আজঃ বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১
শিরোনাম

ফেরি থেকে নামতে গিয়ে হুড়োহুড়িতে নিহত ৫

প্রকাশিত:বুধবার ১২ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১২ মে ২০২১ | ১৮৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া বাংলাবাজার নৌ-রুটে দুই ফেরির হুড়োহুড়িতে ৫ জনের মৃত্যু। এ সময় আহত হয়েছে ১২ যাত্রী।

বুধবার (১২ মে) দুপুরে ওই ঘাটে এ ঘটনা ঘটে। এদিকে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

জানা গেছে, যখন ফেরি ঘাটে ভিড়েছে তখন যাত্রীরা হুড়োহুড়ি করে নামতে গিয়ে পায়ের নিচে চাপা পড়ে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় ১২ থেকে ১৫ জনের মত আহত হয়েছেন। তবে নিহতদের পরিচয় জানা যায়নি। আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

ফেরির এক যাত্রী বলেন, ফেরি ঘাটে ভিড়ার সাথে সাথে সবাই এক সাথে নামতে গিয়ে এ ঘটনা ঘটে। চোখের সামনে ৫ জনের মৃত্যু দেখলাম। বিশ্বাস হচ্ছে না আমি এখনো বেঁচে আছি।

নিউজ ট্যাগ: নিহত

আরও খবর



মিয়ানমারে অস্ত্র বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞার আহ্বান জাতিসংঘের

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মিয়ানমারে অস্ত্র বিক্রি স্থগিত রাখতে আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ। সেই সঙ্গে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে মিয়ানমারের জান্তা সরকারের প্রতি নিন্দা প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে।

বিবিসির আজ শনিবারের খবরে জানা যায়, মিয়ানমারে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের প্রতি সহিংস আচরণ বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ। অং সান সু চিসহ সব রাজনৈতিক বন্দীকে মুক্তি দিতে আহ্বান জানানো হয়েছে। আইনগত দিক দিয়ে না হলেও রাজনৈতিক দিক দিয়ে এ আহ্বান ও নিন্দা প্রস্তাবকে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে।

মিয়ানমারে নিযুক্ত জাতিসংঘের বিশেষ দূত ক্রিস্টিন শ্রেনার বার্গনার সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে বলেন, বড় ধরনের গৃহযুদ্ধের আশঙ্কা রয়েছে। সময় সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। সেনাবাহিনীর নিয়ন্ত্রণ থেকে বের হওয়ার সুযোগ ক্ষীণ হচ্ছে।

মিয়ানমারেরর জান্তা সরকার নিয়ে নিন্দা প্রস্তাব ও অস্ত্র বিক্রি স্থগিত রাখতে জাতিসংঘের আহ্বান সমর্থন করেছে ১১৯টি দেশ। কেবল বেলারুশ এর বিপক্ষে ভোট দিয়েছে। মিয়ানমারে অস্ত্র সরবরাহকারী বড় দুই দেশ রাশিয়া, চীনসহ ৩৬টি দেশ অনুপস্থিত ছিল।

অনুপস্থিত থাকা কয়েকটি দেশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এ সংকট মিয়ানমারের অভ্যন্তরীণ ইস্যু। অন্য দেশগুলো বলেছে, প্রস্তাবে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিম জনগোষ্ঠীর ওপর মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর সহিংস আচরণের বিষয়টি উল্লেখ করা হয়নি। এ সহিংসতার কারণে মিয়ানমার থেকে ১০ লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়েছে।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের জাতিসংঘবিষয়ক রাষ্ট্রদূত ওলফ স্কুজ মিয়ানমারের জনগণ ও বিক্ষোভকারীদের প্রতি জান্তা সরকারের সহিংস আচরণের নিন্দা জানিয়েছেন।

তবে জাতিসংঘে নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত ও নির্বাচিত বেসামরিক সরকারের প্রতিনিধি কিয়ো মোয়ে তুন প্রস্তাব পাসে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ এত বেশি সময় নেওয়ায় হতাশা ব্যক্ত করেন।

