আজঃ মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০21
শিরোনাম

গাইবান্ধায় বিশ্বের দীর্ঘতম আলপনা অঙ্কন শুরু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৮ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ মার্চ ২০২১ | ১৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং মুজিববর্ষকে সারা বিশ্বে স্মরণীয় করে রাখতে গাইবান্ধায় বিশ্বের দীর্ঘতম আলপনা অঙ্কন কার্যক্রম শুরু করেছে শিক্ষার্থীদের সংগঠন পাবলিক ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন অব গাইবান্ধা (পুসাগ)।

বৃহস্পতিবার (১৮ মার্চ) দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে জেলা শহরের পুলিশ লাইনের সামনের সড়ক থেকে এ আলপনা অঙ্কন শুরু হয়। শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত সাঘাটা উপজেলার ভাঙ্গা মোড় পর্যন্ত ১০ কিলোমিটার সড়ক জুড়ে এ আলপনা আকা হবে।

২৪ ঘণ্টায় ১০ কিলোমিটার সড়কজুড়ে আলপনা এঁকে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে জায়গা করে নিতে চায় সংগঠনটি।

সংগঠনের সভাপতি হুসেইন মো. জীম ও সাধারণ সম্পাদক এ কে প্রামাণিক পার্থ বাংলানিউজকে জানান, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং মুজিববর্ষকে সারা বিশ্বে স্মরণীয় করে রাখতেই বর্ণিল-নান্দনিক এ কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি আমরা ২৪ ঘণ্টায় ১০ কিলোমিটার সড়কে আলপনা আঁকা সম্পন্ন করে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে বিশ্বের দীর্ঘতম আলপনা অঙ্কিত সড়কের স্বীকৃতি পেতে চাই। নির্ধারিত সময়ে আলপনা অঙ্কন সম্পন্ন করে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে গাইবান্ধা জেলার নাম সংযুক্ত করতে আমরা দৃঢ় প্রত্যয়ী।


আরও খবর
কালবৈশাখীর আঘাতে ৫ জনের মৃত্যু

রবিবার ০৪ এপ্রিল ২০২১




সর্বাত্মক লকডাউন

প্রথম দিনে রাস্তায়-রাস্তায় পুলিশের চেকপোস্ট

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ এপ্রিল ২০২১ | ১০১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাস মহামারির দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলা ও সংক্রমণ প্রতিরোধে আজ দেশজুড়ে ৮ দিনের 'কঠোর লকডাউন' শুরু হয়েছে। বুধবার (১৪ এপ্রিল) ভোর ৬টা থেকে ২১ এপ্রিল মধ্যরাত পর্যন্ত জনগণকে চলাচলে বিধি-নিষেধ মানতে বাধ্য করতে মাঠে রয়েছেন সিভিল প্রশাসন এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

ভোর থেকে ঢাকা শহরের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেল 'কঠোর লকডাউন' কার্যকর করার জন্য পুলিশ বিভিন্ন জায়গায় তৎপর রয়েছে। শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ রাস্তায় পুলিশ চেকপোস্ট বসিয়েছে। এসব চেকপোস্টে গাড়ি থামিয়ে যাত্রীদের পরিচয় এবং রাস্তার বের হবার কারণ জিজ্ঞেস করা হচ্ছে। যেসব পেশার মানুষ জরুরি সেবার সাথে সম্পৃক্ত তাদের চেকপোস্ট অতিক্রম করার অনুমতি দিয়ে অন্যদের ফিরিয়ে দেয়া হচ্ছে। বহু রাস্তা বেরিকেড বসিয়ে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। সেসব রাস্তায় জরুরি সেবা সংস্থার কোন যানবাহনও যেতে পারছে না, যেতে হচ্ছে বিকল্প রাস্তায়।

পুলিশের পক্ষ থেকে ইতোমধ্যে বলা হয়েছে , বুধবার থেকে কঠোর লকডাউন কার্যকর করতে সরকার যে নির্দেশনা দিয়েছে তা বাস্তবায়নে এবার কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে। এজন্য 'মুভমেন্ট পাস' ছাড়া কাউকে বাড়ির বাইরে আসতে দেয়া হবে না বলে পুলিশ জানিয়েছে।

