ফেনী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে মামলাটির রহস্য উদঘাটনে মাঠে নামে পুলিশ।পুলিশ তথ্য প্রযুক্তির সহযোগিতায় তিনজনকে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করে।

সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) থোয়াই অংপ্রু মারমা, ফেনী মডেল থানার ওসি মো. শহিদুল ইসলাম চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



জাপানে সমুদ্রের বুকে নতুন দ্বীপের সন্ধান

প্রকাশিত:শুক্রবার ১০ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১০ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

জাপানে জেগে উঠেছে আরেকটি নতুন দ্বীপ। হাজার হাজার চিত্তাকর্ষক দ্বীপ থাকার পরও আরেকটি নতুন দ্বীপ পেল দেশটি। সাগরের নিচে আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতের ফলে এই দ্বীপের জন্ম হয়েছে। খবর দ্য গার্ডিয়ানের।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অক্টোবরে জাপানের ইয়োটো দ্বীপের কাছে আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাত হয়েছে। অগ্ন্যুৎপাতের ফলে প্রচুর পরিমাণে লাভা জমা হয়ে এই ছোট দ্বীপের সৃষ্টি হয়েছে। পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরের ওগাসাওয়ারা দ্বীপের অংশ ইয়োটো দ্বীপ।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জাপানের মেরিটাইম সেলফ-ডিফেন্স ফোর্সের তোলা ছবিতে এই দ্বীপ দেখা গেছে। তখন দ্বীপের ওপরে ছাইয়ের কালো মেঘ দেখা যায়। এখন ওগাসাওয়ারা দ্বীপাঞ্চলের একটি অংশ হয়েছে এই নতুন দ্বীপ।

জাপানের আবহাওয়া দপ্তর (জেএমএ) জানিয়েছে, সমুদ্রের নিচে আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতের ফলে তৈরি হওয়া নতুন দ্বীপের এখনো নাম ঠিক করা হয়নি।

ভৌগোলিক দিক বিবেচনায় জাপানে দ্বীপ সৃষ্টি হওয়া নতুন কোনো ঘটনা নয়। মাঝে মধ্যেই নতুন দ্বীপের সৃষ্টি হয় আবার ডুবেও যায়।

আগ্নেয়গিরির প্রকোপ এবং বৈরী আবহাওয়ার কারণে তিন লাখ ৭০ হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকায় ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা সব দ্বীপ গণনা করা সহজ নয়। তবে ডিজিটাল ম্যাপিং ব্যবহার করে দ্বীপ গণনা করে জাপান। ফেব্রুয়ারিতে এমন গণনায় সাত হাজার নতুন দ্বীপ আবিষ্কার করেছে দেশটি, যা পূর্বের দ্বীপ সংখ্যার তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ।

সেই জরিপে সব মিলিয়ে ১৪ হাজার ১২৫টি দ্বীপের সন্ধান পেয়েছে জাপান। তার আগে মাত্র সাত হাজার ২৭৩টি দ্বীপের কথা জানায় কর্তৃপক্ষ।


আরও খবর



অবরোধের দ্বিতীয় দিন: ১১ যানবাহনে আগুন

প্রকাশিত:সোমবার ০৬ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ০৬ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিএনপি-জামায়াতের ৪৮ ঘণ্টার অবরোধের দ্বিতীয় দিনে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে যাত্রীবাহী বাসসহ অন্তত ১১টি যানবাহনে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে।

এর মধ্যে রাজধানীতে তিনটি, চট্টগ্রামে তিনটি, গাজীপুরে দুটি, নোয়াখালীতে একটি, বগুড়ায় একটি ও ফেনীতে একটি যানবাহনে আগুন দেওয়া হয়।

রোববার (৫ নভেম্বর) গভীর রাত থেকে সোমবার (৬ নভেম্বর) রাত ১০টা পর্যন্ত এসব ঘটনা ঘটে।

রাজধানী ঢাকায় অবরোধের সমর্থনে ৩টি বাসে আগুন দেওয়া হয়। সবশেষ সোমবার রাত সাড়ে আটটার দিকে খিলক্ষেত এলাকায় আকাশ পরিবহনের একটি বাসে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

এর আগে দুপুর ২টার দিকে রাজধানীর গুলিস্তানের বঙ্গবন্ধু স্কয়ার হল মার্কেটের সামনে বিকল্প অটো পরিবহনের একটি বাসে আগুন দেওয়া হয়। বাসটিতে কিছু যাত্রী ছিলেন, তারা সবাই নিরাপদে নেমে আসতে পেরেছেন।

