আজঃ বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

ফোনের ব্যাটারি দ্রুত শেষ করছে যে ১০ অ্যাপ

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ২৬ মার্চ ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক

Image

গুগল প্লে স্টোরে এমন অনেক অ্যাপ রয়েছে যেগুলো স্মার্টফোনের ব্যাটারি খুব দ্রুত শেষ করে ফেলে। এর মধ্যে অনেক অ্যাপ রয়েছে যেগুলো অত্যন্ত জরুরি। কিন্তু তার পরও সেগুলো সম্পর্কে জেনে রাখা প্রয়োজন যেন জরুরি সময়ে ফোনের ব্যাকআপ বাড়াতে পারেন সহজেই। চলুন জেনে নিই যে অ্যাপগুলো স্মার্টফোনের ব্যাটারি দ্রুত শেষ করে ফেলে।

ফিটবিট : এটি ফিটনেস ও স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি অ্যাপ। স্বাস্থ্য সম্পর্কিত বিভিন্ন পর্যবেক্ষণ যেমন-হৃদস্পন্দন, হাঁটাহাঁটি, ঘুমের সময় ইত্যাদি রেকর্ড করার মাধ্যমে শরীরের অবস্থা বুঝা যায়।

উবার : এটি একটি রাইড শেয়ারিং অ্যাপ। এর মাধ্যমে গাড়ি বা বাইক ভাড়া করে দ্রুত গন্তব্যস্থলে যাওয়া যায়। স্কাইপ : ভিডিও কনফারেন্সিং এ অ্যাপের মাধ্যমে কথা বলা যায় এবং বার্তা আদান-প্রদান করা যায়। ফেসবুক : জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকের ওয়েবসাইটের চেয়ে অ্যাপের মাধ্যমে কাজ করা সহজ। তাই এ অ্যাপটি প্রায় সবার মোবাইলেই থাকে।

এয়ারবিএনবি : রুম-ফ্ল্যাট শেয়ারিংয়ের জনপ্রিয় অ্যাপ এয়ারবিএনবি। যে কেউ চাইলে হোটেলে না থেকে ফ্ল্যাট-বাসায় থাকতে পারেন এ অ্যাপ ব্যবহার করে। ইন্সটাগ্রাম : মেটার মালিকানাধীন ছবি শেয়ারিংয়ের জন্য জন্যপ্রিয় অ্যাপ ইন্সটাগ্রাম। এটিও স্মার্টফোনের দ্রুত ব্যাটারি ড্রেইন করে। টিন্ডার : এটি মূলত একটি ডেটিং অ্যাপ। এর মাধ্যমে জীবনসঙ্গী খুঁজে থাকেন অনেকেই।

বাম্বল : টিন্ডারের মতো এটিও একটি ডেটিং অ্যাপ। অনেকে জীবনসঙ্গী খুঁজতে এ অ্যাপট ব্যবহার করে থাকেন। স্ন্যাপচ্যাট : স্ন্যাপচ্যাট একটি আমেরিকান মাল্টিমিডিয়া ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং অ্যাপ এবং পরিষেবা। হোয়াটসঅ্যাপ : এটিও একটি ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং অ্যাপ। ফেসবুকের প্রধান প্রতিষ্ঠান মেটার অধীনে রয়েছে এটি।

রিসার্চ ফার্ম পিক্লাউড সম্প্রতি এ অ্যাপগুলো সম্পর্কে তথ্য প্রকাশ করেছে। এগুলোর প্রতিটিই অত্যন্ত জনপ্রিয় এবং বেশির ভাগ অ্যাপই ফোনে রয়েছে। হোয়াটসঅ্যাপ থেকে শুরু করে ফেসবুক পর্যন্ত এ অ্যাপগুলোর সব থেকে বড় সমস্যা হলো ক্লোজ করার পরেও ব্যাকগ্রাউন্ডে অ্যাপগুলো চলতে থাকে। তাই সচরাচর ব্যবহার করেন না বা প্রয়োজন হয় না এমন অ্যাপগুলো ফোন থেকে ডিলিট করে দিলে ব্যাটারির ব্যাকআপ আগের থেকে বাড়বে।

নিউজ ট্যাগ: গুগল প্লে স্টোর

আরও খবর
৮ এপ্রিল দিনকে রাত দেখবে তিন দেশের মানুষ

বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বায়ুদূষণে ঢাকা আজ বিশ্বে দ্বিতীয়