লকডাউনের ৮ দিন সরকারি ও বেসরকারি সব ধরনের প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। বন্ধ থাকবে গণপরিবহন। তবে জরুরি সেবা দেয়া প্রতিষ্ঠান-সংস্থা খোলা রয়েছে। খোলা রয়েছে শিল্প-কারখানা। সীমিত পরিসরে দেয়া হচ্ছে ব্যাংকিং সেবা।

এই সময়ে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের হওয়া যাবে না। খোলা স্থানে কাঁচাবাজার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যদি কেনা-বেচা করা যাবে ৬ ঘণ্টা।

মানতে হবে যেসব নির্দেশনাঃ

১. সকল সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্বশাসিত ও বেসরকারি অফিস বন্ধ থাকবে ও সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী নিজ নিজ কর্মস্থলে অবস্থান করবেন। তবে বিমান, সমুদ্র, নৌ ও স্থলবন্দর এবং এ সংশ্লিষ্ট অফিসগুলো এ নিষেধাজ্ঞার আওতার বাইরে থাকবে।

২. বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আদালতগুলোর জন্য প্রয়োজনীয় নির্দেশনা জারি করবে। (আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগ এবং দেশের অধস্তন আদালত ও ট্রাইব্যুনালে ভার্চুয়ালি সীমিত পরিসরে বিচারিক কার্যক্রম পরিচালিত হবে বলে বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে সুপ্রিম কোর্ট)।

৩. সকল প্রকার পরিবহন (সড়ক, নৌ, রেল, অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট) বন্ধ থাকবে। তবে, পণ্য পরিবহন, উৎপাদন ব্যবস্থা ও জরুরি সেবাদানের ক্ষেত্রে এই আদেশ প্রযোজ্য হবে না।

৪. শিল্প-কারখানাগুলো স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় চালু থাকবে। তবে শ্রমিকদের নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থাপনায় আনা-নেয়া নিশ্চিত করতে হবে।

৫. আইনশৃঙ্খলা এবং জরুরি পরিষেবা, যেমন- কৃষি উপকরণ (সার, বীজ, কীটনাশক, কৃষি যন্ত্রপাতি ইত্যাদি), খাদ্যশস্য ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহন, ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্য সেবা, কোভিড-১৯ টিকা প্রদান, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস/জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস, বন্দরগুলোর (স্থলবন্দর, নদীবন্দর ও সমুদ্রবন্দর) কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট (সরকারি-বেসরকারি), গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া), বেসরকারি নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ডাক সেবাসহ অন্যান্য জরুরি ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিস, তাদের কর্মচারী ও যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতার বাইরে থাকবে।

৬. অতি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া (ঔষধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসা সেবা, মৃতদেহ দাফন/সৎকার ইত্যাদি) কোনোভাবেই বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না। তবে টিকা কার্ড প্রদর্শন সাপেক্ষে টিকা গ্রহণের জন্য যাতায়াত করা যাবে।

৭. খাবারের দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাঁয় দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা এবং রাত ১২টা থেকে ভোরর ৬টা পর্যন্ত কেবল খাদ্য বিক্রয়/সরবরাহ (সরাসরি/অনলাইন) করা যাবে। শপিংমলসহ অন্যান্য দোকান বন্ধ থাকবে।

৮. কাঁচাবাজার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে। বাজার কর্তৃপক্ষ/স্থানীয় প্রশাসন বিষয়টি নিশ্চিত করবে।

৯. বোরো ধান কাটার জরুরি প্রয়োজনে কৃষি শ্রমিক পরিবহনের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসন সমন্বয় করবে।

১০. সারাদেশে জেলা ও মাঠ প্রশাসন উল্লিখিত নির্দেশনা বাস্তবায়নের কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করবে এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিয়মিত টহল জোরদার করবে।

