আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

ফিলিপাইনে ক্যাথলিক সমাবেশে বিস্ফোরণ, নিহত ৩

প্রকাশিত:রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ফিলিপাইনে একটি ক্যাথলিক সমাবেশে বিস্ফোরণে অন্তত ৩ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ৯জন। স্থানীয় সময় রোববার (৩ ডিসেম্বর) সকালে মারাউই শহরের মিন্দানাও স্টেট ইউনিভার্সিটির (এমএসইউ) একটি জিমনেশিয়ামে এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয় এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদন এমনটি জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

এমন ভয়ঙ্কর ঘটনার জন্য গভীরভাবে দুঃখ করছে মিন্দানাও স্টেট ইউনিভার্সিটি কর্তৃপক্ষ। তারা এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, সভ্য সমাজে সহিংসতার কোন স্থান নেই। এমএসইউ-এর মতো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এমন ঘটনা আসলেই ঘৃণ্য। এছাড়াও খ্রিস্টান সম্প্রদায় এবং এই ট্র্যাজেডিতে ক্ষতিগ্রস্ত সকলের প্রতি সংহতি প্রকাশের কথা জানান তারা। 

আরও পড়ুন>> পাকিস্তানে বন্দুকধারীদের হামলায় ২ সেনা সদস্যসহ নিহত ৮

বিশ্ববিদ্যালয়টির পক্ষ থেকে আরও বলা হয়, ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত নিরাপত্তা কর্মী মোতায়েন করা হয়েছে এবং পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সমস্ত একাডেমিক কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে।


আরও খবর



হাসপাতালে ভর্তি জাহিদ হাসান

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন অভিনেতা ও প্রযোজক জাহিদ হাসান। শ্বাসকষ্ট নিয়ে চলতি সপ্তাহে রাজধানীর ধানমন্ডির একটি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তিনি।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, অ্যাজমার সমস্যা প্রকট হওয়ায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। হাসপাতালের সি-ব্লকের একটি কেবিনে তিনি ভর্তি আছেন। এখন সবকিছু নিয়ন্ত্রণে।

জানা যায়, শীতের কারণে এ অভিনেতা বেশ বেকায়দায় পড়েছিলেন। এতে তার অ্যাজমার সমস্যা বেড়ে যায়। শুরু হয় শ্বাসকষ্ট। এরপরই তাকে হাসপাতালে আনা হয়। হাসপাতালে দেখাশোনা করছেন তার স্ত্রী অভিনেত্রী সাদিয়া ইসলাম মৌ ও দুই সন্তান।

প্রসঙ্গত, নব্বই দশকের জনপ্রিয় অভিনেতা জাহিদ এখনো মিডিয়ায় সরব। অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজনাতে বেশ ব্যস্ত তিনি। গত কয়েক বছরে ঈদের টিভি আয়োজনে অন্যতম আকর্ষণ হিসেবে থাকত এ তারকার নাটক।

নিউজ ট্যাগ: জাহিদ হাসান

আরও খবর
ভারতীয় পরিচালক কুমার সাহানি আর নেই

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বাংলাদেশ কোস্ট গার্ডের মহাপরিচালকের দায়িত্ব পেলেন এরশাদ আলী

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ৩১ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বাংলাদেশ কোস্ট গার্ডর ১৪তম মহাপরিচালক হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব গ্রহণ করলেন রিয়ার অ্যাডমিরাল মীর এরশাদ আলী।

বুধবার (৩১ জানুয়ারি) তিনি দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। এর আগে গত ১৪ জানুয়ারি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রেষণ-১ অধিশাখার প্রজ্ঞাপনে মীর এরশাদ আলীকে কোস্ট গার্ডের মহাপরিচালক হিসেবে নিয়োগ দেয় সরকার।

রিয়ার অ্যাডমিরাল মীর এরশাদ আলী ১৯৮৯ সালের পহেলা জুলাই বাংলাদেশ নৌ-বাহিনীতে এক্সিকিউটিভ শাখায় কমিশন লাভ করেন। পরবর্তী সময়ে চাকরি জীবনে সামুদ্রিক অভিজ্ঞতা এবং দেশে বিদেশে বিভিন্ন প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সমৃদ্ধ হয়েছে। তিনি জার্মানি থেকে নেভাল অফিসার বেসিক কোর্স, ভারত থেকে গুনেরি স্পেশালাইজেশন কোর্স করেছেন।