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিশ্বের ১০০ শহরের তালিকায় বায়ু দূষণে আজ দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে রাজধানী ঢাকা। এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সে আজ ঢাকার বাতাসের স্কোর ২৪০। বায়ুর এই মানকে খুবই অস্বাস্থ্যকর বলে বিবেচনা করা হয় যা মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকি তৈরি করে।

সোমবার সকাল ৯টা ৫০ মিনিটে আন্তর্জাতিক বায়ুমান প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান আইকিউএয়ারের সূচক থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

একইসময়ে ৩১৯ স্কোর নিয়ে তালিকার শীর্ষে রয়েছে ভারতের শহর কলকাতা। ভারতের অপর দুই শহর দিল্লি ও মুম্বাই ২৩৫ ও ২২০ স্কোর নিয়ে যথাক্রমে তালিকার তৃতীয় ও পঞ্চম স্থানে রয়েছে। তালিকায় চতুর্থ স্থানে রয়েছে পাকিস্তানের লাহোর।

স্কোর শূন্য থেকে ৫০ এর মধ্যে থাকলে বায়ুর মান ভালো বলে বিবেচিত হয়। ৫১ থেকে ১০০ হলে মাঝারি বা সহনীয় ধরা হয় বায়ুর মান। সংবেদনশীল গোষ্ঠীর জন্য অস্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচিত হয় ১০১ থেকে ১৫০ স্কোর। ১৫১ থেকে ২০০ পর্যন্ত অস্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচিত হয়। স্কোর ২০১ থেকে ৩০০ হলে খুবই অস্বাস্থ্যকর বলে বিবেচনা করা হয়। এছাড়া ৩০১-এর বেশি হলে তা দুর্যোগপূর্ণ বলে বিবেচিত হয়।

বাংলাদেশে একিউআই নির্ধারণ করা হয় দূষণের ৫টি বৈশিষ্ট্যের ওপর ভিত্তি করে। সেগুলো হলো- বস্তুকণা (পিএম১০ ও পিএম২.৫), এনও২, সিও, এসও২ ও ওজোন (ও৩)।

বায়ুদূষণ গুরুতর স্বাস্থ্যঝুঁকি তৈরি করে থাকে। এটা সব বয়সি মানুষের জন্য ক্ষতিকর। তবে শিশু, অসুস্থ ব্যক্তি, প্রবীণ ও অন্তঃসত্ত্বাদের জন্য বায়ুদূষণ খুবই ক্ষতিকর।


আরও খবর



সিসিটিভি ফুটেজ গায়েব

ধর্ষণের রাতে ছাত্রলীগ সভাপতির আশ্রয়ে অন্য হলে ছিলেন মোস্তাফিজুর

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

Image

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) মীর মশাররফ হোসেন হলে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে দলবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা মোস্তাফিজুর রহমানকে অন্য হলে আশ্রয় নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। কিন্তু ওই হলের সিসিটিভি ফুটেজ দেখতে চাইলে ফুটেজ পাওয়া যায়নি। ফুটেজ বিলোপের নির্দেশ দেয়ার অভিযোগ উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আকতারুজ্জামান সোহেলের বিরুদ্ধে।

অভিযুক্ত মোস্তাফিজুর রহমান শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) রাত ১টা ১৫ মিনিটের দিকে মীর মশাররফ হোসেন হল থেকে রান্নাঘর সংলগ্ন গেট ভেঙে বের হয়ে যান। পরবর্তীতে রোববার সকাল সাড়ে আটটায় মূল অভিযুক্ত মোস্তাফিজুর আশুলিয়া থানা কর্তৃক গ্রেপ্তার হন। 

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়, শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আকতারুজ্জামান সোহেলের নির্দেশেই মোস্তাফিজুরকে পলায়নে সহায়তা করে মীর মশাররফ হোসেন হল ছাত্রলীগের নেতা সাগর সিদ্দিকী এবং সভাপতির নির্দেশেই তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হলে আশ্রয় দেয়া হয়। পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন মহলের চাপে ছাত্রলীগ সভাপতির নির্দেশে আত্মসমর্পণ করেন মোস্তাফিজ।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান বলেন, সভাপতি সোহেল আমাকে জানায় মোস্তাফিজুর থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করতে চায়। আমি তখন তাকে বলেছি সেটা তার বিষয়। সে আত্মসমর্পণ করুক বা না করুক সে গ্রেপ্তার হবেই।