১১. স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক তার পক্ষে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ বিভাগকে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের প্রয়োজনীয় ক্ষমতা দেবেন।

১২. স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে জুমা ও তারাবি নামাজের জমায়েত বিষয়ে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় নির্দেশনা জারি করবে।

১৩. এসব নির্দেশনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/বিভাগ প্রয়োজনে সম্পূরক নির্দেশনা জারি করতে পারে।

এদিকে সর্বাত্মক বিধিনিষেধ চলাকালীন জরুরি প্রয়োজনে চলাচলের জন্য মুভমেন্ট পাস চালু করেছে পুলিশ। বুধবার


আরও খবর



ইউপিসহ সব নির্বাচন স্থগিত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ এপ্রিল ২০২১ | ২৩২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মহামারি করোনা পরিস্থিতির কারণে আগামী ১১ এপ্রিল অনুষ্ঠিতব্য ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের প্রথম ধাপ ও লক্ষ্মীপুর-২ আসনসহ সব নির্বাচন স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) বিকেল সাড়ে ৫ টার দিকে নির্বাচন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

এর আগে বিকেল ৩টায় প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ বাকি সব নির্বাচন কমিশনার, ইসি সচিবসহ কমিশন বৈঠকে বসেছিলেন। সেই বৈঠকে করোনার পরিস্থিতির মধ্যে নির্বাচন করা সম্ভব কিনা সেই বিষয়ে আলোচনা করা হয়। বৈঠক শেষে সিইসি এই সিদ্ধান্তের কথা জানান।

সিইসি বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত এ স্থগিতাদেশ বলবৎ থাকবে। দেশের অবস্থা স্বাভাবিক হলে আবার নির্বাচন হবে।

এর আগে বুধবার চার পৌরসভা নির্বাচনে ভোটগ্রহণ হয়। দেশের স্থানীয় সরকারের তৃনমূল পর্যায়ের ৩৭১ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের (ইউপি) ও ১১ পৌরসভায় ১১ এপ্রিলের ভোটগ্রহণের পূর্বনির্ধারিত তারিখ ছিল। একই দিনে দিন লক্ষ্মীপুর-২ আসনের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।


আরও খবর



সামাজিক দূরত্বের বালাই নেই, বাড়তি ভাড়া নেয়ার অভিযোগ

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ৩১ মার্চ ২০২১ | ৮৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে ধারণক্ষমতার অর্ধেক যাত্রী পরিবহনের শর্তে গণপরিবহনে ৬০ ভাগ ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। তবে সে সিদ্ধান্ত মানছে না অধিকাংশ গণপরিবহন। আবার কিছু পরিবহন অর্ধেক যাত্রী নিলেও তাদের বিরুদ্ধে বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার (৩১ মার্চ) রাজধানীর যাত্রাবাড়ি, চানখারপুল, গুলিস্তান, পল্টন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। অর্ধেক যাত্রী পরিবহনের বদলে দাঁড়িয়ে আবার কোনো কোনো জায়গায় ঝুলে যাত্রীরা গণপরিবহনে চলাচল করছেন।

তবে নীলাচল, মনজিল, হিমাচল, ঢাকার চাকাসহ বেশি কিছু পরিবহন অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচল করছে। কিন্তু এর মধ্যে অধিকাংশ পরিবহনের বিরুদ্ধে বাড়তি ভাড়া নেয়ার অভিযোগ করেছেন যাত্রীরা। তারা বলছেন, সরকার ৬০ শতাংশ ভাড়া বাড়ালেও পরিবহনগুলো ভাড়া দ্বিগুণ করেছে।

এদিকে গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বিষয়ে সরকারের নির্দেশনার পর প্রথম কর্মদিবসে যানবাহন সংকট দেখা গেছে। অন্যান্য দিনের তুলনায় কিছু কিছু জায়গায় সড়কে কম সংখ্যক যান চলাচল করছে। আবার কিছু গাড়ি সরকারি নির্দেশনা মেনে অর্ধেক যাত্রী পরিবহন করায় যাত্রীরা যানবাহন সংকটে পড়েছেন।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে ধারণক্ষমতার অর্ধেক যাত্রী পরিবহন করায় গণপরিবহনে ৬০ ভাগ ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। বুধবার (৩১ মার্চ) থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হয়েছে এবং পরবর্তী দুই সপ্তাহ তা বহাল থাকবে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