সেনা অভ্যুত্থানের পর থেকে গৃহবন্দী রয়েছেন মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সুচি। গত নভেম্বরে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ তুলে ফেব্রুয়ারি মাসে ক্ষমতা দখল করে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী।

সুচির বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলাও দেওয়া হয়েছে। সেনা অভ্যুত্থানের প্রতিবাদে মিয়ানমারে ব্যাপক বিক্ষোভ শুরু হয়। বিক্ষোভ দমনে সহিংস আচরণ চালায় জান্তা সরকার।

পর্যবেক্ষক দল অ্যাসিস্ট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনার্স (এএপিপি) বলছে, নিরাপত্তা বাহিনী ৮৬০ জনের বেশি মানুষকে হত্যা করেছে। আর আটক করেছে প্রায় পাঁচ হাজার মানুষকে।



আরও খবর
করোনার ডেল্টা প্লাসে প্রথম মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১




সড়ক দুর্ঘটনায় নরসিংদীতে নিহত ৫

প্রকাশিত:রবিবার ২০ জুন ২০21 | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নরসিংদী সদর উপজেলায় ট্রাক ও মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে শিশুসহ পাঁচজন নিহত হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছে আরও ১০ জন। উপজেলার সাকুরার মোড় এলাকায় পাঁচদোনা-ঘোড়াশাল-টঙ্গী আঞ্চলিক সড়কে গতকাল শনিবার রাত ১২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এনামুল হক সাগর এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নিহত ব্যক্তিরা হলো সাভারের আশুলিয়ার জিরাবো এলাকার আবদুর রশিদের স্ত্রী রুবি আক্তার (৩৩), তাঁর মেয়ে রাইমা খান (৫) ও ভাতিজা সাদেক খান (৮), কাদির মিয়ার স্ত্রী সামসুন্নাহার (৬০) ও রোকেয়া বেগম (৫২)। এ ছাড়া আহত ব্যক্তিদের মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। গুরুতর আহত চারজনকে দুর্ঘটনার পরই ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও আহত ব্যক্তিরা জানিয়েছে, গতকাল শনিবার সকালে একটি মাইক্রোবাসে করে ১৪ জন সাভারের আশুলিয়ার জিরাবো এলাকা থেকে সিলেটে মাজার জিয়ারত করতে গিয়েছিল। ওই ১৪ জন একে অপরের আত্মীয়। হজরত শাহজালাল (রহ.) ও হজরত শাহপরানের (রহ.) মাজার জিয়ারত শেষে জাফলং বেড়াতে যায় তারা। সেখান থেকে তারা আশুলিয়ায় নিজেদের বাড়ি ফিরছিল। মাইক্রোবাসটি নরসিংদীর সাকুরা মোড়ে পৌঁছালে দ্রুতগামী একটি ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় মাইক্রোবাসটি দুমড়েমুচড়ে রাস্তার পাশে ছিটকে পড়ে।

এতে ঘটনাস্থলে রুবি আক্তার ও তাঁর মেয়ে রাইমা মারা যায়। পরে ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে পাঠায়। হাসপাতালে নেওয়ার আগেই শিশু সাদেকের মৃত্যু হয়। এ ছাড়া গুরুতর আহত অবস্থায় চারজনকে ঢাকায় পাঠানো হয়। ঢাকায় নেওয়ার পথে সামসুন্নাহার ও রোকেয়া বেগম নামের দুই নারীর মৃত্যু হয়।

নিউজ ট্যাগ: সড়ক দুর্ঘটনা

আরও খবর



শুধু টিকা দিয়ে করোনা নিয়ন্ত্রণ সম্ভব নয় : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ০৫ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৫ জুন ২০২১ | ১২১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, শুধু টিকা দিয়েই করোনা নিয়ন্ত্রণ সম্ভব নয়, আমাদের স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মানতে হবে। সবাই মিলে চেষ্টা করলে বাংলাদেশে করোনা নিয়ন্ত্রণ করা সহজ হবে।