মীর এরশাদ মিরপুর ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজ থেকে স্নাতক এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিফেন্স স্টাডিজে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। এছাড়াও তিনি জার্মান স্টাফ কলেজ Führungsakademie der Bundeswehr এর Alumni, যেখানে তিনি কোর্সের সেরা অফিসার হিসেবে নির্বাচিত হয়ে সম্মানজনক 'Scharnhorst Award' লাভ করেন। তিনি মিরপুর National Defence College থেকে NDC কোর্স সম্পন্ন করেছেন এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের National Intelligence University থেকে ফেলোশিপ সম্পন্ন করেছেন। সম্প্রতি তিনি বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস (বিইউপি) এর অধীনে Security And Strategic Studies এর বিষয়ে এম ফিল সম্পন্ন করেছেন।

তিনি তার দীর্ঘ ও বর্ণাঢ্য চাকুরি জীবনে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর বিভিন্ন জাহাজ ও নৌ সদর দপ্তরে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেন। পাশাপাশি বাংলাদেশ নৌবাহিনীর সর্ববৃহৎ ফ্লিট চট্টগ্রাম এর কমান্ডার বিএন ফ্লিট ও পশ্চিমাঞ্চলীয় কমান্ডের কমান্ডার ফ্লোটিলা ওয়েস্ট হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। এর আগে তিনি নৌ সদর দপ্তরে নৌ গোয়েন্দা পরিচালক (ডিএনআই), নৌ পরিকল্পনার পরিচালক (ডিএনপি), ডিরেক্টর অব পার্সোনেল সার্ভিসেস (ডিপিএস), নৌ প্রশিক্ষণের পরিচালক (ডিএনটি), নৌ অপারেশন পরিচালক (ডিএনও) হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন।

এছাড়াও ডিরেক্টর স্টাফ ডিউটিস অ্যান্ড সেরিমোনি (DSD&C) এবং ইন্ডিয়ান ওশান নেভাল সিম্পোজিয়াম (IONS) এর সেক্রেটারি হিসেবেও কর্মরত ছিলেন। নৌবাহিনীতে তার কর্মজীবনের অগ্রগতির সাথে সাথে তিনি বাংলাদেশ নৌ-বাহিনীর ফ্ল্যাগশিপ, বিএনএস বঙ্গবন্ধুসহ পাঁচটি ভিন্ন ধরনের ফ্রন্টলাইন জাহাজের কমান্ডিং অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

রিয়ার অ্যাডমিরাল এরশাদ নৌবাহিনীতে বিভিন্ন ক্ষেত্রে তার অসামান্য অবদানের জন্য অসাধারণ সেবা পদক (ওএসপি), নৌবাহিনীর দক্ষতা পদক (এনপিপি) এবং তিনবার নৌ প্রধানের প্রশংসা প্রাপ্ত হন।

বাংলাদেশ কোস্ট গার্ডের মহাপরিচালক হিসেবে নিযুক্তির আগে সর্বশেষ তিনি মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন।


আরও খবর
জানুয়ারিতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৪৮৬ মৃত্যু

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




যেসব এলাকায় ১৪ ঘণ্টা গ্যাস থাকবে না আজ

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

গ্যাস পাইপলাইনের জরুরি টাই-ইন কাজের জন্য গাজীপুরের একটি অংশে আজ শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) ১৪ ঘণ্টা গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিসন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের পক্ষ থেকে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গ্যাস পাইপলাইনের জরুরি টাই-ইন কাজের জন্য শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত ধনুয়া হতে রাজেন্দ্রপুর পর্যন্ত ২০ ইঞ্চি ব্যাসের লাইনে সংযুক্ত গ্রাহকদের গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে।

এ সময়ে তুলা গবেষণা হতে রাজেন্দ্রপুর পর্যন্ত ১২ ইঞ্চি ব্যাসের লাইনে সংযুক্ত গ্রাহকদের গ্যাসের স্বল্পচাপ বিরাজ করবে।