অভিযুক্ত মোস্তাফিজুর নিজে থেকেই থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করেছে- ছাত্রলীগ সভাপতি শুরুতে এমন দাবি করেন। কিন্তু যখন তাকে আবারো প্রশ্ন করা হয় আপনি কীভাবে জানলেন সে আত্মসমর্পণ করেছে যেখানে পুলিশ বলছে তাকে গ্রেপ্তার করেছে। তাহলে কী আপনি আগে থেকেই তার অবস্থা সর্ম্পকে জানতেন। এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, আমি এই বিষয়ে কিছু জানি না।

অভিযুক্ত ধর্ষককে আশ্রয় দেয়ার সময়কালের সিসিটিভি ফুটেজ দেখতে চাইলে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হল কর্তৃপক্ষ থেকে জানানো হয়, ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হলের সকল সিসিটিভি ক্যামেরায় কোনো ফুটেজ রেকর্ড হয়নি। এর জন্য তারা যান্ত্রিক ত্রুটিকে দায়ী করেন। তবে সরেজমিনে সিসিটিভি সিস্টেম পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায় জানুয়ারি মাসের ৩১ তারিখ পর্যন্ত সকল ফুটেজ রয়েছে এবং ৫ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টা থেকে সিসিটিভি ফুটেজ রেকর্ড হচ্ছে। এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা সন্তোষজনক উত্তর দিতে পারেননি।

হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক নাজমুল হাসান তালুকদার বলেন, আমি ছুটিতে ছিলাম। হল ওয়ার্ডেন প্রভোস্টের দায়িত্বে ছিল। কারগরী ত্রুটির কারণে কয়েকদিন ধরে আমাদের সিসিটিভি কাজ করছে না। পরবর্তীতে সিসিটিভি ঠিক করেছি। সিসিটিভি ফুটেজ গায়েবের মতো কোন ঘটনাই ঘটেনি।

উল্লেখ্য, শনিবার জাবির মীর মশাররফ হোসেন হলে বহিরাগত এক ব্যক্তিকে আটকে রেখে তার স্ত্রীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। রাত সাড়ে ৯টার দিকে হলসংলগ্ন জঙ্গলে ঘটা এই ঘটনায় অভিযুক্ত প্রধান আসামী ছাত্রলীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মোস্তাফিজুরকে পরদিন সকালে সাভারের একটি এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে দাবি করে পুলিশ। আর শনিবার রাতেই ধর্ষককে পালাতে সাহায্যকারীরা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।  অভিযুক্তরা আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ছাত্র সাগর সিদ্দিকী ও হাসানুজ্জামান, শাহ পরান, মুরাদ এবং উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র সাব্বির হাসান। 


আরও খবর



কুমিল্লায় কাভার্ড ভ্যান-অটোরিকশার সংঘর্ষে নিহত ৫

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রবিউল বাশার খান, কুমিল্লা

Image

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে কাভার্ড ভ্যান ও সিএনজি চালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই পাঁচজন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরও দুইজন। আহতদেরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে।

রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) সকালে উপজেলার গৌরিপুর-কচুয়া এলাকার সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দাউদকান্দি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোজাম্মেল হক।

তিনি বলেন, দুর্ঘটনাকবলিত সিএনজিটি গৌরিপুরের দিকে যাচ্ছিল। আর কাভার্ড ভ্যানটি কচুয়ার দিকে। এ সময় যানবাহন দুইটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছে ৫ জন।


আরও খবর
সিলেট নগরী থেকে গৃহবধূর গলিত লাশ উদ্ধার

বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




চাকরি পরীক্ষার্থীর কান থেকে ডিভাইস বের করলেন চিকিৎসক

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
যশোর প্রতিনিধি

Image

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদের প্রার্থী জাহিদ হাসান জালিয়াতি করার জন্য কানের মধ্যে একটি ডিভাইস রেখেছিলেন। আরেকটি ছিল তার পকেটে। বাইরে থাকা চক্র কথা দিয়েছিল ডিভাইসের মাধ্যমে প্রশ্নের উত্তর জানিয়ে দেবেন তাকে। তবে উত্তর আসতে বিলম্ব হওয়ায় তিনি অপেক্ষা করছিল।