নিউজ ট্যাগ: গণপরিবহন

আরও খবর



কৃষক লীগ নেতার পেঁয়াজ ক্ষেত থেকে ৫৫টি গাঁজার গাছ জব্দ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ এপ্রিল ২০২১ | ৩২২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজশাহীর বাগমারার বাসুপাড়া ইউনিয়ন কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহাবুর রহমানের পেঁয়াজ ক্ষেতে থেকে ২৪ কেজি ওজনের ৫৫টি গাঁজার গাছ জব্দ করে পুলিশ।

পুলিশ ওই কৃষক লীগ নেতার ছেলে সাগর আহম্মেদকে (১৯) আটক করে। সাগর একটি কলেজের উচ্চমাধ্যমিকের ছাত্র। খবর পেয়ে তার বাবা মাহাবুর রহমান পালিয়ে গেছেন।

সোমবার (৫ এপ্রিল) দিনগত রাতে এ ঘটনা ঘটে বাসুপাড়া ইউনিয়নের খুঁজিপুর গ্রামে।

রাজশাহীর বাগমারার বাসুপাড়া ইউনিয়ন কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহাবুর রহমানের ক্ষেতে পেঁয়াজের সঙ্গে বেড়ে উঠছিল বেশ কিছু গাছ। দেখতে গাঁজার গাছের মতো হওয়ায় সন্দেহবশত থানায় খবর দেন স্থানীয় লোকজন।

মোবাইলফোনে যোগাযোগ করা হলে মাহাবুর দাবি করেন, গাছগুলো গাঁজার কিনা, তা তিনি জানতেন না। তিনি প্রতিপক্ষের ষড়যন্ত্রের শিকার।

মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) দুপুরে বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাক আহম্মেদ বলেন, পুলিশ ওই ক্ষেত থেকে ৫৫টি গাঁজার গাছ উদ্ধার করেছে। থানায় মামলা হয়েছে। আটক সাগরকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে। অভিযুক্ত মাহাবুরকে আটকের চেষ্টা চলছে।

নিউজ ট্যাগ: গাঁজার গাছ

আরও খবর
গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দগ্ধ ৪

শুক্রবার ১৬ এপ্রিল ২০২১




সন্ধ্যা ৬টার পর চট্টগ্রামে ওষুধ-কাঁচাবাজার ছাড়া সব বন্ধ

প্রকাশিত:শুক্রবার ০২ এপ্রিল 2০২1 | হালনাগাদ:শুক্রবার ০২ এপ্রিল 2০২1 | ৯৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় চট্টগ্রাম নগরীতে সন্ধ্যা ৬টার পর থেকে সব ধরনের দোকানপাট বন্ধ থাকবে। শুধু ওষুধের দোকান ও কাঁচাবাজার খোলা থাকবে। চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান শুক্রবার (২ এপ্রিল) এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন।

তিনি জানান, আজ থেকে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে চট্টগ্রাম নগরীতে ওষুধের দোকান ও কাঁচাবাজার ছাড়া রেস্টুরেন্ট, শপিং সেন্টারসহ সব ধরনের দোকানপাট বন্ধ রাখতে হবে।

তিনি আরও জানান, দোকানপাট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত কঠোরভাবে বাস্তবায়ন করা হবে। প্রাথমিকভাবে চট্টগ্রাম মহানগরী এলাকায় এ বিধিনিষেধ প্রযোজ্য। তবে অচিরেই পুরো জেলায় এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হবে। বিষয়টি মনিটরিং করতে জেলা প্রশাসনের চারটি ভ্রাম্যমাণ আদালত ইতোমধ্যে মাঠে নামানো হয়েছে। নির্দেশনা অমান্য করলে শাস্তি দেওয়া হবে।


আরও খবর