আরও খবর



ডিএমপির পথচলার ৪৯ বছর আজ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

সেবা ও সদাচার, ডিএমপির অঙ্গীকার-এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে নানা আনুষ্ঠানিকতায় আজ উদযাপিত হবে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ৪৯তম প্রতিষ্ঠা দিবস। ১৯৭৬ সালের ১ ফেব্রুয়ারি ৬,০০০ পুলিশ সদস্য এবং ১২টি থানা নিয়ে যাত্রা শুরু করে ডিএমপি। দীর্ঘ পথপরিক্রমায় ঢাকা মহানগরীর প্রায় ২ কোটি ২৫ লাখ নাগরিকের নিরাপত্তা নিশ্চিতে ডিএমপির কার্যক্রম ৫০টি থানায় বিস্তৃত হয়েছে। বর্তমান ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে কাজ করছেন ৬ জন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ডিআইজি), ১২ জন যুগ্ম পুলিশ কমিশনার (অতি. ডিআইজি), ৫৭ জন উপপুলিশ কমিশনারসহ (এসপি) ৩৪ হাজার কর্মকর্তা ও ফোর্স।

মহানগরীর নাগরিকদের জন্য নিরাপদ, নির্ভয় ও নির্বিঘ্ন ঢাকা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কাজ করেছে ৮টি ক্রাইম বিভাগ এবং ৫০টি থানা। ২০২৩ সালে ডিএমপির বিভিন্ন থানায় অপরাধ দমন ও উদঘাটনে সর্বমোট ২৫ হাজার ৯০২টি মামলা করা হয়েছে। বর্তমান কমিশনারের উদ্যোগে ছিনতাই প্রতিরোধে ব্যবস্থা নিতে ছিনতাই প্রতিরোধ টাস্কফোর্স গঠন করা হয়েছে। সবার জন্য সমান আইনি সেবা নিশ্চিত করতে নারী, শিশু, বয়স্ক ও প্রতিবন্ধী হেল্প ডেস্ক থেকে ৪০ হাজার ১৮২ জনকে সেবা দেওয়া হয়েছে। 

আরও পড়ুন>> আজ শুরু হচ্ছে বাঙালির প্রাণের বইমেলা

ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমান জানান, ডিএমপির সদর দপ্তর ও প্রশাসন বিভাগের অধীন পুলিশ ক্লিয়ারেন্স, প্রবাসী লিগ্যাল সার্ভিস, কেন্দ্রীয় সংরক্ষণ দপ্তর, ইন্টারনাল ওভারসাইট, মেসেজ টু কমিশনার, কেন্দ্রীয় রিসিভ ডেসপাস শাখা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ডিএমপি ট্রাফিক বিভাগের প্রধান মুনিবুর রহমান জানান, গত পাঁচ বছরে আধুনিক ট্রাফিক ব্যবস্থায় ডিভাইসের মাধ্যমে ২৭ লাখ ২২ হাজার ২৯৫টি মামলা করা হয়েছে। এছাড়া ট্রাফিক সচেতনতা বৃদ্ধি করতে ২০২৩ সালে প্রতি মাসে গড়ে ২০০টি সভা ও সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছে।

ডিএমপির কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের প্রধান আসাদুজ্জামান বলেন, বর্তমানে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ দমনে সিটিটিসি বিশ্বের রোল মডেল। সিটিটিসি রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট বিভাগ বিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সংস্থার সঙ্গে সমন্বয় করে সন্ত্রাসবাদ বিষয়ে ৯টি গবেষণা শেষ করেছে।

ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারের উপকমিশনার (ডিসি) ফারুক হোসেন বলেন, অপরাধ তদন্ত বিভাগ (ডিবি), জনগুরুত্বপূর্ণ, চাঞ্চল্যকর ও ক্লুলেস মামলার তদন্তে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে আসছে। মামলা তদন্তের পাশাপাশি মাদকদ্রব্য, চোরাইগাড়ি, জাল টাকা, চোরাই মোবাইল উদ্ধারে মাইলফলক অর্জন করেছে। এছাড়া সাইবার অপরাধী ও সংঘবদ্ধ অপরাধীদের আইনের আওতায় আনতে কাজ করে যাচ্ছে ডিবি সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগ।


আরও খবর
জানুয়ারিতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৪৮৬ মৃত্যু