আরও পড়ুন>> খিলক্ষেতে আকাশ পরিবহনে আগুন

প্রত্যক্ষদর্শী এক ব্যক্তি জানান, কয়েকজন যুবক বাসের ভেতরে ঢুকে আগুন দেয়। তারাই আবার আগুন-আগুন করতে করতে নেমে যায়। আতঙ্কে হুড়োহুড়ি করে নেমে পড়েন যাত্রীরাও। ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে বাসটির আগুন নেভায়। এ ঘটনায় হতাহতের কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

এছাড়া, সোমবার বিকেলে রাজধানীর মিরপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী পরিবহনের একটি দোতলা বিআরটিসি বাসে আগুন দেওয়া হয়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা গিয়ে দ্রুত আগুন নেভান।

চট্টগ্রাম : অবরোধের সমর্থনে চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলায় একটি যাত্রীবাহী বাস এবং নগরীর পাঁচলাইশ থানা এলাকায় একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় আগুন দেওয়া হয়। সোমবার ভোরের দিকে এ দুটি ঘটনা ঘটে। তবে এ দুই ঘটনায় হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, ভোর সাড়ে ৪টার দিকে পাঁচলাইশ থানার আতুরার ডিপো এলাকায় অবরোধের সমর্থনে একটি ঝটিকা মিছিল বের করা হয়। এসময় একটি কাভার্ডভ্যান ভাঙচুর করা হয় এবং সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। ফায়ার সার্ভিস আসার আগেই আগুন নিভিয়ে ফেলেন স্থানীয়রা।

এদিকে আনোয়ারা উপজেলার চাতরী চৌমহনী বাজারের ট্র্যাফিক বক্স এলাকায় মসজিদের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা একটি বাসে আগুন দেওয়া হয়। মসজিদে নামাজ পড়তে আসা লোকজন ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়। তারা এসে বাসের আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

গাজীপুর: গাজীপুর মহানগরের শিববাড়ি-শিমুলতলী সড়কের বটতলা এলাকায় সড়কের পাশে পার্কিং করা গাজীপুর পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসে আগুন দেওয়া হয়। রোববার দিবাগত রাত দুইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এরপর ভোর ৪টার দিকে কেপি পরিবহনের আরও একটি বাসে আগুন দেওয়া হয়।

গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মো. আবদুল্লাহ আল আরেফিন জানান, জয়দেবপুর ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এতে হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি।

নোয়াখালী: রোববার রাতে নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলা ডাকবাংলোর সামনে পেট্রোল ঢেলে একটি পিকআপ ভ্যানে আগুন দেওয়া হয়। ঘটনাস্থল থেকে ৬টি ককটেল উদ্ধার করে পুলিশ।

স্থানীয় বাসিন্দা মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, কয়েকজন যুবক থেমে থাকা একটি পিকআপ ভ্যানে অগ্নিসংযোগ করে পালিয়ে যায়। স্থানীয় বাসিন্দারা বালু ও পানি দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। পিকআপ ভ্যানের সামনের অংশ পুড়ে গেছে। গাড়ির পাশে পেট্রোলের একটি খালি বোতল পাওয়া যায়।

চাটখিল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমদাদুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, সন্দেহভাজনদের গ্রেপ্তারে পুলিশি অভিযান চলছে।

বগুড়া: বগুড়ার শাজাহানপুরে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের বেতগাড়ীতে রাস্তার ওপর দাঁড়িয়ে থাকা একটি পানিবাহী লরিতে আগুন দেওয়া হয়। সোমবার বেলা ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

লরির চালক হাফিজুর রহমান বলেন, সড়কে পানি দিয়ে গাড়ি নিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলাম। এই সময় ১০ থেকে ১২ জন যুবক হেঁটে এসে গাড়ি লক্ষ্য করে কিছু একটা নিক্ষেপ করে পালিয়ে যায়। এরপরই বিকট শব্দে বিস্ফোরণ হয়ে আগুন ধরে যায়।

ফেনী: সোমবার দুপুরে ফেনীতে মাছবোঝাই একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় আগুন দেওয়া হয়।  এছাড়া একটি মালবাহী ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

জেলা শহরের রামপুর সওদাগর বাড়ি সড়ক ও তাকিয়া রোডে এসব ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী মাছ বিক্রেতা রুবেল ও গাড়িচালক এনামুল হক বলেন, নোয়াখালীর কবিরহাট সোনাদিয়া থেকে মাছ এনে ফেনীর বড় বাজার আড়তে বিক্রি করে ফেরার পথে ইসলামপুর রোডে কয়েকজন যুবক অটোরিকশায় আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময় আমাদের সঙ্গে থাকা মাছ বিক্রির ৬০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় তারা।