শনিবার দুপুরে মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার গড়পাড়া হাইস্কুল মাঠে উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ের আয়োজনে প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, যে দেশে করোনা নিয়ন্ত্রণের মধ্যে আছে, তাদের সামাজিক ও অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো আছে। আর যাদের করোনা নিয়ন্ত্রণে নেই, তারা বিধ্বস্ত হয়ে গেছে। কাজেই আমাদের সবাইকে চেষ্টা করতে হবে করোনা নিয়ন্ত্রণে রাখতে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে স্বাস্থ্য বিভাগসহ সব বিভাগ করোনা নিয়ন্ত্রণে কাজ করে যাচ্ছে। যে কারণে আমাদের দেশে ওষুধের অভাব হয়নি, খাদ্যের অভাব হয়নি। আমাদের কৃষি খাত ও শিল্পকারখানা সচল রয়েছে। আমাদের অর্থনীতি অনেক দেশের চেয়ে ভালো।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইকবাল হোসেনের সভাপতিত্বে প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী অনুষ্ঠানে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন- জেলা প্রশাসক এসএম ফেরদৌস, জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা মাহবুবুল ইসলাম, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আফসার উদ্দিন সরকার প্রমুখ।

উদ্বোধন অনুষ্ঠান শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ৫০টি স্টলের উন্নত জাতের গরু, ছাগল, ভেড়া, হাঁস-মুরগি, ঘোড়া, হরিণ, ময়ূর ঘুরে দেখেন।


আরও খবর
করোনায় আরও ৭৬ জনের মৃত্যু

মঙ্গলবার ২২ জুন ২০২১




শরীয়তপুরে প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের জন্য নেই পর্যাপ্ত শিক্ষক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৮ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৮ জুন ২০২১ | ১৯২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শরীয়তপুর প্রতিনিধি:

শরীয়তপুর জেলায় করোনার প্রভাবে টানা ছুটিতে প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থা মারাত্বক হুমকির মুখে রয়েছে। পড়াশুনা বাদ দিয়ে ছাত্র-ছাত্রীরা মোবাইল গেমসে আসক্ত হয়ে পড়েছে। অভিভাবক মহল শঙ্কার কথা জানালেও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বলছেন শিক্ষা কার্যক্রম চলছে ও প্রতিষ্ঠান খুলে দিতে পুরোপুরি প্রস্তত রয়েছে তারা।

শরীয়তপুর জেলায় ৬৯৮টি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে এবং এতে পড়াশুনা করছে জেলার প্রায় ২ লক্ষাধিক কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রী। যাদের আবার অধিকাংশই দরিদ্র পরিবারের সন্তান। করোনার কারণে বিদ্যালয়গুলো বন্ধ থাকাতে শিক্ষা ব্যবস্থা পড়েছে মহাসংকটে। শিশুরা আর আগের মত পড়াশোনায় মনোযোগী হতে পারছেনা। তারা এখন পড়াশুনা রেখে মোবাইল গেমসে আসক্ত হয়ে পড়েছে। যা শিশুদের দৈহিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। অভিভাবকরা অভিযোগ করে জানান,স্কুল বন্ধ থাকার কারণে ছেলে-মেয়েদের পড়াশুনার যে ক্ষতি হচ্ছে তা পূরণ করা সম্ভব না। সব কিছু খুলে দেওয়া হলেও স্কুলগুলো কেন খুলে দেওয়া হচ্ছে না?