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




দেশে মোট ঋণের ৩১ শতাংশ বিশ্বব্যাংকের

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
অর্থ ও বাণিজ্য ডেস্ক

Image

স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশকে যে উন্নয়ন সহযোগী সংস্থাগুলো সবচেয়ে বেশি ঋণ দিয়েছে তার মধ্যে বিশ্বব্যাংক রয়েছে শীর্ষ স্থানে। বিশ্বব্যাংক ৫২ বছরে বাংলাদেশকে ঋণ দিয়েছে ২৪.৫৮৩ বিলিয়ন ডলার। যা শতাংশের হারে বাংলাদেশের মোট ঋণের ৩০.৮০ শতাংশ।

ঋণ ছাড়ের দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। তারা ঋণের অর্থছাড় করেছে ২১.৩৬৬ বিলিয়ন ডলার, যা মোট ঋণের ২৬.৭৭ শতাংশ।

তৃতীয় স্থানে থাকা জাপান বাংলাদেশকে এ পর্যন্ত ঋণ দিয়েছে ১৫.৩০৩ বিলিয়ন ডলার, যা মোট ঋণের ১৯.১৭ শতাংশ। অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডির) দেওয়া তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে এই হিসাব পাওয়া গেছে।

অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সর্বশেষ প্রতিবেদনে দেখা যায়, ১৯৭১-৭২ থেকে ২০২২-২৩ অর্থবছর পর্যন্ত ৫২ বছরে বিভিন্ন সময়ে উন্নয়ন প্রকল্পে বাংলাদেশ ঋণ পেয়েছে ৭৯.৮২৫ বিলিয়ন ডলার। এর মধ্যে গত অর্থবছর পর্যন্ত পরিশোধ করা হয়েছে ১৭.৪১৯ বিলিয়ন ডলার। আর গত জুন শেষে সরকারের বিদেশি ঋণের স্থিতি দাঁড়িয়েছে ৬২.৪০৬ বিলিয়ন ডলার। ঋণের মাত্র সাড়ে ২০ শতাংশ ভারত, চীন ও রাশিয়া থেকে এসেছে। এ ক্ষেত্রে শীর্ষ তিনটি স্থানে রয়েছে বিশ্বব্যাংক, এডিবি ও জাপান।

চীন ঋণ ছাড়ের দিক থেকে রয়েছে চতুর্থ অবস্থানে। দেশটি এ পর্যন্ত বাংলাদেশকে বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে ৭.৯৮৯ বিলিয়ন ডলার ঋণ দিয়েছে, যা মোট ঋণের ১০.১ শতাংশ। পরের অবস্থানে থাকা রাশিয়া গত জুন পর্যন্ত ঋণ ছাড় করেছে ৬.৭৭৫ বিলিয়ন ডলার, যা সরকারের ঋণের ৮.৪৯ শতাংশ।

শীর্ষ পাঁচের পরের অবস্থানে থাকা দেশ ও সংস্থাগুলোর ঋণের পরিমাণ তুলনামূলক কম। ঋণ দেওয়ায় ষষ্ঠ স্থানে থাকা এশিয়ান ইনফ্রাস্ট্রাকচার ব্যাংক (এআইআইবি) গত জুন পর্যন্ত ছাড় করেছে ১.৭৭৮ বিলিয়ন ডলার, যা সরকারের মোট ছাড়কৃত ঋণের ২.২৩ শতাংশ।

প্রতিবেশী ভারত ঋণ দেওয়ায় সপ্তম স্থানে রয়েছে। গত জুন পর্যন্ত দেশটি ছাড় করেছে ১.৬৬৪ বিলিয়ন ডলার, যা সরকারের মোট ছাড়কৃত ঋণের ২.৮ শতাংশ। আর অষ্টম স্থানে থাকা ইসলামিক উন্নয়ন ব্যাংক (আইডিবি) গত জুন পর্যন্ত ছাড় করে ১.২০৮ বিলিয়ন ডলার, যা সরকারের মোট ছাড়কৃত ঋণের ১.৫১ শতাংশ। বাকি দেশগুলোর ঋণ এক বিলিয়ন ডলারের কম।

এদিকে বৈদেশিক ঋণ স্থিতির ক্ষেত্রেও শীর্ষে রয়েছে বিশ্বব্যাংক। গত জুন পর্যন্ত এ সংস্থাটির ঋণ স্থিতির পরিমাণ ছিল ১৯.২৫৭ বিলিয়ন ডলার, যা মোট ঋণের ৩০.৮৬ শতাংশ। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা এডিবির গত জুন পর্যন্ত ঋণ স্থিতি দাঁড়ায় ১৪.৪২০ বিলিয়ন ডলার, যা মোট ঋণের ২৩.১১ শতাংশ। আর তৃতীয় অবস্থানে থাকা জাপানের ঋণ স্থিতি দাঁড়িয়েছে ১০.৪৩৭ বিলিয়ন ডলার, যা মোট ঋণের ১৬.৭২ শতাংশ।