আরও পড়ুন>> একদিন বিরতি দিয়ে ফের ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ বিএনপির

এদিকে, দুপুরের দিকে শহরের তাকিয়া রোডে ৬-৭টি মালবাহী ট্রাক ও কাভার্ডভ্যানে ভাঙচুর চালিয়ে পালিয়ে যায় কিছু যুবক।

উল্লেখ্য, গত সপ্তাহের ২৮ অক্টোবর রাজধানীতে বড় ধরনের সমাবেশ করে বিএনপি, জামায়াত ও আওয়ামী লীগ। সেদিন দুপুরের দিকে বিএনপির সমাবেশে আসা লোকজনের সঙ্গে কাকরাইল মোড়ের কাছে আওয়ামী লীগের সমাবেশগামী লোকজনের সংঘর্ষ শুরু হয়। পুলিশ সেখানে হস্তক্ষেপ করার পর এক পর্যায়ে প্রধান বিচারপতির বাসভবনে হামলা হয় এবং বেশকিছু গাড়িতে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। উপস্থিত সাংবাদিকদেরও ব্যাপক মারধর করা হয়।

এরপর পুলিশ সাউন্ড গ্রেনেড ও উপর্যুপরি টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে বিএনপির সমাবেশ ভন্ডুল করে দেয়। এর ফলে সংঘর্ষ চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে এক পুলিশ সদস্যকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করা হয়, পুলিশের বহু সদস্যকে পিটিয়ে আহত করা হয় এবং পুলিশ হাসপাতালে হামলা চালিয়ে কয়েকটি অ্যাম্বুলেন্সে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়।

সমাবেশ বানচালের প্রতিবাদে পরদিন ২৯ অক্টোবর বিএনপি হরতাল পালন করে। হরতালের দিন সকালে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি এখন কারাগারে আছেন।

সবশেষ গ্রেপ্তার করা হয় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদুকে। এছাড়া গত কয়েকদিনে সাবেক জাতীয় ফুটবলার আমিনুল হকসহ বিএনপির জাতীয় পর্যায়ের অনেক নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এসব গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে এবং মির্জা ফখরুলসহ কেন্দ্রীয় নেতাদের মুক্তি ও সরকারের পদত্যাগের এক দফা দাবিতে আগামী বুধ ও বৃহস্পতিবার আবারও অবরোধ কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি ও এর শরিকরা।


আরও খবর



লক্ষ্মীপুর ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দুই আসনে উপনির্বাচন আজ

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ০৫ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বাকি মাত্র কয়েক মাস। এরই মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও লক্ষ্মীপুরের দুটি শূন্য আসনে রোববার (৫ নভেম্বর) উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। শূন্য আসন দুটি হলো- লক্ষ্মীপুর-৩ (সদর) এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ)।

এই দুই আসনের সংসদ সদস্যের মৃত্যুতে আসন দুটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। সংসদের আসন শূন্য হলে, শূন্য ঘোষণার পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে উপনির্বাচন করার বাধ্যবাধকতা আছে। এই দুই উপনির্বাচনে নির্বাচিত প্রতিনিধিরা সংসদের কোনো অধিবেশনে অংশ নেওয়ার সুযোগ পাবেন না।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন আবদুস সাত্তার ভূঁইয়া। তিনি গত ২৯ সেপ্টেম্বর মৃত্যুবরণ করেন। তার মৃত্যুতে শূন্য এই আসনে ৫ নভেম্বরের উপনির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন ৫ জন প্রার্থী।

আসনটি সরাইল উপজেলার নয়টি এবং আশুগঞ্জ উপজেলার আটটি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। আসনে মোট ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ১০ হাজার ৭২। এর মধ্যে সরাইলে ২ লাখ ৬৬ হাজার ৬০৫ ও আশুগঞ্জে ১ লাখ ৪৩ হাজার ৪৬৭ ভোটার আছে। মোট ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা ১৩২টি।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের নির্বাচনে ৫ জন প্রার্থী হলেও প্রকৃত লড়াই হবে ২ জনের মধ্যে- এমনটাই দাবি স্থানীয়দের। এই আসনে ৫ প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হলেন নৌকা প্রতীক নিয়ে আওয়ামী লীগের শাহজাহান আলম সাজু, কলার ছড়া প্রতীকে স্বতন্ত্রপ্রার্থী জিয়াউল হক মৃধা, লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে জাতীয় পার্টির অ্যাডভোকেট আবদুল হামিদ, গোলাপ ফুল প্রতীক নিয়ে জাকের পার্টির জহিরুল ইসলাম এবং আম প্রতীক নিয়ে এনপিপির রাজ্জাক হোসেন।