স্কুল বন্ধ থাকার কারণে বেহাল দশা স্কুলগুলোর। এমনই কিছু স্কুলের চিত্র এসেছে হাতে। এতে দেখা যায় স্কুলগুলোতে গবাদি পশু পালন করা হচ্ছে, রাখা হচ্ছে গবাদি পশুর খাবার। ফসল কেটে রাখা হচ্ছে স্কুলের আঙিনা ও ক্লাসরুমে।


অন্যদিকে জেলায় মোট কিন্ডারগার্টেন রয়েছে ১৮৫টি। প্রায় ৩৫ হাজার ছাত্র-ছাত্রী এই কিন্ডারগার্টেন গুলোতে পড়াশুনা করে। অভিভাবকদের অর্থনৈতিক সংকটের কারণে যাদের একটি বড় অংশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দিকে ঝুঁকে যাবে বলে ধারণা করছেন বিশেষজ্ঞরা। এতে করে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে চাপ বাড়বে। কিন্তু এই চাপ সামলাতে নেই পর্যাপ্ত শিক্ষক।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের দেওয়া তথ্যমতে, সহকারি শিক্ষকের পদ শূন্য রয়েছে  ৩৩২টি, প্রধান শিক্ষকের ২১৪ টি এবং বছরে গড়ে প্রায় ৬৫ জন শিক্ষিকা মাতৃত্বকালীন ছুটিতে থাকেন। এতে করে সারা বছর ধরে শিক্ষক সংকট লেগেই থাকে। এর উপর স্কুল খুলে দেওয়া হলে বাড়তি শিক্ষার্থীদের চাপ সামলাতে কতটা প্রস্তুত প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলো তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন জেলার শিক্ষাবিদরা। শরীয়তপুর জেলায় মাত্র ২ জন শিক্ষক দিয়ে চলে এমন বিদ্যালয় রয়েছে ১১টি। এছাড়াও ৩ জন শিক্ষক দিয়ে চলে এমন বিদ্যালয় রয়েছে অসংখ্য। অথচ শিক্ষা অধিদপ্তরের নির্দেশনা মেনে পাঠ্য কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন বলে দাবী করেছেন জেলার শিক্ষকবৃন্দ।


শরীয়তপুর সদর উপজেলার ৬৫ নং কীর্তিনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা গেল শিক্ষার্থীদের বাড়ি বাড়ি যাওয়ার জন্য সহকারি শিক্ষিকা নাসরিন আক্তার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। কিভাবে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আমরা প্রতিদিন ছাত্র-ছাত্রীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে পড়া দেই, সীটে করে লেখা জমা নেই এবং তা মূল্যায়ন করি।

জেলা প্রাথমিক অফিসার মো: আবুল কালাম আজাদ বলেন, আমাদের পাঠদান থেমে নেই। ফিল্ড পর্যায়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে আমাদের সকল শিক্ষক স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। স্কুল খোলার জন্য আমরা প্রস্তত। সরকারি নির্দেশনা পেলেই আমরা যথাযথ নিয়ম মেনে স্কুল খুলে দিবো


আরও খবর



রাজশাহী মেডিকেলে করোনায় ১২ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১০ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১০ জুন ২০২১ | ৮৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ১২ জন মারা গেছেন। তাদের মধ্যে ৯ জনের বাড়ি রাজশাহীতে। অন্য ৩ জনের বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায়।

বুধবার (৯ জুন) সকাল ৯টা থেকে বৃহস্পতিবার (১০ জুন) সকাল ৯টার মধ্যে হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মারা যান তারা।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ১২ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে ৭ জন মারা গেছেন করোনাভাইরাসে। অন্য ৫ জন মারা গেছেন করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে। করোনায় মারা যাওয়া ৭ জনের ৫ জন রাজশাহী জেলার বাসিন্দা। অন্য ২ জন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার বাসিন্দা। স্বাস্থ্যবিধি মেনে মরদেহ দাফনের পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বৃহস্পতিবার (১০ জুন) সকাল ৯টা পর্যন্ত ২৭১ শয্যার রামেক হাসপাতালের করোনাভাইরাসের ইউনিটে রোগী ভর্তি ছিলেন ২৯০ জন। এর মধ্যে আইসিইউতে ভর্তি রয়েছেন ১৮ জন। রাজশাহীর ১৪২ জন, নওগাঁর ১৫ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ১১১ জন, নাটোরের ১৫ জন, কুষ্টিয়ার ৩ জন, পাবনার ৩ জন ও চুয়াডাঙ্গার ১ জন।



আরও খবর