এরইমধ্যে ডিভাইসটিতে সমস্যা ভেবে চাপাচাপি করলে কানের ভেতরে ঢুকে যায়। তাৎক্ষণিকভাবে পরীক্ষা থেকে বহিষ্কার করে পুলিশে সোপর্দ করা হয় জাহিদকে। পরে পুলিশ তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা সেটি কানের ভেতর থেকে সেটি বের করেন। আটকের পর তিনি নিজেই এ বিষয়ে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদের নিয়োগ পরীক্ষায় শুক্রবার (২ ফেব্রুয়ারি) যশোর সরকারি এমএম কলেজ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। জাহিদ সদর উপজেলার নওদাগ্রামের বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, এম এম কলেজের নতুন বিজ্ঞান ভবনের ১০৫ নম্বর কক্ষে পরীক্ষায় বসেছিলেন জাহিদ। তবে উত্তরপত্র পেয়েও বসে ছিলেন, কিছু লিখছিলেন না। এতে সন্দেহ হয় দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের। এরমধ্যে একটি শব্দ হওয়ায় তার জালিয়াতির বিষয়টি নজরে আসে।

এম এম কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মরজিনা আক্তার বলেন, কেন্দ্রের দায়িত্বরতদের হাতে ধরা পড়লে তাৎক্ষণিকভাবে পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার করে পুলিশে দেওয়া হয়েছে।

কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, আটক পরীক্ষার্থীকে হাসপাতালে নিয়ে কানের ভেতর থেকে ডিভাইস বের করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। এর সঙ্গে কোনো চক্র জড়িত কিনা, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোফাজ্জেল হোসেন খান বলেন, তাৎক্ষণিক পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছেন। নেপথ্যে অন্য কোনও ঘটনা রয়েছে কিনা, তা খতিয়ে দেখছেন তারা।


আরও খবর
সিলেট নগরী থেকে গৃহবধূর গলিত লাশ উদ্ধার

বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




মেয়াদোত্তীর্ণ স্যালাইন খেয়ে শিশুর মৃত্যু, আটক ৪

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

Image

সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে মেয়াদোত্তীর্ণ স্যালাইন খেয়ে জিম নামের ৩ বছরের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন নিহত শিশুর মাসহ আরও চারজন। সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় বেলকুচি উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের বৈলগাছি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

মৃত জিম খাতুন বেলকুচি উপজেলার বৈলগাছি গ্রামের কাইয়ুম উদ্দিনের মেয়ে। অসুস্থরা হলেন, মা পারভীন খাতুন (৩৮) বোন রিয়া (০৮) নুরি (০৭) ও কাইয়ুম উদ্দিনের ভাতিজি মিথিলা।

জানা যায়, শবে বরাতের পরদিন সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সারাদিন রোজা রেখেছিলেন পারভীন খাতুন। সন্ধ্যায় ইফতারের সময় ওরস্যালাইন দিয়ে বানানো শরবত পান করেন তিনি। এ সময় তার তিন সন্তান জিম, রিয়া, নুরি ও ভাতিজি মিথিলাও শরবত পান করে। শরবত খাওয়ার পর পরই সবাই অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে তাদের বেলকুচির স্থানীয় একটি ক্লিনিকে নেওয়া হলে চিকিৎসক সিরাজগঞ্জে রেফার্ড করেন।

সিরাজগঞ্জের ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. ফয়সাল হোসেন জানান, সোমবার সারাদিন রোজা রেখে ইফতারিতে ওরস্যালাইন ও ইস্পি পাউডার গুলে ইফতার করেন পারভিন খাতুন। এ সময় তার তিন সন্তান জিম, রিয়া, নুরি ও কাইয়ুম উদ্দিনের ভাতিজি মিথিলা অসুস্থ হয়ে পড়েন।

অসুস্থ অবস্থায় প্রথমে তাদের স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাদের সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে পাঠান। হাসপাতালে আসার পর জিম নামের তিন বছরের শিশুটিকে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

বেলকুচি থানার ওসি আনিছুর রহমান বলেন, বিষয়টি আমি অবগত হয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে দোকানদার আমিনুল ইসলাম, স্যালাইনের সেলসম্যান আনিছুর রহমান, হাফিজ শেখ ও সাগর হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদে জন্য থানায় আনা হয়েছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।


আরও খবর
সিলেট নগরী থেকে গৃহবধূর গলিত লাশ উদ্ধার

বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