শীর্ষ তিন উৎসর বেশির ভাগ ঋণই সহজ শর্তের। এর মধ্যে জাপান সরকার বাংলাদেশকে সবচেয়ে কম সুদে ও সহজ শর্তে ঋণ দেয়। পরের অবস্থানে থাকা বিশ্বব্যাংক ও এডিবির প্রায় সব ঋণই সহজ শর্তে। তবে মধ্য আয়ের দেশে উন্নীত হওয়ার জাপান সুদের হার সামান্য বৃদ্ধি করেছে। বিশ্বব্যাংক ও এডিবির ঋণের সুদহারও আগের চেয়ে কিছুটা বেড়েছে। এ ছাড়া বাংলাদেশকে কিছু কঠিন শর্তের ঋণপ্রস্তাব করেছে সংস্থাটি দুটি। স্বল্পোন্নত (এলডিসি) দেশ থেকে উত্তরণের পর বাংলাদেশের বিদেশি ঋণের সুদহার আরো কিছুটা বাড়বে বলেই প্রক্ষেপণ করেছে ইআরডি।

গত জুন পর্যন্ত চতুর্থ অবস্থানে থাকা চীনের ঋণ স্থিতি ছিল ৫.৫৭৮ বিলিয়ন ডলার, যা মোট ঋণের ৮.৯৪ শতাংশ। পরের অবস্থানে থাকা রাশিয়ার গত জুন পর্যন্ত ঋণ স্থিতি দাঁড়ায় ৫.৯৮৯ বিলিয়ন ডলার, যা সরকারের ঋণের ৯.৬০ শতাংশ। এ দুই দেশের ঋণের শর্ত কঠিন এবং সুদহার অনেক বেশি। কঠিন শর্তের এসব ঋণ পরিশোধ নিয়ে চাপে রয়েছে বাংলাদেশ।

অপরদিকে নতুন উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা হিসেবে এআইআইবি বাংলাদেশকে ঋণ দেওয়া বাড়াচ্ছে। গত জুন শেষে সংস্থাটির ঋণ স্থিতি দাঁড়ায় ১.৭৬১ বিলিয়ন ডলার, যা মোট বিদেশি ঋণের ২.৮২ শতাংশ। সপ্তম স্থানে থাকা ভারতের ঋণ স্থিতি ছিল গত জুন পর্যন্ত ১.৩০৭ বিলিয়ন ডলার, যা সরকারের মোট ঋণের ২.০৯ শতাংশ। আর অষ্টম স্থানে থাকা আইডিবির ঋণ স্থিতি গত জুন পর্যন্ত দাঁড়িয়েছে ৬৯০ মিলিয়ন ডলার, যা সরকারের মোট ঋণের ১.১১ শতাংশ। এ তিনটির মধ্যে এআইআইবি ও ভারত সহজ শর্তে ঋণ দিলেও আইডিবির ঋণের সুদহার বেশি হয় এবং পরিশোধ সময়ও কম পাওয়া যায়।

ঋণের সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের নির্বাহী পরিচালক আহসান এইচ মনসুর বলেন, ‘বাংলাদেশের পাশে উন্নয়ন সহযোগীদের বরাবরই বিশ্বব্যাংক এগিয়ে ছিল। তারা স্বাধীনতার পর থেকে আমাদের সহযোগিতা করে আসছে। তবে এখন বিশ্বব্যাংক থেকে এলডিসি-পরবর্তী সময়ে ঋণ পাওয়া কষ্টকর হবে। সে বিষয়ে আমাদের সতর্ক হতে হবে। আবার সার্বিক বিবেচনায় আমাদের ঋণ পরিশোধেরও চাপ বাড়ছে, এসব বিষয়ে আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। যে প্রকল্পের আওতায় ঋণ আসছে সেগুলো দ্রুত সময়ের মধ্যে বাস্তবায়ন করতে হবে।’


আরও খবর
২৪ দিনে প্রবাসী আয় ১৮ হাজার কোটি টাকা

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