এ দিকে গত ৩০ সেপ্টেম্বর লক্ষ্মীপুর-৩ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য একেএম শাহজাহান কামালের মৃত্যুতে ৪ অক্টোবর আসনটি শূন্য ঘোষণা করে তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। এই আসনে ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৩ হাজার ৭৪৪ জন।

লক্ষ্মীপুর-৩ আসনের উপনির্বাচনে ভোটের মাঠে লড়বেন ৪ প্রার্থী। তারা হলেন- নৌকা প্রতীক নিয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী গোলাম ফারুক পিংকু। লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে জাতীয় পার্টির রাকিব হোসেন, গোলাপ ফুল প্রতীক নিয়ে জাকের পার্টি মনোনীত শামছুল করিম খোকন ও আম প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন এনপিপির সেলিম মাহমুদ।


আরও খবর
নবম দফায় ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ চলছে

রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩




জাতীয় নির্বাচনে ভোটারপ্রতি সর্বোচ্চ ১০ টাকা ব্যয় করা যাবে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৬ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ঘোষিত সময় অনুযায়ী, আগামী ৭ জানুয়ারি ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে একজন প্রার্থী সর্বোচ্চ ২৫ লাখ টাকা ব্যয় করতে পারবেন। একই সঙ্গে ভোটারপ্রতি সর্বোচ্চ ১০ টাকা ব্যয় করা যাবে।

জাতীয় সংসদ নির্বাচন সংক্রান্ত আইন গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ অনুযায়ী, এ তথ্য জানা গেছে। বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) নির্বাচনী ব্যয় নির্ধারণ করে দিয়ে জারি করা প্রজ্ঞাপনে ব্যয়সীমা ঠিক করে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও ভোটারপ্রতি ব্যয় ১০ টাকা নির্ধারণ করেছিল ইসি। আইনে সর্বোচ্চ নির্বাচনী ব্যয়ের পরিমাণ নির্ধারণ করে দেওয়া থাকলেও বাস্তবে অনেক প্রার্থী এটা মানে না।

দেশে শতাধিক রাজনৈতিক দল সক্রিয় থাকলেও নিবন্ধিত দল মাত্র ৩৯টি। রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে অন্যতম আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টি। জাতীয় ভোটার দিবসে চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন।

বর্তমানে দেশের মোট ভোটার সংখ্যা ১১ কোটি ৯১ লাখ ৫১ হাজার ৪৪০ জন। দেশের মোট ভোটারের মধ্যে ৬ কোটি ৪ লাখ ৪৫ হাজার ৭২৪ জন পুরুষ, ৫ কোটি ৮৭ লাখ ৪ হাজার ৮৭৯ জন নারী এবং ৮৩৭ জন তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার রয়েছেন।


আরও খবর
নবম দফায় ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ চলছে

রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩




জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন উপাচার্য সাদেকা হালিম

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
Image

জবি প্রতিনিধি

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন অধ্যাপক সাদেকা হালিম। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক এবং বর্তমানে বিভাগের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ও রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন এ নিয়োগ দিয়েছেন। এ বিষয়ে আজ বৃহস্পতিবার প্রজ্ঞাপন জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। আগামী চার বছরের জন্য তাঁকে এই পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

অধ্যাপক সাদেকা হালিম জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রয়াত উপাচার্য ইমদাদুল হকের স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন। ক্যানসারে আক্রান্ত অধ্যাপক ইমদাদুল হক সম্প্রতি মারা গেছেন।

অধ্যাপক সাদেকা হালিম তথ্য কমিশনের প্রথম নারী কমিশনার ছিলেন। জাতীয় শিক্ষানীতি-২০১০এর প্রণয়ন কমিটিরও সদস্য ছিলেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সাবেক এই ডিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন ১৯৮৮ সালে। তিনি কানাডার ম্যাকগিল ইউনিভার্সিটি থেকে পিএইচডি করেছেন। তাঁর বাবা অধ্যাপক ফজলুল হালিম চৌধুরী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য। তাঁদের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে।


আরও খবর